নতুন পুতুল

এই গুণী কেবল পুতুল তৈরি করত; সে পুতুল রাজবাড়ির মেয়েদের খেলার জন্যে। বছরে বছরে রাজবাড়ির আঙিনায় পুতুলের মেলা বসে। সেই মেলায় সকল কারিগরই এই গুণীকে প্রধান মান দিয়ে এসেছে। যখন তার বয়স হল প্রায় চার কুড়ি, এমনসময় মেলায় এক নতুন কারিগর এল। তার নাম কিষণলাল, বয়স তার নবীন, নতুন...

নতুন রঙ

এ ধূসর জীবনের গোধূলী,            ক্ষীণ তার উদাসীন স্মৃতি, মুছে-আসা সেই ম্লান ছবিতে            রঙ দেয় গুঞ্জনগীতি। ফাগুনের চম্পকপরাগে            সেই রঙ জাগে, ঘুমভাঙা কোকিলের কূজনে            সেই রঙ লাগে, সেই রঙ পিয়ালের ছায়াতে         ঢেলে দেয় পুর্ণিমাতিথি। এই ছবি...

নববিরহ

মল্লার হেরিয়া শ্যামল ঘন নীল গগনে সজল কাজল‐আঁখি পড়িল মনে—        অধর করুণা‐মাখা,        মিনতি‐বেদনা‐আঁকা        নীরবে চাহিয়া থাকা              বিদায়খনে— হেরিয়া শ্যামল ঘন নীল গগনে।   ঝরোঝরো ঝরে জল, বিজুলি হানে, পবন মাতিছে বনে পাগল গানে।        আমার পরানপুটে       ...

নাই নাই ভয়, হবে হবে জয়

নাই নাই ভয়, হবে হবে জয়, খুলে যাবে এই দ্বার— জানি জানি তোর বন্ধনডোর ছিঁড়ে যাবে বারে বার॥ খনে খনে তুই হারায়ে আপনা   সুপ্তিনিশীথ করিস যাপনা— বারে বারে তোরে ফিরে পেতে হবে বিশ্বের অধিকার॥ স্থলে জলে তোর আছে আহ্বান, আহ্বান লোকালয়ে—...

নাটক

          নাটক লিখেছি একটি।                   বিষয়টা কী বলি।   অর্জুন গিয়েছেন স্বর্গে,         ইন্দ্রের অতিথি তিনি নন্দনবনে। উর্বশী গেলেন মন্দারের মালা হাতে         তাঁকে বরণ করবেন ব’লে। অর্জুন বললেন, “দেবী, তুমি দেবলোকবাসিনী,       অতিসম্পূর্ণ তোমার মহিমা,          ...

নামের খেলা

প্রথম বয়সেই সে কবিতা লিখতে শুরু করে। বহু যত্নে খাতায় সোনালি কালির কিনারা টেনে, তারই গায়ে লতা এঁকে, মাঝখানে লাল কালি দিয়ে কবিতাগুলি লিখে রাখত। আর, খুব সমারোহে মলাটের উপর লিখত, শ্রীকেদারনাথ ঘোষ। একে একে লেখাগুলিকে কাগজে পাঠাতে লাগল। কোথাও ছাপা হল না। মনে মনে সে স্থির...

নিশিদিন ভরসা রাখিস

নিশিদিন   ভরসা রাখিস,   ওরে মন,   হবেই হবে। যদি পণ     করে থাকিস      সে পণ তোমার রবেই রবে।               ওরে মন,   হবেই হবে॥ পাষাণসমান আছে পড়ে,          প্রাণ পেয়ে সে উঠবে ওরে,      আছে যারা বোবার মতন তারাও কথা কবেই কবে॥...

নিষ্ফল উপহার

নিম্নে আবর্তিয়া ছুটে যমুনার জল— দুই তীরে গিরিতট, উচ্চ শিলাতল! সংকীর্ণ গুহার পথে মূর্ছি জলধার উন্মত্ত প্রলাপে ওঠে গর্জি অনিবার। এলায়ে জটিল বক্র নির্ঝরের বেণী নীলাভ দিগন্তে ধায় নীল গিরিশ্রেণী। স্থির তাহা, নিশিদিন তবু যেন চলে— চলা যেন বাঁধা আছে অচল শিকলে।   মাঝে মাঝে শাল...

নূতন কাল

        আমাদের কালে গোষ্ঠে যখন সাঙ্গ হল              সকালবেলার প্রথম দোহন,         ভোরবেলাকার ব্যাপারিরা              চুকিয়ে দিয়ে গেল প্রথম কেনাবেচা,         তখন কাঁচা রৌদ্রে বেরিয়েছি রাস্তায়,              ঝুড়ি হাতে হেঁকেছি আমার কাঁচা ফল নিয়ে— তাতে কিছু হয়তো ধরেছিল...