ঋগ্বেদ ০৮।০১৬

ঋগ্বেদ ০৮।০১৬
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল  সূক্ত ১৬
ইন্দ্র দেবতা। ইরিম্বিঠ ঋষি।

১। মনুষ্যগণের মধ্যে সম্রাট ইন্দ্রকে স্তব কর। তিনি স্তুতিদ্বারা স্তত্য নেতা, শত্রুদিগের অভিভবিতা ও সর্বাপেক্ষা দাতা।

২। জলের তরঙ্গসমূহ সমুদ্রে যেরূপ শোভা পায়, উক্‌থ সকল সেইরূপ ইন্দ্ৰে শোভা পায়, সমস্ত শ্রবণীয় তাহাতে শোভা পায়।

৩। উত্তম স্তুতিদ্বারা ধন লাভার্থ সেই ইন্দ্রের পরিচর্য্যা করিতেছি। তিনি প্রশংসনীয়গণের মধ্যে শোভা পান, সংগ্রামে মহৎ কাৰ্য্য করেন এবং তিনি বলবান।

৪। যে ইন্দ্রের মত্ততা মহৎ, গভীর, বিস্তীর্ণ, শত্রুতারক শূরগণের যুদ্ধে হর্ষযুক্ত।

৫। ধনপ্রাপ্ত হইলে সেই ইন্দ্রকেই পক্ষপাত বচনের জন্য আহ্বান কয়। ইন্দ্র যাহাদের তাহারা জয় লাভ করে।

৬। সেই ইন্দ্রকেই বলকর স্তোত্রদ্বারা ঈশ্বর করা হয়; মনুষ্যগণ কৰ্ম্মদ্বারা তাঁহাকে ঈশ্বর করেন। এই ইন্দ্রই ধনের কর্তা হন।

৭। ইন্দ্র সকলের অধিক, তিনি ঋষি, তিনি বহুলোককর্তৃক আহুত, তিনি মহতকার্য্যের দ্বারা মহান।

৮। তিনি স্তোমার্হ, তিনি আহ্বানযোগ্য, তিনি সাধু, তিনি শত্রুগণের অবসাদকর, তিনি বহুকর্মা, তিনি এক হইয়াও শত্রুগণের অভিভবিতা।

৯। চৰ্ষণিগণ এবং লোকসকল তাঁহাকে অৰ্চনামন্ত্রদ্বারা বর্দ্ধিত করে, সামমন্ত্রদ্বারা বর্ধিত করে এবং গায়ত্রমন্ত্রদ্বারা বর্ধিত করে।

১০। তিনি প্রশস্ত ধনপ্রাপক, যুদ্ধে জ্যোতিঃপ্রকাশক, আয়ুধদ্বারা শত্রুগণের অভিভবকর।

১১। তিনি পূরয়িতা এবং বহুকর্তৃক আহূত; তিনি আমাদিগকে সমস্ত শত্রুগণ হইতে নৌকাদ্বারা নির্বিঘ্নে পার করুন।

১২। হে ইন্দ্র! তুমি আমাদিগকে বলে দ্বারা ধন প্রদান কর, আমাদিগকে পথ প্রদান করিতে ইচ্ছা কর, আমাদের অভিমুখে সুখ প্রদান কর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *