সহস্র এক আরব্য রজনী

সহস্র এক আরব্য রজনী (আলিফ লায়লা) ডঃ জে. সি. মারদ্রুস ভাষান্তর: ক্ষিতিশ সরকার

আরব্য রজনী। আলিফ লায়লা। আরব্য রজনীর গল্প। আলিফ লায়লার গল্প। সহস্র এক আরব্য রজনী

১.০১ বাদশাহ শারিয়ার ও তার ভাই বাদশাহ শাহজামানের কাহিনী

সহস্র এক আরব্য রজনী (আলিফ লায়লা) প্রথম খণ্ড ১.০১ বাদশাহ শারিয়ার ও তার ভাই বাদশাহ শাহজামানের কাহিনী এক সময়ে শাসন বংশের এক প্রবল পরাক্রান্ত শাহেনশা প্রাচ্যের এক বিশাল সলতানিয়তের শাসক ছিলেন। তার ছিলো বিরাট সৈন্যবাহিনী, অগণিত ক্রীতদাস, আর ছিলো পেয়ারা প্রজাবৃন্দ। তাঁর দুই...

১.০২ গাধা, বলদ আর গৃহস্বামীর উপাখ্যান

গাধা, বলদ আর গৃহস্বামীর উপাখ্যান অনেকদিন আগে এক ধনী পশুপালক বাস করতো বিস্তীর্ণ উর্বর শস্যক্ষেত্রের পাশে, এক নদীর ধারে। একটা গাধা আর একটা বলদ ছিলো তার খামারে। একদিন বলদটা গোয়ালে ঢুকে দেখে, গাধাটা যবের ভূষি মাখানো জাবনা খেয়ে, পেটটা উঁই করে, বিচালি পাতা গদির ওপর শুয়ে...

১.০৩ সওদাগর আর আফ্রিদি দৈত্য

সওদাগর আর আফ্রিদি দৈত্য  —তাহলে শুনুন, জাঁহাপনা। শাহরাজাদ শুরু করে। কোন এক সময়ে এক। কোটিপতি ধনী ব্যবসায়ী ছিলো। তামাম দুনিয়ায় যতো ধনী ছিলো তাদের সকলের সেরা সে। এক সময়ে বাণিজ্যের অন্বেষণে ঘোড়ায় চেপে নানা দেশ ঘুরে বেড়াতে থাকে সে। একদিন মধ্যাহ্ন সূর্যের খরতাপে দগ্ধ হয়ে...

১.০৪ প্রথম শেখের কাহিনী

প্রথম শেখের কাহিনী প্রথম শেখ তখন বলতে শুরু করে। শোনো, দৈত্য সম্রাট, এই যে বুনো রামছাগলটা দেখছো, আসলে কিন্তু এটা কোনও জন্তু জানোয়ার না। এ হচ্ছে আমার চাচার মেয়ে-আমার শাদী করা বিবি। তিরিশটা বছর এক সঙ্গে ঘর করেছি। ছোটবেলা থেকেই যাদুকরী ছিলো সে। নানা রকম যাদুবিদ্যা দেখিয়ে...

১.০৫ দ্বিতীয় শেখের কাহিনী

দ্বিতীয় শেখের কাহিনী এবার দ্বিতীয় শেখ তার কাহিনী শুরু করে : —এই যে দুটি গ্রে-হাউন্ড কুকুর দেখছো, আফ্রিদি সম্রাট, আসলে কিন্তু এ দু’টো কুকুর না। আমার সহোদর বড় দুই ভাই। আমি সবার ছোট। আমাদের আব্ববাজান মারা যাওয়ার সময় তিন ভাইয়ের জন্যে তিন হাজার সোনার মোহর রেখে যান। আমার...

১.০৬ তৃতীয় শেখের কাহিনী

তৃতীয় শেখের কাহিনী তৃতীয় শেখ বললো, শোনো, আফ্রিদি সম্রাট, আমার কাহিনী আরও মজাদার। এই যে খচ্চরটা দেখছো, এ হচ্ছে আমার বিবি। কাজের তাগিদে, এক সময়, বছরখানেকের জন্যে বিদেশে গিয়েছিলাম। কাজকাম শেষ করে ঘরে ফিরলাম একদিন। রাত তখন অনেক, বাডিতে ঢুকেই বিবির সঙ্গে দেখা করার জন্যে...

১.০৭ ধীবর আর আফ্রিদি দৈত্যের কাহিনী

ধীবর আর আফ্রিদি দৈত্যের কাহিনী এক সময়ে এক বৃদ্ধ ধীবর তার স্ত্রী আর তিনটি পুত্ব কন্যা নিয়ে এক নদীর ধারে বাস করতো। ফি দিনে মাত্র পাঁচবার জাল ফেলতো সে জলে। তার বেশি কোনদিন ফেলতো না। একদিন দুপুর বেলায় নদীর ধারে এসে জালের প্যাটরাটা নামিয়ে জলে ছডিয়ে দিলো জাল। কিছুক্ষণ বাদে...

১.০৮ উজির, সুলতান য়ুনান হেকিম রায়ানের কিসসা

উজির, সুলতান য়ুনান হেকিম রায়ানের কিসসা —ধীবর বলতে শুরু করে। তবে শোনো : পুরাকালে রুম দেশে ফার শহরে এক প্রবল প্রতাপ ধনদৌলত ছিলো তার। কিন্তু মনে কোন শান্তি ছিলো না। সারা দেহে দুরারোগ্য কুণ্ঠব্যাধি। কত না ডাক্তার কবরেজ দেখিয়েছে। কিন্তু কেউ সারাতে পারে নি। কত শত জডিবাডি...

১.০৯ সিনবাদ আর বাজপাখি

সিনবাদ আর বাজপাখি য়ুনান বলতে শুরু করে। এক সময়ে ফার শহরে এক প্রবল পরাক্রান্ত বাদশাহ বাস করতো। ঈষত্তর নাম শাহেনশাহ সিন্যবাদ। খেলাধূলা, শিকার এবং অশ্বারোহণে ভারি ওস্তাদ ছিলো সে। তার একটা পোষা শিকারী বাজপাখী ছিলো; দিবারাত্র তার সঙ্গে সঙ্গে থাকতো সেই পাখীটো। কোনও সময়ই সঙ্গ...

১.১০ শাহজাদা আর রাক্ষসী

শাহজাদা আর রাক্ষসী এক বাদশাহর এক পুত্র ছিলো। ঘোড়ায় চড়া আর শিকারে তার ভীষণ ঝোক। বাদশাহ তার এক উজিরকে দেখাশোনার ভার দিয়েছিল। সারা দিনরাত বাদশাহ পুত্রের সহচর হয়ে থাকাই তার একমাত্র কাজ। কিন্তু একাজ সম্মানজনক বলে মনে করতে পারলো না উজির। এ হলো গরু চরানো রাখালের কাজ। আর সে...

১.১১ শাহজাদা আর রঙিন মাছ

শাহজাদা আর রঙিন মাছ পরদিন রাত্রে আবার কাহিনী শুরু হয় : তারপর সেই ধীবর দৈত্যকে বললো, এক সময় তোমার কব্জায় পড়েছিলাম। আমি, এবার তুমি আমার কব্জায়। তুমি আমাকে হত্যা করতে চেয়েছিলে। এখন তোমাকে আমি এক তামার জালার মধ্যে পুরেছি, এবার তোমাকে ঐ দরিয়ার জলে ডুবিয়ে রাখবো। -আল্লাহর...

১.১২ কুলি-ছেলে আর তিন কন্যা

কুলি-ছেলে আর তিন কন্যা শাহরাজাদ একটু থামলো, পরে বললো, কিন্তু মনে ভেবো না, এর চেয়ে সুন্দর কাহিনী আর নেই। এর পর এক কুলির কাহিনী তোমাদের শোনাবো। সে কাহিনী আরও চমৎকার। আরও মজার। এক সময়ে বাগদাদ শহরে এক প্রিয় দর্শন যুবক বাস করতো। এক সে। বিয়ে থা করেনি। কুলি-গিরি করে খায়।...

১.১৩ প্রথম কালান্দার ফকিরের কাহিনী

প্রথম কালান্দার ফকিরের কাহিনী প্রথম কালান্দার এগিয়ে এসে তার কাহিনী শুরু করলো। শুনুন মালকিন, কেন আমার দাড়ি গোঁফ কামানো। আর কেন একটা চোখ আমার কানা–সেই কাহিনী বলি : আমার বাবা ছিলেন এক দেশের বাদশাহ। আর আমার চাচাও আর-এক দেশের বাদশাহ। এমনি যোগাযোগ যে, আমার যেদিন জন্ম...

১.১৪ দ্বিতীয় কালান্দর ফকিরের কাহিনী

দ্বিতীয় কালান্দর ফকিরের কাহিনী প্রথম কালান্দার নিজের জায়গায় সরে যেতে দ্বিতীয় কালান্দার এগিয়ে এসে তার কাহিনী শুরু করলো : আমিও এক চোখ কানা হয়ে জন্মাইনি, মালকিন। আজ আমার এই ফকিরের বেশ, কিন্তু আদপে আমি ফকির ছিলাম না। আমিও এক বাদশাহর সন্তান। আমার বাবা শুধু ঐশ্বর্যবানই...

১.১৫ তৃতীয় কালান্দর ফকিরের কাহিনী 

তৃতীয় কালান্দর ফকিরের কাহিনী  এবার তৃতীয় কালান্দার এগিয়ে এসে তার কাহিনী বলতে শুরু করে : শুনুন মালকিন, মনে করবেন না, আমার কাহিনী ওদের দু’জনের চেয়ে আরও চমৎকার। তা নাও হতে পারে। তবে সত্যি ঘটনা-এটুকু বলতে পারি। কারণ এর সবই আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। ওদের দুজনের মতো...

১.১৬ বড় বোন জুবেদার কাহিনী

বড় বোন জুবেদার কাহিনী পরদিন রাত্রে আবার শুরু করলো শাহরাজাদ। শুনুন শাহজাদা, সেই সুন্দরী তিন বোনের বড় জন তখন দরবার কক্ষে খলিফার সামনে দাঁড়িয়ে তার জীবনের কাহিনী বলতে লাগলো— জাঁহাপনা, আমার নাম জুবেদাহ, আমার ছোট যে, অর্থাৎ মেজো, তার নাম আমিনাহ আর সবার ছোটর নাম ফহিমাহ।...

১.১৭ মেজো বোন আমিনার কাহিনী

মেজো বোন আমিনার কাহিনী আমিনা বলতে শুরু করে।—জাঁহাপনা পরম পুণ্যাত্মা, আল্লাহ। আপনার সহায়। আমার দিদি আপনাকে বলেছে, বাবা মারা যাওয়ার পর আমরা কে কোথায় গেলাম। আমি আর এখানে তার পুনরাবৃত্তি করবো না। আমি আমার মার কাছে গিয়ে বাস করতে লগলাম। কিছুদিন পরে এক থুরথুরো বুড়ো সওদাগরের...

১.১৮ একটি স্ত্রীলোকের খণ্ডিত দেহ, তিনটি আপেল ও নিগ্রো রাইহান

একটি স্ত্রীলোকের খণ্ডিত দেহ, তিনটি আপেল ও নিগ্রো রাইহান একদিন রাতে খলিফা হারুন-অল-রসিদ উজির জাফর অল-বারমাকীকে বললেন, আজ রাতে শহরের ভিতরটা একটু ভালো করে ঘুরে দেখতে চাই। আমার কাছে কিছু নালিশ এসেছে। নগরপাল এবং ওয়ালিরা নাকি তাদের কাজে গাফিলতি করছে। যদি প্রমাণ পাই, তবে...

১.১৯ উজির সামস অল-দিন তার ভাই নূর অল-দিন ও হাসান বদর অল-দিন

উজির সামস অল-দিন তার ভাই নূর অল-দিন ও হাসান বদর অল-দিন এক সময়ে মিশরে পরম দয়ালু। ধর্ম পরায়ণ এক সুলতান প্রজাপালন করতেন। তার এক উজির ছিলো নানা বিদ্যায় বিশারদ। চাঁদের মতো সুন্দর দেখতে তার দুই যমজ পুত্র ছিলো। একটির নাম সামস-আল-দীন, আর একটির নাম নূর-আল-দীন। বড়টি ছিলো যেমন...

১.২০ দর্জি, কুঁজো, ইহুদি হেকিম, বাবুর্চি, খ্রীস্টান দালাল

দর্জি, কুঁজো, ইহুদি হেকিম, বাবুর্চি, খ্রীস্টান দালাল এক সময়ে চীন দেশের এক শহরে এক দর্জি বাস করতো। দিল দরিয়া মেজাজের লোক। কারো সাতে পাঁচে নাই। খায় দায় গান গায় আর দোকানে কাজ করে চলে। খাওয়া পরার জন্যে যতটুকু দরকার রোজগার করে তারপর বাকী সময়টুকু হৈহল্লা আনন্দ করে কাটায়।...