অচেনা

কেউ যে কারে চিনি নাকো       
       সেটা মস্ত বাঁচন । 
তা না হলে নাচিয়ে দিত 
       বিষম তুর্কি - নাচন । 
বুকের মধ্যে মনটা থাকে , 
       মনের মধ্যে চিন্তা— 
সেইখানেতেই নিজের ডিমে 
       সদাই তিনি দিন তা । 
বাইরে যা পাই সম্‌জে নেব 
       তারি আইন - কানুন , 
অন্তরেতে যা আছে তা 
       অন্তর্যামীই জানুন । 
  
                    চাই নে রে , মন চাই নে । 
             মুখের মধ্যে যেটুকু পাই 
             যে হাসি আর যে কথাটাই 
             যে কলা আর যে ছলনাই 
                     তাই নে রে মন , তাই নে । 
  
বাইরে থাকুক মধুর মূর্তি , 
       সুধামুখের হাস্য , 
তরল চোখে সরল দৃষ্টি— 
       করব না তার ভাষ্য । 
বাহু যদি তেমন করে 
       জড়ায় বাহুবন্ধ 
আমি দুটি চক্ষু মুদে 
       রইব হয়ে অন্ধ— 
কে যাবে ভাই , মনের মধ্যে 
       মনের কথা ধরতে ? 
কীটের খোঁজে কে দেবে হাত
কেউটে সাপের গর্তে ? 
  
                 চাই নে রে , মন চাই নে । 
          মুখের মধ্যে যেটুকু পাই 
          যে হাসি আর যে কথাটাই 
          যে কলা আর যে ছলনাই 
                 তাই নে রে মন , তাই নে । 
  
মন নিয়ে কেউ বাঁচে নাকো , 
       মন বলে যা পায় রে 
কোনো জন্মে মন সেটা নয় 
       জানে না কেউ হায় রে । 
ওটা কেবল কথার কথা , 
       মন কি কেহ চিনিস ? 
আছে কারও আপন হাতে 
       মন ব'লে এক জিনিস ? 
চলেন তিনি গোপন চালে , 
       স্বাধীন তাঁহার ইচ্ছে— 
কেই বা তাঁরে দিচ্ছে এবং 
       কেই বা তাঁরে নিচ্ছে ! 
  
                  চাই নে রে , মন চাই নে । 
          মুখের মধ্যে যেটুকু পাই 
          যে হাসি আর যে কথাটাই 
          যে কলা আর যে ছলনাই 
                 তাই নে রে মন , তাই নে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *