প্রৌঢ়

যৌবননদীর স্রোতে তীব্র বেগভরে 
একদিন ছুটেছিনু ; বসন্তপবন 
উঠেছিল উচ্ছ্বসিয়া ; তীরউপবন 
ছেয়েছিল ফুল্ল ফুলে ; তরুশাখা — ' পরে 
গেয়েছিল পিককুল — আমি ভালো করে 
দেখি নাই শুনি নাই কিছু — অনুক্ষণ 
দুলেছিনু আলোড়িত তরঙ্গশিখরে 
মত্ত সন্তরণে । আজি দিবা-অবসানে 
সমাপ্ত করিয়া খেলা উঠিয়াছি তীরে , 
বসিয়াছি আপনার নিভৃত কুটিরে ; 
বিচিত্র কল্লোলগীত পশিতেছে কানে , 
কত গন্ধ আসিতেছে সায়াহ্নসমীরে — 
বিস্মিত নয়ন মেলি হেরি শূন্যপানে 
গগনে অনন্তলোক জাগে ধীরে ধীরে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *