১৯. দুরূহ শরীফ (১৯তম খণ্ড)

১৯তখণ্ড -– দুরূহ শরীফ

কোরআনে দুরূদ পড়ার বিধান

কোরআন করীমে আল্লাহ্ তা’আলা এরশাদ করেন :

الى النبي ط يايها الذين آمنوا صلوا

كته يصلون

إن الله

عليه وسلموا تسليما۔

উচ্চারণ : ইন্নাল্লা-হা ওয়া মালা-য়িকাতাহু ইউছলুনা আলা ন্নাবিয়্যি, ইয়া-আইয়ুহাল্লাযীনা আ-মানূ ছল্লু আলাইহি ওয়া সাল্লিম্ তাসলীমা-।

অর্থ : আল্লাহ্ ও তাঁর ফেরেশতারা নবীর প্রতি রহমত প্রেরণ করেন; হে মু’মিনগণ! তোমরা নবীর জন্যে রহমতের দোয়া কর এবং তাঁর প্রতি সালাম প্রেরণ কর। –(সূরা আহযাব–আয়াত : ৫৬)

উপরোক্ত আয়াতে যে সালাতের নির্দেশ দেয়া হয়েছে এর অর্থ দরূদ-তথা রহমতের দোয়া করা।

.

দুরূদ শরীফের ফযীলত

আমরা প্রত্যেকেই এ আশা রাখি যে, আমাদের নামায, রোযা, দান-খয়রাত, আমাদের যাবতীয় ইবাদত আল্লাহর দরবারে কবুল, মাল ও মাবরুর হোক। কিন্তু আমাদের ঈমানও আমলের ত্রুটির কারণে হয়ত তা হয় না। তাছাড়া কোর্ট-ফি ও সনদপ্রাপ্ত উকীল-ব্যারিস্টারের সই ছাড়া যেমন সাধারণ লোকদের কোন আরবী বিচারকের এজলাসে গৃহীত হয় না, তেমনি সব বিচারকের বিচারক আল্লাহর দরবারেও কোর্ট-ফি ও সনদপ্রাপ্ত ব্যক্তির সুপারিশ ছাড়া কোন দোয়াই কবুল হয় না। আর এ কোর্ট-ফি হচ্ছে দুরূদ শরীফ। আর সনদপ্রাপ্ত সুপারিশকারী হচ্ছেন, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (ছ)। এজন্য প্রত্যেক প্রকার ইবাদতের আগে-পিছে দুরূদ শরীফ পড়া উচিত। নামায হচ্ছে সব ইবাদতের শ্রেষ্ঠ ইবাদত। এমন ইবাদতের মধ্যে পাছে আমরা ভুলে দুরূদ শরীফ পড়ি, এজন্য তাশাহহুদের সাথে দুরূদ শরীফ জুড়ে দেয়া হয়েছে। দুরূদ শরীফও তেমনি ইবাদতকে আল্লাহর দরবারে পৌঁছে দেয়। তখন আল্লাহ তা’আলা বেছে বেছে শুধু দুরূদসমূহই রেখে দেন না, দুরূদ কর্তৃক নীত ইবাদতগুলোও গ্রহণ করেন।

আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (ছ) মেরাজে গিয়ে উম্মতদের নাজাত-চিন্তায় অত্যন্ত ব্যথাতুর হয়ে উঠেন। তদ্দর্শনে আল্লাহ বলেন, হেপ্রিয় হাবীব! আপনি এত ব্যথাতুর হচ্ছেন কেন:আপনার উম্মতের যে কোন দোয়া আমি ককূল করে নেব–যদি তারা তার সাথে দুরূদ শরীফ বেঁধে দেয়। (ইবনে মাযাহ শরীফ ]

এজন্য প্রত্যেক দোয়া, প্রত্যেক ইবাদতের আগে বা পরে দুরূদ শরীফ পড়ে নেয়া উচিত। তাছাড়া আল্লাহ স্বয়ং আদেশ করেছেন

وا عليو

إن الله وملئكته يصلون على الثي–يايها الذين أمنوا

وسموا تسليما.

অর্থ : নিশ্চয় আমি আমার ফেরেশতাদেরকে সাথে নিয়ে আমার এ নবীর উপর দুরূদ পড়ি। হে ঈমানদার লোকেরা! তোমরাও তাঁর উপর দুরূদ ও সালাম পাঠ কর। [ সূরা আহাব–আয়াতঃ ৫৬ ]

এতে প্রমাণ হচ্ছে, নবী করীম (ছ) আমাদের শাফায়াতকারী বলেই শুধু তাঁর উপর দুরূদ পড়া আমাদের কর্তব্য হয়েছে, তা নয়। দুরূদ পড়া আল্লাহরই আদেশ।

দুরূদ শরীফ পড়ার ফযীলত :

(১) হযরত আবু হুরাইরা (রা) কর্তৃক বর্ণিত, তিনি বলেন, মহানবী (ছ) বলেছেন–কোন ব্যক্তি যদি মাত্র একবার দুরূদ শরীফ পাঠ করে, তবে একজন ভ্রাম্যমান ফেরেশতা আমার দরবারে উপনীত হয়ে খবর দেয়–ইয়া রাসূলুল্লাহ! অমুকের পুত্র অমুক আপনার উপর এত মোর্তবা দুরূদ শরীফ পাঠ করেছেন, তখন আমিও তার উপর ঠিক তত মোর্তবা দুরূদ পাঠ করি। অতঃপর সেই ফেরেশতা আল্লাহর দরবারে আরযী পেশ করে–হে মাবুদ! অমুকের পুত্র অমুক ব্যক্তি আপনার হাবীবের উপর এত মোর্তবা দুরূদ পাঠ করেছেন। তৎক্ষণাৎ আল্লাহ তাকে বলেন–উত্তম! কিরামান ও কাতেবীনকে বলে দাও, এ ব্যক্তির প্রত্যেক মোর্তা দুরূদ পাঠের পরিবর্তে যেন তার আমলনামা থেকে একটি করে গুনাহ কেটে দেয় এবং আমার পক্ষ থেকে প্রত্যেক কাটাস্থানে দশটি করে নেকী লিখে রাখে। ( মুয়াত্তা শরীফ)

(২) আল্লাহর রাসূল (ছ) বলেছেন, যে ব্যক্তি জুম’আর নামাযের জন্য মসজিদে উপস্থিত হয়ে আযানের পর ও খুতবা আরম্ভ হওয়ার আগে চল্লিশ মোর্তবা নিম্নোক্ত দুরূদ শরীফ পাঠ করবে তার চল্লিশ বছরের গুণাহ মাফ হয়ে যাবে। (বুখারী শরীফ)।

اللهم صل على محمدن الليبي الأمي وعلى أله وأصحابه وبارك وسلم۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিনিন নাবিয়্যিল উম্মিয়ে ওয়া আলা-আ-লিহি ওয়া আছহাবিহী ওয়া বা-রিকা ওয়া সাল্লিম।

(৩) যদি কেউ উক্ত দুরূদ শরীফ আছরের নামায বাদ একশ’বার পড়েন তবে তাঁর আশি বছরের গুনাহ মাফ হয়ে যায়। যদি প্রত্যেক জুম’আর দিন নামাযের পূর্বে কেউ উক্ত দুরূদ শরীফ এক হাজার বার পড়েন, তবে যতদিন না ঐ ব্যক্তি স্বপ্নে তার বেহেশতের বাড়িটি দেখতে না পান ততদিন তার মৃত্যু হয় না। (মুসলিম শরীফ)।

(৪) হযরত আবু হুরাইরা (রা) বলেন, রাসূলুল্লাহ (ছ) বলেছেন–কোন ব্যক্তি ওযূ করে আদবের সাথে বসে আমার উপর এক মোর্তবা দুরূদ শরীফ পাঠ করলে, আল্লাহ তার উপর দশ মোৰ্তা দুরূদ শরীফ পাঠ করেন। যদি কেউ আমার উপর দশবার দুরূদ শরীফ পাঠ করে, তবে আল্লাহ তার উপর একশ’ বার দুরূদ পাঠ করেন। যদি কেউ একশ’ বার দুরূদ শরীফ পাঠ করে, তবে আল্লাহ তার উপর এক হাজার বার দুরূদ শরীফ পাঠ করেন এবং তার জন্য বেহেশত হালাল ও দোযখ হারাম করে দেন।’ (মুসলিম শরীফ)

 (৫) রাসূলুল্লাহ (ছ) বলেছেন–আমার সুপারিশের আগে কেউই জান্নাতে প্রবেশ করবে না কিন্তু যারা আমার উপর সব সময় দুরূদ শরীফ পাঠ করে, তারা আমার সুপারিশের আগেই জান্নাতে চলে যাবে। তাদের জন্য আমার কিছুমাত্র সুপারিশের প্রয়োজন হবে না। (মুসলিম শরীফ)

তাসির : বিনা ওযূতে (পাক শরীরে) দুরূদ পড়েও পুরা সওয়াব পাওয়া যায়; কিন্তু যারা দুরূদ শরীফ পড়ার নিয়তে ওযূ করে বসে আদবের সাথে দুরূদ শরীফ পাঠ করেন, তাঁদের মধ্যে খাঁটি দরবেশ ও কামেল পীর কে, তা চিনতে হলে তিনি যখন মুরিদানকে নিয়ে কোথাও যেতে থাকেন, আপনি তখন পীর সাহেবের পেছনে পেছনে হাঁটতে হাঁটতে গোপনে (নীরবে) দুরূদ শরীফ পড়তে থাকবেন। যদি তিনি সত্যিকার দরবেশ বা কামেল পীর হয়ে থাকেন, তাহলে কিছুতেই দুরূদ শরীফ পাঠকারীর অর্থাৎ আপনার আগে আগে হেঁটে যেতে চাইবেন না। কিন্তু ভণ্ড দরবেশ ও ব্যবসায়ী পীরেরা টেরই পাবে না–আপনি দুরূদ শরীফ পড়ছেন কি না।

আগ্রহ ও প্রয়োজন মোতাবেক দুরূদ শরীফ নানা প্রকার। যে দুরূদে অর্থ যেরূপ, তার আমলের তাসিরও হয় তদ্রুপ। আমরা নিম্নে বিভিন্ন প্রকার অর্থ : ফযীলতপূর্ণ ৯টি দুরূদ লিখে দিলাম।

.

হাদীসের আলোকে ফাযায়েলে দুরূদ ও সালাম

হাদীস : হযরত ওমর (রাঃ) বলেন, প্রত্যেক দোয়া আসমান ও যমীনের মধ্যখানে ঝুলিয়ে রাখা হয়। (আল্লাহ্ তা’আলার দরবার পর্যন্ত) তার কোন অংশ পৌঁছে না, যতক্ষণ পর্যন্ত তোমরা হুযুর (ছঃ)-এর উপর দুরূদ পাঠ না কর।-(তিরমিযী)।

হাদীসঃ হযরত আলী (রাঃ) বলেন, প্রত্যেক দোয়া আল্লাহ তা’আলার দরবার পর্যন্ত পৌঁছা থেকে বিরত রাখা হয় যতক্ষণ না দোয়কারী রাসূলুল্লাহ (ছঃ) এবং তাঁর পরিবারের উপর দুরূদ না পাঠায়।–(তাবরানী—আলআওসাত্ব)।

হাদীসঃ যে ব্যক্তি নবী করীম (ছঃ)-এর উপর একবার দুরূদ পাঠায়, আল্লাহ তা’আলা এবং তাঁর ফেরেশতারা তার উপর সত্তরবার রহমত পাঠান।–(মুসনাদে আহমদ)।

হাদীসঃ হুযুর (ছঃ) বলেন, যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দুরূদ পাঠায়, আল্লাহ তা’আলা তার উপর দশটি রহমত বর্ষণ করেন, তার দশটি গুনাহ্ ক্ষমা করেন, জান্নাতের মধ্যে দশটি দরজা বুলন্দ করেন এবং দশটি নেকীও তার জন্য লেখা হয়।–(নাসাঈ শরীফ)

হাদীসঃ একদিন হুযুর (ছঃ) তশরীফ আনলেন। তার চেহারা মোবারক থেকে খুশী এবং আনন্দের নিদর্শন প্রকাশ পাচ্ছিল। বললেন, আমার নিকট এ মাত্র জিবরাঈল (আঃ) এসে বললেন, আপনার প্রতিপালক বলেছেন, হে মুহাম্মদ! আপনি কি এ সুসংবাদ পেয়ে খুশী হবেন না যে, আপনার উম্মতের মধ্য থেকে যে ব্যক্তি আপনার উপর একবার দুরূদ পাঠ করবে, আমি তার উপর দশটি রহমত অবতীর্ণ করবো এবং আপনার উম্মতেরা যে আপনার উপর একবার সালাম প্রেরণ করবে, আমি তার উপর দশটি শান্তি অবতীর্ণ করবো।–(নাসায়ী শরীফ)

হাদীস : হুযুর (ছঃ) বলেন, যে ব্যক্তির সম্মুখে আমার আলোচনা করা হয়, তার উচিত আমার উপর দুরূদ পাঠানো। যে আমার উপর একবার দুরূদ পাঠাবে, আল্লাহ তা’আলা দশ বার তার উপর রহমত অবতীর্ণ করবেন।–(ইবনে সুন্নী)।

হাদীস : হুযুর (ছঃ) বলেন, ঐ ব্যক্তি অপমান অপদস্থ হোক, যার সম্মুখে আমার আলোচনা হয় এবং সে আমার উপর দুরূদ পাঠায় না।–(তিরমিযী শরীফ)

হাদীসঃ হুযুর (ছঃ) বলেন, প্রকৃত কৃপণ ঐ ব্যক্তি যার সম্মুখে আমার আলোচনা হয় এবং সে আমার উপর দুরূদ পাঠায় না।–(তিরমিযী)

হাদীসঃ হুযুর (ছঃ) বলেন, কেয়ামতের দিন আমার নিকটবর্তী ঐ ব্যক্তি হবে, যে সবচেয়ে বেশী দুরূদ আমার উপর পাঠিয়েছে।–(তিরমিযী শরীফ)

হাদীস : যদি কোন ব্যক্তি আমাকে সালাম পাঠায় (বিশেষ করে আমার রওযার সামনে দাঁড়িয়ে), আমার আত্মা আমার কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়। এমনকি আমি তার সালামের উত্তর দিই।–(আবূ দাউদ)।

হাদীসঃ যে ব্যক্তি জুমু’আর দিন আমার উপর দুরূদ প্রেরণ করে, তার দুরূদ (বিশেষভাবে) আমার সামনে অবশ্যই পেশ করা হয়।–(মুসতাদরাকে হাকেম)।

হাদীসঃ যে ব্যক্তি আমার উপর একবার দুরূদ পাঠ করবে, আল্লাহ্ তা’আলা তার উপর দশটি রহমত অবতীর্ণ করবেন।

হাদীসঃ হযরত উবাই বিন কা’ব (রাঃ) হুযুর (ছঃ)-এর খেদমতে আরজ করলেন, হে আল্লাহর রাসূল, আমি আমার দোয়া ও যিকিরের সময়টুকু আপনার উপর দুরূদ পাঠ করার জন্য ওয়াকফ করে দিয়েছি। হুযুর (ছঃ) বললেন, তাহলে তোমার কঠিন কাজসমূহের সমাধান হবে এবং তোমার গুনাহ্ও মাফ হয়ে যাবে।–(মুসতাদরাক)

হাদীস : হুযুর (ছঃ) বলেন, একবার জিবরাঈল (আঃ)-এর সাথে আমার সাক্ষাত হল। তিনি আমাকে সুসংবাদ শুনালেন এবং বললেন, আপনার প্রভু বলছেন, যে আপনার উপর দুরূদ পাঠাবে, আমি তার উপর রহমত অবতীর্ণ করবো এবং যে আপনার উপর সালাম পাঠাবে, আমি তার উপর বিশেষ শান্তি অবতীর্ণ করবো। এরপর আমি আল্লাহর দরবারে শোকরানার সেজদা আদায় করেছি।

হাদীস : হুযুর (ছঃ) বলেন, আল্লাহ্ তা’আলার কিছু ফেরেশতা আছে যারা দুনিয়ার সভা, বৈঠক ও মুসলমানদের আশেপাশে ভ্রমণ করতে থাকে এবং আমার উম্মতের দুরূদ (সালাম) আমার নিকট উপস্থিত করে।–(নাসায়ী শরীফ)

হাদীস : হুযুর (ছঃ) বলেন, যে ব্যক্তি আমার আলোচনা করবে তার আমার উপর দুরূদ পাঠানো উচিত।–(আবী ইয়ালা)

হাদীস : রাসূলে আকরাম (ছঃ) বলেন, জুমু’আর দিন বেশি করে আমার উপর দুরূদ প্রেরণ কর। কেননা, তোমাদের দুরূদ ও সালাম জুম’আর দিন বিশেষভাবে আমার সামনে উপস্থিত করা হয়।–(আবূ দাউদ শরীফ)।

হাদীসঃ যে মজলিসে মানুষ একত্রিত হবে এবং তার মধ্যে না আল্লাহ তা’আলার স্মরণ করবে, না নবী (ছঃ)-এর উপর দুরূদ ও সালাম পাঠাবে, কেয়ামতের দিন ঐ মজলিস তাদের জন্য আল্লাহ্ তা’আলার স্মরণ ও হুযুর (ছঃ)-এর উপর দুরূদ প্রেরণের সওয়াব থেকে বঞ্চিত থাকার কারণে আফসোসের কারণ হবে। যদিও তারা জান্নাতে প্রবেশ করে।–(ইবনে হাব্বান)

.

দুরূদে ইব্রাহীমী

اللهم صلي على سيدنا محمد وعلى أل سيدنا محمد كما صليت على إبراهيم وعلى آل إبراهيم إنك حميد مجيد. اللهم بارك على سيدنا محمد وعلى آل سيدنا محمد كما باركت على إبراهيم وعلى آل ابراهيم إنك حميد مجيد

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন কামা–ছল্লাইতা আলা ইবরাহীমা ওয়া আলা আ-লি ইবরাহীম ইন্নাকা হামীদুম্ মাজীদ। আল্লা-হুম্মা বারিক আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন কামা–বা-রাকতা আলা ইবরাহীমা ওয়া আলা আ-লি ইবরাহীমা ইন্নাকা হামীদুম্ মাজীদ।

অর্থ : আয় আল্লাহ্! আপনি আমাদের সরদার মুহাম্মদ (ছঃ) ও তাঁর পরিজনের প্রতি রহমত বর্ষণ করুন, যেভাবে বর্ষণ করেছেন ইব্রাহীম (আঃ) ও ইবরাহীমের (আঃ) পরিজনের প্রতি, নিশ্চয় আপনি প্রশংসিত ও সম্মানিত। হে আল্লাহ! আপনি বরকত নাযিল করুন, আমাদের সরদার মুহাম্মদ (ছঃ) ও তার পরিজনের প্রতি যেভাবে আপনি বরকত নাযিল করেছেন ইবরাহীম (আঃ) ও তাঁর পরিজনের প্রতি, নিশ্চয়ই আপনি প্রশংসিত ও সম্মানিত।

لی ال محمد كما صليت على إبراهيم

۲) اللهم صل على محمد و

و لى أبي محمد كما باركت

إنك حميد مجيد–اللهم بارك على م على ابراهيم إنك حميد مجيد

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি মুহাম্মাদিন্ কামা ছল্লাইতা আলা ইবরাহীমা ইন্নাকা হামীদুম মাজীদ। আল্লা-হুম্মা বারিক আলা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি মুহাম্মাদিন কামা–বা-রাক্তা আলা ইবরাহীমা ইন্নাকা হামীদুম্ মাজীদ।

অর্থ : হে আল্লাহ! আপনি মুহাম্মদ (ছঃ)-এর পরিজনের প্রতি রহমত বর্ষণ করুন, যেভাবে রহমত বর্ষণ করেছেন ইবরাহীম (আঃ)-এর প্রতি। নিশ্চয়ই আপনি প্রশংসিত ও সম্মানিত। হে আল্লাহ! আপনি বরকত নাযিল করুন মুহাম্মদ (ছঃ)-এর প্রতি, যেভাবে আপনি বরকত নাযিল করেছেন ইবরাহীম (আঃ)-এর প্রতি, নিশ্চয়ই আপনি প্রশংসিত ও সম্মানিত।–(বোখারী শরীফ)

.

দুরূদে মাগফিরাত

اللهم صل على محمد في البي الأمية وعلى اله وسلم تسليما

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিনিন নাবিয়্যিল উম্মিয়্যি ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া সাল্লিম তাসলীমা-।

অর্থ : হে আল্লাহ! উম্মী নবী মুহাম্মদ (ছঃ)-এর উপর দুরূদ ও সালাম প্রেরণ করুন।

دی۹

.

দুরূদে তুনাজ্জীনা

جينا

اللهم صل على سيدنا محمد وعلى ألي سيدنا محمد صلو بها من جميع الأهوال والأقاني–وتقضى كتابها من جميع الحاجات–وتمطرنا بها من جميع السيئات . وتترفعون بها عثك أعلى الدرجات–وتبقنا بها أقصى الغايات من جميع المميرات في الحيوة وبعد الممات–إنك على كل شئ قوي–يرحمك يا أرحم الحوين۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন ছলা-তান তুনাজ্জীনা–বিহা–মিন জামীই’ল আহওয়ালি ওয়াল আ-ফা-তি ওয়া তাকদ্বী লানা–বিহা–মিন জামীই’ল হা-জা-তি ওয়া তুত্বোয়াহহিরুনা–বিহা–মিন জামীই’ সসাইয়্যিআ-ত, ওয়া তারফাউ’না বিহা-ইনদাকা আ’লাদ দারাজা-ত, ওয়া তুবাল্লিগুনা বিহা–আকছোয়াল গাইয়া-তি মিন জামীই’ল খাইরা-তি ফিল হাইয়া-তি ওয়া বা’দাল মামা-ত ইন্নাকা আলা কুল্লি শাইইন ক্বাদীর। বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামার রাহিমীন।

.

দুরূদে ইবনে ওমর (রাঃ)

اللهم صل على سيدنا محمد وعلى آل سيدنا محمد حتى لا يبقى من

بقى

الصلوة شى وارحمينا مير على الي يبينا محموٹی

ٹی

–وبارك على سيبنا محمد وعلى آل سيدنا محق

من الترمة

على سيدنا محمي على ال سيدنا

يبقي من البركة شئ . و

محمد حتى لا يبقى من الشم شئ۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন হাত্তা–লা–ইয়াবক্বা–মিনা ছছলা-তি শাইউন। ওয়াআরহাম সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা–আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন হাত্তা–লা–ইয়াবক্বা মিনার রাহমাতি শাইউন। ওয়া বা-রিক আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন হাত্তা–লা–ইয়াবক্বা মিনাল বারাকাতি শাইউন। ওয়া সাল্লিম আলা সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন হাত্তা–লা–ইয়াবক্বা মিনাস সালামি শাইউন।

.

কতিপয় দুরূদ ও সালাম

(1) اللهم صل على محمي مثيين الجوي والكرم ومنبع العلم والحكم

وعلى آله وأصحابه وبارك وسلم۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন মা’দিনিল জুদি ওয়া লকারামি ওয়া মাম্বায়ি’ল ই’লমি ওয়াল হেকামি ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া বারিক ওয়া সাল্লিম।

(۲) اللهم صل على محمد عبدك ونبيك ورسولك النبي الأمي وعلى أله

وازواجه وذريته وبارك وسلم۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন আবদিকা ওয়া নাবিয়্যিকা ওয়া রাসূলিকান নাবিয়্যিল উম্মিয়্যি ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আযওয়া-জিহী ওয়া যুররিয়্যাতিহী ওয়া বা-রিক ওয়া সাল্লিম।

(۳) اللهم صل على محمد وعلى آل محمد صلوة دائمة بدوامك–

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি মুহাম্মাদিন ছলা-তান দা-য়িমাতান বিদাওয়া-মিকা।

حابه وبارك وسلم

اللهم صل على محمد وعلى اله

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া বা-রিক ওয়া সাল্লিম।

على المؤمنين

اللهم صل على محمد عبدك ورسولك و

والمؤمنين والمسلمين والممت۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন আবদিকা ওয়া রাসূলিকা ওয়া ছল্লি আলাল মু’মিনীনা ওয়াল মু’মিনাতি ওয়াল মুসলিমীনা ওয়াল মুসলিমা-তি।

اللهم صل على سيدنه ونبينا وشفيعنا وحبيبنا ومولنا محمد–

يه واله واصحابه وبارك وسلم

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া নাবিয়্যিনা–ও শাফীয়িনা ওয়া হাবীবিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদ, ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলিহী ওয়া আহা-বিহী ওয়া বা-রিক ওয়া সাল্লিম।

(۷) اللهم صل على سيدنا مولانا محمد وعلى أل سيدنا مولانا محمد–

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–সাইয়্যিদিনা–মাওলানা মুহাম্মদ, ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মাওলানা মুহাম্মাদ।

(۸) اللهم صل علی محقون النبي الأمي وعلى أله وأصحابه وبارك

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিনি ননাবিয়্যিল উম্মিয়্যি ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া বা-রিক ওয়া সাল্লিম।

.

দুরূদে যিয়ারাতুন্নবী (ছঃ)

اللهم صل على محمر كما أمتنا أن تصبرى عليه. اللهم صلي على محمي كما هو اهله . اللهم صلي على محمد كما تحب وترضى اللهم صل على روح محمد في الأرواح اللهم صل على جسد محمد في الأجساد اللهم صلي على قبر محمو في القبور .

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন কামা–আমারতানা–আন নুছল্লিয়া আলাইহ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন কামা–হুওয়া আহলুহ। আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন কামা–তুহিব্বু ওয়া তারদ্বোয়া–আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–রূহি মুহাম্মাদিন ফিল আরওয়াহ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–জাসাদি মুহাম্মাদিন ফিল আজসা-দ। আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা–কাবরি মুহাম্মাদিন ফিল কুবর।

.

দুরূদে যিয়ারত

مر

اله وسلم

ه م

.

في / ت

,

، به

سا ما

, بیمه, اللهم صل على سيدنا محمدن ال

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিনি নাবিয়্যিল উম্মিয়্যি ওয়া আ-লিহী ওয়া সাল্লিম।

.

দুরুদে নারিয়া

بسم الله الرحمن الرحيم

،

با مم, ما,

نه ۸ ۸

ته

ر

و

ا

س

و الذي تنحل

إلى سيدنا محمد

اللهم صل صا

به العقد وتنفرج به الكرب وتقضي په الحوائج وتنال به الرغاب وحسن الخواتم ويستسقى الغمام بوجهه الكريم وعلى اله واصحبه في كلي لمحة ونفسي يعديكير معلوم تك

উচ্চারণ : বিসমিল্লা-হির রাহমানির রাহীম। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ছলাতান কা-মিলাতান ওয়া সাল্লিম সালা-মান তা-ম্মান আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিনিল্লাযী তানহালু বিহিল উক্বাদু ওয়া তানফারিজু বিহিল কোরাবু ওয়া তুকূদ্বোয়া বিহিল হাওয়া-ইজু ওয়া তুনা-লু বিহির রাগা-ইবু ওয়া হুসনুল খাওয়া-তিমু ওয়া ইউসতাসকাল গামা-মু বিওয়াজহিহিল কারীম। ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ফী কুল্লি লাম্‌হাতিওঁ ওয়া নাফাসিম বিআদাদি কুল্লি মালূমি ল্লাক।

.

দুরূদে আকবার

 নামও বৈশিষ্ট্য : নিম্নোক্ত দুরূদ শরীফে নবী করীম (ছ) এর বহুসংখ্যক সিফাতী (গুণবাচক) নাম আছে। দুরূদ শরীফে তাঁর প্রত্যেকটি সিফাতী নামের পূর্বে আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা’ বাক্যটি যোগ করে কেবল তাঁকেই লক্ষ্য করে সালাম জানানো হয়েছে। অন্য কোন দুরূদ শরীফে একসাথে নবী করীম (ছ) এর নামসমূহের এমন সমাবেশ দেখা যায় না। এজন্য এর নাম হয়েছে দুরূদে আকবর’ (শ্রেষ্ঠ দুরূদ)। এ দুরূদ শরীফ বুযুর্গী ও বৈশিষ্ট্যের অতুলনীয়।

(১) প্রত্যেক বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে দুরূদে আকবর পড়তে থাকলে, নবী করীম (ছ) অবশ্যই অবশ্যই তাঁকে স্বপ্নে দেখা দিবেন। প্রিয় নবী মুহাম্মদ (ছ) এর উপর দুরূদ ও সালাম পাঠের তাসিরে এ দুরূদ পাঠকারীর উপর হতে যাবতীয় অশান্তি দূর হয়ে যায় এবং মানুষেরা তাকে স্বতঃই সম্মান প্রদর্শন করতে থাকে।

(২) যারা প্রতিদিন অজিফার নিয়মে দুরূদে আকবর পড়বে–কখন হাশরের হিসাব হল, কখন পুলসিরাত পাড়ি দিয়ে তারা জান্নাতে গেল, কিছুই টের পাবে না।

بسم الله الرحمن الرحيم

الصلوة والسلام عليك يا رسول الله–

• • •

–১

)

الصلوة والسلام عليك يا نبي الله

الصلوة والسلام عليك يا ضيف الله۔ الصلوة والسلام عليك يا حبيب الله–الصلوة والسلام عليك يا نجى الله ۔ الصلوة والسلام عليك يا خليل الله–الصلوة والسلام عليك يا خير خلق الله–الصلوة والسلام عليك نور عرش الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من اختاره اللو۔ الصلوة والسلام عليك يا أول خلق الله۔

ان۹

به امر ق ر م / ۸٫,

ق

ل

و به او ر ت م //

الصلوة والسلام عليك يا أحسن خلق الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من به هدانا الله–. الصلوة والسلام عليك يا رحمة من الله۔ الصلوة والسلام عليك يا شفيعنا عند الله ۔ الصلوة والسلام عليك يا خاتم رسول الله–الصلوة والسلام عليك يا يار خلق الله–الصلوة والسلام عليك يا ولى اللو۔ الصلوة والسلام عليك يا صفوة الله–الصلوة والسلام عليك يا حجة الله–الصلوة والسلام عليك يا نورالله–الصلوة والسلام عليك يا من أرسله الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من شرفه الله الصلوة والسلام عليك يا من كرمه الله الصلوة والسلام عليك يا من عظمه الله الصلوة والسلام عليك يا من عصمه الله الصلوة والسلام عليك يا من وقاه الله الصلوة والسلام عليك من حماه الله الصلوة والسلام عليك يا من كفاه الله الصلوة والسلام عليك يا من زينه الله

, ۸ و بلو الصلوة والسلام عليك يا من أدبه الله

الصلوة والسلام عليك يا من كلمة الله–الصلوة والسلام عليك يا من وجه الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من قربه الله الصلوة والسلام عليك يا من أدناه الله۔ الصلوة والشم عليك يا من أعلاه الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من قره الله–الصلوة والسلام عليك يا مهبط وحي الله–الصلوة والسلام عليك يا كليم الله–الصلوة والسلام عليك يا ابن عبد الله۔ الصلوة والسلام عليك يا من أبلغ رسالة اللو۔ الصلوة والسلام عليك يا طه–الصلوة والسلام عليك يا مطلع أثوار الله–الصلوة والسلام عليك يا م ن

أشرار اللو ۔

الصلوة والسلام عليك يا خاتم الأنبياء الصلوة والسلام عليك يا خيار الأصفياء۔ الصلوة والسلام عليك يا شفيع الأمة. الصلوة والسلام عليك يا كاشف القمة الصلوة والسلام عليك يا مشهد گما الله–الصلوة والسلام عليك يا مرأة جمال الله–الصلوة والسلام علي

. ه

م م ه م م

الصلوة والسلام عليك يا من أفتاه الله الصلوة والسلام عليك يا من شرح الله صدرهالصلوة والسلام عليك يا من رفع الله ذكره–الصلوة والسلام عليك يا من كلمة نبوته

اله الا الله محمد رسول اللو۔

الصلوة والسلام عليك يا کی۔ الصلوة والسلآم عليك يا أبطی۔ الصلوة والسلام عليك يا محمد–الصلوة والسلام عليك يا أحمدالصلوة والسلام عليك يا حامد–الصلوة والسلام عليك يا مصطفى–الصلوة السلام عليك يا مرتضی۔ الصلوة والسلام عليك يا مجتبی ۔ الصلوة والسلام عليك يا طه۔ الصلوة والسلام عليك يا يس۔ الصلوة والسلام عليك يا نبي الرحمة. الصلوة والسلام عليك يا نبى الدعوة–الصلوة والشم عليك يا نبی العربی۔ الصلوة والسلام عليك يا بي المدي۔ الصلوة والسلام عليك يا نبي الم ۔

.–.. حسمت ۰۷

ا ء و ماه و مع

دو و با 

. ا

ع

ع

ا

الصلوة والسلام عليك يا تبنى الحرو۔ الصلوة والسلام عليك يا پی الحجازی–الصلوة والسلام عليك يا تپه ا ی۔ الصلوة والسلام عليك يا نبي الحفی۔ الصلوة والشم عليك يا نبي الرافی الصلوة والشم عليك يا نبى الهاشمی۔ الصلوة والشم عليك يا نبي القريشی۔ الصلوة والسلام عليك يا نبی الثقي الصلوة والسلام عليك يا نبى الاقيه الصلوة والسلام عليك يا صاحب الناقة–الصلوة والسلام عليك يا صاحب القناعة–الصلوة والسلام عليك يا صاحب الشفاعة–الصلوة والسلآم عليك يا صاحب الكوثر–الصلوة والسلام عليك يا صاحب الوثبر–الصلوة والسلام عليك يا صاحب التاج واللواء الصلوة والسلام عليك يا صاحب الحق والحياء–الصلوة والسلام عليك يا صاحب التثق والشقاء القلوة والشم عليك يا صاحب المعراج والقربة الصلوة والسلام عليك يا صاحب المحراب والوزير–الصلوة والسلام عليك يا صاحب الشبوة الصلوة والسلآم عليك يا صاحب الشريعة

ه ا م

م . و

۸و

۸

الصلوة والسلام ع

مورود

الصلوة والسلام عليك يا صاحب اللواء المعقود–الصلوة والسلام عليك يا نور السموت والارض–الصلوة والسلام عليك يا خاتم الرسالة والثبوة–الصلوة والسلام عليك يا مظهر الشريعة والطريقة

الصلوة والسلام يا معين الحقيقة والمعرفة

الصلوة والسلام عليك يا بدر الثمام الشلوة والسلام عليك يا من له القمام الصلوة والسلام عليك يا اب الايتام–الصلوة والسلام عليك يا سيد الأنام۔ الصلوة والسلام عليك يا مصباح الظلام–الصلوة والسلآم عليك يا حبيب الفقراء–الصلوة والشم عليك يا عين الشقاء۔ الصلوة والسلام عليك يا ابني الفراء۔ الصلوة والسلام عليك يا رسول الثقلين–الصلوة والسلام عليك يا سيد الكونين–الصلوة والسلام عليك يا نبي الحرمين–الصلوة والسلام عليك يا إمام القبلتين–الصلوة والسلام عليك يا جد الحسن والحسين–الصلوة والسلام عليك يا سيد الأخرين۔ الصلوة والسلام عليك يا سيد المرين

الصلوة والسلام عليك ميب المسايرين–الصلوة والسلآم عليك يا غياث المثير والين–الصلوة والسلام عليك يا خاتم النبيين۔ الصلوة والسلام عليك يا سيد المتقين۔ الصلوة والسلام عليك يا شفيع المذنبينالصلوة والسلام عليك يا رسول رب العلمین۔

উচ্চারণ : আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-রাসূলাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আআইকা ইয়া নাবিয়্যাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছফিইয়্যাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসামু আলাইকা ইয়া-হাবীবাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাজিয়াল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খালীলাল্লাহ-হ, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খাইরা খালকিল্লা-হ, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নূরা আরশিল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মানিখতা-রাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আওয়্যালু খালকিল্লা-হু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আহ্সানা খালকিল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাম বিহী হাদা-নাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া রাহমাতাম্মিঁনাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-শাফীয়ানা-ইদাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খা-তামা রাসূলিল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খিয়া-রা খালকিল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ওয়ালিয়্যাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছফওয়া তাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া–হুজ্জাতাল্লা-হ, আছছলা-তু আস্সালামু আলাইকা ইয়া-নূরাল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আরসালাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান শাররাফাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান কাররামাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আযযামাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আছোয়ামাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাওঁ ওয়াক্কা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াস্সালাম্ আলাইকা ইয়া-মান হামা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান কাফা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান যাইয়্যানাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়ামান্ আদ্দাবাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়ামান্ কাল্লামাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়ামান আররাজাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান কাররাবাহুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়ামান্ আদ্ না-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আ’লা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাওঁ ওয়াক্বারা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাহ্ বাত্বোয়া ওয়াহ্ ইয়িল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-কালীমাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ইবনা আবদিল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আবলাগা রিসালাতাল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাত্বলাআনওয়া-রিল্লা-হ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাখযানা আস্রা-রিল্লা-হ, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খা-তামাল আমবিয়া-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খিয়া-রাল আছফিয়া-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-শাফী আল্ উম্মাহ্, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-কা-শিফাল গুম্মাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাশহাদা কামা-লিল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মিরআতা জামা-লিল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আরা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান আফনা-হুল্লাহ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান শারাহাল্লা-হু ছদ্রাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মার রাফা’আল্লা-হু যিকরাহ, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মান কালিমাতু নুবুওয়্যাতিহী, লা-ইলা-হা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ-হ, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-যাকিয়ু, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আবত্বয়াহিত্যু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুহাম্মদ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আহমাদ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-হা-মিদু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুছত্বায়াফা, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুতাঘদ্বায়া, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুজতাবা, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-তত্বায়া-হা, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া ইয়া-সী–, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুর রাহমাহু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুদ্দা’ওয়াহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ু’আরাবিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল মাদানিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল মাক্কিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল হারামিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল উৰ্ম্মিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল হাফিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুর রাফিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ু হাশিমিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ুল কোরাইশিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ু ত্তাকিয়ু, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিইয়ু না-কিয়, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা না-কাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা কানা’আহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবাশ শাফাআহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা কাওছার, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা মিম্বার, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবাত্তাজি ওয়াল্লি ওয়াই, আছোলাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা খুলুকি ওয়াল্ হায়া-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবাছ ছিকি ওয়াছছফা-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা মি’রাজ্বি ওয়াল্ কোর্বাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা মিহরাব ওয়াল্ ইজ্জাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা নুবুওয়াহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা শারী’আহ্, আচ্ছালাতু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা হাওদ্বিল মাওরূ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-ছোঁয়া-হিবা লিওয়া ইল্ মা’কুদ, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নূরাস্সামাওয়াতি ওয়াল্ আর্দ্ব, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-খা-তামার রিসা-লাতি ওয়া নুবুওয়্যাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মাযহার শারী’আতি ওয়াত্ত্বরীক্বাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মা’দানা, হাক্বীক্বাতি ওয়াল মা’রিফাহ্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-বাদ্ৰাত্ তামা-, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মা যোয়াল্লালাহু গামা-ম্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আবাল আইতা-ম্, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-সায়্যিদাল আনাম, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মিম্বা-হা যোয়ালাম, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-হাবীবা ফুক্বারা-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুঈ না দু’আফা-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-আনীসাল গুরাবা-ই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-রাসূলাহ্ ছাক্বালাইন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-সায়্যিদা কাওনাই, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-নাবিয়্যাল্ হারামাইন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মা ক্বিবলাতাইন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-জ্বাদ্দা হাসানি ওয়া হুসাইন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-সায়্যিদা আ-খিরী, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-সায়্যিদাল মুরসালীন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-মুহিব্বাল মাছা-কী, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-সায়্যিদা’ মুত্তাকীন, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-শাফী ইল মুনিবী, আছছলা-তু ওয়াসসালামু আলাইকা ইয়া-রাসূলা রব্বিল আলামীন্।

.

দরূদে তাজ

بسم الله الرحمن الرحیم۔ اللهم صل على سيدنا ومولتا مقوصاحب التاج والمعراج والبراق والعلم. دافع البلاء والوباء والقط والممرض والألم. اسمه مكتوب مرفوع مشفوع منقوش في اللوح والقلم. سيد العرب والعجم . چشمه قدس شعر طه نور في البيت والكرم–شمس الضحى يثير الجی صثر العلى نور الهدى كهير الورى وشباح الم . جميل القيم–شفيع الأمم صاحب الجود والكرم–والله عاصم وجبريل ايمه البراق مركب والمعراج فتره وسدرة المنتهى مقامه قاب قوسين مشتويه والمطلوب مقوده والمثمود موجوده سید المرسلين خاتم الثبيين شفيع المميبين–انيس الغريبين رحمة العلمين–راحة العاشقين مواد المشتي–شمس العارفين سراج

الشان مصباح المقربين مين الفقراء والمساكين سيو الثقلين بين الحرمين امام القبلتيني ويلنا في الدارين صاحب قاب قوسین محبوب رب المشرقين والمربين–جير الحسين والحين–مولا مولى القين أبي القاسم محمد بن عبي اللي

من ممر

اللو۔ یایها المشتاقون بور جماله صلوا عليه واله وسموا تسليما ۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিন ছোঁয়া-হিবি তা-জি ওয়াল মি’রা-জি ওয়াল বুরা-কি ওয়াল আলামি দা-ফিয়িল বালা-ই ওয়াল ওয়াবা-ই ওয়াল ব্যাহত্বি ওয়াল মারাদি ওয়াল আলাম্। ইসমুহ মাবুম মারফুউ’ মাশফুউম মানক্‌শুন ফিল লাওহি ওয়াল কালাম্ সাইয়্যিদিল আরাবি ওয়াল আজামি জিসমুহু মুকাদ্দাসুন মুআত্বত্ব মুত্বোয়াহ্হারুম্ মুনাওয়ারু ফিল বাইতি ওয়াল হারামি শামসু দুহা–বদরু দুজা–ছদ্রুল উলা নূরুল হুদা–কাহফুল ওয়ারা–মিছবাহু যুই’লামি জামীলু শিয়া-মি শাফীউল উমামি ছোঁয়া-হিবুল জুদি ওয়াল কারামি ওয়াল্লা-হু আ-ছিমুহু ওয়া জিবরীলু খা-দিমুহ্ ওয়াল বুরা-কু মারকাবুহু ওয়াল মিরাজু সাফারু ওয়া সিরাতুল মুন্তাহা–মাক্কা-মুহু ওয়া ত্বা-বা কাওসাইনি মাতৃবুহু ওয়াল মাতৃবু মাকছুদু ওয়াল মাকসূদু মাউজুদুহু সাইয়্যিদিল মুরসালীনা খাতামুন নাবিয়্যীনা শাফীই’ল মুনিবীনা আনীসুল গারাবীনা রাহমাতা লিল আলামীনা রা-হাতিল আশিকীনা মুরা-দিল মুশতাকীনা শামছিল আরিফীনা সিরাজু সৃসা-লিকীনা মিস্বা-হুল মুকাররাবীনা মুহিব্বল ফুক্বারা-ই ওয়াল মাসা-কীনা সাইয়্যিদি ছাল্কালাইনি নাবিয়্যল হারামাঈনি ইমামুল ক্বিবলাতাইনি ওয়া উসীলাতিনা ফিদ্দা-রাইনি ছোঁয়া-হিবি কা-বা কাওসাইনি মাহবূবি রব্বিল মাশরিকাইনি ওয়াল মাগরিবাইনি জাদ্দিল হাসা-নি ওয়াল হুসাইনি মাওলানা ওয়া মাওলা সসাল্কালাইনি আবিল ক্বা-সিমি মুহাম্মাদি বিন আবৃদিল্লা-হি নূরিম্ মিন নূরিল্লা-হ্। ইয়াআইয়ুহাল মুশতাকূনা বিনূরি জামা-লিহী ছল্লু আলাইহি ওয়া আ-লিহী ওয়া সাল্লিমূ তাসলীমা-।

.

দুরূদে ফতূহাত

شم الله الرحمن الرحيم بسم الله اللهم صلي وسلم على سيدنا مثير وعلى اله بعدد أنواع

البرق والتوحات–يا باسط الذي يشط الثق لمن يشاء بغير حساب–أبسط علينا رزقا واسعا من كل جهة من خائن غيبك بقير من مخلوق بمحض فضلك وكرمك بغير حساب .

উচ্চারণ : বিসমিল্লা-হি আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা–আ-লিহী বি আদাদি আনওয়াই রিযক্কি ওয়াল ফুতুহা-তি ইয়া–বা-সিতোয়াল্লাযী ইয়াবসুতু ররিকা লিমাহঁ ইয়াশা-উ বিগাইরি হিসাব। উবসুত্ব আলাইনা–রিকৃাওঁ ওয়াসিআম্ মিন কুল্লি জিহাতিম মিন খাযা-ইনি গাইবিকা বিগাইরি মিন্নাতি মাখলুকিম বিমাহিদ্বি ফাদ্‌লিকা ওয়া কারামিকা বিগাইরি হিসাব।

.

দরূদে লাখী

\

بسم الله الرحمن الرحيم اللهم صلي وتم على سيدنا ومولنا محمر على ألي سيدنا محمد بعدي رحمه الله–اللهم صل لم على سيدنا ومولنا محمد وعلى أل شينا محمد ممبر فشل الله–اللهم صلي وسلم على سيدنا ومولا ممد وعلى أل سيدنا محمو بعد خلق الله–اللهم صلي وسم على سيدنا ومولنا محمد وعلى آل سيدنا محمي بعد علم الله–اللهم ب وسلم على سيدنا مولنا محمد وعلى أل سيدنا محمد بعدي كلمته الله–اللهم صلي وسم على سيدنا ومولنا محمد وعلى آل سيدنا محمد بعدي كرم الله–اللهم صلي وسليم على سيدنا ومولنا محمد وعلى أل

يونا موعدو قطرات الأمطار–اللهم صلي وسام على سيدنا مولا محمد وعلى آل سيدنا محمد بعدد أوراق الأشجار . اللهم صل وسلم على سيدنا ومولا محمد وعلى أل سيدنا محمد بعد رمل القفار . اللهم صلي وسلم على سيدنا محمي بعدي ما أظلم عليه الليل واشرق عليه النهار اللهم صلي وسام على سيدنا ومولنا محمد وعلى آل سيدنا محمد

عدي مالق في البحار–اللهم صل وسلم على سيرنا ومولا محمية على أل سيدنا محمدعي الحبوب والثمار–الله وسام على سيدنا ومولا محمد وعلى ال سيدنا محمودي الليل والنهار–اللهم صلي وسم على سيدنا ومولا محمد وعلى أل سيدنا محمد عدد من ما عليه. اللهم صلي وتنام على سيدنا ومولامرؤ على أل سيدنا محمد بعدد من لم يصل عليه. اللهم صلي وسلم على سيدنا

مولنا محمد وعلى أل سيدنا محور

انفاس الخلائق–اللهم ممل

دعدد نجوم

میدنا محمد

وسلم على سيدنا ومولنا محمد وعل

الشموت . اللهم صب وتنام على سيدنا ومولا محمد وعلى آل سيدنا محمد عدد گل شئ في الدنيا والآخرة . صلوة الله تعالى ومملكته و أنبيائه ورسله وجميع الحق على سيد المرسلين وامام المتقين وقاد الغر المحجلي شفيع المثيبين سيدنا ومولا مكشر على اله واصحابه وازواجه وذريته وأهل بيته وأهل طاعتك أجمعين من أهل الشموت والأرضين . برحمتك يا ارحم الحمين–ويا أكرم الأكرمين وصلى الله تعالى على سيدنا محمد واله وأصحابه أجمعين–وسم

ت يما دائما ابدا كثيرا والحمد لله رب العلمین۔

উচ্চারণ : বিসমিল্লা-হি ররাহমা-নির রাহীম। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদি বিআদাদি রাহমাতিল্লা-হ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা-সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলা-না মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা-আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি ফান্ লিল্লা-হ্ আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন্ বিআদাদি খালকিল্লা-হ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদি বিআদাদি কালিমা-তিল্লাহ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন বিআদাদি কারামিল্লা-হ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদি বিআদাদি হুরূফি কালা-মিল্লা-হ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা-সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি কাতারাতিল আমত্বোয়া–আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা-আ-লি সাইয়্যিদিনা-মুহাম্মাদিন্ বিআদাদি আওরা-কিল আশজা-র। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা-আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন্ বিআদাদি রামলিল কিফা-রি আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি মা–খুলিল্কা ফিলবিহার। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বিআদাদিল হক্ববি ওয়াস্ সিমা-র। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া। সাল্লিম্ আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন্ বি আদাদিল লাইলি ওয়ান্নাহার। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা সাইয়্যিদিনা-ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা-আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বিআদাদি মা-আলামা আলাইহিল্লাইলু ওয়া আ-ক্বা আলাইহিন্ নাহার আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা-ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদি বিআদাদি মান ছল্লা-’আলাইহ্। আল্লা-হুম্মা সাল্লি ওয়া ছল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিম বিআদাদি সাল্লাম ইউছল্লি আলাইহ্। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা-ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা–আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিম বিআদাদি আনফা-সিল খালা-ই। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি নুজুমি সৃসামা-ওয়া-ত। আল্লা-হুম্মা ছল্লি ওয়া সাল্লিম আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি কুল্লি শাইয়িন ফিদুনইয়া–ওয়া আ-খিরাহ্। ছলাওয়া-তুল্লা-হি তা’আলা–ওয়া মালাইকাতিহী ওয়া আমবিয়া-ইহী ওয়া রাসূলিহী ওয়া জামীই’ল খালা-ইব্ধি আলা–সাইয়্যিদিল মুরসালীনা ওয়া ইমামুল মুত্তাকীনা ওয়া ক্বাইদিল গুররি মুহাজ্জালীনা শাফীই’ল মুযনিবীনা–সাইয়্যিদিনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া আযওয়া-জিহী ওয়া যুররিয়্যাতিহী ওয়া আলি বাইতিহী ওয়া আহলি ত্বোয়া-’আতিকা আজমাঈনা মিন আহলিস সামা-ওয়াতি ওয়াল আরদ্বীনা বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামা রুরা-হিমীন। ওয়া ইয়া–আক্রামাল আকরামীনা ওয়া ছল্লাল্লাহু তা’আলা আলা–সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী আজমাঈনা ওয়া সাল্লিম তাসলীমান দায়িমান আবাদান কাসীরাওঁ ওয়ালহামদু লিল্লা-হি রব্বিল আলামীন।

.

দুরূদে হাজারী

اللهم صل على محموما دامت القلوة وصل على محموما دامت الرحمة–وصلي على محموما دامت البركات–وصلي على ژوح محق في الأرواح–وصلي على صورة محمد في الصور–وصل على إسم مثير في

على قلب محمد في

الاسماء–وصل على نفس محمد في النفوس–و القلوب–وض على قبر محمو في القبور–وصلي على روضة محمد

محمد في الجابر–وهو على تربية

في الرياض–وصلي على

و

ولی

محمي في التراب–ولي الله على خير خلقه سيدنا م أله وأصحابه وأزواجه ويه وأهل بيته وأحبابه أجمعين . برحمتك یا ارحم الرحمين۔

, f, 5. 6.

৭৫০

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন্ মা–দা–মাতি ছলাতু ওয়া ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন্ মা–দা-মাতির রাহমাতু ওয়া ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন্ মা–দা-মাতিল বারাকা-। ওয়া ছল্লি আলা–রূহি মুহাম্মাদিন ফি আরওয়া-হে। ওয়া ছল্লি আলা-সূরাতি মুহাম্মাদিন্ ফি সসুওয়ারি ওয়া ছল্লি আলা–ইমি মুহাম্মাদিন ফিল আসমা-ই ওয়া ছল্লি আলা–নাফসি মুহাম্মাদিন্ ফিন্ নুফুসি ওয়া ছল্লি আলা–কালবি মুহাম্মাদিন ফি কুবি ওয়া ছল্লি আলা–কারি মুহাম্মাদিন ফিল কুবুরি। ওয়া ছল্লি আলা–রাওদ্বোয়াতি মুহাম্মাদিন্ ফির রিয়া-দি ওয়া ছল্লি আলা–জাসাদি মুহাম্মাদিন্ ফি আজসা-দি ওয়া ছল্লি আলা–তুরবাতি মুহাম্মাদিন্ ফি তুরা-বি ওয়া ছল্লাল্লাহু আলা–খাইরি খালক্বিহী সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা-আ–লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া আওয়া-জিহী ওয়া যুররিয়্যা-তিহী ওয়া আহুলি বাইতিহী ওয়া আহবা-বিহী আজমাঈনা বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামার রাহিমীন।

.

দুরূদে খায়ের

اللهم صل على سيدنا ونبينا وشفيعنا ومولنا محمد صلى الله

علي وعلى أله وأصحابه واژواجه وبارك وسلم۔

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা সাইয়্যিদিনা–ওয়া নাবিয়্যিনা-ওয়া শাফীই’না–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিন, ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী ওয়া আওয়া-জিহী ওয়া বারাকা ওয়া সাল্লাম।

.

দুরূদে শেফা

اللهم صل على سيدنا محمد بعد كل داء ودواء ويعدو كل علة

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ বিআদাদি কুল্লি দা-ই’ওঁ ওয়া দাওয়াইওঁ ওয়া বি আদাদি কুল্লি ই’ল্লাতিওঁ ওয়া শিফা-ইন।

.

দুরূদে আলফে ইয়াওমী

اللهم رب م وصلي على محمد وعلى آل محمد–واجز محقدا صلی

الله عليو وتم ما هو أهله.

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা রব্বা মুহাম্মাদিন্ ছল্লি আলা মুহাম্মাদিন্ ওয়া আলা আ-লি মুহাম্মাদিন্ ওয়া আযি মুহাম্মাদান্ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামা মা–হুয়া আহলুহু।

.

দুরূদে শাফেয়ী

اللهم صل على سيدنا محمد گلما نكره الذاكرون ولما قل عن

ذكره الغافيلون

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছল্লি আলা সাইয়্যিদিনা–মুহাম্মাদিন্ কুল্লামা–যাকারাহু যা-কিরূনা ওয়া কুল্লামা–গাফালা আন যিক্‌রিহিল গা–ফিনা।

.

দুরূদে মাহী

اللهم صل على محمد خير الخلايق أفضل البشر شويع الأمويؤم الحشر والنشر سيدنا محموعدد كل معلوم لك وصل على جميع الأنبياء والمربيين والمملكة المقربين وعلى بيباد الله الشاليحي وامنا معهم برحمتك يا أرحم الراحمين.

উচ্চারণ : আল্লা-হুম্মা ছাল্লি আলা মুহাম্মাদিন্ খায়রুল খালা-ইকি আফদ্বোয়ালুল বাশারি শাফীই’ল উম্মাতি ইয়াওমাল্ হাশরি ওয়াশূরি সাইয়্যিদিনা, মুহাম্মাদিন্ বি আদাদি কুল্লি মা’-মি লাকা ওয়া ছল্লি আলা–জামীই’ আম্বিয়া-ই ওয়াল মুরসালী-না ওয়াল মালাইকাতি ওয়া মুকারুরবাবীনা ওয়া আ’লা–ই’বা-দিল্লা-হি ছোঁয়া-লিহীন। ওয়ারহানা–মা’আহুম্ বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রা-হিমীন।

.

দোআয়ে আহাদনামা

عالم الغيب والشهادة هو الرحمن

بشم الله الرحمن الرحيم

اللهم فاطرالسما الجيم–اللهم اني اشهد اليك في هذه الحيوة الثيا پا أشهد أن لا إله إلا أنت وحدك لاشريك لك و أشهد أن محمدا عبدك ورسولك–قلاتكلني إلى نفسي–فاك إث تكثنى اليها قژبنى إلى الشر. وتباعدني

أتي إلا برحمتك–فاجعل بي ممثدك عهدا حتی تؤفيه

من الخيرا

خلف الميعابي–صلى الله تعلى على خير خلقه

إلى يوم القيامة–إن محمد واله وأصحابه أجمعين–برحمتك يارحم الرحمين۔

L

উচ্চারণ : বিসমিল্লা-হির রাহমানির রাহীম। আল্লা-হুম্মা ফা-ত্বিরা সৃসামা–ওয়াতি ওয়াল আবৃদ্বি আ-লিমাল গাইবি ওয়াশশাহা-দাতি হুওয়ার রাহমানুর রাহীম। আল্লা-হুম্মা ইন্নী আহাদু ইলাইকা ফী হাযিহিল হাইয়া-তি দুনয়া–বিআন্নী আশহাদু আল্লা–ইলা-হা ইল্লা–আতা ওয়াহদাকা লা–শারীকা লাকা ওয়া আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান আবদুকা ওয়া রাসূলুকা। ফালা তাকিনী ইলা–নাফী ফাইন্নাকা ইন তাকিনী ইলাইহা–তুকারিবুনী ইলাশ শাররি। ওয়া তুবা-ইনী মিনাল্ খাইরি ফাঁইনী লা–আত্তাকিলু ইল্লা–বিরাহমাতিকা ফা’আল লী ই’দাকা আহদান তুওয়াক্ফীহি ইলা–ইয়াওমি কিয়া-মাতি ইন্নাকা লা–তুঙ্খলিফু মীআ-দ। ওয়া ছল্লাল্লাহু তা’আ-লা–আলা–খাইরি খালক্বিহী মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আ-লিহী ওয়া আছহা-বিহী আজমাঈন। বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামার রা-হিমীন।

অর্থ : পরম করুণাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু করছি। হে আল্লাহ! আসমান-যমীনের সৃষ্টিকর্তা, অদেখা-দেখা সমস্ত বিষয়ে মহাজ্ঞানী এবং দাতা ও পরম দয়ালু। হে আল্লাহ! আমি তোমার সাথে অঙ্গীকার করছি, এ জগতে আমি সত্য সত্যই সাক্ষ্য দিচ্ছি, একমাত্র তুমি ছাড়া অন্য কোন মাবুদ নেই, তুমি একক, তোমার কোন শরীক নেই এবং আমি আরও সাক্ষ্য দিচ্ছি হযরত মুহাম্মদ (ছঃ) তোমার বান্দা ও রাসূল। অতএব, তুমি আমাকে সপর্দ করো না আমার নফসের উপর। যদি তুমি আমাকে নফসের উপর সপর্দ কর তবে সে আমাকে নিকটবর্তী করবে মন্দ কাজের এবং ভাল কাজ হতে দূরে সরিয়ে রাখবে। আর আমি ভরসা করি তোমার ক্বপা ছাড়া কারও। অতএব তোমার দিক হতে আমাকে এরূপ ওয়াদা দাও, যা পূর্ণ করবে তুমি কেয়ামতের দিন। নিশ্চয়ই তুমি ওয়াদা ভঙ্গকারী নও। হে আল্লাহ! দুরূদ ও সালাম নাযিল করুন সৃষ্টির সেরা হযরত মুহাম্মদ (ছঃ), তার বংশধর ও সাহাবাগণের সকলের উপর। আপনার পরম দয়ায়। হে দয়াময়! আপনিই সর্বশ্রেষ্ঠ দয়ালু দাতা।

.

দোআয়ে ক্বাদাহ

بسم الله الرحمن الرحيم بشم الله باشمه المبو ربي الأخرة والأولى الذي غاية له ولا منتهی له في الموت القلى–الرحمن على العرش اشتوى له مافي الشموت وما في الأرض وما بينهما وما تحت الری مد وإن تجهر بالقولي قاه يكم التي واخفي–الله لا إله إلا له الأسماء الحشني–الله العظيم عظيم العظماء ام النعماء قاهر الاعداء–ط الرحمن التحالف على لقب برژټه المعروف بلطفه العاده في حكمو العام في مليو رجما بقه رجيم الماء عليم العلماء بصير الراء فوز الفا باث الأنبياء صاحب الأولياء شبكه قادر على من يشاء قدير–شبين المالي الحميد ذي العرش المجيو فال ما يريد–رب الأرباب ومسبب الاسباب وسابق الأسباق وازق الأرزاق وخالق اللائق وقاير المقر وقار المؤتمر وعادل في يوم الحشر و الشور اله الهة جامع الناس يوم الواقعة ربنا

–جيه تخليه شود–الأ القويم خالي العرش العظيم والشموت

والأرضين وهو السميع العليم قابل التوبة گورليه فور رحيم والحمد الله رب العرش العظيم هو الأول والأخر والظاهر والباط والدائم الاثق الخلائق والبهائم صاجب العطایا ودافع البياومن يشفي الشقيم ويغور الخاين ويؤه النايمين–ويقوا الظالمين ويجب الشيحين

، له

و ساه

وبنجي المؤمنين ويثيررالممثرين ويستر المذنبين ويؤمن الخائفين

شبخنك شبح شبختك لا إله إلا أنت الكريم المعبود كثير العطايا وافر الخطايا شاتر العيوب شور رحیم عالم ما في الشتوي مثبت الروع والأشجار ومدبر اليل والنهار فالق الحبوب التي الموت والأرض غنى عن التزيين قاسم الأرزاق عقم القيوب ذهب الهموم انت الذي جد لك شواء الليلي ونور النهار وضوء القمر شعاع الشمس توى الماء وفق الشجر . إلهي أنت الذي ليس كمثله ش وهو على كل شي قويتر–وانت الذي تعلم السر والإعك وما في القلوب–إلهي أثت الزي تفوا عن المعاصي بعد أن يؤثر في النوب الهي أنت الذي قلت لا تقنطوا من رحمة اللهم إن الله يغفر الذنوب جميعاد إنه هو القور الرجيم–وانت بقوليك صادق لست بموب ثجزى الله من الكرب العظيم والفم واثت غياث كل مكروب وممصروف و مظلوم وأنت على كل شئ قدير واحفظني مولای من آفات الدنيا والآخرة وتفنى يا سيدى على

و الخلائق خاصة في يوم الموعود الله أكبر الله أكبر الله أكبر كبيرا ضد له وه له و جؤر له ولا ښه له وكة له وعدله وممثل له وقتي كه و رته وويله لاشريك له في المللي أشال ياعيني ياعزيز ياعزيز أن تعرني بالعربي والعظمة والكبرياء والهيبة والقدرة والجبروت يا الله يا الله يارحم يارحمن يارحمن يارحيم يارحيم يارحيم أن ترى في مناي لقاء بيك وما رجوت ون وأكرمنى بمغفرتك خطيتي الك على كل شئ قدير . ولا حول ولا قوة إلا بالله العلي العظيم. اللهم ثان یا مان يا ذا الجلال واوگرام أشهد أن لنبوي من دون شك إلى منتهى قرار الأرضي باطل ما وجهك الكريم أمنت بأن لا إله إلا أنت رضيت ربنا ياغياث المستغيثين أغثنى من الثار وتجني من سخطك واجرنی من عذابك وفرج عني شر خلقك وارزقني رزقا واسعا بارگا

حلا طيبا لا إله إلا أنت يا الجلال و الاكرام اللهم اكفني بحلالك عن حرامك وبطاعتك عن معصيتك واغنني بفضلك عمن سواك إلهى خلقتني ولم أك شيئا ظلمت نفسى وارتكب المعاني وانا قژ نوى يارب اغفرلى إث تیری یار فلا ينقص من ملك شئ وإن عذبتنى يارب فيزيد في

وژلى نوبى

سلطاني شئ يارب تجد من تعب غيري وانا لا أجد من غيرك ياغفور يا رحيم يا ذا الجلال والإگرام ويا ارحم الراجي–ولي الله على خير خلقه محيو وألم وأصحابه أجمعين وسلم تسليما كثيرا

উচ্চারণ : বিসমিল্লা-হি বিইসমিহিল মুবতাদী রব্বিল আ-খিরাতি ওয়ালঊ-লা আল্লাযী লাগা-ইয়াতা লাহু ওয়ালা–মুন্তাহা–লাহু ফি সসামা-ওয়া-তিল উলা-। আররহমানু আলাল আরশি সূতাকওয়া। লাহু মা–ফি সসামা-ওয়াতি ওয়ামা ফিলআরুদ্বি ওয়ামা–বাইনাহুমা ওয়ামা–তাহতাচ্ছারা ওয়া ইন্ তাহার বিকৃাওলি ফাইন্নাহু ইয়ালামু সৃসিরা ওয়াফা-। আল্লা-হু লা–ইলা-হা ইল্লা–হুওয়া, লাহুল আসমাউল হুসনা, আল্লা-হুল আযীমু আযীমুল উ’যমা-য়ি দা-ইমুন না’মা-য়ি কা-হিরুল আদায়, আররাহমা-নুল আ-তুিফু আলা–খালকিহী। বিরিযুকিহী আলমারূফু বিলুফিহী আল আ-দ্বিলু ফী হুকমিহী, আল-আ-লিমু ফী মূলকিহী, রাহীমান বিখাক্বিহী রাহীমুর রুহামা-য়ি, আলীমুল উলামা-য়ি বাছীরু বুছোঁয়ারা-য়ি গাফুরু গুফারা-য়ি বা-য়ি’ছুল আম্বিয়া-য়ি ছোঁয়া-হিবুল আওলিয়া-য়ি সুবহানাহু কাদিরু–আলা–মাই ইয়াশা-উ কাদীরু। সুবহা-নাল মালিকি হামীদি যিল্-আরশি মাজীদি ফাঅ্যালু লিমা ইউরীদ। রব্বুল আরূবা-বি ওয়া মুছাব্বিবুল আহ্বা-বি ওয়া ছা-বিকুল আহ্বা-কি ওয়া রা-যিকুল আব্লু-কি ওয়া খা-লিকুল খালা-য়িকি ওয়া কা-দিরুল্ মাকদূরি ওয়া কা-হিরু মাক দূরি ওয়া আদিলু ফী ইয়াওমিল হাশরি ওয়ান্ নুশূরি ইলা-হা আ-লিহাত জামিউ’ নাসি ইয়াওমাল ওয়াকি’আতি রব্বনা গাফুরুন, রাহীমুন, হালীমুন শাকুরুন, আলআউয়ালুল কাদীমু খা-লিকুল আশি আযীমি ওয়া সামাওয়াতি ওয়াল্ আবৃদ্বীনা ওয়া হুওয়া সৃসামীউল আলীমু কা-বিলু ত্তাওবাতি শাকূরুন্ হালীমুন্ গাফুরুর রাহীমু ওয়াল্ হামদু লিল্লা-হি রব্বিল আরশিল আযীমি, হুওয়াল আউয়ালু ওয়াল আ-খিরু ওয়াযোয়োহিরু ওয়া বা-তিনু ওয়া দা-য়িমুর রিকি লিখালা-য়িকি ওয়ালবাহা-য়িমি ছোঁয়া-হিবুল আত্বোয়া–ইয়া–ওয়া দাফিউল বালা ইয়া–ওয়া মাহঁ ইয়াশফি সাকীমা ওয়া ইয়াগফিরুল খা-ত্বিঈনা ওয়া ইয়াবুউ না-দিমীন। ওয়া ইয়া’ফু যোয়া-লিমীনা ওয়া ইউহিব্দু ছোঁয়ালিহীনা ওয়া ইউজি মাগমূমীনা ওয়া ইউযিরুল মুন্যারীনা ওয়া ইয়াস্তুরু মুনিবীনা ওয়া ইউ’মিনুল খায়িফীন। সুবহা-নাকা সুবহা-নাকা সুবহা-নাকা লা–ইলা-হা ইল্লা আন্তা কারীমুল মা’বুদু কাসীরু আত্বোয়া–ওয়া গা-ফিরুল্ খাত্বোয়া-ইয়া–সা-তিরু উ’ইয়ুবি শাকূরুর রাহীমু আ-লিমু মা ফি ছছুদূরি মুন্‌বিত যযুরূয়ি ওয়াল্ আশূজারি ওয়া মুদাবিরুল্ লাইলি ওয়ান্ নাহা-রি ফালিকুল। হুযূবি খা-লিকুস সামাওয়াতি ওয়াল আবৃদ্বি গানিয়ু আনি খালা-য়িকি কা-সিমুল আর-কি আল্লা-মুল গুয়ূবি মুহিবুল হুমূমি আন্তাল্ লাযী সাজাদা লাকা সাওয়াউ লাইলি ওয়া নূরু নাহা-রি ওয়া দূউল কামারি ওয়া শুআ-উশ শাসি ওয়া দাওয়িউ মা-য়ি ওয়া খাফীকুশ  শাজারি। ইলাহী আন্তাল্ লাযী লাইসা কামিলিহী শাইউওঁ ওয়া হুওয়া আলা কুল্লি শাইয়িন কাদীর। ওয়া আন্তাল লাযী তালামু সিরা ওয়া ই’লানা ওয়ামা ফি কুলুব, ইলাহী আন্তাল লাযী তা’ফু আনি মা’আ-মী বা’দা আহঁ ইয়্যাকা ফি যযুনূবি; ইলাহী আন্তাল্ লাযী কুতা লা–তা মির রাহমাতিল্লা-হি ইন্না ল্লা-হা ইয়াগৃফিরু যুনূবা জামী’আন, ইন্নাহু হুওয়াল গাফুরুর রাহীম্। ওয়া আন্তা বিকৃাওলিকা ছোয়য়া-দিকুন নাস্তা বিমাকবিন নাজ্জিনী ইয়া আল্লা-হু মিনাল্ কাবৃবি আযী-ম ওয়াল গাম্মি ওয়া আন্তা গিয়াছু কুল্লি মারূবিওঁ ওয়া। মাসরূফিওঁ ওয়া মালুমিওঁ ওয়া আন্তা আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীরুন। ওয়াহফানী মাওলা-ইয়া মিন আফা-তিদ্ দুনইয়া–ওয়াল আ-খিরাতি ওয়ালা–তাফদ্বোয়াহনী ইয়া–সাইয়্যিদী আলা রুউছিল খালা-য়িকি খাছোঁয়াতান ফী ইয়াওমিল মাওউদি, আল্লা-হু আকবার আল্লাহু আকবার আল্লা-হু আকবারু কাবীরু লা-দ্বিদ্দা লাহু ওয়ালা–নিদ্দা লাহু ওয়ালা–জাওরা লাহু ওয়ালা শিবৃহা–লাহু ওয়ালা–হাদ্দা লাহু ওয়ালা–আদ্দা লাহু ওয়ালা–মিছলা লাহু ওয়ালা–কুফূরা লাহু ওয়ালা–নাযীরা লাহু ওয়ালা–যীরা লাহু ওয়ালা–শারীকা লাহু ফি মুলকি আসআলুকা ইয়া আযীযু ইয়া আযীযু ইয়া–আযীযু আন্ তু আযিরানী বিলই’যাতি ওয়াল আমাতি ওয়াল কিবরিয়া-য়ি ওয়াল হাইবাতি ওয়াল কুদরাত ওয়াল জাবারূত, ইয়া আল্লা-হু, ইয়া আল্লা-হু, ইয়া আল্লা-হু, ইয়া রাহমানু ইয়া–রাহমা-নু, ইয়া রাহমানু ইয়া–রাহীমু, ইয়া রাহীমু, ইয়া রাহীমু, আন তুরিয়ান্নী ফী মানা-মী লিক্বা-আ নাবিয়্যিকা ওয়ামা–রাজাওতু মিঙ্কা ওয়া আরিনী বিমাগফিরাতিকা খাত্বিয়াতী ইন্নাকা আলা কুল্লি শাইয়্যিন কাদীর। ওয়ালা–হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লা-হি আলিয়্যিল আযীম। আল্লা-হুম্মা ইয়া–হান্না-নু ইয়া–মান্নানু ইয়া যালজালালি ওয়াল ইকরাম, আশহাদু আন্না কুল্লা মাবুদিন্ মিন্ দূনি আরশিকা ইলা–মুন্তাহা কারারিল আরদ্বীনা বা-তিলুম মা–খালা–ওয়াজহিকাল কারীম। আমাণু বিআললা–ইলা-হা ইল্লা আন্তা রাদ্বীতু রব্বানা–ইয়া–গিয়া-সাল মুস্তাগীসীনা আগিসনী মিনা না-রি ওয়া নাজ্জিনী মিন্ সাখাতিকা ওয়া আজিনী মিন আযা-বিকা ওয়া ফারিজ আন্নী শারা কুল্লি খাক্কিা ওয়ারযুকুনী রিকান ওয়া-সিআিম মুবা-রাকান হালা-লা ত্বোয়াইয়্যিবান্ লা–ইলা-হা ইল্লা আন্তা ইয়া–যাজালালি ওয়াল ইকরাম। আল্লা-হুম্মাফিনী বিহালা-লিকা আন হারা-মিকা ওয়া বিত্বোয়া-’আতিকা আম মাছিয়াতিক ওয়া আগুনিনী বিফালিকা আম্মান সিওয়া-কা। ইলাহী খালাক্বতানী ওয়া লাম আকু শাইআন যলামতু নাফ্সী ওয়ারতাকাবৃতু মা আছি ওয়া আন–মুকিররুম্ বিযুনূবী ইয়া রব্বি গৃফির লী ইন গাফারতানী ইয়া–রাবৃবি ফালা–ইয়াকুসু মিম্ মুলকিকা শাইউন ওয়া ইন আযাবতানী ইয়া–রব্বি ফালা–ইয়াযীদু ফী সুলত্বোয়া-নিকা শাইউন ইয়া–রব্বি তাজিদু মান তুআযিবুহু গায়রী ওয়া আনা লা–আজিদু মাই ইয়াগফিরু লী যুনুবী গাইরুকা ইয়া গাফুরু ইয়া–রাহীমু ইয়া–যাজালালি ওয়াল ইকরা-মি ওয়া ইয়া–আরহামার রা-হিমীন। ওয়া ছল্লাল্লাহু তা’আলা আলা–খাইরি খালকিহী মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আ-লিহী ওয়া আছ্হা-বিহী আজমাঈন। ওয়া সাল্লামা তাসলীমান কাছীরান কাছীরা-। বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রা-হিমীন।

.

দোয়ায়ে হিযবুল বাহুর

بسم الله الرحمين الرحيم يا الله ياعلي يا عظيم يا حليم يا عليم أنت ربي وعلمك د بي فيهم الرثى ويعم الخشب خشبي تثر من تشاء وانت العزيز الرجيم. تشتك الوصمة في الحركات والسكنات والكلمات والإرادات

ط)۹

والطرات من التقني والشؤل والأوهام الشارة القلوب عن طبيعة الغيوب فقد ابتلى المؤمنون وزلزلوا زلزالا شديدا (1) Ice

شديدا) وإذ يقول المفقون والذين في قلوبهم مر ما وعدنا الله ورسوله ولا غرورا–قثثنا واثثنا و ركنا هذا البحر كما سخرت البحر

موسى عليه السلام وتحرير الار إبراهيم عليه والسلام و رت الجبال والحرير لداود عليه السلام وسخرت الريح والشيطني و الج شليم عليه السلام وتر تاكل بحر هول في الأرض والسماء والملك والملوي وتر الكثيا وبحر الأبيرة و ركنا ل شئ یا مث بيده مگوت كل شي گهيعص كهيعص كهيعص

(এখানে কাফ হা ইয়া আঈন সোয়াদ তিন বার আছে। প্রথম বার পড়ার সময় কাফ বলে ডান হাতের কনিষ্ঠাঙ্গুল বন্ধ করবে। এভাবে একেকটি অক্ষর বলবে আর আঙ্গুল বন্ধ করবে। পাঁচ অক্ষরে পাঁচ আঙ্গুল বন্ধ করা হবে। দ্বিতীয় বার পড়ার সময় প্রথম বারে যে আঙ্গুল থেকে বন্ধ করা হয়েছিল সে আঙ্গুল থেকে খুলতে থাকবে। তৃতীয় বার পড়ার সময় আবার প্রথম বারের মত বন্ধ করবে এবং পরবর্তী পাঁচটি বাক্যের একেকটি বাক্য বলবে এবং একটি আঙ্গুল

(ا )2 انصرنا فإن خير النايرين–وافتح لنا فإنك خير الفاتحين–واغمق لنا فإنك خير الفافرين–واژحمنا فاك خير الراحمينوارزقنا فالله خير الرازقين–واحفظنا فائك خير الحافظين–واهدنا ونبينا من القوم الظمين. وهب لنا من دث ريحا طيبة كما هي في عليك وانژها لتا مث این متك وحملت بها حول الكرامة ومع الشمة والعافية في الين الدنيا والآخرة–إنك على كل شي قدير. الله

شرلنا أمورنا مع الراحة لقلوينا وابدانيتا والشمة والعافية في بيننا

وثيانا وكن لنا ماحبنا فى فيرنا وخليقة في أهلينا واطمش

 واطمس) : على وجوه أعدائنا وامهم على مكانتهم فيستطيعون المی ولا المجى إلينا ولو نشاء لطمشا على أنهم قاشتبقوا التمر أط

۹۴۹

قای برون–ولو نشاء لملهم على مكانتهم ما استطاعوا

م يا ولا يرجعون–يس–والقران الحكيم–إنك لمن المرسلين على صراط مستقيم–تنزيل العزيز الرحيم لتثيرر قوما ما أثر أباؤهم فهم غولون–لقد ق القول على أكثرهم فهم يؤمنون–إنا جعلنا في أعناقهم اغلقهى إلى الأذقان فهم مقمون–وجعلنا من بين ايديهم مما ومن خلفهم سدا فأغشينهم فهم لايبصرون–شاهت الوجوه–شاهت الوجوه–شاهت الوجوه

(এ বাক্যটি পড়তে প্রত্যেক বার বাম হাতের উল্টা পিঠে নীচে আঘাত করবে।)

وعن الوجوه الحى القيوم وقدخاب من حمل ظلما ط طسم حمعسق مرج البحريني يلتقيان بينهما برز لأيبغين حم حم حم ختم ܟܿܬܵܐ ܟܵܪܟܿܪ

(এখানে–সাত বার আছে। প্রথম বার পড়ার সময় ডান দিকে, দ্বিতীয় বারে বাম দিকে, তৃতীয় বারে সামনের দিকে, চতুর্থ বারে পিছনের দিকে, পঞ্চম বারে উপরের দিকে, ষষ্ঠ বারে নীচের দিকে ফুঁক দিবে এবং সপ্তম বারে উভয় হাতের তালুতে ফুঁক দিয়ে সারা শরীর মুছবে।)

,

بل

الأمر وجاء الثمر علينا يثمرون خم تنزيل الكتب من الله العزيز العليم اورال ثب وقابل الثوب شديد العقاب زى الطول لا اله الأهو إليه المير–بسم الله بابنا تبارك چيطانا يس سقنا كهيعص كفايتنا

کھیعص

বন্ধ করতে শুরু করবে। পাঁচ অক্ষরে পাঁচটি আঙ্গুল বন্ধ করা হবে। এরপর আঙ্গুল বন্ধ অবস্থায়ই

مشق حمايتنا ف ي هم الله وهو السميع العليم ستر العرش مشبول علينا وعين الله ناظرة إلينا بحول الله يقدر علينا

تنثر الغزش مشتول علينا وعين الله ناظره إلينا بحول الله يقور علينا سر الفرش مشبول علينا وعيت الله ناظر إلينا بحول الله يقور علينا ستر العرش مشبول علينا وعين الله ناظر إليتا بحول الله

يقر علينا. ستر العرش مشبول علينا وعي اللوناظره إلا بحول الله يقر علينا. ستر العرش مشبول علينا وعين الله ناظر إلينا بحول الله يقير علينات العرش مم ول علينا وعين الله ناظرة الينا بحول الله يقو علينا–والله من ورائهم محيط بل هو قژان مچي في لوح مقوا فالله خير حافظا وهو أرحم الراحمين الله

حافظا وهو أرحم الراحمين الله خير حافظا وهو أرحم الراجيين إن ولي الله الزى نزل الكتب وهو يتولى الشيرين–إن ولی الله الذي نژل الكتب وهو يتولى الشيحين ان ولي الله اليري نژل الكتب

هو يتولى الشيجين۔

حسبي الله لا إله إلا هو عليه توكلت وهو رب العرش العظيم . شبی الله إله إلا هو عليو تولت وهو رب العرش العظيم–حسبي الله اله الا هو مملو توكلت وهو رب العرش العظيم. حسبي الله لا اله الا هو عليه توكلت وهو رب العرش العظيم. حسبى الله والله إلا هو عليو تولت وهو رب العرش العظيم. حسبي الله لا اله الا هو عليه توكلت وهو رب العرش العظيم. حسبى الله إله إلا هو عليه توكلت وهو رب العرش العظيم.

بشم الله اليري مع اسمه شئ في الأرض ولا في السماء وهو الشي العليم–بسم الله الذي يضر مع اسمه شئ في الأرض ولا في الشماء وهو السميع العليم–بسم الله الى يوم اشمة ش في الأرض ولا في السماء وهو السميع العليم. ولاحول ولا قوة الا بالله العلى العظيم–حول و قوه الا بالله العلي العظيم–حلوة

إلا بالله

و 14 ام و

العلي العظيم وصلى الله تعالى على خير خلقه محمد واله وأصحابه اجمعین پرځمتك يا أرحم الراحمین۔

উচ্চারণ : ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–আলিয়ু, ইয়া–আযীমু, ইয়া–হালীমু, ইয়া–আলীমু, আন্তা রব্বী ওয়া ই’লমুকা হাবী, ফানি’মা রব্লু রব্বী ওয়া নি’মাল্ হাসবু হাবী তাছুরু মান্ তাশা-উ ওয়া আতা আযীযুর রাহীম। নাস্আলুকা ইছমাতা ফি হারাকা-তি ওয়াস্সাকানা-তি ওয়াল্ কালিমাতি ওয়াল্ ইরা-দা-তি ওয়াল খাত্বোয়ারা-তি, মিনা যযুনূনি ওয়াশ শাকি ওয়াল্ আওহা-মিস্ সা-তিরাতি লিকুলুবি আন্ মুত্বোয়া-লআতিল গুইয়ুব; ফাক্বাদি বৃতুলিয়া মু’মিনূনা ওয়া যুযি যিলযালান শাদীদান-। (1ws বলে ডান হাতের শাহাদাত আঙ্গুল দ্বারা উপরের দিকে ইশারা করবে।) ওয়া ই ইয়াকুলুল মুনাফিকুনা ওয়াল্লাযীনা ফী কুলুবিহি মারাঘু মমা ওয়া’দানা ল্লা-হু ওয়া রাসূলুহু ইল্লা–গুরুরা-। ফাছাক্ববিনা–ওয়াছুরনা ওয়া সাখুঁখির লানা–হা-যা বাহা কামা–সাখখারতাল বাহরা লিমূসা আলাইহিস সালাম। ওয়া সাখখারতা নুনা-রা লিইব্রাহীমা আলাইহিস সালাম। ওয়া সাখখারল জিবা-লা ওয়াল হাদীদা লিদা-ঊদা আলাইহিস্ সালা-ম–ওয়া সাখখারাতির রীহা–ওয়াশশা-ইয়াত্বীনা ওয়াল জ্বিন্না লিসুলাইমা-না আলাইহিস সালাম। ওয়া সাখখির লানা–কুল্লা বাহরিন হুওয়া লাকা ফিল আবৃদ্ধি ওয়াসসামা-য়ি ওয়াল মুলকি ওয়াল্ মালাক্বতি ওয়া বাহারা দুন্‌ইয়া–ওয়া বারা আ-খিরাতি ওয়া সাখখারা লানা–কুল্লা শাইয়িন ইয়া–মাম বিইয়াদিহী মালাকুতু কুল্লি শাইয়িন। কা-হা-ইয়া-আঈন-সোয়া-দ, কা-ফহা-ইয়া-আঈন-সোয়া-দ, কা-ফহা-ইয়া-আঈন-সোয়াদ। উনসুরনা–ফাইন্নাকা খাইরুন না-ছিরীন–ওয়াফতাহ লানা–ফাইন্নাকা খাইরুল ফা-তিহীন ওয়াগফির লানা–ফাইন্নাকা খাইরুল গা-ফিরীন। ওয়ারহামনা–ফাইন্নাকা খাইরুর রাহিমীন। ওয়ারযু–ফাইন্নাকা খাইরুর রা-যিকীন। ওয়াহফানা–ফাইন্নাকা খাইরুল্ হা-ফিযীন। ওয়াহদিনা–ওয়া নাজ্জিনা–মিনাল কাওমি যুবোয়া-লিমীন। ওয়া হাব লানা–মিল্লাদুনকা রীহান। ত্বায়্যিবাতান কামা–হিয়া ফী ই’মিকা ওয়াশুহা–আলাইনা–মিন্ খাযা-যিনি রাহমাতিকা ওয়াহমিনা–বিহা–হুন্মিলাল কারা-মাতি ওয়া মা’আ সসালা-মাতি ওয়াল আ-ফিয়াতি ফি দ্দীনি ওয়া দুনইয়া ওয়াল আ-খিরাহ, ইন্নাকা আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর। আল্লা-হুম্মা ইয়াসির লানা–উমূরানা–মা’আ রুরা-হাতি লিকুলুবিনা–ওয়া আবদা-নিনা–ওয়াসসালা-মাতি ওয়াল আ-ফিয়াতি ফী দীনিনা–ওয়া দুনইয়া-না–ওয়া কুন লানা–ছোঁয়া-হিবিনা–ফী সাফারিনা–ওয়া খালীফাতি ফী আহলিনা–ওয়ামিস আলা–উজুহি আ’দা-য়িনা–ওয়ামসাখহুম আলা মাকা-নাতিহিম ফালা–ইয়াস্তাতীউ’না মাদ্বিয়্যি ওয়াল মাজিয়্যি ইলাইনা–ওয়ালাও নাশা-উ লাত্বোয়ামাস্না আলা–আ’ইউনিহিম ফাতাবাকু ছছিরাত্বোয়া ফাআন্না–ইউছিরুন। ওয়া লাও নাশা-উ লামাসাখুনা-হুম আলা–মাকা-নাতিহিম ফামাস্তাত্বোয়া-উ’ মুদিয়াওঁ ওয়ালা ইয়াজিউন। ইয়া-সীন। ওয়াল কোরআ-নিল্ হাকীম। ইন্নাকা লামিনাল মুরসালীন। আলা ছিরা-তিম মুস্তাকীম। তাযীলাল আযীযির রাহীম। লিতুনযিরা কাওমাম্ মা–উযিরা আ-বা-উঁহুম্ ফাহুম্ গাফিলুন। লাক্কাদ হাক্কান্ কাওলু আলা–আরিহিম ফাহুম্ লা ইউমিনূন্। ইন্না–জাআলনা–ফী আনা-ক্বিহিম আগলা-লা ফাহিয়া ইলাল্ আক্কা-নি ফাহুম মুকুমায়ূন। ওয়া জাআলনা–মিম্ বাঈনি আইদীহিম ছাওঁ ওয়া মিন্ খালফিহিম সাদ্দা ফাআগৃশাইনা-হুম ফাহুম্ লা–ইউছিরূন। শাহা-তিল্ উজুহু (এ বাক্যটি তিন বার পড়তে হবে।) ওয়া আনাতি উজুহু লিহাইয়্যিল কাইয়ুমি ওয়া কান্ খা-বা মা হামালা যুলমা-। তত্বায়া-সীন, তোয়া–সীম মীম হা-মী-মা-’আইন-সীন কা-ফ মারাজাল বাহরাইনি ২য়াতাকিয়া-নি বাইনাহুমা–বারযাখু লা–ইয়াবৃগিয়া-ন। হা-মীম হা-মীম হা-মীম হা-মীম হা-মীম হা-মীম হা-মীম হুম্মাল আমরু ওয়া জা-আন নাসরু ফা-আলাইনা–লা–ইউনছোঁয়ারূন। হা-মীম–তানযীলুল কিতা-বি মিনা ব্লা-হিল আযীযিল আলীমি গা-ফিরি যাবি ওয়া ব্যাবিলি তাওবি শাদীদি ইক্কা-বি যিব্ত্বওলি লা–ইলা-হা ইল্লা–হুওয়া ইলাইহি মাছীর। বিসমিল্লাহ্ বা-বুনা–তাবারাকা হীত্বো-নুনা ইয়া-সীন সাক্ফুনা–কা–হা–ইয়া আইন–সোয়া-দ কাফাইয়াতুনা-, হা-মীম-আইন-সীন-ক্বা-ফ হামাইয়াতুনা-, ফাসাইয়াকা-ফীকাহুমুল্লা-হ ওয়া হুওয়াস্ সামীউল আলীম। সিরু আরশি মাসবুলু আলাইনা–ওয়া আইনুল্লা-হি না-যিরাতুন্ ইলাইনা–বিহাওলিল্লা-হি লা–ইয়াক্বদিরু আলাইনা–(এ বাক্যটি সাত বার পড়তে হবে।) ওয়াল্লা-হু মিওঁ ওয়ারা–য়িহিম মুহীতুন বাল হুওয়া কোরআ-নুম মাজীদুন ফী লাওহিম মাহফু। ফাল্লা-হু খাইরুন হা-ফিযোয়াওঁ ওয়া হুওয়া আহামুর রাহিমীন (এ বাক্যটি তিন বার পড়তে হবে)। ইন্না ওয়ালিয়্যিইয়া ব্লা-হু ল্লাযী নালাল কিতাবু ওয়া হুওয়া ইয়াতাকওয়াল্লা ছুছোঁয়ালিহীন (এ বাক্যটি তিন বার পড়তে হবে)। হাসবিয়াল্লা-হু লা–ইলা-হা ইল্লা–হুওয়া আলাইহি তাকওয়াক্কালতু ওয়া হুওয়া রাব্বুল আরশি আযীম (এ বাক্যটি সাত বার পড়তে হবে)। বিসমিল্লা-হিল্লাযী লা–ইয়াদুররু মা’আ ইমিহী শাইউন ফিল আরদ্বি ওয়া মা–ফি সামা-য়ি ওয়া হুওয়া সসামীউ’ আলীম (এ বাক্যটি তিন বার পড়তে হবে)। ওয়া লা-হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লা-হিল আলিয়্যিল আযীম (এ বাক্যটি তিনবার পড়তে হবে)। ওয়া ছল্লাল্লাহু তা’আ-লা–আলা–খাইরি খালকিহী মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আ-লিহী ওয়া আছহা-বিহী আজমাঈন। বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রা-হিমীন।

অর্থ : হে আল্লাহ, হে সর্বোচ্চ, হে মহান, হে ধৈর্যশীল, হে সর্বজ্ঞ, তুমিই আমার প্রতিপালক, তোমার জ্ঞানই আমার পক্ষে যথেষ্ট। আমার প্রতিপালকই অতি উত্তম প্রতিপালক, তিনিই আমার পক্ষে অতি উত্তমরূপে যথেষ্ট। হে আল্লাহ্! তুমি যাকে ইচ্ছা সাহায্য করে থাক। আর তুমিই সর্বশক্তিমান দয়ালু। আমি তোমার নিকট প্রার্থনা করছি, আমার রক্ষণাবেক্ষণ কর। চলাফেরায়, উঠা-বসায় কথা বার্তায় ইচ্ছাসমূহে এমনকি অন্তরে যত প্রকার কামনা বাসনা, সন্দেহ ইত্যাদি আসে, যার জন্য অন্তঃকরণ অদৃশ্য ভাণ্ডার হতে অমনোযোগী হয়ে যায়, সর্বাবস্থায় তুমি আমার রক্ষণাবেক্ষণ করো। অতএব, ঈমানদারগণ ভীষণ পরীক্ষার সম্মুখীন এবং তাদেরকে প্রবল আতংকে নিক্ষেপ করা হয়েছিল আর মোনাফেকরা–যাদের অন্তরে ব্যাধি রয়েছে, তারা বলছিল, আল্লাহ ও তার রাসূল তো আমাদের সাথে শুধু প্রবঞ্চনামূলক ওয়াদাই করে রেখেছিল। হে আল্লাহ্! আমাদের মনোবল সুদৃঢ় করে দাও, আমাদেরকে সাহায্য কর এবং এই সমুদ্রকে আমাদের অনুগত করে দাও, যেমন তোমার মহা শক্তিতে লোহিত সাগরকে মুসা (আঃ)-এর জন্য বশীভূত করেছিলে, আগুনকে ইবরাহীম (আঃ)-এর বশীভূত করেছিলে, আর পর্বত ও লোহাকে দাউদ আলাইহি সালামের অনুগত করেছিলে এবং বাতাস, দৈত্য-দানব জ্বিন-পরীকে সুলাইমান (আঃ)-এর অনুগত করেছিলে। এছাড়া তোমার সকল সমুদ্রকেই আমাদের বশীভূত করে দাও, দুনিয়ায় ও আসমানে আছে, যা বিশ্বজগতে আছে। আর আমাদের বশীভূত করে দাও দুনিয়া ও আখেরাতের সমুদ্রকে। সর্ববস্তুকেই আমাদের বশীভূত করে দাও হে ঐ সত্তা! যার মালিকানা রয়েছে সর্ববস্তুর উপর। কাফ হা ইয়া আইন সোয়াদ।

হে আল্লাহ! তোমার হাতেই রয়েছে সর্ববস্তুর একমাত্র মালিকানা। সব বস্তুকেই আমাদের যাবতীয় কাজে অনুগত করে দাও। হে আল্লাহ! আমাদেরকে সাহায্য কর, তুমিই তো সর্বোত্তম সাহায্যকারী। আমাদেরকে জয়ী কর, তুমিই সর্বোত্তম বিজয়দাতা। হে আল্লাহ! আমাদেরকে ক্ষমা কর! তুমিই সর্বোত্তম ক্ষমাকারী। হে আল্লাহ! আমাদেরকে দয়া কর। তুমি সর্বোত্তম দয়াময়। হে আল্লাহ! আমাদেরকে রিযিক দান কর। তুমি সর্বোত্তম রিযিকদাতা। আমাদেরকে হেফাজত কর, তুমিই সর্বোত্তম হেফাজতকারী। আমাদেরকে হেদায়েত দান কর এবং অত্যাচারী লোকদের থেকে বাঁচিয়ে রাখ আর তোমার অনুগ্রহ দ্বারা আমাদেরকে উত্তম বাতাস দান কর, যা তোমার এলেমে উত্তম বলে বিবেচিত। তোমার রহমতের ভাণ্ডার হতে ঐ বাতাসসমূহ প্রবাহিত কর এবং তা দ্বারা আমাদেরকে পরিচালিত কর সম্মানের সাথে। দ্বীন ধর্ম ও ইহকালের সুখ-শান্তি দ্বারা সমৃদ্ধি দান কর। নিশ্চয়ই তুমি সর্বশক্তিমান। হে আল্লাহ্! আমাদের সমুদয় কাজ সহজ করে দাও আমাদের দেহ মন এবং দ্বীন দুনিয়ার প্রশান্তির সাথে। হে আল্লাহ্! তুমি আমাদের সাথী হয়ে থেকো সফরকালে এবং আমাদের পরিবারবর্গের কার্যনির্বাহী হয়ে থেকো এবং আমাদের শত্রুদের চেহারা বিগড়ে দাও। তারা যেন আমাদের কোন ক্ষতি সাধন করতে না পারে এবং আমি যদি ইচ্ছা করতাম তবে তাদের ঘরেই তাদের আক্বতি বদলে দিতাম, তখন তারা না সামনের দিকে অগ্রসর হতে পারত আর না ফিরে যেতে পারত। জ্ঞানপূর্ণ কোরআনের কসম। নিশ্চয়ই আপনি রাসূলগণের অন্যতম। আপনি হুযুর (সাঃ)] সরল-সোজা পথের উপর রয়েছেন। মহাপরাক্রান্ত দয়াময় (কোরআন) নাযিল করেছেন যেন আপনি সেই সম্প্রদায়কে ভয় দেখান। যাদের বাপদাদাকে ভয় দেখানো হয়নি, প্রকৃতপক্ষে তারা গাফেল বে-খবর ছিল। নিশ্চয়ই তাদের অধিকাংশের উপর তাকদীরের বিধান সত্যে পরিণত হয়েছে, তারা ঈমান আনবে না। আমি তাদের গলায় জিঞ্জির বেঁধে দিয়েছি, পরে তা তাদের থুতনি পর্যন্ত বিলম্বিত হয়েছে, অতঃপর তারা শির উত্তোলন করে রয়েছে এবং আমি তাদের সম্মুখে একটি প্রাচীর ও পশ্চাতে একটি প্রাচীর দিয়েছি, পরে আমি তাদেরকে ঢেকে দিয়েছি যেন তারা দেখতে না পায়। মুখমণ্ডল পরিবর্তন হয়ে যাক, মুখমণ্ডল পরিবর্তন হয়ে যাক, মুখমণ্ডল পরিবর্তন হয়ে যাক। যেমন কেয়ামত সম্বন্ধে আছে–এবং ঝুঁকে যাবে মুখমণ্ডলসমূহ চিরঞ্জীব চিরবিদ্যমান সত্তার সম্মুখে আর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঐ ব্যক্তি যে গোনাহের বোঝা বহন করেছে। তোয়া সীন। তোয়া সীম মীম। দুইটি নদী একত্র করে দেয়া হয়েছে, উভয়টি মিলিতভাবে প্রবাহিত হচ্ছে। যাদের মাঝে প্রতিবন্ধকতা রয়েছে, যাতে সেগুলো নিজের নির্দিষ্ট সীমানা অতিক্রম করতে না পারে। হামীম। (হামীম শব্দটি সাতবার পড়তে হবে। কাজ হয়ে গেছে এবং সাহায্য এসে গেছে, সুতরাং সে আমাদের উপর বিজয়ী হতে পারে না। এই কিতাব বিজয়ী ও বিজ্ঞ আল্লাহর নিকট হতে অবতীর্ণ হয়েছে, যিনি গোনাহ ক্ষমাকারী এবং তওবা কবুলকারী, কঠিন শাস্তিদাতা, সর্বশক্তিমান, তিনি ছাড়া কোন মাবুদ নেই; তাঁর নিকটই প্রত্যাবর্তন করতে হবে। বিসমিল্লাহ আমাদের দরজা, তাবারাকাল্লাযী আমাদের চার দেয়াল, ইয়াসীন’ আমাদের ছাদ। অতএব, আল্লাহ্ তাদের বিরুদ্ধে তোমার জন্য যথেষ্ট হয়ে যাবেন। তিনি সর্ববিষয়ে শ্রবণকারী ও জ্ঞাত। আরশের পর্দা আমাদের উপর ঝুলানো আছে এবং আল্লাহর দৃষ্টি আমাদের প্রতি নিবিষ্ট আছে। আল্লাহর সাহায্যে কেউই আমাদেরকে পরাস্ত করতে পারে না। আল্লাহ তাদেরকে চারদিক হতে বেষ্টন করে রেখেছেন। বরং এ কিতাব (কোরআন) লাওহে মাহফুজে সংরক্ষিত আছে। অতএব, আল্লাহই আমাদের উত্তম রক্ষক, তিনি সবচাইতে উত্তম দয়ালু। (এ বাক্যটি মূল আরীতে তিন বার আছে। তিন বারই পড়বে। অর্থ একবার লেখা হয়েছে।) নিশ্চয়ই আল্লাহ আমার অভিভাবক সংরক্ষক একমাত্র আল্লাহ, যিনি কিতাব (কোরআন) অবতীর্ণ করেছেন, তিনি সৎলোকদের অভিভাবক সংরক্ষক (এ বাক্যটি আরবীতে তিন বার আছে। তিন বারই পড়তে হবে। অর্থ একবার লেখা হয়েছে। আল্লাহই আমার জন্য যথেষ্ট, তিনি ছাড়া অন্য কোন মাবুদ নেই, আমি তাঁর উপরই ভরসা করছি। তিনি মহা সম্মানিত আরশের মালিক। (এ বাক্যটি আরবীতে সাত বার আছে। সাত বারই পড়তে হবে। অর্থ একবার লেখা হয়েছে।) সে আল্লাহর নামে শুরু করছি, যাঁর নামের সাথে কোন বস্তুই ক্ষতি করতে পারে না। না যমীনে না আসমানে (৩ বার)।

কোন শক্তি ক্ষমতা নাই মহান আল্লাহর প্রদত্ত শক্তি ক্ষমতা ব্যতীত, যিনি সর্বোচ্চ মহান (৩ বার)। আল্লাহ রহমত অবতরণ করুন সর্বশ্রেষ্ঠ সৃষ্টি, আমাদের সরদার হযরত মুহাম্মদ (সঃ)-এর উপর, তাঁর পরিবার পরিজন ও সঙ্গী সাথীগণের উপর। তোনারই করুণায় হে করুণাময় সত্তা।

.

দোআয়ে জামীলা

لا اله الا را

بشم الله الرحمن الرحيم ياجميل يا الله . یا قريت يا الله يا چي يا الله يار و يا الله يا معروف يا الله يالله يا الله–ياحنان يا الله يا منان يالله–يامجيب يا الله يا عظيم يا الله يا ديان ياالله یا بوها يا الله ياشبك يا الله يالطين يا الله یا مشتقان يا الله يامحسن يا الله يا معالي يا الله يارحمن ياالله يارحيم يا الله يا گريم يا الله يا علي يا الله–يا حليم يا الله–يا جليل يا الله يا مجيد يا الله يا يفتح الأبواب يا الله یا فرد يا الله يا و يا الله يا أحد يا الله یا صمد يا الله–يا محمود يا الله يا صادق يا الله يا نه يا الله يا شافه يا الله یا گاف یا الله یا وافي يا الله

۔ یا معافى يا الله يا باقي يا الله يا أخر يا الله يا ظاهريا الله يا باط يا الله يا مهيم يا الله–يا عيني يا الله–ياسلام يا الله–ياجبار يا الله ياخالق يا الله–يامصور يا الله ياباريا الله يا قوم يا الله ياحى يا الله–يا قاي يا الله. یا موژ يا الله يام يا الله ياقوي يا الله ياشهيد يا الله–یا معطى يا الله يا مان يا الله ياحافظ يا الله يا دافع يا الله يا وكيل يا الله ياگوئل يا الله يا ذا الجدل والإكرام يا الله يا مجيب الدعوات يا الله–يامنزل البركات يا الله ياگای اهمات يا الله ياواف الحسنات يا الله–ياسر الشادات يا الله يا محي الشي يا الله يا رافع الدرجات يا الله يا وهاب يا الله یا تواب يا الله يامي يا الله–ياحكيم يا الله–ياتي يا الله ياغفور يا الله يا قار يا الله–يامبيي يا الله يايد يا الله ياخيي يا الله يا ب ي يا الله–يارفي يا الله–يامتكبرا

الله يا سميع يا الله يا أقل يا الله–ياهايی يا الله–يا قايم يا الله يا ستار يا الله ياساتر يا الله يا فتاح يا الله يا رب الشموت واژین یا الله–يا ذا الجلال والإكرام يا الله برحمتك يا أرحم الرحمين. اللهم إلى اشك بحق هذه الاشاء ها ان

تى على محمد وعلى آل محو كما صليت وسلمت وباركت وتركت على إبراهيم وعلى آل إبراهيم إنك حميد مجيد وصلى الله على سيدنا وحبيبنا وشفيعنا محقر وازواجه واریته أجمعين برحمتك يا ارحم الرحمین۔

উচ্চারণ : বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম। ইয়া–জামীলু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া কারীবু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–আজীবু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–রাউফু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–মারূফু ইয়া আল্লা-হু, ইয়া–লাত্বীফু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–হান্না-নু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–মান্নানু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–মুজীবু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–আযীমু, ইয়া আল্লাহ, ইয়া–দাইয়্যানুইয়া আল্লা-হ, ইয়া–বুরহানু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–সুবহা-নু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–সুলত্বোয়ানু ইয়া আল্লা-হু, ইয়া-মুস্তাআ-নু ইয়া আল্লাহ-হ্, ইয়া–মুহসিনু, ইয়া আল্লাহ, ইয়া-মুতাআলী ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–রাহমানু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–রাহীমু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–কারীমু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–আলীমু ইয়া–আল্লা-হ্, ইয়া–হালীমু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–জালীলু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–মাজীদু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–মিফাহিল আবওয়া-বি ইয়া আল্লাহ, ইয়া–ফারদু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–বি ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–আহাদু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–সামাদু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–মাহমূদু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–ছোঁয়াদিকু ইয়া–আল্লা-হ্, ইয়া গানিয়ু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–শাফী ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–কাফী ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–ওয়াফী ইয়া আল্লাহ, ইয়া–মু’আফী ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–বাকী ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–আ-খিরু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া যাহিরু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–বা-তুিনু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–মুহাইমিনু ইয়া আল্লাহ, ইয়া আযীযু ইয়া আল্লাহ্, ইয়া–সালামু ইয়া আল্লাহ্, ইয়া–জাব্বারু ইয়া–আল্লা-হ্, ইয়া–খা-লিকু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–মুসাব্বিরু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–বারিউ ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–কাইয়ুমু ইয়া আল্লা-হু, ইয়া–হাইয়ু ইয়া আল্লাহ্, ইয়া–কাবিদু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া-মুইযযু ইয়া আল্লাহ্, ইয়া–মুযিলু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–কাবিয়ু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–শাহীদু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া মুত্বী ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–মানি’উ ইয়া আল্লাহ, ইয়া–হাফেযু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া দাফিউ ইয়া আল্লা-হু, ইয়া–ওয়াকীলু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–কাফীলু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–যালজালালি ওয়াল ইকরা-মি ইয়া আল্লাহ, ইয়া–মুজীবাদ দাওয়াতি ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া মুনযিলাল বারাকা-তি ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–কাফিয়া মুহিম্মাতি ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–ওয়াফিয়াল হাসানাতি ইয়া আল্লা-হু, ইয়া–সাইয়্যিদাস্ সাদাতি ইয়া আল্লা-হু, ইয়া–মুহইস্ সাইয়্যিআতি ইয়া আল্লাহ, ইয়া–রাফি’আদ দারাজাতি ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–ওয়াহ্হাবু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–তাউওয়া-বু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া মাতীনু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া হাকীমু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–মুক্তাদিরু ইয়া আল্লা-হ, ইয়া–গাফুরু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–গাফফা-রু, ইয়া আল্লাহ, ইয়া–মুবদিউ ইয়া আল্লা-হ্, ইয়া–মুঈ’দু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–খাবীরু ইয়া আল্লাহ্, ইয়া–বাছীরু ইয়া আল্লাহ, ইয়া–রাফীউ ইয়া আল্লাহ, ইয়া-মুতাকাব্বিরু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–সামীউ ইয়া আল্লাহ, ইয়া–আউওয়ালু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া হাদী ইয়া আল্লাহ, ইয়া–কায়িমু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া সাত্তারু ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া–সাতিরু ইয়া আল্লাহ, ইয়া ফাত্তাহু ইয়া–আল্লা-হু, ইয়া–রাব্বি সৃসামাওয়াতি ওয়াল আরদ্বি ইয়া–আল্লা-হ, ইয়া যাজালালি ওয়াল্ ইকরা-মি ইয়া আল্লা-হ, বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামার রা-হিমীন। আল্লা-হুম্মা ইন্নী আসআলুকা বিহা-কি হা-যিহিল আসমা-ই কুল্লিহা–আন তুছোঁয়াল্লিয়া আলা–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লি মুহাম্মাদিন কামা–ছল্লাইতা ওয়া সাল্লাম ওয়া বারাকতা ওয়া তারহামতা আলা–ইবরাহীমা ওয়া আলা আ-লি ইব্রাহীমা ইন্নাকা হামীদুম মাজীদ। ওয়া ছল্লাল্লাহু আলা–সাইয়্যিদিনা ওয়া হাবীবিনা–ওয়া শাফীই’না–মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আযওয়া-জিহী আজমাঈনা বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমীন।

অর্থ : হে সুন্দর শোভাময় হে আল্লাহ্! হে নিকটবর্তী হে আল্লাহ! হে আশ্চর্য হে আল্লাহ! হে দয়াবান হে আল্লাহ! হে পরিচিত হে আল্লাহ্! হে সূক্ষ্ম হে আল্লাহ! হে রহমতদানকারী হে আল্লাহ্! হে ইনসাফকারী দাতা হে আল্লাহ্! হে কবুলকারী হে আল্লাহ্! হে মহান হে আল্লাহ্! হে মহা সুবিচারক হে আল্লাহ্! হে প্রমাণিত হে আল্লাহ্! হে পবিত্র হে আল্লাহ্! হে রাজাধিরাজ হে আল্লাহ্! হে সাহায্যের মালিক হে আল্লাহ্! হে এহসানকারী হে আল্লাহ্! হে উচ্চ মর্যাদাবান হে আল্লাহ্! হে মেহেরবান হে আল্লাহ্! হে দয়ালু হে আল্লাহ্! হে দাতা হে আল্লাহ্! হে মহাজ্ঞানী হে আল্লাহ্! হে সবরকারী হে আল্লাহ্! হে মহান হে আল্লাহ্! হে মহিমান্বিত হে আল্লাহ! হে দ্বার উন্মুক্তকারী হে আল্লাহ্! হে একক সত্তা হে আল্লাহ্! হে একেশ্বর হে আল্লাহ্! হে একক সত্তা হে আল্লাহ্! হে অমুখাপেক্ষী হে আল্লাহ্! হে প্রশংসিত হে আল্লাহ্! হে সত্যবাদী হে আল্লাহ! হে ধনশালী হে আল্লাহ! হে উপশমকারী হে আল্লাহ! হে যথেষ্ট হে আল্লাহ্! হে পূর্ণকারী হে আল্লাহ্! হে ক্ষমাশীল হে আল্লাহ্! হে অনন্ত হে আল্লাহ্! হে সর্বশেষ হে আল্লাহ্! হে প্রকাশ্য হে আল্লাহ্! হে অপ্রকাশ্য হে আল্লাহ্! হে সুনেগাহবান হে আল্লাহ্! হে পরাক্রমশালী হে আল্লাহ! হে শান্তিময় হে আল্লাহ্! হে ক্ষমতাশীল হে আল্লাহ্! হে সৃষ্টিকারী হে আল্লাহ্! হে আক্বতি সৃষ্টিকারী হে আল্লাহ্! হে নিখুঁত স্রষ্টা হে আল্লাহ্! হে চিরস্থায়ী হে আল্লাহ্! হে চিরঞ্জীব হে আল্লাহ! হে আয়ত্তকারী হে আল্লাহ্! হে ইজ্জতদাতা হে আল্লাহ্! হে হীনকারী হে আল্লাহ্! হে শক্তিশালী হে আল্লাহ্! হে প্রত্যক্ষকারী হে আল্লাহ্! হে দানকারী হে আল্লাহ্! হে নিষেধকারী হে আল্লাহ্! হে রক্ষাকারী হে আল্লাহ! হে প্রতিরোধকারী হে আল্লাহ্! হে কার্যনির্বাহী হে আল্লাহ! হে জামিন হে আল্লাহ্! হে সর্বমহত্ত্ব ও গৌরবের অধিকারী হে আল্লাহ্! হে প্রার্থনা মঞ্জুরকারী হে আল্লাহ! হে বরকত অবতরণকারী হে আল্লাহ্! হে সকল মুশকিল উদ্বারকারী হে আল্লাহ! হে নেককারদেরকে পরিপূর্ণ দানকারী হে আল্লাহ্! হে নেতাগণের নেতা হে আল্লাহ্! হে গোনাহ্! বিদূরণকারী হে আল্লাহ্! হে উচ্চ সম্মান দানকারী হে আল্লাহ! হে দানকারী হে আল্লাহ্! হে তওবা কবুলকারী হে আল্লাহ্! হে শক্তিশালী হে আল্লাহ্! হে মহাজ্ঞানী হে আল্লাহ্! হে ক্ষমতাশীল হে আল্লাহ! হে ক্ষমাকারী হে আল্লাহ্! হে পরম ক্ষমাশীল হে আল্লাহ্! হে প্রথম সৃষ্টিকারী হে আল্লাহ্! হে পুনঃ সৃষ্টিকর্তা হে আল্লাহ্! হে সর্ববিষয়ে অবহিত হে আল্লাহ্! হে দর্শনকারী হে আল্লাহ্! হে উন্নত হে আল্লাহ্! হে অহংকারের অধিকারী হে আল্লাহ্! হে শ্রবণকারী হে আল্লাহ্! হে আদি হে আল্লাহ্! হে পথপ্রদর্শক হে আল্লাহ্! হে চিরস্থায়ী হে আল্লাহ্! হে ক্রটি গোপনকারী হে আল্লাহ্! হে পাপ গোপনকারী হে আল্লাহ্। হে বিপদ বিদূরণকারী হে আল্লাহ্! হে আসমানসমূহ ও যমীনের পালনকর্তা হে আল্লাহ্! হে সর্বমহত্ত্ব ও গৌরবের অধিকারী হে আল্লাহ্! আপনার ক্বপায় হে সর্বশ্রেষ্ঠ দয়াময়! হে আল্লাহ! আমি আপনার নিকট প্রার্থনা করছি, এ নামগুলোর উসিলায় আপনি মুহাম্মদ (ছঃ) এবং তার আল আওলাদের উপর রহমত বর্ষণ করুন। যেমন আপনি রহমত, শান্তি ও বরকত বর্ষণ করেছিলেন ইব্রাহীম (আঃ) এবং তাঁর আল-আওলাদের উপর। নিশ্চয়ই আপনি প্রশংসিত, মহিমান্বিত। ইয়া আল্লাহ! আপনি রহমত বরকত নাযিল করুন আমাদের নেতা ও বন্ধু, আমাদের সুপারিশকারী হযরত মুহাম্মদ (ছঃ) এবং তাঁর বিবিদের উপর আপনার রহমত, হে সর্বশ্রেষ্ঠ দয়াশীল!

.

দোআয়ে গঞ্জল আরশ

بسم الله الرحمن الرحيم لا إله إلا الله سبحان الملك القدوس* لا إله إلا الله سبحان العزيز الجبار* لا إله إلا الله سبحان الرءوف الرحيم

إله إلا الله سبحان الغفور الرحيم* لا إله إلا الله سبحان الكريم الحكيم*

إله إلا الله سبحان القوى الوفى* إله إلا الله سبحان اللطيف الخبير* لا إله الا الله سبان القمر المعبود* لا إله الا الله سبحان الفور الودود*

اله الا الله سبحان الوكيل الكفيل و لا اله الا الله سبحان الرقيب الحفيظ*

اله الا الله سبحان الثيم القائم* لا إله إلا الله سبحان الحي الميت*

لا إله إلا الله سبحان الحي القيوم و لا اله الا الله سبحان الخالق البارئ* إله إلا الله سبحان العلي العظيم + لا اله الا الله سبحان الواجبي الأخير*

۰

۱

۱

إله إلا الله سبحان المؤمن المهيمن* لا إله إلا الله سبحان الحسيب الشهيد* لا إله الا الله سبحان الحليم الكريم به لا إله إلا الله سبحان الأول القيم و

لا اله الا الله سبحان الأول الأخر* لا إله إلا الله سبحان الظاهر الباطن* لا إله إلا الله سبحان الكبير المتعال* لا إله إلا الله سبحان القاضي الحاجات* لا إله إلا الله سبحان الرحمن الرحيم* لا إله إلا الله سبحان رب العرش العظيم و

لا إله إلا الله سبحان ربي الأعلى* لا اله الا الله سبحان البرهان السلطان* لا اله الا الله سبحان الشييع البصير*

لا إله إلا الله سبحان الواحد القهار* لا إله إلا الله سبحان العليم الحكيم* لا إله إلا الله سبحان الشتار العقار* لا إله الا الله سبحان الرحمن الكيان* لا إله إلا الله سبحان الكبير الاكبر* لا إله إلا الله سبحان العليم العلام* لا إله إلا الله سبحان الشافي الكافي* لا اله الا الله سبحان العظيم الباقى و

لا إله إلا الله سبحان الشمي الأحد* لا إله إلا الله سبحان رب الأرض والشموت* لا إله إلا الله سبحان الخالق المخلوقات* لا إله إلا الله سبحان من خلق الليل والنهار*

لا إله إلا الله سبحان الخالق الرزاق* لا إله إلا الله سبحان الفتاح العليم* لا إله إلا الله سبحان العزيز الفني* لا إله إلا الله سبحان المقر الشعر لا إله الا الله سبحان العظيم العليم + لا إله إلا الله سبحان ذي المالي والموت* لا إله إلا الله سبحان ډي الوۃ والعظمة* لا إله إلا الله سبحان ذي الهيبة و القدرة* لا إله إلا الله سبحان الكثيراء والجبروت +

إله إلا الله سبحان الشتار العظيم* لا اله الا الله سبحان العالم الغيب* لا إله إلا الله سبحان الحميد المجيد* لا اله الا الله سبحان الحكيم القديم*

لا إله إلا الله سبحان القادر الشتار به لا إله إلا الله سبحان السميع العليم* لا إله إلا الله سبحان الغني العظيم +

لا إله إلا الله سبحان العلم الشلام* لا إله إلا الله بحان الميلي الجثيره

ره وه

ه

طا۹ *

.۸۱ « 3

إله إلا الله سبحان الغني الؤحمن* لا إله إلا الله سبحان القريب الحتا به لا إله إلا الله سبحان الوالي الحسنات و لا إله إلا الله سبحان القبور الشتار لا إله إلا الله سبحان الخالق الثور لا إله إلا الله سبحان الغنى المعجزه لا إله إلا الله سبحان الفاضل الشكور »

لا اله الا الله سبحان الغني القويم لا اله الا الله سبحان ذي الجلالي المبين* لا إله إلا الله سبحان الخالص المخلص* لا إله إلا الله سبحان الصادق الوعد* لا إله إلا الله سبحان الحق المبين*

ولها الله سبحان ډي القوة المتين* لا إله إلا الله سبحان القوي العزيزه لا إله إلا الله سبحان العلم الغيوب* لا إله إلا الله سبحان الحي الذي يموت + لا إله إلا الله سبحان الشتر العيوب* لا اله الا الله سبحان المستعان الفور*

لا إله إلا الله سبحان رب العلمين* الا الله سبحان اللأمن القاربه لا إله إلا الله سبحان الرجيم العقار*

ما هو

م

.

،

ه

لا إله إلا الله سبحان العزيز القاب*

إله إلا الله سبحان القادر المقتدر و لا إله إلا الله سبحان ذي القران الحليم*

لا إله إلا الله سبحان المالك المثير* لا إله إلا الله سبحان البارئ المصور*

لا إله إلا الله سبحان العزيز الجبار + لا إله إلا الله سبحان العزيز المتكبر به إله إلا الله سبحان الوقا يون

4 لا إله إلا الله سبحان القوي الج

إله إلا الله سبحان رب الملة والح

إله إلا الله سبحان يرى الا والماء و لا إله إلا الله سبحان المير الممحور به لا إله إلا الله سبحان الحان المان* لا إله إلا الله سبحان ادم فى الله + لا إله إلا الله سبحان و اللوء لا اله الا الله ابراهيم خليل الثوه

إله إلا الله اشمعي بيع الله به لا إله إلا الله موسی کلیم الله لا إله إلا الله داؤد خلقه الله

إله إلا الله يسى و الله إله إلا الله محمد رسول اللو۔ وصلى الله على خير خلقه وتور

*

۱

به

.

رده به راه اه

،ام سكس

عربيه افضل الأنبياء والمرسلين حبيبتا

تو نا وشفيعنا ومولنا محمد وعلى

سونا آله وأصحابه أجمعين برحمتك يارحم الرحمين*

.

দোআয়ে গঞ্জল আরশের উচ্চারণ

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম

 লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মালিকিল কুদ্‌সি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আযীযিল জাব্বার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রাউফুর রাহীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গাফুরির রাহীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কারীমিল হাকীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কাওয়্যিল ওয়াফিয়্যি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল লাত্বীফিল খাবীর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাছ ছমাদিল মাবুদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গাফুরিল ওয়াদূদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ওয়াকীলিল কাফীল। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রীবিল হাফী। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নান্দা-ইমিল কৃা-ইম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মুহয়িল মুমীত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হাইয়ুল কাইয়ুম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল খা-লিলি বারিয়ি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আলিয়্যিল আযীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ওয়াহিদিল আহাদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মু’মিনুল মুহাইমিন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হাসীবিশ শাহীদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হালীমিল কারীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হুল আউয়ালিল ক্বাদীম। • লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আউওয়ালিল আ-খির। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যুবোয়া-হিরিল বা-ত্বিন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কাবীরিল মুতাআ-ল। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কাদ্বিয়াল হা-জাত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রাহমানির রাহীম। লা-ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না রব্বিল আরশিল আজীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না রব্বিয়াল আ’লা-। লা-ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল বুরহা-নিসসুলত্বোয়া-ন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাস সামী’ইল বাছীর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ওয়াহিদিল কাহহার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আলীমিল হাকীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল সাত্তা-রিল গাফফা-র। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রাহমা-নিদ দাইয়্যা-ন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কাবীরিল আকবার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আলীমি আল্লাম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাশ শা-ফিল্ কা-ফী। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না আযীমিল বাকী। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাস ছমাদিল আহাদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না রব্বিল আরদ্বি ওয়া–সৃসামা-ওয়া-ত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না খা-লিকুল মাখলুকাত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না মান খালাকৃাল লাইলা ওয়ান্নাহার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল খা-লিকির রাযযাক। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ফাত্তা-হিল আলীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আযীযিল গানীইয়্যী। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গাফুরিশ শাকুর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আযীমিল আলীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিলমুলকি ওয়াল মালাকূত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিল্‌ইযযাতি ওয়াল আযমাতি। লা-ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিহাইবাতি ওয়াল কুদরাতি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না লকিবরিয়া-ই ওয়াল জাবারূত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাস সাত্তারিল আযীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আ-লিমি গাইব। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হামীদিল মাজীদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হাকীমিল কাদীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কা-দিরিস সাত্তার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাস সামীইল আলীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গানিয়্যিল আযীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আল্লা-মিস সালাম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মালিকিন নাছীর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গানিয়্যির রহমান। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কারীবিল হাসানাত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ওয়ালিয়্যিল হাসানাত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাছ ছোঁয়াবুরিস সাত্তার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল খা-লিখি নূর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গানিয়্যিল মু’জিয়। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল ফা-দ্বিলিশ শাকুর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল গানিয়্যিল কাদীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিলজালা-লিল মুবীন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল খা-লিছিল মুখলিছু। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাস ছোঁয়া-দিকুল ওয়াদ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল হাক্বক্বীল মুবীন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিলকুওয়্যাতিল মাতীন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কাওয়্যিল আযীয। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আল্লামিল গুইয়ুব। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল্ হাইয়্যিল্লাযী লা-ইয়ামূত। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না সৃসাত্তা-রিল উ’ইয়ূব। লা-ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মুসতা’আ-নিল গাফুর। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না রব্বিল আলামীন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রাহ্মা-নিস্ সাত্তার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নার রাহীমিল গাফ্ফার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আযীযিল ওয়াহ্হাব। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কা-দিরিল মুক্তাদির। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিল গুফরা-নিল হালীম। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল মালিকিল মুলক। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল বারিউল মুছাওয়ির। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল আযীযিল জাব্বার। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল জাব্বা-রিল মুতাকাব্বির। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল্লা-হি আম্মা–ইয়াছিফুন। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-নাল কুন্দুসিস সুবরূহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না রব্বিল মালাইকাতি ওয়াররূহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহা-না যিল আ-লা-ই ওয়ান্ না’আমা–য়ি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহানাল মালিকিল মাক্বছুদি লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু সুবহানাল হান্নানিল মান্নানি। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লাহু আ-দামু ছফিউল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু নূহু নাজীউল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ইবরাহীমু খালীলুল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ইসমাঈলু যাবীহুল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু মূসা–কালীমুল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু দাঊদু খালীফাতুল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ঈসা–রূহুল্লাহ। লা–ইলা-হা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ। ওয়া ছল্লাল্লাহু আলা–খাইরি খালক্বিহী ওয়া নূরি আরশিহী আফদ্বোয়ালি আম্বিয়াই ওয়াল মুরসালীনা হাবীবিনা ওয়া সাইয়্যিদিনা–ওয়া সানাদিনা ওয়া শাফী ইনা–ওয়া মাওলানা মুহাম্মাদিওঁ ওয়া আলা আ-লিহী ওয়া আছহাবিহী আজমাঈন। বিরাহমাতিকা ইয়া–আরহামার রাহিমীন।

ফযীলত : হযরত আবূ বকর সিদ্দীক (রা) বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালে দোয়া-ই গঞ্জলে আরশ পাঠ করবে সে ব্যক্তি মৃত্যুর আগে রাসূলুল্লাহ (ছ) কে স্বপ্নে দেখবেনই।

হযরত ওমর ফারুক (রা) বলেছেন, প্রতিদিন এ দোয়া পাঠকারীর ঈমান মৃত্যুর সময়ে শয়তান নষ্ট করতে পারে না। ফলে, এ ব্যক্তি অবশ্যই জান্নাতে প্রবেশ করবে।

হযরত উসমান গণী (রা) বলেছেন, –যেসব কোরআনে-হাফিয মুখস্থ কোরআন পড়া ভুলে গেছেন, তারা এ দোয়া প্রতিদিন অজিফার নিয়মে পড়তে থাকলে ইনশা আল্লাহ অচিরেই সমগ্র কোরআন স্মৃতিপটে এসে যাবে।

হযরত আলী (রা) বলেছেন, যে ব্যক্তি দোয়া-ই গঞ্জলে আরশকে প্রতিদিনের অজিফা করে নেয়, তার হিসাব হবে নামকি ওয়াস্তে এবং এ ব্যক্তি অগ্রগামী বেহেশতীদের সাথে

বুজুর্গানেরা বলেন, এ দোয়া পাঠকারীর উপর কোন যাদু টোনা লাগতে পারে না। বিদেশে থেকে এ দোয়া সর্বদা পাঠ করলে সফরে থাকার কষ্ট পায় না। এ দোয়া পাঠ করে এক গ্লাস স্রোতস্বিনী নদীর পানিতে তিনটি কুঁক দিয়ে পান করালে, আসন্ন প্রসবার আরামের সাথে

.

দোয়ায়ে হাবীবী

بشم الله الرحمن الرحيم قم قم يا حبيبى گم تنام عجبا إثمي كيف ينام قم قم يا حبیبی گم نام طالب الجنة لا ينام

قم قم يا حبيبی كم نام خالق اليل دينام قم قم يا حبيبى كم تنام خالق الخلق دينام قم قم يا حبيبي گمنام العربي والگري لايتام قم قم يا حبیبی گم نام اللوح والقلم ينام قم قم يا حبيبى گم تنام كل الملكوت لايتام قم قم يا حبيبي كم تنام الشمس والقمر ينام قم قم يا حبيبى گم تنام الأرض والسماء لاينام قم قم يا حبيبي كم تنام النجم والشجر لاينام

ا

او

م

,

قم قم يا حبيبي كم تنام البر والبحر ينام قم قم يا حبيبى كم تنام الجنة والنار ينام قم قم يا حبيبى گم تنام التمور والقصور ينام قم قم يا حبيبي كم تنام الطير والوحش ينام

. ه, , و جب حرام

قم قم يا حيه

قم قم يا حبيبي كم تنام طالب المولى ينام قم قم يا حبیبی کم تنام العاشق والمعشوق ينام قم قم يا حبيبي كم تنام العشق والمحبة لأيام

قم قم يا حبيبي كم تنام الليل والنهار ينام قم قم يا حبيبی کم تنام يعم المولى والكرام ينام

قم قم يا حبيبي كم تنام أدم صؤى الله لاينام قم قم يا حبیبی کم تنام إبراهيم خليل الله لاينام قم قم يا حبيبى گم تنام موسی کلیم الله لاينام قم قم يا حبيبي كم تنام عيسی روح الله لاينام قم قم يا حبیبی کم تنام محمد رسول الله ينام

م ه ه ه م

م

.

م .

م, . م

ه ا

م

.

দোআয়ে হাবীবীর উচ্চারণ

বিসমিল্লা-হির রাহমানির রাহীম

 ১. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম্ তানা-মু* আজাবা লিলমুহিব্বি কাইফা ইয়ানা-মু।

৫. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আলআরশু ওয়াল কুরসিয়ু লা–ইয়ানা-মু

৬. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আল্লাহু ওয়ালালামি লা–ইয়ানা-মু ৭. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* কুলুল মালা-কুতি লা–ইয়ানা-মু ৮. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আশশামসু ওয়াল কামারু লা–ইয়ানামু ৯. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আলআরদু ওয়াসসামা–উ লা–ইয়ানা-মু ১০. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আনাজমু ওয়াশশাজারু লা–ইয়ানা-মু ১১. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আলবাররু ওয়ালবাহরু লা–ইয়ানা-মু ১২. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু, * আলজান্নাতু ওয়ার্না-রু লা–ইয়ানা-মু ১৩. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আলহূরু ওয়াল কুছুরু লা–ইয়ানামু ১৪. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আত্বইরু ওয়ালওয়াহশু লা–ইয়ানা-মু ১৫. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আর্ননাওমু আলাল মুহিব্বি হারা-মু ১৬. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* ত্বোয়ালিবুল মাওলা–লা–ইয়ানা-মু ১৭. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আল-ইশকু ওয়াল্ মুহাব্বাতু লা–ইয়ানামু ১৮. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আল আশিকু ওয়াল্ মাশুকু লা-ইয়ানা-মু ১৯. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আললাইলু ওয়াহা–রু লা–ইয়ানা-মু। ২০. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* নিমাল মাওলা ওয়ালকিরা-মু লা ইয়ানামু ২১. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* আ-দামু ছফিউল্লা-হি লা–ইয়ানা-মু ২২. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* ইবরাহীমু খালীলুল্লা-হি লা–ইয়ানামু ২৩. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* মূসা–কালীমুল্লা-হি লা-ইয়ানামু ২৪. কুমকুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* ঈসা–রূহুল্লা-হি লা-ইয়ানা-মু ২৫. কুম কুম ইয়া–হাবীবী কাম তানা-মু* মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লা-হি লা-ইয়ানা-মু

ফজীলত ও সাহাবা-ই কেরাম বলেছেন–যে ব্যক্তি দোয়া-ই হাবীবী পাঠ করবে তার ওপর আল্লাহর ৫টি রহমত ও বরকত অবতীর্ণ হবেই; যথা

(১) পাঠকারীর ওপর আল্লাহ তা’আলা সন্তুষ্ট থাকবেন। (২) রাসূলুল্লাহ (ছ) তার জন্য সুপারিশ করবেন। (৩) তার অর্থাপোর্জন বৃদ্ধি পাবে এবং তাতে বরকত হবে। (৪) ফজরের নামাযের ওয়াক্তে ঘুম থেকে জেগে যাবে। (৫) দোয়ায়ে হাবীবী আমলকারীর ওপর কোন যাদু-টোনা কার্যকরী হবে না।

.

ইসমে আযম

بسم الله الرحمن الرحيم

পরম দাতা ও দয়ালু আল্লাহর নামে

নাম দু প্রকার–আসল নাম ও ডাকনাম অর্থাৎ জাত নাম ও সিফাতী নাম (গুণবাচক নাম)। রাবিরা বলেন, আল্লাহ তা’আলার চার হাজার নাম আছে। তন্মধ্যে তিনশ’ নাম যবুরে, তিনশত নাম তওরাতে, তিনশ’ নাম ইঞ্জিলে ও একশ’ নাম পাক কোর্আনে উল্লেখ আছে। আল্লাহ তা’আলার বাকী তিন হাজার নাম কি কি এবং তা গোপন না প্রকাশ্য, একমাত্র তিনিই তা জানেন।

যাক, কোরআন মজীদে আল্লাহ তা’আলার যে একশ’ নাম আছে, তার মধ্যে একটি নাম পরশমণির ন্যায় মানুষের ধ্যানের ধন হয়ে আছে। অর্থাৎ ইসমে আযম’ কোটি তা তলিয়ে দেখছি না। আফসোস! আমরা যাঁর বান্দা–যিনি আমাদের প্রভু, তাঁর নাম না জানার মত বোকামি বা দুর্ভাগ্য কি হতে পারে:তবে আল্লাহর আসল নাম কোটি, এ সম্বন্ধে আমরা কতকগুলো যুক্তি-প্রমাণ উপস্থিত করব। পাঠকরা ভেবে দেখবেন, তা ঠিক-না বেঠিক।

(১) হানাফী মাজহাবের ইমাম হযরত আবূ হানীফা (র) বলেছেন–“al” এ নামটি ইসমে আযম।

(২) জগতে প্রায় চার হাজার ভাষা প্রচলিত আছে। তন্মধ্যে যে যে ভাষার আভিধানিক উন্নতি যত বেশি হয়েছে, সে ভাষার শাব্দিক এবং ব্যুৎপত্তিগত অর্থের উন্নতিও তত বেশি হয়েছে। এরূপ উন্নত ভাষার মধ্যে আর আরবি ভাষায় প্রায় সব শব্দেরই ধাতুগত বা বুৎপত্তিগত অর্থ দেয়া আছে। কিন্তু ali শব্দের বুৎপত্তিগত কোন অর্থ লোগাতে (অভিধানে) দেয়া নেই। এতে দেখা যায়, ll এ নামটি আভিধানিক জ্ঞানে ধরা-ছোঁয়ার বাইরে একক একটি শব্দ; যেমন–আল্লাহ’কে আমরা একক, অদ্বিতীয় বা অতুলন প্রভু বলে মানি।

(৩) অভিধানে প্রতিটি শব্দের অবিকল ভাবপ্রকাশকে প্রতিশব্দ একাধিক দেয়া থাকে। কিন্তু আল্লাহ’ শব্দের অবিকল ভাবপ্রকাশক প্রতিশব্দ একটিও নেই। যদি বলা হয় যে, কেন:আল্লাহ’ শব্দের অর্থ খালেক বা সৃষ্টিকর্তা। তবে মুযিল্প (হালাকারী), মুআখিরু (পশ্চাৎ নিক্ষেপকারী), কাহ্হারু (শাস্তি প্রদাতা) কে, বলুন তো:এতেও দেখা যাচ্ছে, আল্লাহ’ শব্দের অর্থ আল্লাহ’ বলা ছাড়া তর্কযুক্ত হওয়ার কারণ নেই।

(৪) কোন বৈয়াকরণিক বলতে পারবে না এ শব্দটি পুংলিঙ্গ, না স্ত্রীলিঙ্গ, না ক্লীবলিঙ্গ। বলতে পারবে না এ শব্দটি কি একবচন, না বহুবচন। এখানেও শব্দটি একক এবং লিঙ্গভেদ ও বচনদোষ হতে মুক্ত। সুতরাং দেখা যাচ্ছে, আল্লাহ শরীক-ভাগী হতেও মুক্ত, লিঙ্গভেদ হতেও মুক্ত।

 (৫) রাহীম, রাহমান, খালেক, মালেক, ওয়াদুদ, ওয়াহ্হাব প্রভৃতি প্রভুর সিফাতী বা গুণবাচক নাম বলে আমরা জানি। এসব নামে মানুষেরও নাম রাখা হয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোন মানুষ, দেও-দানব, ভূত-পেত্নী বা কারও উপাস্য দেব-দেবীর নাম আল্লাহ’ রাখা হয়েছে বলে শোনা যায়নি। বরং প্রত্যেকটি বিজাতি আল্লাহ’ নামটি সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে বা একক হয়ে আছে; যেমন–আমাদের প্রভু আল্লাহ’ স্বীয় মাহত্মেই একক বলে আমরা ঈমান এনেছি।

 (৬) আমাদের প্রভুর আল্লাহ’ নামটি এবং সিফাতী নামগুলো ভেঙ্গে ভেঙ্গে অর্থ করতে গেলে, অর্থ একইরূপ হয় না; যেমন–all। এ নামের মধ্যে–আলিফ, লাম, লাম, হা’ এ চারটি হরফ আছে। এর প্রথম হরফ আলি’ অর্থ–আল্লাহু’, আলিফ বাদ দিলে থাকে–লাম, লাম, হা অর্থাৎ শব্দটা হয় লিল্লা-হু। লিল্লা-হু’ অর্থও আল্লাহ। লিল্লা-হু থেকে লাম, লাম, বাদ দিলে থাকে হু’, হু অর্থও–আল্লাহু’। কিন্তু প্রভুর অন্য কোন নামে এমন অর্থ হয় না। যেমন ধরুন, প্রভুর সিফাতী নাম রাহমান’ অর্থ দয়ালু বা করুণাময়। রা, হা, মীম, নুন, মিলে হয় রাহমান। এর প্রথম অক্ষর রা’ অর্থে আল্লাহকে বুঝায় না। রা’ বাদ দিলে থাকে হা, মীম, নুন। শব্দটা হয় হামান। কারও নাম হয়ে যায়; যেমন–ফিরাউনের মন্ত্রীর নাম ছিল হামান।

রাহীম’ প্রভুর আর একটি গুণবাচক নাম। রা, হা, ইয়া, মীম, মিলে হয় রাহীম। এর প্রথম অক্ষর রা’ বাদ দিলে থাকে–হা, ইয়া, মীম, অর্থাৎ শব্দটা হয় হীম্। হীম্ বলতে প্রভুর কোন্ নাম নেই। হীম’ একটি দোযখের নাম।

(৭) জীবনভর মানুষ প্রভুকে আল্লাহ্, খোদা, মাবুদ, রাহ্মান, রাহীম, গফুর গাফ্ফার প্রভৃতি যে নামেই ডাকুক না কেন, কারও মৃত্যুকাল উপস্থিত হলে, তার কানে কানে বলে আল্লা-হু বল আল্লা-হু বল। কেউ এমন বলে না খোদা বল, মাবুদ বল, গাফ্ফার বল। এমন কি, শোনা যায়–হিন্দুরাও না কি দেবতার নাম ছেড়ে মৃত্যুপথযাত্রীকে আল্লাহ’ নামের অজিফা জপায়। নইলে নাকি ওদের আত্মা বের হয় না। এতে দেখা যাচ্ছে, নিদান বেলায়ও আল্লাহ’ নামটিকেই মূল ধরা যায়।

(৮) হাদীস শরীফে আছে, কবরে মুনকার ও নাকীর ফেরেশতা এসে মুর্দাকে জীবিত করে প্রশ্ন করেন–তোমার উপাস্য ছিল কে:ধর্ম ছিল কি:সে ব্যক্তি উপাস্যের নাম বলতে আল্লাহ’ ব্যতীত অন্য কোন দেব-দেবী বা মানুষ প্রভুর নাম বলে তার আযাবের অন্ত থাকে না। দেখা যাচ্ছে, কবরে গিয়েও রাহীম বা রাহমান বললে চলে না। খোদা’ বললেও চলে না–আল্লাহকে উপাস্য বলা ব্যতীত।

 (৯) ঈমান ইসলাম ধর্মের মূল। ঈমানের মূল হচ্ছে কলেমাসমূহ। প্রত্যেকটি কালেমায় বলা হয়েছে–air ajj 8 অর্থাৎ আল্লাহ ব্যতীত অন্য কোন ইলাহ্ বা উপাস্য নেই। কোন কলেমাতেই এমন বলা হয়নি যে, খোদা ব্যতীত উপাস্য নেই, রাহমান ব্যতীত উপাস্য নেই, কারীম ব্যতীত উপাস্য নেই। এতে দেখা যাচ্ছে, ঈমান আনার বেলায়ও আল্লাহ’ নামের উপরই ঈমান আনতে হয়। আল্লাহর সিফাতী নামেও চলে না।

(১০) আল্লাহর খাস্কালাম কোরআন মজীদের কথা ধরা যাক এবার। দেখা যায়, কোরআন মজীদের যেখানেই আল্লাহ স্বীয় তাওহীদ (একত্ববাণী) ঘোষণা করেছেন, সেখানেই আল্লাহ’ শব্দ যোগ করেছেন। দয়া’ প্রকাশের ক্ষেত্রে বলেছেন–রাহমান (দয়ালু), দান’ প্রকাশের ক্ষেত্রে বলেছেন–রাহীম (দাতা), আযাব প্রকাশের বেলায় বলেছেন–কাহহারু (শাস্তিদানে সক্ষম), শান্তি প্রকাশের ক্ষেত্রে বলেছেন বাররু (শান্তি-দাতা) ইত্যাদি। তাহলে বলতে হয়, কোরআনেও প্রভু অদ্বিতীয় অতুলনরূপে নিজকে ঘোষণা করেছেন aij এ নামে।

(১১) ইসমে আযম’ কি, জানতে চাইলে পীরেরা বড় বুজুর্গী দেখান। স্র দুটি উঁচিয়ে ওষ্ঠদ্বয় চৌকো করে–ললাটে তরঙ্গের খেলা দেখিয়ে–কণ্ঠস্বরে বিস্ময়ের ঢেকুর তুলে তাঁরা বলেন, ও রে বাবা! এখনই এত অস্থির হচ্ছ:সবে তো মাত্র যাত্রা শুরু! ইসমে আযম বহুদূর! আগে যিকির রপ্ত কর। পোক্ত হও। গুরুভক্ত হও। এ অতি বারিক বাত্। এক গুপ্ত মারেফাত।…. চুপ!’ অথচ সেই পীরই মুরীদকে যিকিরের তালিম দেন–আল্লা-হু, আল্লা-হু, আল্লা-হু’ বলে। তিনি মুরীদকে প্রাথমিক এ যিকির রপ্ত করতে বলেন না যে–কারীম-হু বল, জালীল-হু বল, জব্বার-হু বল। তাহলে দেখা যাচ্ছে, পীরদের পুষিদা বাত বা মারেফাত বা যিকির সবই চালানো হচ্ছে আল্লা-হু’ নামেরই মাধ্যমে। তাদের গোপন ঝোলায়ও দেখি আল্লাহু’ নামেরই নাড়াচাড়া।

 (১২) তাসৃমিয়াহ’ পাঠ করে জীবনের সব ভাল কাজ শুরু করতে কোরআন-হাদীসে হাগিদ রয়েছে। তাসৃমিয়াহ’ সম্বন্ধে এ কিতাবে আপনারা কিছু কথা জেনেছেন। এতে আল্লাহ, রাহমান ও রাহীম’ এ তিনটি নাম আছে। রাহমান ও রাহীম শব্দ দুটি হচ্ছে আল্লাহ’ নামের বিশেষণ মাত্র। এখানেও আল্লাহ নামই মূল। এক্ষণে যদি বলি all নামই ইসমে আযম, তাহলে কি খুব ভুল করলাম?

একদা হযরত মূসা (আ) আরয করেন–ওগোমাবুদ। আমাকে আপনার এমন একটি খাস ও গুপ্ত নাম বলে দিন–যা আমি জপ করব আর তাতে আমার বুজুর্গী বেড়ে যাবে সবার উপর দিয়ে বেশি। মাবুদ বলেন–উত্তম! তুমি জপ করো আল্লা-হু।’ মূসা (আ) বলেন–এ নাম তো দুনিয়ার সবই জপে। আমি চাচ্ছি এমন এক নাম–যার কোন তুলনা নেই। মাবুদ বলেন শোন, মূসা! তামাম মাখলূক এক পাল্লায় তুললে আর একবার মাত্র আল্লা-হু যিকিরটি পাঠের সাওয়াব অন্য পাল্লায় তুললে যিকিরের পাল্লাটিই ভারী হবে বেশি। [ আল-হাদীস ]

ইরশাদু ত্তালেবীন’ নামক কিতাবে লিখা আছে, নবী করীম (ছ) বলেছেন–ফজরের নামাযের পরও সূর্যোদয়ের আগে যে সময়টুকু পাওয়া যায়, তাতে যদি কেউ ১০০ বার আল্লা-হু যিকির করে এবং নিম্নল্লিখিত ৬টি যুক্তনাম একবার করে পাঠ করে এবং তারপর স্বীয় গুণাহ মুক্তির জন্য মুনাজাত করে, তবে সে ব্যক্তি এমন নিষ্পাপ হয়ে যাবে যেন সেদিনই মাত্র মাতৃগর্ভ হতে ভূমিষ্ঠ হল। [ আল-হাদীস ]।

(১) 0x;; (জাল্লা জালালুহ্)–আল্লাহর মহত্ত্ব অতুলনীয়। (২) (ওয়া আম্মা নাওয়া-লুহ)–আল্লাহর দান সর্বজনীন। (৩) 53 (ওয়া জাল্লা ছানা-উহ্)–আল্লাহর প্রশংসা অতুলনীয়। (৪) CL_i sahi (ওয়া তাকাদ্দাসাত আসমা-উহ্)–আল্লাহর নামগুলো পবিত্রতম। (৫) Last; (ওয়া আ’যমা শানুহ্)–আল্লাহর শান সুমহান। (৬) } }; (ওয়া লা-ইলা-হা গাইরুহ)–আল্লাহ ব্যতীত কোন উপাস্য নেই। হযরত আবু হোরাইরা (রা) বলেন, পেয়ারে নবী (ছ) বলেছেন-২;১২u L23 adi। (আদ্বোয়ালু যি যিল্লা-হ) অর্থাৎ আল্লা-হু’ শব্দের যিক্রিই সর্বোত্তম যিকির। [মিশকাত শরীফ]

শেয়ার বা বুকমার্ক করে রাখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *