বুখারি হাদিস নং ১০৫৪ – রাতে তাহাজ্জুদ (ঘুম থেকে জেগে) সালাত আদায় করা।

হাদীস নং ১০৫৪ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ……..ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রাতে তাহাজ্জুদের… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৫৪ – রাতে তাহাজ্জুদ (ঘুম থেকে জেগে) সালাত আদায় করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৫৫ – রাত জেগে ইবাদত করার ফজিলত।

হাদীস নং ১০৫৫ আবদুল্লাহ ইবনে মুহাম্মদ ও মাহমুদ রহ……….আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৫৫ – রাত জেগে ইবাদত করার ফজিলত।

বুখারি হাদিস নং ১০৫৬ – রাতের সালাতে সিজদা দীর্ঘ করা।

হাদীস নং ১০৫৬ আবুল ইয়ামান রহ……….আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (তাহাজ্জুদের) এগার রাকাআত সালাত… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৫৬ – রাতের সালাতে সিজদা দীর্ঘ করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৫৭ – অসুস্থ ব্যক্তির তাহাজ্জুদ আদায় না করা।

হাদীস নং ১০৫৭ আবু নুআইম রহ……..জুনদাব রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (একবার) অসুস্থ হয়ে পড়েন।… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৫৭ – অসুস্থ ব্যক্তির তাহাজ্জুদ আদায় না করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৫৯ – তাহাজ্জুদ ও নফল ইবাদতের প্রতি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর উৎসাহ প্রদান, অবশ্য তিনি তা ওয়াজিব করেন নি।

হাদীস নং ১০৫৯ ইবনে মুকাতিল রহ………উম্মে সালামা রা. থেকে বর্ণিত যে, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একরাতে ঘুম থেকে জেগে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৫৯ – তাহাজ্জুদ ও নফল ইবাদতের প্রতি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর উৎসাহ প্রদান, অবশ্য তিনি তা ওয়াজিব করেন নি।

বুখারি হাদিস নং ১০৬৩ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর তাহাজ্জুদের সালাতে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়ানোর ফলে তাঁর উভয় কদম মুবারক ফুলে যেতো।

হাদীস নং ১০৬৩ আবু নুআইম রহ………মুগীরা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রাত্রি জাগরণ করতেন অথবা… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৬৩ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর তাহাজ্জুদের সালাতে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়ানোর ফলে তাঁর উভয় কদম মুবারক ফুলে যেতো।

বুখারি হাদিস নং ১০৬৪ – সাহরীর সময় যে ঘুমিয়ে পড়েন।

হাদীস নং ১০৬৪ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ……….আবদুল্লাহ ইবনে আমর ইবনে আস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৬৪ – সাহরীর সময় যে ঘুমিয়ে পড়েন।

বুখারি হাদিস নং ১০৬৮ – সাহরীর পর ফজরের সালাত পর্যন্ত জাগ্রত থাকা।

হাদীস নং ১০৬৮ ইয়াকুব ইবনে ইবরাহীম রহ………আনাস ইবনে মালিক রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং যায়েদ ইবনে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৬৮ – সাহরীর পর ফজরের সালাত পর্যন্ত জাগ্রত থাকা।

বুখারি হাদিস নং ১০৬৯ – তাহাজ্জুদের সালাত দীর্ঘায়িত করা।

হাদীস নং ১০৬৯ সুলাইমান ইবনে হারব রহ………আবদুল্লাহ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাতে আমি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর সংগে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৬৯ – তাহাজ্জুদের সালাত দীর্ঘায়িত করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৭১ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সালাত কিরূপ ছিল এবং রাতে তিনি কত রাকআত সালাত আদায় করতেন ?

হাদীস নং ১০৭১ আবুল ইয়ামান রহ………আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. বলেন, একজন জিজ্ঞাসা করলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ ! রাতের সালাতের ((আদায়ের) পদ্ধতি… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৭১ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সালাত কিরূপ ছিল এবং রাতে তিনি কত রাকআত সালাত আদায় করতেন ?

বুখারি হাদিস নং ১০৭৫ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর ইবাদতে রাত জাগরণ এবং তাঁর ঘুমানো আর রাত জাগার যতটুকু রহিত করা হয়েছে।

হাদীস নং ১০৭৫ আবদুল আযীয ইবনে আবদুল্লাহ রহ………আনাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোন কোন… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৭৫ – নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর ইবাদতে রাত জাগরণ এবং তাঁর ঘুমানো আর রাত জাগার যতটুকু রহিত করা হয়েছে।

বুখারি হাদিস নং ১০৭৬ – রাতের বেলা সালাত আদায় না করলে গ্রীবাদেশে শয়তানের গ্রন্থী বেধে দেওয়া।

হাদীস নং ১০৭৬ আবদুল্লাহ ইবনে ইউসুফ রহ……….আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : তোমাদের কেউ… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৭৬ – রাতের বেলা সালাত আদায় না করলে গ্রীবাদেশে শয়তানের গ্রন্থী বেধে দেওয়া।

বুখারি হাদিস নং ১০৭৮ – সালাত আদায় না করে ঘুমিয়ে পড়লে শয়তান তার কানে পেশাব করে দেয়।

হাদীস নং ১০৭৮ মুসাদ্দাদ রহ…………আবদুল্লাহ (ইবনে মাসউদ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সামনে এক ব্যক্তির সম্পর্কে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৭৮ – সালাত আদায় না করে ঘুমিয়ে পড়লে শয়তান তার কানে পেশাব করে দেয়।

বুখারি হাদিস নং ১০৭৯ – রাতের শেষভাগে দু’আ করা ও সালাত আদায় করা।

হাদীস নং ১০৭৯ আবদুল্লাহ ইবনে মাসলামা রহ………..আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : মহামহিম আল্লাহ… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৭৯ – রাতের শেষভাগে দু’আ করা ও সালাত আদায় করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৮০ – যে ব্যক্তি রাতের প্রথমাংশে ঘুমিয়ে থাকে এবং শেষ অংশকে (ইবাদত দ্বারা) প্রাণবন্ত রাখে।

হাদীস নং ১০৮০ আবুল ওয়ালীদ ও সুলাইমান রহ………আসওয়াদ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আয়িশা রা.-কে জিজ্ঞাসা করলাম, রাতে নবী করীম… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮০ – যে ব্যক্তি রাতের প্রথমাংশে ঘুমিয়ে থাকে এবং শেষ অংশকে (ইবাদত দ্বারা) প্রাণবন্ত রাখে।

বুখারি হাদিস নং ১০৮১ – রমযানে ও অন্যান্য সময়ে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর রাত জেগে ইবাদত।

হাদীস নং ১০৮১ আবদুল্লাহ ইবনে ইউসুফ রহ………আবু সালামা ইবনে আবদুর রহমান রা. থেকে বর্ণিত, তিনি আয়িশা রা.-কে জিজ্ঞাসা করেন, রমযান… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮১ – রমযানে ও অন্যান্য সময়ে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর রাত জেগে ইবাদত।

বুখারি হাদিস নং ১০৮৩ – রাতে ও দিনে তাহারাত (পবিত্রতা) হাসিল করার ফজিলত এবং উযূ করার পর রাতে ও দিনে সালাত আদায়ের ফজিলত।

হাদীস নং ১০৮৩ ইসহাক ইবনে নাসর রহ……….আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একদিন ফজরের সালাতের সময়… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮৩ – রাতে ও দিনে তাহারাত (পবিত্রতা) হাসিল করার ফজিলত এবং উযূ করার পর রাতে ও দিনে সালাত আদায়ের ফজিলত।

বুখারি হাদিস নং ১০৮৪ – ইবাদতে কঠোরতা অবলম্বন অপছন্দনীয়।

হাদীস নং ১০৮৪ আবু মামার রহ……….আনাস ইবনে মালিক রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (মসজিদে) প্রবেশ করে দেখতে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮৪ – ইবাদতে কঠোরতা অবলম্বন অপছন্দনীয়।

বুখারি হাদিস নং ১০৮৫ – রাত জেগে ইবাদতকারীর ঐ ইবাদত বাদ দেওয়া মাকরূহ।

হাদীস নং ১০৮৫ আব্বাস ইবনে হুসাইন ও মুহাম্মদ ইবনে মুকাতিল আবুল হাসান রহ………আবদুল্লাহ ইবনে আমর ইবনে আস রা. থেকে বর্ণিত,… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮৫ – রাত জেগে ইবাদতকারীর ঐ ইবাদত বাদ দেওয়া মাকরূহ।

বুখারি হাদিস নং ১০৮৬ – পরিচ্ছেদ ৭৩৪

হাদীস নং ১০৮৬ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ……..আবুল আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে শুনেছি, তিনি… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮৬ – পরিচ্ছেদ ৭৩৪

বুখারি হাদিস নং ১০৮৭ – যে ব্যক্তি রাত জেগে সালাত আদায় করে তাঁর ফজিলত।

হাদীস নং ১০৮৭ সাদাকা ইবনে ফাযল রহ……….উবাদা ইবনে সামিত রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৮৭ – যে ব্যক্তি রাত জেগে সালাত আদায় করে তাঁর ফজিলত।

বুখারি হাদিস নং ১০৯০ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকাআত নিয়মিত আদায় করা।

হাদীস নং ১০৯০ আবদুল্লাহ ইবনে ইয়াযীদ রহ……….আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইশার সালাত আদায়… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯০ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকাআত নিয়মিত আদায় করা।

বুখারি হাদিস নং ১০৯১ – ফজরের দু’রাকাআত সুন্নাতের পর ডান কাতে শোয়া।

হাদীস নং ১০৯১ আবদুল্লাহ ইবনে ইয়াযীদ রহ……….আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ফজরের দু’রাকাআত করার… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯১ – ফজরের দু’রাকাআত সুন্নাতের পর ডান কাতে শোয়া।

বুখারি হাদিস নং ১০৯২ – দু’রাকআত (ফজরের সুন্নাত) এর পর কথাবার্তা বলা এবং না শোয়া।

হাদীস নং ১০৯২ বিশর ইবনে হাকাম রহ………আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (ফজরের সুন্নাত) সালাত আদায় করার… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯২ – দু’রাকআত (ফজরের সুন্নাত) এর পর কথাবার্তা বলা এবং না শোয়া।

বুখারি হাদিস নং ১০৯৩ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকআতের পর কথাবার্তা বলা।

হাদীস নং ১০৯৩ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ……….আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (ফজরের আযানের পর)… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯৩ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকআতের পর কথাবার্তা বলা।

বুখারি হাদিস নং ১০৯৪ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকাআতের হিফাযত আর যারা এ দু’রাকাআতকে নফল বলেছেন ।

হাদীস নং ১০৯৪ বায়ান ইবনে আমর রহ……আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোন নফল সালাতকে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯৪ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকাআতের হিফাযত আর যারা এ দু’রাকাআতকে নফল বলেছেন ।

বুখারি হাদিস নং ১০৯৫ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকআতে কতটুকু কিরাআত পড়া হবে।

হাদীস নং ১০৯৫ আবদুল্লাহ ইবেন ইউসুফ রহ……….আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রাতে তের রাকাআত… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯৫ – ফজরের (সুন্নাত) দু’রাকআতে কতটুকু কিরাআত পড়া হবে।

বুখারি হাদিস নং ১০৯৭ – নফল সালাত দু’রাকাআত করে আদায় করা।

হাদীস নং ১০৯৭ কুতাইবা রহ………..জাবির ইবনে আবদুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের সব কাজে… Read more বুখারি হাদিস নং ১০৯৭ – নফল সালাত দু’রাকাআত করে আদায় করা।

বুখারি হাদিস নং ১১০৩ – ফরয সালাতের পর নফল সালাত।

হাদীস নং ১১০৩ মুসাদ্দাদ রহ…………ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর অনুসরণে আমি যুহরের… Read more বুখারি হাদিস নং ১১০৩ – ফরয সালাতের পর নফল সালাত।