নির্জন রোগীর ঘর

নির্জন রোগীর ঘর। খোলা দ্বার দিয়ে বাঁকা ছায়া পড়েছে শয্যায়। শীতের মধ্যাহ্নতাপে তন্দ্রাতুর বেলা চলেছে মন্থরগতি শৈবালে দুর্বলস্রোত নদীর মতন।… Read more নির্জন রোগীর ঘর

পরম সুন্দর আলোকের স্নানপুণ্য প্রাতে

পরম সুন্দর আলোকের স্নানপুণ্য প্রাতে। অসীম অরূপ রূপে রূপে স্পর্শমণি রসমূর্তি করিছে রচনা, প্রতিদিন চিরনূতনের অভিষেক চিরপুরাতন বেদীতলে। মিলিয়া শ্যামলে… Read more পরম সুন্দর আলোকের স্নানপুণ্য প্রাতে

পলাশ আনন্দমূর্তি জীবনের ফাগুনদিনের

পলাশ আনন্দমূর্তি জীবনের ফাগুনদিনের, আজ এই সম্মানহীনের দরিদ্র বেলায় দিলে দেখা যেথা আমি সাথিহীন একা উৎসবের প্রাঙ্গণ-বাহিরে শস্যহীন মরুময় তীরে।… Read more পলাশ আনন্দমূর্তি জীবনের ফাগুনদিনের

বাক্যের যে ছন্দোজাল শিখেছি গাঁথিতে

বাক্যের যে ছন্দোজাল শিখেছি গাঁথিতে সেই জালে ধরা পড়ে অধরা যা চেতনার সতর্কতা ছিল এড়াইয়া আগোচরে মনের গহনে। নামে বাঁধিবারে… Read more বাক্যের যে ছন্দোজাল শিখেছি গাঁথিতে

বিরাট সৃষ্টির ক্ষেত্রে

বিরাট সৃষ্টির ক্ষেত্রে আতশবাজির খেলা আকাশে আকাশে, সূর্য তারা ল’য়ে যুগযুগান্তের পরিমাপে। অনাদি অদৃশ্য হতে আমিও এসেছি ক্ষুদ্র অগ্নিকণা নিয়ে… Read more বিরাট সৃষ্টির ক্ষেত্রে

বিশুদাদা– দীর্ঘবপু, দৃঢ়বাহু, দুঃসহ কর্তব্যে নাহি বাধা

বিশুদাদা– দীর্ঘবপু, দৃঢ়বাহু, দুঃসহ কর্তব্যে নাহি বাধা, বুদ্ধিতে উজ্জ্বল চিত্ত তার সর্বদেহে তৎপরতা করিছে বিস্তার। তন্দ্রার আড়ালে রোগক্লিষ্ট ক্লান্ত রাত্রিকালে… Read more বিশুদাদা– দীর্ঘবপু, দৃঢ়বাহু, দুঃসহ কর্তব্যে নাহি বাধা

ভালোবাসা এসেছিল একদিন তরুণ বয়সে

ভালোবাসা এসেছিল একদিন তরুণ বয়সে নির্ঝরের প্রলাপকল্লোলে, অজানা শিখর হতে সহসা বিস্ময় বহি আনি ভ্রূভঙ্গিত পাষাণের নিশ্চল নির্দেশ লঙ্ঘিয়া উচ্ছল… Read more ভালোবাসা এসেছিল একদিন তরুণ বয়সে

মিলের চুমকি গাঁথি ছন্দের পাড়ের মাঝে মাঝে

মিলের চুমকি গাঁথি ছন্দের পাড়ের মাঝে মাঝে অকেজো অলস বেলা ভরে ওঠে শেলাইয়ের কাজে। অর্থভরা কিছুই-না চোখে ক’রে ওঠে ঝিল্‌মিল্‌… Read more মিলের চুমকি গাঁথি ছন্দের পাড়ের মাঝে মাঝে

মুক্তবাতায়নপ্রান্তে জনশূন্য ঘরে

মুক্তবাতায়নপ্রান্তে জনশূন্য ঘরে বসে থাকি নিস্তব্ধ প্রহরে, বাহিরে শ্যামল ছন্দে উঠে গান ধরণীর প্রাণের আহ্বান; অমৃতের উৎসস্রোতে চিত্ত ভেসে চলে… Read more মুক্তবাতায়নপ্রান্তে জনশূন্য ঘরে