ঋগ্বেদীয় গর্ভাধান

ঋগ্বেদীয় গর্ভাধান

ঋতু হইতে ষোড়শদিনভ্যন্তরে জ্যোতিঃশাস্ত্রোক্ত নক্ষত্রে পতি অলঙ্কৃতা পত্নীকে শয্যায় আনিয়া তৎসহ সুখে উপবেশন পূর্ব্বক জীববৎসা সধবা স্ত্রী কর্ত্তৃক পেষিত শুকশিম্বা রস পত্নীর দক্ষিণনাসাপুটে প্রদান করিবেন। “ওঁ উদীর্বাত” ইত্যাদি মন্ত্রদ্বয় পাঠ পূর্ব্বক নাসাপুটে দিতে হয়। তদনন্তর “ওঁ বিষ্ণুর্যোনিং কল্পয়তু ত্বষ্টা রূপাণি পিংষতু। আসিঞ্চতু প্রজাপতির্ধাতা গর্ভং দয়াতু তে স্বাহা।” ও “ওঁ তৎ পৃষন্নিতি মন্ত্রস্য সূর্য্যাসাবিত্রীঋষিঃ সূর্য্যাসাবিত্রী দেবতে পংক্তিচ্ছন্দঃ পত্নীগমনে বিনিয়োগঃ। ওঁ তৎ পৃষঞ্জিরতমাসে বয়স্বয়স্যাং বীজং। মনুষ্যা আপপন্তি যাব ঊরু ঊষতী বিশ্রয়াতে যস্যামুষন্তঃ প্রহরাম শেফঃ।” ইত্যাদি মন্ত্রে যথানিয়মে পত্নীতে উপগত হইবে। শয়নকালে “হে অমুকে প্রাণে তে বেতো দধামি ইতি পঠেৎ। সমাপ্তেহনুওপ্রীণয়েৎ।” ইত্যাদি এবং “ওঁ ভূরগ্নিগর্ভাঃ যথা দ্যৌরিতি মন্ত্রেণ গর্ভিণী। বায়ুর্যথা দিশাং গর্ভং এবং গর্ভঃ দধামি তে।” ইত্যাদি পাঠ করিবে। তৎপরে “ওঁ আপ ইত্বা উভেষজীরাপোহমাং বচাতনীঃ। আপঃ সর্ব্বস্য ভৈষজীস্তত্তে কৃণ্বন্তু ভেষজং ইত্যুপস্থং প্রক্ষালয়েৎ” ইত্যাদি এবং “হস্তাভ্যাং দশশাখাভ্যাং জিহ্বাবচঃ পুরো গতিঃ। অনায় ইত্যুভাভ্যাং ত্বোপস্পৃশামসি।” ইত্যাদি মন্ত্রে উভয়ে অঙ্গ প্রক্ষালন করিবে। পরে হস্ত পদ প্রক্ষালণ পূর্ব্বক দুইবার আচমন করিয়া “ওঁ সূর্য্যো নো দিবস্পতে বাতো নোহন্তরীক্ষয়াৎ। অগ্নির্নঃ পাহি নো বিদ্যুতঃ পতন্ত্যাঃ।” ইত্যাদি মন্ত্রে করপুটে সূর্য্যোপস্থান করিয়া ‘চক্ষর্ধাতা” ইত্যাদি মন্ত্রে অগ্নির উপস্থাপন করিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *