ঝড়

আকাশ ভেঙে বৃষ্টি পড়ে , 
       ঝড় এল রে আজ— 
মেঘের ডাকে ডাক মিলিয়ে 
       বাজ্‌ রে মৃদঙ বাজ্‌ । 
আজকে তোরা কী গাবি গান 
       কোন্‌ রাগিণীর সুরে । 
কালো আকাশ নীল ছায়াতে 
       দিল যে বুক পূরে । 
  
বৃষ্টিধারায় ঝাপসা মাঠে 
       ডাকছে ধেনুদল , 
তালের তলে শিউরে উঠে 
       বাঁধের কালো জল । 
পোড়ো বাড়ির ভাঙা ভিতে 
       ওঠে হাওয়ার হাঁক , 
শূন্য খেতের ও পার যেন 
       এ পারকে দেয় ডাক । 
  
আমাকে আজ কে খুঁজেছে 
       পথের থেকে চেয়ে । 
জলের বিন্দু পড়ছে রে তার 
       অলক বেয়ে বেয়ে । 
মল্লারেতে মীড় মিলায়ে 
       বাজে আমার প্রাণ , 
দুয়ার হতে কে ফিরেছে 
       না গেয়ে তার গান । 
  
আয় গো তোরা ঘরেতে আয় , 
       বোস্‌ গো তোরা কাছে । 
আজ যে আমার সমস্ত মন 
       আসন মেলে আছে । 
জলে স্থলে শূন্যে হাওয়ায় 
       ছুটেছে আজ কী ও । 
ঝড়ের'পরে পরান আমার 
       উড়ায় উত্তরীয় । 
  
আসবি তোরা কারা কারা 
       বৃষ্টিধারার স্রোতে 
কোন্‌ সে পাগল পারাবারের 
       কোন্‌ পরপার হতে । 
আসবি তোরা ভিজে বনের 
       কান্না নিয়ে সাথে , 
আসবি তোরা গন্ধরাজের 
       গাঁথন নিয়ে হাতে । 
  
ওরে , আজি বহু দূরের 
       বহু দিনের পানে 
পাঁজর টুটে বেদনা মোর 
       ছুটেছে কোন্‌খানে— 
ফুরিয়ে - যাওয়ার ছায়াবনে , 
       ভুলে - যাওয়ার দেশে , 
সকল - গড়া সকল - ভাঙা 
       সকল গানের শেষে । 
  
কাজল মেঘে ঘনিয়ে ওঠে 
       সজল ব্যাকুলতা , 
এলোমেলো হাওয়ায় ওড়ে 
       এলোমেলো কথা । 
দুলছে দূরে বনের শাখা , 
       বৃষ্টি পড়ে বেগে , 
মেঘের ডাকে কোন্‌ অশান্ত 
       উঠিস জেগে জেগে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *