অনুমান

  পাছে     দেখি তুমি আস নি , তাই 
           আধেক আঁখি মুদিয়ে চাই , 
                     ভয়ে চাই নে ফিরে । 
  আমি     দেখি যেন আপন - মনে 
           পথের শেষে দূরের বনে 
                     আসছ তুমি ধীরে । 
  যেন      চিনতে পারি সেই অশান্ত 
           তোমার উত্তরীয়ের প্রান্ত 
                     ওড়ে হাওয়ার'পরে । 
  আমি     একলা বসে মনে গণি 
           শুনছি তোমার পদধ্বনি 
                     মর্মরে মর্মরে । 
  
  ভোরে    নয়ন মেলে অরুণরাগে 
           যখন আমার প্রাণে জাগে 
                     অকারণের হাসি , 
  যখন     নবীন তৃণে লতায় গাছে 
           কোন্‌ জোয়ারের স্রোতে নাচে 
                     সবুজ সুধারাশি— 
  যখন     নব মেঘের সজল ছায়া 
           যেন রে কার মিলন - মায়া 
                     ঘনায় বিশ্ব জুড়ে , 
  যখন     পুলকে নীল শৈল ঘেরি 
           বেজে ওঠে কাহার ভেরী , 
                      ধ্বজা কাহার উড়ে— 
  
  তখন    মিথ্যা সত্য কেই - বা জানে , 
           সন্দেহ আর কেই - বা মানে , 
                     ভুল যদি হয় হোক ! 
  ওগো ,    জানি না কি আমার হিয়া 
           কে ভুলালো পরশ দিয়া , 
                     কে জুড়ালো চোখ । 
  সে কি    তখন আমি ছিলেম একা , 
           কেউ কি মোরে দেয় নি দেখা । 
                     কেউ আসে নাই পিছে ? 
  তখন     আড়াল হতে সহাস আঁখি 
           আমার মুখে চায় নি নাকি । 
                     এ কি এমন মিছে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *