চিত্রা

জগতের মাঝে কত বিচিত্র তুমি হে 
        তুমি বিচিত্ররূপিণী । 
অযুত আলোকে ঝলসিছ নীল গগনে , 
আকুল পুলকে উলসিছ ফুলকাননে , 
দ্যুলোকে ভূলোকে বিলসিছ চলচরণে , 
          তুমি চঞ্চলগামিনী । 
মুখর নূপুর বাজিছে সুদূর আকাশে , 
অলকগন্ধ উড়িছে মন্দ বাতাসে , 
মধুর নৃত্যে নিখিল চিত্তে বিকাশে 
         কত মঞ্জুল রাগিণী । 
কত না বর্ণে কত না স্বর্ণে গঠিত 
কত যে ছন্দে কত সংগীতে রটিত 
কত না গ্রন্থে কত না কণ্ঠে পঠিত 
         তব অসংখ্য কাহিনী । 
জগতের মাঝে কত বিচিত্র তুমি হে 
        তুমি বিচিত্ররূপিণী । 
  
অন্তরমাঝে শুধু তুমি একা একাকী 
        তুমি অন্তরব্যাপিনী । 
একটি স্বপ্ন মুগ্ধ সজল নয়নে , 
একটি পদ্ম হৃদয়বৃন্তশয়নে , 
একটি চন্দ্র অসীম চিত্তগগনে — 
       চারি দিকে চিরযামিনী । 
অকূল শান্তি সেথায় বিপুল বিরতি , 
একটি ভক্ত করিছে নিত্য আরতি , 
নাহি কাল দেশ , তুমি অনিমেষ মুরতি — 
       তুমি অচপলদামিনী । 
ধীর গম্ভীর গভীর মৌনমহিমা , 
স্বচ্ছ অতল স্নিগ্ধ নয়ননীলিমা 
স্থির হাসিখানি উষালোকসম অসীমা , 
       অয়ি প্রশান্তহাসিনী । 
অন্তরমাঝে তুমি শুধু একা একাকী 
        তুমি অন্তরবাসিনী । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *