মিলন

আমি      কেমন করিয়া জানাব আমার 
                জুড়ালো হৃদয় জুড়ালো— আমার 
                       জুড়ালো হৃদয় প্রভাতে । 
আমি      কেমন করিয়া জানাব আমার 
                পরান কী নিধি কুড়ালো— ডুবিয়া 
                        নিবিড় নীরব শোভাতে । 
আজ      গিয়েছি সবার মাঝারে , সেথায় 
                দেখেছি একেলা আলোকে— দেখেছি 
                       আমার হৃদয় - রাজারে । 
আমি      দু - একটি কথা কয়েছি তা - সনে 
                 সে নীরব সভা - মাঝারে— দেখেছি 
                        চিরজনমের রাজারে । 
  
ওগো ,      সে কি মোরে শুধু দেখেছিল চেয়ে 
                 অথবা জুড়ালো পরশে— তাহার 
                       কমলকরের পরশে— 
আমি      সে কথা সকলি গিয়েছি যে ভুলে 
                 ভুলেছি পরম হরষে । 
আমি      জানি না কী হল , শুধু এই জানি 
                 চোখে মোর সুখ মাখালো— কে যেন 
                       সুখ - অঞ্জন মাখালো— 
কার       আঁখিভরা হাসি উঠিল প্রকাশি 
                 যে দিকেই আঁখি তাকালো । 
  
আজ      মনে হল কারে পেয়েছি— কারে যে 
                 পেয়েছি সে কথা জানি না । 
আজ      কী লাগি উঠিছে কাঁপিয়া কাঁপিয়া 
                 সারা আকাশের আঙিনা— কিসে যে 
                       পুরেছে শূন্য জানি না । 
এই        বাতাস আমারে হৃদয়ে লয়েছে , 
                 আলোক আমার তনুতে— কেমনে 
                       মিলে গেছে মোর তনুতে । 
তাই       এ গগনভরা প্রভাত পশিল 
                 আমার অণুতে অণুতে । 
আজ      ত্রিভুবন - জোড়া কাহার বক্ষে 
                 দেহ মন মোর ফুরালো— যেন রে 
                       নিঃশেষে আজি ফুরালো । 
আজ      যেখানে যা হেরি সকলেরি মাঝে 
                 জুড়ালো জীবন জুড়ালো— আমার 
                        আদি ও অন্ত জুড়ালো । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *