নীরব তন্ত্রী

‘ তোমার বীণায় সব তার বাজে , 
       ওহে বীণকার , 
তারি মাঝে কেন নীরব কেবল 
       একখানি তার । ' 
ভবনদীতীরে হৃদিমন্দিরে 
      দেবতা বিরাজে , 
পূজা সমাপিয়া এসেছি ফিরিয়া 
      আপনার কাজে । 
বিদায়ের ক্ষণে শুধাল পূজারি , 
      ‘ দেবীরে কী দিলে ? 
তব জনমের শ্রেষ্ঠ কী ধন 
      ছিল এ নিখিলে ?' 
কহিলাম আমি , সঁপিয়া এসেছি 
       পূজা-উপহার 
আমার বীণায় ছিল যে একটি 
       সুবর্ণ-তার , 
যে তারে আমার হৃদয়বনের 
        যত মধুকর 
ক্ষণেকে ক্ষণেকে ধ্বনিয়া তুলিত 
        গুঞ্জনস্বর , 
যে তারে আমার কোকিল গাহিত 
       বসন্তগান 
সেইখানি আমি দেবতাচরণে 
       করিয়াছি দান । 
তাই এ বীণায় বাজে না কেবল 
      একখানি তার — 
আছে তাহা শুধু মৌন মহৎ 
        পূজা-উপহার । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *