২.০৪ অদ্ভুত কয়েকটা খবর

অদ্ভুত কয়েকটা খবর বেরোল ২৫ সেপ্টেম্বর, দি ওয়েস্ট মিনিস্টার গেজেট পত্রিকায়। সকালের সাধারণ সংখ্যায় বেরোল নিচের খবরটাঃ হ্যাম্পস্টেড রহস্য। গত দুই তিন দিন ধরিয়া কতকগুলি ভয়াবহ কাণ্ডকারখানা ঘটিয়া চলিয়াছে হ্যাম্পস্টেড এবং তাহার আশেপাশের এলাকায়। ঘটনা-গুলিকে বিভিন্ন নাম আখ্যায়িত করিতেছে লোকেরা। কেউ কেনসিংটনের আতঙ্ক, কেউ আততায়ী রমণী, আবার কেউ বা বলে শ্বেতবসনা সুন্দরী। উক্ত কয়েকদিন ধরিয়া বেশ কিছু সংখ্যক শিশু খেলার মাঠ বা অন্য কোন জায়গা হইতে বাড়ি ফিরিবার পথে রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজ হইয়া যায়। এবং এই নিরুদ্দিষ্ট হওয়ার ঘটনাগুলি ঘটে সন্ধ্যার পর। এই শিশুদের কেউ কেউ গভীর রাত্রে বাড়ি ফিরিয়া আসে, আর কেউবা ফেরেই না। পরে কোন গোপঝাড়ে বা কোন নির্জন জায়গায় অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায় উহাদের। তাহাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করিয়া বিশেষ কিছুই জানা যায় নাই। সব কয়জন শিশুই একই উত্তর দিয়াছে। তাহারা বলে, কে একজন রহস্যময়ী নারী তাহাদিগকে ভুলাইয়া লইয়া যায়, তারপর কি ঘটে আর তাহারা বলিতে পারে না।

একটা ব্যাপার লক্ষ্য করা গিয়াছে, এইসব ঘটনায় পতিত প্রতিটি শিশুর গলায় সূক্ষ্ম দুটি ক্ষতের সৃষ্টি হয়। সাধারণতঃ ইঁদুর বা ছোট আকারের কুকুরের দাঁতের কামড়ের সহিত ইহার বেশ সাদৃশ্য আছে। হ্যাম্পাস্টেডের চতুর্দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখিবার জন্য অত্যন্ত জরুরী নির্দেশ দেওয়া হইয়াছে স্থানীয় শান্তিরক্ষা বাহিনীকে।

সেই দিনই দি ওয়েস্ট মিনিস্টার গেজেট পত্রিকার বিশেষ সংস্করণে বেরোল নিম্নোক্ত খবরটিঃ

হ্যাম্পস্টেডের আতঙ্ক!
আর একটি শিশু আহত!!
আবার সেই রহস্যময়ী নারী!!!

এইমাত্র গোয়েন্দা বিভাগের সূত্র হইতে জানা গেল যে গত রাত্রে নিখোঁজ একটি শিশুকে আজ সকালে হ্যাম্পস্টেডের কাছাকাছি সুটার পাহাড়ের নির্জন জঙ্গল হইতে খুঁজিয়া বাহির করা হইয়াছে। সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। শিশুটির গলায় সূক্ষ্ম ক্ষতচিহ্ন এবং তাহাকে ভুলাইয়া লইয়া গিয়াছিল এক রহস্যময়ী নারী। তবে অন্যান্য শিশুর তুলনায় এ শিশুটি অত্যন্ত দুর্বল হইয়া পড়িয়াছে, এবং তাহার শরীর প্রায় রক্তশূন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *