ঋগ্বেদ ০৮।০৩৪
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল সূক্ত ৩৪
ইন্দ্র দেবতা। কণ্বগোত্রীয় দীপাতিথি ঋষি।

১। হে ইন্দ্র! তুমি অশ্বগণের সহিত কণ্বের সুন্দর স্তুতির অভিমুখে আগমন কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন, হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

২। এই যজ্ঞে সোমবান অভিষব প্রস্তর শব্দ করতঃ ধনীর সহিত তোমাকে দান করুন। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন, হে দীপ্তহ্যবিশিষ্ট! তুমি দুলোকে যাও।

৩। বৃক যেরূপ মেরীকে কম্পিত করে, সেইরূপ এই যজ্ঞে অভিষিব প্রস্তর সোমলতাকে কম্পিত করিতেছে। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোক যাও।

৪। কণ্বগণ রক্ষা ও অন্ন লাভের জন্য তোমাকে এই যজ্ঞে আহ্বান করিতেছে। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

৫। বর্ষক বায়ুকে যেরূপ প্রথমে সোমরস প্রদান করে, সেইরূপ আমি তোমাকে অভিযুত সোম প্রদান করিব। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোক যাও।

৬। হে স্বর্গের পুরন্ধ্রি! তুমি আমাদের নিকট আগমন কর। হে সমস্ত জগতের ধারক! তুমি আমাদের রক্ষার্থে আগমন কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

৭। হে মহামতি, সহস্ররক্ষাবান, বহুধন ইন্দ্র! আমাদের নিকট আগমন কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তাহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

৮। দেবগণের মধ্যে স্তুতিযোগ্য ও মনুষ্যগণকতৃক গৃহে নিহিত হোতা অগ্নি তোমাকে বহন করুন। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

৯। শ্যেনপক্ষী যেরূপ তাহার পক্ষদ্বয় বহন করে, সেইরূপ মদস্রাবী অশ্বদ্বয় তোমাকে বহন করুক। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১০। হে স্বামী! তুমি সৰ্ব্বতোভাবে আগমন কর, তোমার পানাৰ্থ সোম স্বাহা করিতেছি। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১১। উকথ পাঠ হইলে তুমি এই যজ্ঞে আমাদের সমীপে আগমন কর এবং আমাদিগকে প্ৰীত কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১২। হে পুষ্ট অশ্ববিশিষ্ট ইন্দ্র! পুষ্ট এবং সমান রূপবিশিষ্ট অশ্বগণের সহিত আগমন কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১৩। তুমি পৰ্ব্বত হইতে আগমন কর, অন্তরিক্ষ হইতে আগমন কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১৪। হে শূর! তুমি আমাদিগের জন্য সহস্রসংখ্যক গাভী ও অশ্ব দান কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দ্যুলোকে যাও।

১৫। হে ইন্দ্র! আমাদিগকে সহস্র, অযুত ও শত অভিলষিত দান কর। ঐ ইন্দ্র দ্যুলোক শাসন করেন। হে দীপ্তহব্যবিশিষ্ট! তুমি দুলোকে যাও।

১৬। আমরা ধনের দ্বারা শোভা পাই, আমরা সকলে এবং ইন্দ্র বলবান অশ্বপশু গ্রহণ করি।

১৭। ঋজুগামী, বায়ুসদৃশ বেগবান, আরোচ্মান, অল্প অল্প স্যন্দমান অশ্বগণ সূৰ্য্যের ন্যায় শোভা পায়।

১৮। পারাবত যখন এই সকল রথচক্রের গতি উতপাদনকারী অশ্বসমূহকে প্রদান করেন, তখন আমি বনের মধ্যে ছিলাম।

Share This