ডাক শোনা যাবে

ডাক শোনা যাবে

এই সুখ কে এনেছে
তাকে তুমি মৃত্যুদণ্ড দাও!

এই ছিটে-বেড়া-দেওয়া বাড়ি
কে ছিল এখানে
শিউলি গাছটি আজ হিম ঝড়ে নত
সে কি জানে?
এত এলোমলো পদাঘাত
তুমুল শৈশবে
দু’হাতে বারুদ মেখে খেলা
শেষ হলো কবে?
সবুজ দিঘির পাশ ধুলো-মাখা-হাঁস
হংসীটিও কালো
বাতাসে পরাগ-গন্ধ, মাদক বাতাস
কোথায় হারালো?
সেই প্রেম
স্তন ছুঁয়ে ফুলের আদর
উরুর গরম থেকে বুক কাঁপা রোদ
জ্যোৎস্না-মাখা ঝড়!
সেই চিঠি, হাসির মুকুট
ভয়-ভাঙানোর অবলীলা
আকাশে উড়ন্ত প্রিয় গন্ধ
সব দুঃখ অন্তঃসলিলা।

॥২॥

এই সুখ কে এনেছে
তাকে তুমি মৃত্যুদণ্ড দাও।

সহসা ভেঙেছে যারা পাথরের ঘুম
বজ্রমুঠি লোহার আগুনে
তাদের বুকের মধ্যে জমেছে পাথর
শব্দ গুনে গুনে!
সার্থকতা বিমানের সিঁড়ি
ছাপার অক্ষরে ভালোবাসা
যেখানে হৃদয় ছিল, আজ
অচেনা বন্ধুরা খেলে পাশা
সেই নারী উষ্ণ সশরীর
অন্ধ খোঁজে তাকে
শীতের পাখিরা আসে পথ ভুলে
প্রবল বৈশাখে।
এই সুখ, এই সে ঘাতক
তুলে নাও ছুরি
রক্তস্নানে যদি দ্বিধা হয়
অন্য হাতে ভুলের মাধুরী।
চোখে চোখ, বুকে বুক আর
ওষ্ঠে গোলাপের ওষ্ঠ দিয়ো
অন্তরীক্ষে ডাক শোনা যাবে
রোমিও! রোমিও!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *