ঋগ্বেদ ০৮।০৪০

ঋগ্বেদ ০৮।০৪০
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল সূক্ত ৪০
ইন্দ্র ও অগ্নি দেবতা। নাভাক ঋষি।

১। হে ইন্দ্র ও অগ্নি! তোমরা শত্রু অভিভব করতঃ আমাদের ধন দান কর। অগ্নি যেরূপ বায়ুদ্বারা বনকে অভিভব করেন, আমরা সেইরূপ সেই ধনের, সাহায্যে দৃঢ় শত্রুবল অভিভব করিব। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

২। হে ইন্দ্র ও ইগ্নি! তোমাদের নিকট ধন যাচঞা করিব না; সৰ্ব্বাপেক্ষা বলবান নেতাগণের নেতা ইন্দ্রেরই যজ্ঞ করিব। তিনি অশ্বে আরোহণ করতঃ কখন অন্নলাভার্থ আগমন করেন, কখন যজ্ঞলাভার্থ আগমন করেন। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৩। সেই প্রসিদ্ধ ইন্দ্র ও অগ্নি যুদ্ধে মধ্যস্থলে নিবাস করেন। হে নেতৃদ্বয়! কবিগন জিজ্ঞাসা করিলে তোমরাই বন্ধুতাভিলাষী যজমানের কৃতকর্ম বযাপ্ত কর। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৪। যজ্ঞ এবং বাকযদ্বারা নাভাকের ন্যায় ইন্দ্র ও অগ্নিকে অর্চনা কর। এই সমস্ত জগৎ ইন্দ্র ও অগ্নিতে বৰ্ত্তমান, ইহারই ক্ৰোড়ে মহতী পৃথিবী ও দ্যুলোক ধন ধারণ করেন। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৫। নাভাকের ন্যায় ঋষি, ইন্দ্র ও অগ্নির উদ্দেশে স্তুতি প্রেরণ করিতেছেন। ইহারা সপ্তমূলবিশিষ্ট ও অবরুদ্ধ দ্বারবিশিষ্ট অর্ণবকে আচ্ছাদিত করেন। ইন্দ্র তেজোবলে ঈশ্বর। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৬। হে ইন্দ্র! প্রাচীন লোকে যেরূপ লতার শাখা চ্ছেদ করে, সেইরূপ তুমি সমস্ত শত্রুদিগকে চ্ছেদ কর। দাসের বল বিনাশ কর, আমরা ইন্দ্রের অনুগ্রহে এই দাসকর্তৃক সংগৃহীত অর্থ ভাগ করিয়া লইব (১)। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৭। এই যে সকল লোক ধনদ্বারা এবং স্তুতিদ্বারা ইন্দ্র ও অগ্নিকে আহ্বান করিতেছেন, তাঁহাদের মধ্যে আমরা সসৈন্য আমাদের মনুষ্যের সাহায্যে শত্রুগণকে অভিভূত করিব এবং শত্রুগণের স্তুতি ভজনা করিব। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৮। যে শ্বেতবর্ণ ইন্দ্র ও অগ্নি অধোদেশ হইতে দীপ্তির দ্বারা স্বর্গের উপরে গমন করেন, তাঁহাদেরই হব্য বহন করত অজমানগণ কার্য অনুষ্ঠান করিতেছে। তাহারাই প্রসিদ্ধ সিন্ধুসমূহকে বন্ধন হইতে মুক্ত করিয়াছিলেন। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

৯। হে হরিনামক অশ্বযুক্ত, বজ্রবান প্রেরক ইন্দ্র! তুমি প্রীতি প্রদান কর, তুমি বীর, তুমি ধনদান কর; তোমার অনেক উপমান বস্তু আভহে, তোমার প্ৰাচীন প্রশস্তি অনেক আছে; ঐ প্রশস্তি সকল আমাদের কৰ্ম্ম সম্পন্ন করুক। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

১০। হে স্তোতাগণ। দীপ্ত ধনভাক, ঋকমন্ত্রের যোগ্য ইন্দ্রকে উত্তম স্তুতিদ্বারা সংস্কৃত কর। আরও যে ইন্দ্র শুষ্মের অন্ত সকল ভেদ করেন, তিনিই স্বর্গীয় জল জয় করেন। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

১১। হে স্তোতাগণ! উত্তম যজ্ঞবিশিষ্ট, বিনাশরহিত, ধনভাক যাগযোগ্য ইন্দ্রকে সংস্কৃত কর। যে ইন্দ্র যজ্ঞের অভিমুখে গমন করেন, তিনি শুষ্মের অন্ত সকল ভেদ করেন, তিনি স্বৰ্গীয় জল জয় করেন। ইন্দ্র ও অগ্নি সমস্ত শত্রু হিংসা করুন।

১২। আমি পিতার ন্যায়, মান্ধাতার ন্যায়, অঙ্গিরার ন্যায়, ইন্দ্র ও অগ্নির উদ্দেশে নুতন স্তুতি পাঠ করিয়াছি। তাঁহারা ত্ৰিধাতু আশ্রয় স্বারা (২) আমদিগকে পালন করুন, আমরা ধনের স্বামী হইব।

————

(১) দাস অর্থে অনার্য্য বর্বরজাতি।

(২) মূলে “তৃধাতুনা শর্স্মণা” আছে। সায়ণ তাহার অর্থ ত্রিপর্ব গৃহ করিয়াছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *