০৯. অগস্ত্য মুনি কর্ত্তৃক রাক্ষগণের জন্ম-বৃত্তান্ত বর্ণন

অগস্ত্য মুনি কর্ত্তৃক রাক্ষগণের জন্ম-বৃত্তান্ত বর্ণন শ্রীরাম বলেন মুনি তুমি অন্তর্য্যামী। সংসারের বিবরণ সব জান তুমি।। রাবণের জন্মকথা কহ দেখি শুনি। পরম আনন্দে তবে হয় মহামুনি।। ব্রহ্ম অংশে জন্মে রাবণ সর্ব্বলোক জানে। রাক্ষস হইল তবে কিসের কারণে।। মুনি বলে রঘুনাথ শুন...

০৮. লঙ্কার উৎপত্তি

লঙ্কার উৎপত্তি অগস্ত্য বলেন, রাম বাক্যে দেহ মন। সবাকে বিদায় দিলা দেব ত্রিলোচন।। ভবানী সহিত গৃহে রহে পঞ্চানন। হাস্য পরিহাসে সদা আনন্দে মগন।। হেতা শুন হেমন্তের গৃহের কাহিনী। বসিলা হেমন্ত-গিরি ও মেনকা রাণী।। হেনকালে গিরিগণ মাগিল মেলানি। রহিতে পর্ব্বতগণে বলে প্রিয়বাণী।।...

হর-গৌরীর বিদায়

হর-গৌরীর বিদায় স্নান সন্দ্যা কৈলা হর প্রত্যূষ-বিহানে। দেবগণে লয়ে হর বসিলা দেয়ানে।। ব্রহ্মা বলে, গিরিরাজ দেহ ত মেলানি। ছায়া মণ্ডপেতে গিয়া বৈসে শূলপাণি।। নানা রত্ন নানা ধন দিলা ব্যবহার। দেবগণ অগ্রে গিরি মাগে পরিহার।। লড়িলা সকল দেব পরম আনন্দে। গৌরীকে করিয়া কোলে রাজরাণী...

০৬. শিব-বিবাহ

শিব-বিবাহ সমস্ত দেবতা গেলা হিমালয়-ঘর। বাহিরিলা গিরিরাজ দেখিয়া অমর।। বড় বেড়ি রহিলা যতেক দেবগণ। বসিতে আসন দিল করিয়া বরণ। দধি দুগ্ধ গঙ্গাজল অগুরু চন্দন।। গুয়া নারিলেক দিল উত্তম বসন।। বরের বরণ কৈল বেলা শুভক্ষণে। চারিদিকে বেদধ্বনি শুনি ঘনে ঘনে।। বরেরে বরিয়া হিমালয় গেলা ঘর।...

০৫. শঙ্করের বিবাহার্থ যাত্রা

শঙ্করের বিবাহার্থ যাত্রা প্রভাত হইল রাত্রি প্রত্যূষে বিহানে। দেশে দেশে পাঠাইল কুটুম্ব-জানানো।। চারিদিগে গিরিগণে দিলা আমন্ত্রণ। আনন্দিত দেবগণ এ তিন ভুবন।। সবাকে জানান দেব গৃহ ব্যবহার। আমন্ত্রণ পেলে সবে হবে আগুসার।। উদয় ও অস্তগিরি এল দুইজন। নীলগিরি ময়ভঙ্গ এল নারায়ণ।।...

০৪. পার্ব্বতীর অধিবাস

পার্ব্বতীর অধিবাস অধিবাস-দ্রব্য সব পাঠান শঙ্কর। নারদের সঙ্গে দিলা ভীমা যে নফর।। অধিবাস-দ্রব্য দিলা অযুতেক ভার। রসাল কাঁটাল গুড় নারিকেল আর।। খদি দধি কলা দিলা পাট পাটাম্বর। লেখাজোখা নাই দ্রব্য চলিল বিস্তর।। অধিবাস-দ্রব্য পাঠান নারদেরে দিয়া। সব দ্রব্য নিয়োজে ভীমারে আজ্ঞা...

০৩. শঙ্করের বিবাহ-সম্বন্ধ

অগস্ত্যে জিজ্ঞাসে রাম কমললোচন। কার তরে কৈলা ব্রহ্মা লঙ্কার সৃজন।। মুনি বলিলেন, শুন পুরাণ উত্তর। লঙ্কার সৃজন হেতু শুন রঘুবর।। সুমেরু পবনে বাদ অযুত-বৎসর। পবন লঙ্ঘিতে নারে সুমেরু শিখর।। তিনশৃঙ্গে পর্ব্বত সে জুড়িল গগন। সুমেরুতে চন্দ্র-সূর্য্যের নাহিক গমন।। সকল পর্ব্বত...

০২. লক্ষ্মণের চতুর্দ্দশ-বর্ষ ব্রহ্মচর্য্য, নিদ্রাজয় ও উপবাস বৃত্তান্ত কথন

মহামুনি অগস্ত্য যে বৈসেন দক্ষিণে। রাক্ষসের বৃত্তান্ত সকল মুনি জানে।। রাক্ষসের কথা কহে অগস্ত্য মহামুনি। সভাখণ্ড শুনিছেন সহ রঘুমণি।। অগস্ত্য বলেন রাম জিজ্ঞাসি তোমারে। কিরূপে করিলে যুদ্ধ লঙ্কার ভিতরে।। ধনুর্দ্ধারী তুমি আর ঠাকুর লক্ষ্মণ। কোন্ কোন্ বীরে বধ কৈলে কোন্ জন।।...

০১. শ্রীরামের সভায় মুনিগণের আগমন ও শ্রীরাম-সম্ভাষণ

আজি কালিকার যেন বৈকুণ্ঠ-নগরী। শঙ্খ চক্র গদা পদ্ম দিব্য শার্ঙ্গধারী।। নীলোৎপল সমান শ্যামলকলেবর। পীতাম্বর সতড়িত যেন জলধর।। বনমালা গলে দোলে আর হেমহার। কপোলে লম্বিত মণি শোভা কত তার।। মকর কুণ্ডল ভাল শ্রবণেতে দোলে। তাহার উজ্জ্বল আভা লেগেছে কপোলে।। আজানুলম্বিত বাহু নাভি...

১২২. হনুমানের অন্নভোজন ও বিভীষণাদির স্বদেশ গমন

বিভীষণে কন রাম করিয়া আদর। আজি হৈতে তুমি মম ভাই সহোদর।। চারি ভাই ছিলাম হইলাম পঞ্চ জন। পঞ্চ জন মিলি রাজ্য করিব পালন।। দান ভিক্ষা দিয়া সবে কর পরিহার। দানে শূন্য কৈল যত রামের ভাণ্ডার।। সীতা ঠাকুরাণী গিয়া করিলা রন্ধন। চারি ভাই এক ঠাঁই করিলা ভোজন।। হনুমানে অন্ন দেন সীতা...