029.065

তারা যখন জলযানে আরোহণ করে তখন একনিষ্ঠভাবে আল্লাহকে ডাকে। অতঃপর তিনি যখন স্থলে এনে তাদেরকে উদ্ধার করেন, তখনই তারা শরীক করতে থাকে।
And when they embark on a ship, they invoke Allâh, making their Faith pure for Him only, but when He brings them safely to land, behold, they give a share of their worship to others.

فَإِذَا رَكِبُوا فِي الْفُلْكِ دَعَوُا اللَّهَ مُخْلِصِينَ لَهُ الدِّينَ فَلَمَّا نَجَّاهُمْ إِلَى الْبَرِّ إِذَا هُمْ يُشْرِكُونَ
Fa-itha rakiboo fee alfulki daAAawoo Allaha mukhliseena lahu alddeena falamma najjahum ila albarri itha hum yushrikoona

YUSUFALI: Now, if they embark on a boat, they call on Allah, making their devotion sincerely (and exclusively) to Him; but when He has delivered them safely to (dry) land, behold, they give a share (of their worship to others)!-
PICKTHAL: And when they mount upon the ships they pray to Allah, making their faith pure for Him only, but when He bringeth them safe to land, behold! they ascribe partners (unto Him),
SHAKIR: So when they ride in the ships they call upon Allah, being sincerely obedient to Him, but when He brings them safe to the land, lo! they associate others (with Him);
KHALIFA: When they ride on a ship, they implore GOD, devoting their prayers to Him. But as soon as He saves them to the shore, they revert to idolatry.

৬৫। এখন, যদি তারা নৌযানে আরোহণ করে, তারা আল্লাহকে ডাকে একান্তভাবে [ শুধুমাত্র ] তার প্রতি একনিষ্ঠ হয়ে ৩৪৯৮। কিন্তু যখন তিনি তাদের নিরাপদে [ শুকনো ] মাটিতে অবতরণ করান, দেখো তারা [তাদের আনুগত্যের ] অংশীদার করে ,-

৩৪৯৮। পূর্বের আয়াতে বর্ণনা করা হয়েছে যে, পৃথিবীর এই জীবন ক্রীড়া কৌতুক বই আর কিছু নয়; এই জীবনের স্থায়ীত্ব খুবই স্বল্পকাল। স্থায়ী ও অনন্ত জীবন হচ্ছে পরকাল। যারা পরলোকের জীবনকে অনুভব করতে পারে না , এরূপ অদূরদর্শী নির্বোধ লোকদের বর্ণনা করা হয়েছে এই আয়াতে। পৃথিবীর জীবনে বহু বিপদ আপদের মধ্য দিয়ে স্রষ্টা আমাদের তাঁর কাছে টেনে নেন। এখানে উপমা হিসেবে প্রাকৃতিক বিপর্যয়কে তুলে ধরা হয়েছে। যখন তারা গভীর সমুদ্রে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়, তখন তারা সর্বান্তঃকরণে আল্লাহ্‌র সাহায্য কামনা করে থাকে। কিন্তু আল্লাহ্‌ যখন তাদের নিরাপদে তীরে নিয়ে আসেন, তখন তারা আল্লাহ্‌র নিকট কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপনের পরিবর্তে , নিজের বুদ্ধিমত্তা বা অন্য কিছুকে বিপদ উদ্ধারের জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে ও গর্ব প্রকাশ করে থাকে। এ ভাবেই তারা শিরক করে থাকে। এখানে নৌযানের নিরাপত্তাকে উদাহরণ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। অদূরদর্শী যারা, তারা বিপদে বিপর্যয়ে বিশুদ্ধ চিত্তে আল্লাহ্‌র সাহায্য কামনা করে থাকে, কিন্তু বিপদ-বিপর্যয় অতিক্রান্ত হয়ে গেলেই তারা প্রকৃত অবস্থা ভুলে যায়, এবং পৃথিবীর আমোদ-ফূর্তিতে নিমগ্ন হয়ে পড়ে , অস্থায়ী জীবনের বিষয়বস্তুর গর্ব তাদের স্থায়ী জীবনকে ভুলিয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *