দুঃসাহস

দুঃসাহস - অনুবাদ : গোলাম মাওলা নইম। প্রথম প্রকাশ : ২০০০

০১. শুরুতে জায়গাটা ছিল একেবারে অন্যরকম

শুরুতে জায়গাটা ছিল একেবারে অন্যরকম, ঊষর, বৈরী এক প্রান্তর। কোন ভাবেই এখনকার অবস্থার সাথে মেলানো যাবে না। তিন বছরে বদলে গেছে সবকিছু-মরগান পিসের আলীশান শরীরের পাশে চার কামরার ছোট র‍্যাঞ্চ হাউস, লাগোয়া বার্ন, করাল; অন্যপাশে বেড়ায় ঘেরা ওঅটর ট্রাফ। সামনে ঢালু জমি কয়েক মাইল...

০২. স্যামুয়েল ব্রুকস নিজের ভাগ্যকে ধন্যবাদ জানাল

স্যামুয়েল ব্রুকস নিজের ভাগ্যকে ধন্যবাদ জানাল তিনদিন পর মেক্সিক্যান এক বুড়ো, এমিলিও কন্টেজ ওর কূকের চাকুরিতে যোগ দেয়ায়। প্রথম দর্শনেই লোকটাকে ভাল লাগল, তারপর দুই বেলা খাবার পেটে পড়তে পুরো পছন্দ হয়ে গেল তাকে। আরও কয়েকটা কারণও অবশ্য আছে-বুড়োর কৌতূহল কম এবং হাতের কাজ শেষ...

০৩. এমিলিও স্বীকার করুক বা না করুক

এমিলিও স্বীকার করুক বা না করুক স্যামুয়েল ব্রুকস জানে বাড পারকারকে খুন করা তার উচিত হয়নি। এ উপত্যকায় আসার পর থেকে গত তিন বছরে পারকারদের সম্পর্কে অনেক গল্প শুনেছে ও, কয়েকটা ঘটনাও দেখেছে। কাউকে ছাড় দেয়নি ওরা। জুলিয়াস পারকার বেসিনের সবচেয়ে ক্ষমতাবান লোক, শুরু থেকে সে যা...

০৪. সেলুনে ঢুকে দরজার একপাশে

সেলুনে ঢুকে দরজার একপাশে সরে দাঁড়াল স্যামুয়েল ব্রুকস। বাইরের উজ্জ্বল সকালের তুলনায় ভেতরের আলোকে অন্ধকারই বলা চলে। চোখ সয়ে আসার আগে সিগারেট আর সস্তা হুইস্কির কড়া গন্ধ লাগল নাকে। দম ছেড়ে ধীরে শ্বাস নিল, ইতোমধ্যে দেখে নিয়েছে ভেতরটা। একপাশে, উঁচু বারের ওপাশে ডাস্টি ফগের...

০৫. সিদ্ধান্তটা হঠাৎ করে নিয়েছে স্যামুয়েল

সিদ্ধান্তটা হঠাৎ করে নিয়েছে স্যামুয়েল ব্রুকস। আগাম বিপদ টের পাওয়ার সহজাত প্রবণতা আছে ওর মধ্যে। কারণ বিপদ ওর বহু পুরানো বন্ধু। পারকারের রাইডারেরা যে কোন সময়ে হামলা করতে পারে, কেবিনের চার দেয়ালের মধ্যে ওকে পেয়ে গেলে কাজটা সহজ হয়ে যাবে। সন্ধের পরপরই তাই সজি বাগানের...

০৬. বরাবরের মত ভোরে ঘুম ভাঙল

বরাবরের মত ভোরে ঘুম ভাঙল স্যামুয়েল ব্রুকসের। চোখ বুজে শুয়ে থেকে মনোযোগ দিয়ে শোনার চেষ্টা করল চারপাশের শব্দগুলো। ভুল হলো না, ঘাসের ওপর দিয়ে বুক টেনে চলার হালকা শব্দ দ্বিগুণ সতর্ক করে তুলল ওকে। গড়ান দিয়ে নেমে এল মেঝেয়, রাইফেল তুলে নিয়েছে হাতে। জানালা দিয়ে তাকাতে, ফিকে...

০৭. জেমস ফ্ল্যাগান দুটো স্ট্যালিয়ন জুড়ল

জেমস ফ্ল্যাগান দুটো স্ট্যালিয়ন জুড়ল ওয়াগনে। খানিক আগে বাফেলো টাউনের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে শেষ দুই পাঞ্চার। বেসিনের অবস্থা বিশেষ সুবিধের না হলেও পে-ডের ফুর্তি থেকে বঞ্চিত হতে নারাজ ওরা। গতকাল সন্ধ্যায় পাঞ্চারদের উদ্দেশে বলা কথাগুলো শহরে পৌঁছে, হুইস্কি গেলার পর কতটুকু...

০৮. প্রচণ্ড ব্যস্ততার মধ্যে কাটছে

প্রচণ্ড ব্যস্ততার মধ্যে কাটছে লরিয়া ফ্ল্যাগানের দিনগুলো। ব্রুকসের অক্লান্ত সেবা করছে। রাত-দিন সারাক্ষণই পাশে থাকছে, জোর করেও ওকে সরাতে পারেনি ফ্ল্যাগান। তৃতীয়দিন সকালে বিছানা ছাড়তে চাইল ব্রুকস, একরকম তেড়ে উঠল লরিয়া। আরও অন্তত দুদিন বিশ্রাম নেবে, দৃঢ় স্বরে ঘোষণা দিল।...

০৯. তিনদিন পর বিছানা ছাড়ল ব্রুকস

তিনদিন পর বিছানা ছাড়ল ব্রুকস। লরিয়ার যুক্তি বা বাধা কোনটাকেই পাত্তা দিল না। শুয়ে শুয়ে বিরক্তি ধরে গেছে। হোলস্টারগুলো বাধার সময় লক্ষ্য করল রেগে গেছে মেয়েটা, মুখ থমথমে দেখাচ্ছে। নিঃশব্দে সরে গেল জানালার কাছে, দাঁড়াল। দৃষ্টি বাইরে। লোহার গ্রিল চেপে ধরা আঙুলগুলো ফ্যাকাসে...

১০. লকহার্টের স্টোরে নির্বিঘ্নে পৌঁছাল ওরা

লকহার্টের স্টোরে নির্বিঘ্নে পৌঁছাল ওরা। উইলিয়াম লকহার্টকে আজ অন্য রকম মনে হচ্ছে-চাপা উৎকণ্ঠা লোকটার চোখে-মুখে। অন্য কোন সময় হলে যা হত, বড় ধরনের কিছু ঘটলেও সেটা তাকে স্পর্শ করত না, আজ তা নেই। এই প্রথম স্বভাববিরুদ্ধ একটা কাজে হাত দিয়েছে স্টোর মালিক, বাফেলো টাউনের একজন...

১১. ল-অফিসে রাত কাটিয়েছে ওরা

ল-অফিসে রাত কাটিয়েছে ওরা। আশঙ্কা করেছিল পারকারের লোকেরা হয়তো মন্টানা কিড আর টম লোগানকে বের করে নিয়ে যেতে চাইবে। তাই রাত জেগে পাহারা দিয়েছে। তেমন কিছু অবশ্য ঘটেনি। শেষ পালা ছিল ব্রুকসের। কাজ না থাকলে যা হয়, নানান চিন্তায় সময়টা কাটিয়েছে ও। গত কয়েকদিনের ঘটনাগুলো ভেবেছে,...