শুন, সখি, বাজই বাঁশি

        শুন, সখি, বাজই বাঁশি।
শশিকরবিহ্বল নিখিল শূন্যতল   এক হরষরসরাশি।
দক্ষিণপবনবিচঞ্চল তরুগণ,   চঞ্চল যমুনাবারি।
কুসুমসুবাস উদাস ভৈল সখি   উদাস হৃদয় হমারি।
বিগলিত মরম, চরণ খলিতগতি,   শরম ভরম গয়ি দূর।
নয়ন বারিভর, গরগর অন্তর,   হৃদয় পুলকপরিপূর।
কহ সখি, কহ সখি, মিনতি রাখ সখি,   সো কি হমারি শ্যাম॥
গগনে গগনে ধ্বনিছে বাঁশরি   সো কি হমারি নাম।
কত কত যুগ, সখি, পুণ্য করিনু হম,   দেবত করনু ধেয়ান—
তব্ ত মিলল, সখি, শ্যামরতন মম—  শ্যাম পরানক প্রাণ।
শুনত শুনত তব্ মোহন বাঁশি   জপত জপত তব নামে
সাধ ভইল ময়্ প্রাণ মিলায়ব   চাঁদ‐উজল যমিনামে!
চলহ তুরিতগতি, শ্যাম চকিত অতি—  ধরহ সখীজন‐হাত।
নীদমগন মহী, ভয় ডর কছু নহি,   ভানু চলে তব সাথ॥

১২৮৮ শ্রাবণ— আনুমানিক ১২৯২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *