ঋগ্বেদ ০৮।০৩১
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল সূক্ত ৩১
প্রথম চারটি ঋকের যজ্ঞ দেবতা; পরে যজ্ঞ প্রশংসা দেবতা। বৈবস্বত মনু ঋষি।

১। যে যে যজমান যাগ করে, যে পুনরায় যাগ করে, সে সোম অভিষব করে ও পাক করে এবং ইন্দ্রের স্তোত্র পুনঃ পুনঃ কামনা করে।

২। যে যজমান ইন্দ্রকে পুরোডাষ ও দুগ্ধমিশ্রিত সোম প্রদান করে, শত্রু তাহাকে নিশ্চয়ই পাপ হইতে রক্ষা করেন।

৩। দেবপ্রেরিত দ্যুতিমান রথ তাহারই হয়, সে তদ্বারা শত্রুকৃত বাধা নষ্ট করতঃ সমৃদ্ধ হয়।

৪। পুত্রাদিযুক্ত ও বিনাশরহিত ধেনুসহিত অন্ন উহার গৃহে প্রত্যহ লাভ করা যায়।

৫। হে দেবগণ! যে দম্পতি(১) একমনে অভিষব করে, সোম শোধন করে এবং মিশ্রণ দ্রব্যদ্বারা সোমমিশ্রিত করে।

৬। তাহারা ভোজনযোগ্য অন্নাদি লাভ করে এবং মিলিত হইয়া যজ্ঞে উপস্থিত হয়, তাহারা অন্নার্থ কোথাও গমন করে না।

৭। তাহারা দেবগণকে দিব বলিয়া অপলাপ করে না, তোমাদের অনুগ্রহ নিবারণ করিতে ইচ্ছা করে না, মহা অন্নদ্বারা তোমাদের পরিচর্যা করে।

৮। তাহারা পুত্রবিশিষ্ট, কুমারবিশিষ্ট, স্বৰ্ণভূষিত হইয়া উভয়ে সমস্ত পূর্ণ আয়ু লাভ করে।

৯। প্ৰিয় যজ্ঞবিশিষ্ট এই দম্পতির স্তুতি দেবগণ কামনা করেন, ইহারা দেবগণকে সুখপ্রদ অন্ন প্রদান করেন। তাহারা সন্ততি লাভার্থ দেহ সংযোগ করেন এবং দেবগণের পরিচর্যা করেন।

১০। আমরা পর্বতের ও নদীগণের প্রদেয় সুখ প্রার্থণা করিতেছি, দেবগণের সহিত মিলিত বিষ্ণুর প্রদেয় সুখ প্রার্থনা করিতেছি।

১১। দাতা ভজনীয় ও সর্বাপেক্ষ ধনধারী পূষা, শুভাগমন করিতেছেন, তিনি আগত হইলে বিস্তীর্ণ পথ আমাদের মঙ্গলকর হউক।

১২। শত্রুগণ কর্তৃক অধৃয্য দ্যোতমান পূষার সমস্ত স্তোতাগন ভক্তিদ্বারা পর্যাপ্ত স্তুতিবিশিষত হইতেছেন। আদিত্যগণের পক্ষে পাপশূন্য হইতেছেন।

১৩। মিত্র, বরুণ, অৰ্য্যমা যেরূপ রক্ষক, যজ্ঞের পথ সকলও সেইরূপ সুগম হউক।

১৪। হে দেবগণ! তোমাদের প্রধান, দীপ্তিমান অগ্নিকে ধন্যপ্ৰাপ্তির নিমিত্ত স্তুতিদ্বারা স্তব করি, তোমাদের পরিচর্য্যাকারী মনুষ্য বহুলোকের প্ৰিয়, যজ্ঞসাধক অগ্নিকে স্তব করিতেছে।

১৫। দেবাভিলাষী ব্যক্তির রথ শীঘ্র শূর যেরূপ কোন সৈন্য মধ্যে প্রবেশ করে, সেইরূপ দুৰ্গম পথে প্রবেশ করে। যে যজমান দেবগণের মনই স্তুতিদ্বারায় পূজা করিতে ইচ্ছা করে, সে যজ্ঞশূন্য জনকে অভিভব করে।

১৬। হে যজমান! তুমি বিনষ্ট হইবে না, হে সোমাভিষবকারী! বিনষ্ট হইবে না, হে দেবাভিলাষী! বিনষ্ট হইবে না।

১৭। যে যজমান দেবগণের মনই স্তুতিদ্বারা পূজা করিতে ইচ্ছা করে, সে যজ্ঞশূন্য জনকে অভিভব করে, কেহ কর্মদ্বারা তাহাকে ব্যাপ্ত করিতে পারে না, সে কখনও স্বস্থান হইতে পৃথক হয় না, পুত্রাদি হইতে পৃথক হয় না।

১৮। যে যজমান দেবগণের মনই স্তুতিদ্বারা পূজা করিতে ইচ্ছা করে, সে যজ্ঞশূন্য জনকে অভিভব করে। তাহার সুন্দর বীৰ্য্যবান পুত্র হয়, অশ্বসমূহযুক্ত ধনও তাহারই হয়।

————

(১) মূলে “দম্পতি” আছে। স্ত্রীপুরুষ একত্রে সোমাভিষবদ্বারা যজ্ঞ সম্পাদনকরণ ও সংসার সুখ লাভ করণের কথা ৫ হইতে ৯ ঋকে পাওয়া যায়।

Share This