ঋগ্বেদ ০৮।০৭৩

ঋগ্বেদ ০৮।০৭৩
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল সূক্ত ৭৩
অশ্বিদ্বয় দেবতা। সপ্তবধ্রি ঋষি।

১। হে অশ্বিদ্বয়! আমি যজ্ঞাভিলাষী, আমার জন্য উদিত হও, রথ যোজিত কর। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

২। হে অশ্বিদ্বয়! অতিশয় বেগবান্ রথে নিমেষ মধ্যে আগমন কর। তোমাদের রক্ষক আমাদের সমীপবর্তী হউক।

৩। হে অশ্বিদ্বয়! অত্রির জন্য হিমজলের দ্বারা ঘর্ম নিবারণ কর। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

৪। তোমরা কোথায় আছ? কোথায় যাইতেছ? শ্যেনপক্ষীর মত কোথায় পতিত হইতেছ? তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

৫। কোন কালে, কোন স্থানে, অদ্য আমাদের এই আহবান শ্ৰবণ করিবে, তাহা জানি না। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবৰ্তী হউক।

৬। যথাকালে অতিশয় আহ্বানযোগ অশ্বিদ্বয়ের নিকট গমন করি, নিকটবর্তী বান্ধবের নিকট গমন করি। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

৭। হে অশ্বিদ্বয়! তোমরা অত্রির জন্য রক্ষাকারী গৃহ নির্মাণ করিয়া ছিলে। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

৮। হে অশ্বিদ্বয়! মনোহর স্তুতিকারী অত্রির জন্য অগ্নিকে তাপ হইতে পৃথক কর। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্ত্তী হউক।

৯। সপ্তবধ্রি তোমাদের স্তুতিদ্বারা অগ্নির ধারাকে শয়ন করাইয়াছিলেন (১)। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১০। হে বৃষ্টিপ্রদ, ধনবিশিষ্ট অশ্বিদ্বয়! এই স্থানে আগমন কর, আমার আহ্বান শ্রবণ কর। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১১। হে অশ্বিদ্বয়! জীর্ণ বৃদ্ধের ন্যায় তোমাদিগকে পুনঃ পুনঃ আইস আইস বলতে হয় কেন? তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১২। হে অশ্বিদ্বয়! তোমাদের উভয়ের উৎপত্তি স্থান একই, তোমাদের বন্ধুও এক। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৩। হে অশ্বিদ্বয়! তোমাদের যে রথ আছে, সে দ্যাবাপৃথিবী এবং লোকসমূহে গমন করে। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৪। হে অশ্বিদ্বয়! সহস্র গোসমুহ এবং সহস্র অশ্বসমূহের সহিত আমাদের নিকট আগমন কর। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৫। হে অশ্বিদ্বয়! সহস্ৰসংখ্যক গোসমূহ ও অশ্বসমূহের সাহায্য আমাদের নিবারণ করিও না। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৬। হে অশ্বিদ্বয়! ঊষা শুভ্রবর্ণা, তিনি যজ্ঞবতী, তিনি জ্যোতি নির্মাণ করেন। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৭। কুঠারবিশিষ্ট ব্যক্তি যেরূপ বৃক্ষ ছেদন করে, অত্যন্ত দীপ্তিমান্ সূৰ্য্য সেইরূপ তম নিবারণ করেন, অতএব অশ্বিদ্বয়কে আহ্বান করি। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।

১৮। হে পরাভবকারী সপ্তবধ্রি! তুমি কৃষ্ণপেটক মধ্যে আবৃত হইয়াছিলে, পরে তাহাকে নগরের ন্যায় দগ্ধ করিয়াছিলে। তোমাদের রক্ষা আমাদের সমীপবর্তী হউক।


(১) সপ্তবধ্রি পেটক মধ্যে প্রবেশ করিয়াছিলেন এবং পরে অশ্বিদ্বয়ের অনুগ্রহে নির্গত হইয়াছিলেন। ৫।৭৮।৫ ঋক দেখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *