বোয়াল মাছের চচ্চড়া

পরিমাণমতো বোয়াল মাছ, মুলো আর কাঁচালঙ্কা। কাজেই, বাজারের ঝামেলা বেশি নেই। এ ছাড়া, রান্নাঘরে যা থাকা দরকার, তা-ও খুব সাধারণ— নুন, হলুদ, সর্ষের তেল আর ইচ্ছে হলে লঙ্কাবাটা।

রান্নার নিয়ম: প্রথমে মাছের পরিমাণ বুঝে মুলো ঝিরিঝিরি করে কেটে রাখুন। বোয়াল মাছের টুকরোগুলোতে মাখান অল্প নুন-হলুদ। কড়ায় তেল বসিয়ে একটু গরম হতেই কঁাচা তেলে মাছ ছাড়বেন। তেলটা কাঁচা বলে সাতলাতে সাতলাতে মাছগুলো ভেঙে যাবে। ঠিক তখনই কাঁটাগুলো বের করে ফেলুন। বোয়াল মাছে কাঁটা বেশি থাকে না, তাই ঝামেলা নেই। কাঁটা তোলার পর মুলো-ঝিরিটা দিয়ে দিন। মাছ, মুলো সেদ্ধ হয়ে এলে কয়েকটা কাঁচালঙ্কা, ইচ্ছে হলে লঙ্কাবাটা দিতে পারেন। নামানোর সময় ওপরে ছড়িয়ে দিন একটু কাঁচা তেল। মনে রাখবেন, এ রান্নায় আলাদা করে হলুদ দেওয়া চলবে না। ওই মাছে নুন-হলুদ মাখানোর সময় যেটুকু, ব্যস। চচ্চড়ার রং হবে সাদা।

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
আনন্দবাজার পত্রিকা
৪ মে ২০০৮

3 thoughts on “বোয়াল মাছের চচ্চড়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *