সিক্স মিলিয়ন ডলার ম্যান – মাইক জান

সিক্স মিলিয়ন ডলার ম্যান - মাইক জান । রূপান্তর : রকিব হাসান । প্রথম প্রকাশ: ১৯৮২

০১. মার্লিন এবং ইভান বেকিকে দেখে

মার্লিন এবং ইভান বেকিকে দেখে কিন্তু মোটেই বিজ্ঞানী মনে হয় না। অবশ্য দুর্বল দেহ, সাদা চুল পেছন দিকে উল্টে আঁচড়ানো, কথায় জার্মান টান, গোমড়ামুখো এবং অত্যন্ত পুরু লেন্সের ভারি চশমা পরা হতেই হবে বিজ্ঞানীকে, অমন ধারণা অনেকদিন আগেই পাল্টে গেছে। মার্লিন এবং ইভান দুজনেই...

০২. বিজ্ঞানের এক আশ্চর্য পুনঃসৃষ্টি

বিজ্ঞানের এক আশ্চর্য পুনঃসৃষ্টি স্টিভ অস্টিন পৃথিবীর প্রথম সফল সাইবর্গ। আধা মানুষ, আধা যন্ত্র। মানুষের স্বাভাবিক স্বভাবচরিত্র, আবেগ প্রবণতা, চিন্তাধারা সবই আছে তার। এর পাশাপাশিই আছে অপরিসীম যান্ত্রিক শক্তি। দৈহিক শক্তিতে তার সমকক্ষ তো দূরের কথা, কাছাকাছিও আসতে পারে...

০৩. উনিশ নম্বর সেন্সরটার কাছে

উনিশ নম্বর সেন্সরটার কাছে বসে আছে ইভান বেকি। কাছেই ঘাসের ওপর পা ছড়িয়ে বসে মার্লিন। কোলের ওপর রাখা পোর্টেবল টেস্ট ইকুইপমেন্ট। সেন্সর থেকে আসা সংকেত ধরছে একটা যন্ত্র, সঙ্গে সঙ্গেই রিডিং দিচ্ছে ডায়ালে। ভুরু কুঁচকে ডায়ালের দিকে তাকিয়ে আছে সে। অবাক হয়ে গেছে। আরও আধ মিনিট...

০৪. অসকার গোল্ডম্যানের জীপ চালাচ্ছে অস্টিন

অসকার গোল্ডম্যানের জীপ চালাচ্ছে অস্টিন। পেছনে আসছে পিকআপ এবং দুটো ট্রাক। অস্টিনের পাশে বসে পথ নির্দেশ দিচ্ছে টমরেনট্রি। ক্লেয়ার অ্যাঙ্গেল লেকের উত্তর ধার ঘেঁষে কাঁচা রাস্তা ধরে চলেছে চার গাড়ির ক্যারাভানটা। অপেক্ষাকৃত সরু আরেকটা কাঁচা রাস্তায় এসে পড়েছে প্রথম রাস্তা।...

০৫. ট্রিনিটি আল্পস ওয়াইল্ডারনেস আর রুট থ্রি

রাত্রি। ট্রিনিটি আল্পস ওয়াইল্ডারনেস আর রুট থ্রি এই দুটো পথের সঙ্গমস্থলে ক্যাম্প ফেলেছে অসকার গোল্ডম্যানের লোকেরা। হেলিকপ্টারে করে এখানে নিয়ে আসা হয়েছে অস্টিন আর ইভান বেকিকে। ইভানের দেখাশোনা করছেন এয়ার ফোর্সের একজন ডাক্তার। ভীষণ ক্লান্ত মনে হচ্ছে ভূতত্ত্ববিদকে। ছোট্ট...

০৬. চোখের পলকে খোলা জায়গাটুকু

চোখের পলকে খোলা জায়গাটুকুর মাঝখানে চলে এল সাসকোয়াচ। অস্টিনের ফুট দশেক সামনে থমকে দাঁড়াল। এক মুহূর্ত স্থির চোখে দেখল অস্টিনকে। যেন তার শক্তির পরিমাণ বুঝে নেবার চেষ্টা করছে। যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে শুরু করল জানোয়ারটা। ধীরে ধীরে সামনের দিকে ঝুঁকছে। কোমর বাঁকা করে দুহাতের...

০৭. স্তব্ধ হয়ে গুহার ভেতরে দাঁড়িয়ে

স্তব্ধ হয়ে গুহার ভেতরে দাঁড়িয়ে আছে অস্টিন। পরিষ্কার দেখেছে, এই গুহাটাতেই ঢুকেছে সাসকোয়াচ। বেরোনর একটাই পথ দেখতে পাচ্ছে। তাহলে গেল কোথায় রোবটটা? নিশ্চয়ই আরও কোন মুখ আছে। একদিকের দেয়ালের ধার ঘেঁষে গিয়ে ওপাশের ঢালু দেয়ালটার কাছে এসে দাঁড়াল সে। বায়োনিক হাতের আঙ্গুল দিয়ে...

০৮. মেয়েটির নাম শ্যালন

মেয়েটির নাম শ্যালন। অপরূপ সুন্দরী। একটা ধবধবে সাদা অপারেটিং টেবিলে শুয়ে আছে অস্টিন, তার ওপর ঝুঁকে আছে মেয়েটি। প্রথম পুরুষটির নাম এপ্লয়, দ্বিতীয়জন ফলার। দুজনেই শ্যালনের সহকারী। টেবিলটার দুদিকে দাঁড়িয়ে আছে। কিম্ভুত দর্শন কতগুলো টেস্ট ইকুইপমেন্ট ঘরের দেয়ালে বসান হয়েছে।...

০৯. টেলিমেট্রি টেবিলটার সামনে বসে

টেলিমেট্রি টেবিলটার সামনে বসে আছেন অসকার গোল্ডম্যান। চিন্তিতভাবে কফির কাপে চুমুক দিচ্ছেন। এই সময় সেখানে এসে হাজির হল রেনট্রি। সাংঘাতিক উত্তেজিত। চোখ তুলে চাইলেন গোল্ডম্যান। রেনট্রির চেহারা দেখেই অনুমান করলেন, খারাপ খবর আছে। বলে ফেল, বললেন গোল্ডম্যান। সেন্সর রিডিঙে কোন...

১০. বেস ক্যাম্প

বেস ক্যাম্প। কাঁটাতারের বেড়ার একপাশে এসে দাঁড়িয়েছে একটা জীপ। জোরে হর্ন বাজাল। তাঁবু থেকে বেরিয়ে এলেন গোল্ডম্যান। জীপটা দেখেই ছুটে গেলেন। সার্চ পার্টির জনাপাঁচেক লোক বসে আছে জীপে। ড্রাইভিং সীটের পাশে বসে মার্লিন বেকি। মুখ শুকনো, চোখে উদ্ভ্রান্ত দৃষ্টি। কিন্তু দেহ...

১১. মার্লিন বেকিকে নিয়ে চলে যাচ্ছে জীপটা

মার্লিন বেকিকে নিয়ে চলে যাচ্ছে জীপটা, দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখছেন গোল্ডম্যান এই সময়ে পাশে এসে দাঁড়াল রেনট্রি। নিউক্লিয়ার ডিভাইস এসে গেছে, বলল রেনট্রি। ছোট্ট, এক মেগাটন। কিন্তু এটাই মাঝারি আকারের একটা পাহাড় উড়িয়ে দিতে যথেষ্ট। ঠিক কোন জায়গায় বসান হবে বোমাটা? জানতে চাইলেন...

১২. শ্যালন চলে যেতেই

শ্যালন চলে যেতেই দ্রুত ক্যুনিকেটরের কাছে গিয়ে দাঁড়াল অস্টিন। বোতাম টিপতেই ছবি ফুটল টেলিভিশনের পর্দায়। করিডোরের একটা অংশ পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে। কি ভেবে আরও দুটো টেলিভিশনের বোতামও টিপল সে। কাউন্সিল চেম্বার দেখা গেল একটায়। তৃতীয় টেলিভিশনটা ভূগর্ভের বাইরের দৃশ্য দেখার...

১৩. স্তব্ধ হয়ে গেছে ট্রিনিটি বেস

স্তব্ধ হয়ে গেছে ট্রিনিটি বেস। সবাই পাথরের মত স্থির। কারও মুখে কথা নেই। অপেক্ষা করছে সবাই। আর মাত্র দুই মিনিট তিরিশ সেকেন্ড পরেই বিস্ফোরণ ঘটান হবে। প্রথমে একটা চাপা গুম গুম শব্দ শোনা যাবে। তারপর কাঁপতে শুরু করবে মাটি। প্রথমে খুবই ধীরে, আস্তে আস্তে বাড়বে কম্পন। আরও...

১৪. বনসীমার দিকে এগিয়ে চলেছে অস্টিন

বনসীমার দিকে এগিয়ে চলেছে অস্টিন। কাঁধে শ্যালন। পায়ের নিচে এখনও মাটি কাঁপছে, কিন্তু কম। বনের কাছে পৌঁছে ফিরে দাঁড়াল সে। ইনফ্রারেড স্ক্যানার ব্যবহার করে দেখল, বিস্ফোরিত এলাকার কেন্দ্রে প্রায় শখানেক গজ বৃত্তাকার জায়গায় মাটি লালচে দেখাচ্ছে। কালো ধোঁয়া উড়ছে আকাশে। ওই অংশে...

১৫. পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে মেডিক্যাল রুমে

পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে মেডিক্যাল রুমে। শ্যালন অপারেশন করছে। তাকে সাহায্য করতে টেবিল ঘিরে দাঁহিয়ে আছে কয়েকজন মেডিক্যাল ওয়ার্কার। শ্যালনের কাছাকাছি দাঁড়িয়ে দেখছে অস্টিন। দরজার কাছে দাঁড়িয়ে আছে সাসকোয়াচ। একটা ছোট্ট শিশির ভেতরে ইনজেকশনের ছুঁচ ঢুকিয়ে দিল শ্যালন। নীল ওষুধ...