০১.১ কোরআনের সত্যতা

প্রথম পরিচ্ছেদ – কোরআনের সত্যতা

আল্লাহতালায়া কোরআনের ছুরা নেহার দশম রুকুতে ফরমাইয়াছেন :-
“অনন্তর তাহারা কি কোরআনের মধ্যে চিন্তা করে না? যদ্যপি এই কোরআন আল্লাহ ব্যতীত অন্য কাহারও বাণী হইত, তবে নিশ্চয়ই ইহার মধ্যে মতভেদ থাকিত।”

আরও তিনি ছুরা বাকারার দ্বিতীয় রুকুতে ফরমাইয়াছেন :-
“আর যদি আমার বান্দা মোহাম্মদ (দঃ) এর উপর অবতীর্ণ কোরআনের প্রতি তোমাদের সন্দেহ হয়, তবে তোমরা এই ছুরার মত একটু ছুরা তৈয়ার কইয়া আন। (যদি না পার) তবে আল্লাহ ব্যতীত তোমাদের মাবুদ (মূর্তি)কে ডাকিয়া লও, তাহাদের নিকট সাহায্য প্রার্থণা কর, যদি তোমরা সত্যবাদী হও।”

আরও তিনি ছুরা হুদের প্রথম রুকুতে ফরমাইয়াছেন :-
“তাহারা বলে, এই কোরআনকে মিথ্যা রচনা করিয়াছেন; আপনি বলিয়া দিন, তোমরা এই ছুরাগুলির ন্যায় মিথ্যা দশটি ছুরা রচনা করিয়া দাও এবং আল্লাহ ব্যতীত যদি তোমাদের কোন সাহায্যকারী থাকে, তবে তাহাদিগকেও তোমাদের সঙ্গে ডাকিয়া লও, যদি তোমরা সত্যবাদী হও।”

এই তিনটি আয়াতের দ্বারা পরিষ্কার রূপে বুঝা যাইতেছে যে, এই কোরআন খাছ আল্লাহ তালায়ার বাণী। সুতরাং এই কোরআন যথার্থই সত্য, ইহাতে বিন্দুমাত্র সন্দেহ নাই। সন্দেহকারী কাফের হইবে। কাজেই এই কোরআনের মধ্যে ধর্ম সম্বন্ধীয় যাহা কিছু বলা হইয়াছে, তাহাও যথার্থ সত্য এবং ঠিক। তাহা সমস্ত মুসলমানের উপরই ফরজ। ঐ সমস্ত ফরজ (খোদার হুকুম) অস্বীকার বা অমান্যকারীগণ ছরাছর কাফের হইবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *