ঋগ্বেদ ০৮।০১৫

ঋগ্বেদ ০৮।০১৫
ঋগ্বেদ সংহিতা ।। ৮ম মণ্ডল  সূক্ত ১৫
ইন্দ্র দেবতা। গোসূক্তী এবং অশ্বসূক্তী ঋষি।

১। অনেকের আহুত, অনেকের স্তুত, সেই ইন্দ্রকে স্তব কর, বাক্যের দ্বারা মহান ইন্দ্রের পরিচর্য্যা কর।

২। দুই স্থানে ইন্দ্রের পূজনীয় মহাবল দ্যাবাপৃথিবীকে ধারণ করেন, শীঘ্রগমনকারী মেঘ এবং গমনশীল জলকে বীৰ্য্যদ্বারা ধারণ করেন।

৩। হে অনেকের স্তুত ইন্দ্র! তুমি শোভা পাইতেছ, তুমি জেতব্য এবং শ্রবণযোগ্য ধন নিয়ত করিবার জন্য একাকী বৃত্রগণকে বধ করিতেছ।

৪। হে বজ্রবান! তোমার হর্ষের প্রশংসা করি, উহা অভিলাষপ্রদ, সংগ্রামে শত্রুদিগের অভিভবকর, স্থানপ্রদ এবং অশ্বগণের দ্বারা সেবনীয়।

৫। হে ইন্দ্র! যে হর্ষদ্বারা আয়ুকে ও মনুকে সূৰ্য্যাদি দান করিয়াছিলে, সেই হর্ষে হৃষ্ট হইয়া তুমি প্রবৃদ্ধ যজ্ঞের কর্তা হইয়াছ।

৬। হে ইন্দ্র! পূর্বকালের ন্যায় অদ্যও উকৃথ মস্ত্ৰোচ্চারণকারিগণ তোমার সেই বলের প্রশংসা করে। তুমি ও পর্জ্জন্য যাহাদের স্বামী প্রতি দিবস সেই জল জয় করে।

৭। হে ইন্দ্র! স্তুতি তোমার সেই বৃহৎ বীৰ্য্য, তোমার সেই বল কৰ্ম্ম এবং বরণীয় বজ্রকে তীক্ষ্ণ করিতেছে।

৮। হে ইন্দ্র! দ্যুলোক তোমার বল বৰ্দ্ধিত করিতেছে, পৃথিবী তোমার যশ বৰ্দ্ধিত করিতেছে, অন্তরিক্ষ ও মেঘ তোমায় প্ৰীত করে।

৯। হে ইন্দ্র! মহান, নিবাসহেতু বিষ্ণু, মিত্র ও বরুণ তোমার স্তুতি করিতেছে। মরুৎগণ তোমার মত্ততার পর মত্ত হইতেছে।

১০। তুমি বর্ষক এবং দেবজন মধ্যে সৰ্ব্বাপেক্ষা দাতা, তুমি সুন্দর পুত্ৰাদির সহিত সমস্ত ধন ধারণ কর।

১১। হে বহুস্তুত ইন্দ্র! তুমি একাকী মহান শত্রুসমূহকে বিনাশ কর। কেহ ইন্দ্র অপেক্ষা অধিকতর কৰ্ম্ম প্ৰাপ্ত হয় না।

১২। হে ইন্দ্র! যে যুদ্ধে তোমাকে স্তোত্রদ্বারা রক্ষার্থে নানা প্রকারে স্তুতি করে, সেই যুদ্ধে আমাদের স্তোতাগণকর্তৃক আহুত হইয়া শত্রুবল জয় কর।

১৩। হে স্তোতা! আমাদের মহাগৃহের জন্য পৰ্য্যাপ্ত ও পরিব্যাপ্ত রূপকে স্তুতিদ্বারা ব্যাপ্ত করতঃ কৰ্ম্মপালক ইন্দ্রকে জেতব্য ধনের জন্য স্তুতি কর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *