প্রেম

অজানা খনির নূতন মণির গেঁথেছি হার

অজানা খনির নূতন মণির গেঁথেছি হার, ক্লান্তিবিহীনা নবীনা বীণায় বেঁধেছি তার॥ যেমন নূতন বনের দুকূল, যেমন নূতন আমের মুকুল, মাঘের অরুণে খোলে স্বর্গের নূতন দ্বার, তেমনি আমার নবীন রাগের নব যৌবনে নব সোহাগের রাগিণী রচিয়া উঠিল নাচিয়া বীণার তার॥ যে বাণী আমার কখনো কারেও হয় নি বলা...

অজানা সুর কে দিয়ে যায় কানে কানে

অজানা সুর কে দিয়ে যায় কানে কানে, ভাবনা আমার যায় ভেসে যায় গানে গানে॥ বিস্মৃত জন্মের ছায়ালোকে হারিয়ে-যাওয়া বীণার শোকে ফাগুন-হাওয়ায় কেঁদে ফিরে পথহারা রাগিণী। কোন্‌ বসন্তের মিলনরাতে তারার পানে ভাবনা আমার যায় ভেসে যায় গানে...

অধরা মাধুরী ধরেছি ছন্দোবন্ধনে

অধরা মাধুরী ধরেছি ছন্দোবন্ধনে। ও যে সুদূর রাতের পাখি গাহে সুদূর রাতের গান॥ বিগত বসন্তের অশোকরক্তরাগে ওর রঙিন পাখা, তারি ঝরা ফুলের গন্ধ ওর অন্তরে ঢাকা ॥ ওগো বিদেশিনী, তুমি ডাকো ওরে নাম ধরে, ও যে তোমারি চেনা। তোমারি দেশের আকাশ ও যে জানে, তোমার রাতের তারা, তোমারি...

অনেক কথা বলেছিলেম কবে তোমার কানে কানে

অনেক কথা বলেছিলেম কবে তোমার কানে কানে কত নিশীথ-অন্ধকারে, কত গোপন গানে গানে॥ সে কি তোমার মনে আছে তাই শুধাতে এলেম কাছে– রাতের বুকের মাঝে তারা মিলিয়ে আছে সকল খানে॥ ঘুম ভেঙে তাই শুনি যবে দীপ-নেভা মোর বাতায়নে স্বপ্নে পাওয়া বাদল-হাওয়া ছুটে আসে ক্ষণে ক্ষণে–...

অনেক কথা যাও যে ব’লে কোনো কথা না বলি

অনেক কথা যাও যে ব'লে কোনো কথা না বলি। তোমার ভাষা বোঝার আশা দিয়েছি জলাঞ্জলি॥ যে আছে মম গভীর প্রাণে ভেদিবে তারে হাসির বাণে, চকিতে চাহ মুখের পানে তুমি যে কুতূহলী। তোমারে তাই এড়াতে চাই, ফিরিয়া যাই চলি। আমার চোখে যে চাওয়াখানি ধোওয়া সে আঁখিলোরে-- তোমারে আমি দেখিতে পাই, তুমি...

অনেক দিনের আমার যে গান

অনেক দিনের আমার যে গান আমার কাছে ফিরে আসে তারে আমি শুধাই, তুমি ঘুরে বেড়াও কোন্‌ বাতাসে॥ যে ফুল গেছে সকল ফেলে গন্ধ তাহার কোথায় পেলে, যার আশা আজ শূন্য হল কী সুর জাগাও তাহার আশে॥ সকল গৃহ হারালো যার তোমার তানে তারি বাসা, যার বিরহের নাই অবসান তার মিলনের আনে ভাসা। শুকালো...

অনেক পাওয়ার মাঝে মাঝে কবে কখন একটুখানি পাওয়া

অনেক পাওয়ার মাঝে মাঝে কবে কখন একটুখানি পাওয়া, সেইটুকুতেই জাগায় দখিন হাওয়া ॥ দিনের পর দিন চলে যায় যেন তারা পথের স্রোতেই ভাসা, বাহির হতেই তাদের যাওয়া আসা। কখন আসে একটি সকাল সে যেন মোর ঘরেই বাঁধে বাসা, সে যেন মোর চিরদিনের চাওয়া ॥ হারিয়ে যাওয়া আলোর মাঝে কণা কণা কুড়িয়ে...

অলকে কুসুম না দিয়ো

অলকে কুসুম না দিয়ো, শুধু শিথিল কবরী বাঁধিয়ো। কাজলবিহীন সজল নয়নে হৃদয়দুয়ারে ঘা দিয়ো ॥ আকুল আঁচলে পথিকচরণে মরণের ফাঁদ ফাঁদিয়ো-- না করিয়া বাদ মনে যাহা সাধ, নিদয়া, নীরবে সাধিয়ো ॥ এসো এসো বিনা ভূষণেই, দোষ নেই তাহে দোষ নেই। যে আসে আসুক ওই তব রূপ অযতন-ছাঁদে ছাঁদিয়ো। শুধু...

অলি বার বার ফিরে যায়

অলি বার বার ফিরে যায়, অলি বার বার ফিরে আসে-- তবে তো ফুল বিকাশে॥ কলি ফুটিতে চাহে ফোটে না, মরে লাজে মরে ত্রাসে। ভুলি মান অপমান, দাও মন প্রাণ, নিশি দিন রহো পাশে। ওগো, আশা ছেড়ে তবু আশা রেখে দাও, হৃদয়রতন-আশে। ফিরে এসো ফিরে এসো-- বন মোদিত ফুলবাসে। আজি বিরহরজনী, ফুল্ল কুসুম...

অশান্তি আজ হানল এ কী দহনজ্বালা

অশান্তি আজ হানল এ কী দহনজ্বালা। বিঁধল হৃদয় নিদয় বাণে বেদনঢালা॥ বক্ষে জ্বালায় অগ্নিশিখা, চক্ষে কাঁপায় মরীচিকা-- মরণসুতোয় গাঁথল কে মোর বরণমালা॥ চেনা ভুবন হারিয়ে গেল স্বপনছায়াতে ফাগুনদিনের পলাশরঙের রঙিন মায়াতে। যাত্রা আমার নিরুদ্দেশা, পথ হারানোর লাগল নেশা-- অচিন দেশে...

আকাশে আজ কোন্‌ চরণের আসা-যাওয়া

আকাশে আজ কোন্‌ চরণের আসা-যাওয়া বাতাসে আজ কোন্‌ পরশের লাগে হাওয়া ॥ অনেক দিনের বিদায়বেলায় ব্যাকুল বাণী আজ উদাসীর বাঁশির সুরে কে দেয় আনি-- বনের ছায়ায় তরুণ চোখের করুণ চাওয়া ॥ কোন্‌ ফাগুনে যে ফুল ফোটা হল সারা মৌমাছিদের পাখায় পাখায় কাঁদে তারা। বকুলতলায় কাজ-ভোলা সেই কোন্‌...

আকুল কেশে আসে চায় ম্লাননয়নে কে গো চিরবিরহিনী

আকুল কেশে আসে, চায় ম্লাননয়নে, কে গো চিরবিরহিনী-- নিশিভোরে আঁখি জড়িত ঘুমঘোরে, বিজন ভবনে কুসুমসুরভি মৃদু পবনে, সুখশয়নে, মম প্রভাতস্বপনে॥ শিহরি চমকি জাগি তার লাগি। চকিতে মিলায় ছায়াপ্রায়, শুধু রেখে যায় ব্যাকুল বাসনা...

আছ আকাশ-পানে তুলে মাথা

আছ আকাশ-পানে তুলে মাথা, কোলে আধেকখানি মালা গাঁথা ॥ ফাগুনবেলায় বহে আনে আলোর কথা ছায়ার কানে, তোমার মনে তারি সনে ভাবনা যত ফেরে যা-তা ॥ কাছে থেকে রইলে দূরে, কায়া মিলায় গানের সুরে। হারিয়ে-যাওয়া হৃদয় তব মূর্তি ধরে নব নব-- পিয়ালবনে উড়ালো চুল, বকুলবনে আঁচল পাতা...

আজ সবার রঙে রঙ মিশাতে হবে

আজ সবার রঙে রঙ মিশাতে হবে। ওগো আমার প্রিয়, তোমার রঙিন উত্তরীয় পরো পরো পরো তবে॥ মেঘ রঙে রঙে বোনা, আজ রবির রঙে সোনা, আজ আলোর রঙ যে বাজল পাখির রবে॥ আজ রঙ-সাগরে তুফান ওঠে মেতে। যখন তারি হাওয়া লাগে তখন রঙের মাতন জাগে কাঁচা সবুজ ধানের ক্ষেতে। সেই রাতের-স্বপন-ভাঙা আমার হৃদয়...

আজ যেমন ক’রে গাইছে আকাশ

আজ যেমন ক'রে গাইছে আকাশ তেমনি ক'রে গাও গো। আজ যেমন ক'রে চাইছে আকাশ তেমনি ক'রে চাও গো ॥ আজ হাওয়া যেমন পাতায় পাতায় মর্মরিয়া বনকে কাঁদায়, তেমনি আমার বুকের মাঝে কাঁদিয়া কাঁদাও গো...

আজ তোমারে দেখতে এলেম

আজ তোমারে দেখতে এলেম অনেক দিনের পরে। ভয় কোরো না, সুখে থাকো, বেশিক্ষণ থাকব নাকো-- এসেছি দণ্ড-দুয়ের তরে॥ দেখব শুধু মুখখানি, শুনাও যদি শুনব বাণী, নাহয় যাব আড়াল থেকে হাসি দেখে...

আজি যে রজনী যায়

আজি যে রজনী যায় ফিরাইব তায় কেমনে। নয়নের জল ঝরিছে বিফল নয়নে॥ এ বেশভূষণ লহো সখী, লহো, এ কুসুমমালা হয়েছে অসহ-- এমন যামিনী কাটিল বিরহশয়নে॥ আমি বৃথা অভিসারে এ যমুনাপারে এসেছি, বহি বৃথা মন-আশা এত ভালোবাসা বেসেছি। শেষে নিশিশেষে বদন মলিন, ক্লান্তচরণ, মন উদাসীন, ফিরিয়া চলেছি...

আজি সাঁঝের যমুনায় গো

আজি সাঁঝের যমুনায় গো তরুণ চাঁদের কিরণতরী কোথায় ভেসে যায় গো ॥ তারি সুদূর সারিগানে বিদায়স্মৃতি জাগায় প্রাণে সেই-যে দুটি উতল আঁখি উছল করুণায় গো ॥ আজ মনে মোর যে সুর বাজে কেউ তা শোনে না কি। একলা প্রাণের কথা নিয়ে একলা এ দিন যায় কি। যায় যাবে, সে ফিরে ফিরে লুকিয়ে তুলে নেয় নি...

আজি গোধূলিলগনে এই বাদলগগনে

আজি গোধূলিলগনে এই বাদলগগনে তার চরণধ্বনি আমি হৃদয়ে গণি-- 'সে আসিবে' আমার মন বলে সারাবেলা, অকারণ পুলকে আঁখি ভাসে জলে॥ অধীর পবনে তার উত্তরীয় দূরের পরশন দিল কি ও রজনীগন্ধার পরিমলে 'সে আসিবে' আমার মন বলে। উতলা হয়েছে মালতীর লতা, ফুরালো না তাহার মনের কথা। বনে বনে আজি একি...

আজি আঁখি জুড়ালো হেরিয়ে

আজি আঁখি জুড়ালো হেরিয়ে, আহা আঁখি জুড়ালো হেরিয়ে মনোমোহন, মিলনমাধুরী যুগলমুরতি। ফুলগন্ধে আকুল করে, বাজে বাঁশরি উদাস স্বরে, নিকুঞ্জ প্লাবিত চন্দ্রকরে-- তারি মাঝে মনোমোহন মিলনমাধুরী, যুগলমুরতি॥ আনো আনো ফুলমালা, দাও দোঁহে বাঁধিয়ে। হৃদয়ে পশিবে ফুলপাশ, অক্ষয় হবে প্রেমবন্ধন।...