অপযশ

বাছা রে, তোর চক্ষে কেন জল। কে তোরে যে কী বলেছে আমায় খুলে বল্‌। লিখতে গিয়ে হাতে মুখে মেখেছ সব… Read more অপযশ

অস্তসখী

রজনী একাদশী পোহায় ধীরে ধীরে, রঙিন মেঘমালা উষারে বাঁধে ঘিরে। আকাশে ক্ষীণ শশী আড়ালে যেতে চায়, দাঁড়ায়ে মাঝখানে কিনারা নাহি… Read more অস্তসখী

আশীর্বাদ

ইহাদের করো আশীর্বাদ। ধরায় উঠেছে ফুটি শুভ্র প্রাণগুলি, নন্দনের এনেছে সম্বাদ, ইহাদের করো আশীর্বাদ। ছোটো ছোটো হাসিমুখ জানে না ধরার… Read more আশীর্বাদ

উপহার

স্নেহ-উপহার এনে দিতে চাই, কী যে দেব তাই ভাবনা— যত দিতে সাধ করি মনে মনে খুঁজে – পেতে সে তো… Read more উপহার

কেন মধুর

রঙিন খেলেনা দিলে ও রাঙা হাতে তখন বুঝি রে বাছা, কেন যে প্রাতে এত রঙ খেলে মেঘে জলে রঙ ওঠে… Read more কেন মধুর

খেলা

তোমার কটি – তটের ধটি কে দিল রাঙিয়া । কোমল গায়ে দিল পরায়ে রঙিন আঙিয়া । বিহানবেলা আঙিনাতলে এসেছ তুমি… Read more খেলা

খোকা

খোকার চোখে যে ঘুম আসে সকল – তাপ – নাশা — জান কি কেউ কোথা হতে যে করে সে যাওয়া… Read more খোকা

ঘুমচোরা

কে নিল খোকার ঘুম হরিয়া। মা তখন জল নিতে ও পাড়ার দিঘিটিতে গিয়াছিল ঘট কাঁখে করিয়া।— তখন রোদের বেলা সবাই… Read more ঘুমচোরা

চাতুরী

আমার খোকা করে গো যদি মনে এখনি উড়ে পারে সে যেতে পারিজাতের বনে । যায় না সে কি সাধে। মায়ের… Read more চাতুরী

ছোটোবড়ো

এখনো তো বড়ো হই নি আমি, ছোটো আছি ছেলেমানুষ বলে। দাদার চেয়ে অনেক মস্ত হব বড়ো হয়ে বাবার মতো হলে।… Read more ছোটোবড়ো

জন্মকথা

খোকা মাকে শুধায় ডেকে — ‘ এলেম আমি কোথা থেকে , কোন্‌খানে তুই কুড়িয়ে পেলি আমারে । ‘ মা শুনে… Read more জন্মকথা

দুঃখহারী

মনে করো, তুমি থাকবে ঘরে, আমি যেন যাব দেশান্তরে। ঘাটে আমার বাঁধা আছে তরী, জিনিসপত্র নিয়েছি সব ভরি— ভালো করে… Read more দুঃখহারী

নবীন অতিথি

গান ওহে নবীন অতিথি, তুমি নূতন কি তুমি চিরন্তন। যুগে যুগে কোথা তুমি ছিলে সংগোপন। যতনে কত কী আনি বেঁধেছিনু… Read more নবীন অতিথি

নির্লিপ্ত

বাছা রে মোর বাছা, ধূলির ‘পরে হরষভরে লইয়া তৃণগাছা আপন মনে খেলিছ কোণে, কাটিছে সারা বেলা। হাসি গো দেখে এ… Read more নির্লিপ্ত