বুখারি হাদিস নং ৮৩৯ – জুমুআর জন্য তৈল ব্যবহার

হাদীস নং ৮৩৯ আদম রহ………সালমান ফারিসী রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : যে ব্যক্তি… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৩৯ – জুমুআর জন্য তৈল ব্যবহার

বুখারি হাদিস নং ৮৪২ – যা আছে তার মধ্য থেকে উত্তম কাপড় পরিধান করবে

হাদীস নং ৮৪২ আবদুল্লাহ ইবনে ইউসুফ রহ……..আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত যে, উমর ইবনে খাত্তাব রা. মসজিদে নববীর দরজার… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৪২ – যা আছে তার মধ্য থেকে উত্তম কাপড় পরিধান করবে

বুখারি হাদিস নং ৮৪৩ – জুমুআর দিন মিসওয়াক করা

হাদীস নং ৮৪৩ আবদুল্লাহ ইবনে ইউসুফ রহ………আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন :… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৪৩ – জুমুআর দিন মিসওয়াক করা

বুখারি হাদিস নং ৮৪৬ – অন্যের মিসওয়াক দিয়ে মিসওয়াক করা

হাদীস নং ৮৪৬ ইসমাঈল রহ………আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আবদুর রহমান ইবনে আবু বকর রা. একটি মিসওয়াক হাতে নিয়ে… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৪৬ – অন্যের মিসওয়াক দিয়ে মিসওয়াক করা

বুখারি হাদিস নং ৮৪৭ – জুমুআর দিন ফজরের সালাতে কী পড়তে হবে ?

হাদীস নং ৮৪৭ আবু নুআইম রহ……..আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জুমুআর দিন ফজরের… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৪৭ – জুমুআর দিন ফজরের সালাতে কী পড়তে হবে ?

বুখারি হাদিস নং ৮৪৮ – গ্রামে ও শহরে জুমুআর সালাত

হাদীস নং ৮৪৮ মুহাম্মদ ইবনে মুসান্না রহ………ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর মসজিদে জুমুআর… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৪৮ – গ্রামে ও শহরে জুমুআর সালাত

বুখারি হাদিস নং ৮৫০ – মহিলা, বালক-বালিকা এবং অন্য যারা জুমুআয় হাজির হয় না, তাদের কি গোসল করা প্রয়োজন ?

হাদীস নং ৮৫০ আবুল ইয়ামান রহ………আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে বলতে… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৫০ – মহিলা, বালক-বালিকা এবং অন্য যারা জুমুআয় হাজির হয় না, তাদের কি গোসল করা প্রয়োজন ?

বুখারি হাদিস নং ৮৫৫ – বৃষ্টির কারণে জুমুআর সালাতে হাজির না হওয়ার অবকাশ

হাদীস নং ৮৫৫ মুসাদ্দাদ রহ………ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি তাঁর মুআযযিনকে এক বর্ষণমুখর দিনে বললেন, যখন তুমি (আযানে) ‘আশহাদু… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৫৫ – বৃষ্টির কারণে জুমুআর সালাতে হাজির না হওয়ার অবকাশ

বুখারি হাদিস নং ৮৫৬ – কতদূর থেকে জুমুআর সালাতে আসবে এবং জুমুআ কার উপর ওয়াজিব ?

হাদীস নং ৮৫৬ আহমদ ইবনে সালিহ রহ……… নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সহধর্মিনী আয়িশা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, লোকজন… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৫৬ – কতদূর থেকে জুমুআর সালাতে আসবে এবং জুমুআ কার উপর ওয়াজিব ?

বুখারি হাদিস নং ৮৫৭ – সূর্য হেলে গেলে জুমুআর ওয়াক্ত হয়

হাদীস নং ৮৫৭ আবদান রহ………ইয়াহইয়া ইবনে সাঈদ রহ. থেকে বর্ণিত, তিনি আমরাহ রহ.-কে জুমুআর দিনে গোসল সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। আমরাহ… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৫৭ – সূর্য হেলে গেলে জুমুআর ওয়াক্ত হয়

বুখারি হাদিস নং ৮৬০ – জুমুআর দিন যখন সূর্যের তাপ প্রখর হয়

হাদীস নং ৮৬০ মুহাম্মদ ইবনে আবু বকর মুকাদ্দামী রহ………আনাস ইবনে মালিক রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬০ – জুমুআর দিন যখন সূর্যের তাপ প্রখর হয়

বুখারি হাদিস নং ৮৬১ – জুমুআর জন্য পায়ে হেটে চলা এবং আল্লাহর বাণী : ‘তোমরা আল্লাহর যিকিরের জন্য দৌড়িয়ে আস’

হাদীস নং ৮৬১ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ………আবায়া ইবনে রিফাআ রহ. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি জুমুআর সালাতে যাওয়ার সময় আবু… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬১ – জুমুআর জন্য পায়ে হেটে চলা এবং আল্লাহর বাণী : ‘তোমরা আল্লাহর যিকিরের জন্য দৌড়িয়ে আস’

বুখারি হাদিস নং ৮৬৪ – জুমুআর দিন সালাতে দুজনের মধ্যে ফাক না করা

হাদীস নং ৮৬৪ আবদান ইবনে আবদুল্লাহ রহ………সালমান ফারিসী রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন :… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৪ – জুমুআর দিন সালাতে দুজনের মধ্যে ফাক না করা

বুখারি হাদিস নং ৮৬৫ – জুমুআর দিন কোন ব্যক্তি তার ভাইকে উঠিয়ে দিয়ে তার জায়গায় বসবে না

হাদীস নং ৮৬৫ মুহাম্মদ ইবনে সাল্লাম রহ………ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিষেধ করেছেন,… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৫ – জুমুআর দিন কোন ব্যক্তি তার ভাইকে উঠিয়ে দিয়ে তার জায়গায় বসবে না

বুখারি হাদিস নং ৮৬৬ – জুমুআর দিনের আযান

হাদীস নং ৮৬৬ আদম রহ………সায়িব ইবনে ইয়াযীদ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আবু বকর রা.… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৬ – জুমুআর দিনের আযান

বুখারি হাদিস নং ৮৬৭ – জুমুআর দিন এক মুআযযিনের আযান দেওয়া

হাদীস নং ৮৬৭ আবু নুআইম রহ……..সায়িব ইবনে ইয়াযীদ রা. থেকে বর্ণিত, মদীনার অধিবাসীদের সংখ্যা যখন বৃদ্ধি পেল, তখন জুমুআর দিন… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৭ – জুমুআর দিন এক মুআযযিনের আযান দেওয়া

বুখারি হাদিস নং ৮৬৮ – ইমাম মিম্বারের উপর বসে জবাব দিবেন, যখন আযানের আওয়াজ শুনবেন

হাদীস নং ৮৬৮ ইবনে মুকাতিল রহ…………মুআবিয়া ইবনে আবু সুফিয়ান রা. থেকে বর্ণিত, তিনি মিম্বরে বসা অবস্থায় মুয়াযযিন আযান দিলেন। মুয়াযযিন… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৮ – ইমাম মিম্বারের উপর বসে জবাব দিবেন, যখন আযানের আওয়াজ শুনবেন

বুখারি হাদিস নং ৮৬৯ – আযানের সময় মিম্বারের উপর বসা

হাদীস নং ৮৬৯ ইয়াহইয়া ইবনে বুকাইর রহ………সায়িব ইবনে ইয়াযীদ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, মসজিদে মুসল্লীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেলে, ইসমান… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৬৯ – আযানের সময় মিম্বারের উপর বসা

বুখারি হাদিস নং ৮৭০ – খুতবার সময় আযান

হাদীস নং ৮৭০ মুহাম্মদ ইবনে মুকাতিল রহ……….সায়িব ইবনে ইয়াযীদ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আবু… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৭০ – খুতবার সময় আযান

বুখারি হাদিস নং ৮৭১ – মিম্বারের উপর খুতবা দেওয়া

হাদীস নং ৮৭১ কুতাইবা ইবনে সাঈদ রহ………আবু হাযিম ইবনে দীনার রা. থেকে বর্ণিত যে, (একদিন) কিছু লোক সাহল ইবনে সাদ… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৭১ – মিম্বারের উপর খুতবা দেওয়া

বুখারি হাদিস নং ৮৭৪ – দাঁড়িয়ে খুতবা দেওয়া

হাদীস নং ৮৭৪ উবাইদুল্লাহ ইবনে উমর কাওয়ারিরী রহ……….আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৭৪ – দাঁড়িয়ে খুতবা দেওয়া

বুখারি হাদিস নং ৮৭৫ – খুতবার সময় মুসল্লীগণের ইমামের দিকে আর ইমাম মুসল্লীগণের দিকে মুখ করা

হাদীস নং ৮৭৫ মুআয ইবনে ফাযালা রহ………..আবু সাঈদ খুদরী রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একদিন… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৭৫ – খুতবার সময় মুসল্লীগণের ইমামের দিকে আর ইমাম মুসল্লীগণের দিকে মুখ করা

বুখারি হাদিস নং ৮৭৬ – খুতবায় আল্লাহর প্রশংসার পর ‘আম্মা বা’দ বলা

হাদীস নং ৮৭৬ মুহাম্মদ ইবনে মা’মার রহ……….আমর ইবনে তাগলিব রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর কাছে… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৭৬ – খুতবায় আল্লাহর প্রশংসার পর ‘আম্মা বা’দ বলা

বুখারি হাদিস নং ৮৮১ – জুমুআর দিন দু’খুতবার মাঝে বসা

হাদীস নং ৮৮১ মুসাদ্দাদ রহ………আবদুল্লাহ ইবনে উমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দু’খুতবা দিতেন আর… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮১ – জুমুআর দিন দু’খুতবার মাঝে বসা

বুখারি হাদিস নং ৮৮২ – মনোযোগসহ খুতবা শোনা

হাদীস নং ৮৮২ আদম রহ…………আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন : জুমুআর দিন… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮২ – মনোযোগসহ খুতবা শোনা

বুখারি হাদিস নং ৮৮৩ – ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় কাউকে আসতে দেখলে তাকে দু’রাকাআত সালাত আদায়ের আদেশ দেওয়া

হাদীস নং ৮৮৩ আবু নুমান রহ………জাবির ইবনে আবদুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, (কোন এক) জুমুআর দিন নবী করীম সাল্লাল্লাহু… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮৩ – ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় কাউকে আসতে দেখলে তাকে দু’রাকাআত সালাত আদায়ের আদেশ দেওয়া

বুখারি হাদিস নং ৮৮৪ – ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় যিনি মসজিদে আসবেন তার সংক্ষেপে দু’রাকাআত সালাত আদায় করা

হাদীস নং ৮৮৪ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ………জাবির ইবনে আবদুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক জুমুআর দিন নবী করীম সাল্লাল্লাহু… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮৪ – ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় যিনি মসজিদে আসবেন তার সংক্ষেপে দু’রাকাআত সালাত আদায় করা

বুখারি হাদিস নং ৮৮৫ – খুতবায় দু’হাত উঠানো

হাদীস নং ৮৮৫ মুসাদ্দাদ রহ……….আনাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক জুমুআর দিন নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খুতবা দিচ্ছিলেন।… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮৫ – খুতবায় দু’হাত উঠানো

বুখারি হাদিস নং ৮৮৬ – জুমুআর দিন খুতবায় বৃষ্টির জন্য দু’আ

হাদীস নং ৮৮৬ ইবরাহীম ইবনে মুনযির রহ……..আনাস ইবনে মালিক রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর যুগে… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮৬ – জুমুআর দিন খুতবায় বৃষ্টির জন্য দু’আ

বুখারি হাদিস নং ৮৮৭ – জুমুআর দিন ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় অন্যকে চুপ করানো। যদি কেউ তার সাথীকে (মুসল্লীকে বলে) চুপ থাক, তাহলে সে একটি অনর্থক কথা বললো।

হাদীস নং ৮৮৭ ইয়াহইয়া ইবনে বুকাইর রহ……..আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন :… Read more বুখারি হাদিস নং ৮৮৭ – জুমুআর দিন ইমাম খুতবা দেওয়ার সময় অন্যকে চুপ করানো। যদি কেউ তার সাথীকে (মুসল্লীকে বলে) চুপ থাক, তাহলে সে একটি অনর্থক কথা বললো।