নজরুল রচনাসমগ্র । নজরুল রচনাবলী

কাজী নজরুল ইসলাম । Kazi Nazrul Islam

নজরুল রচনাসমগ্র – সাম্প্রতিক আপডেট

নাচের নেশার ঘোর লেগেছে নয়ন পড়ে ঢুলে লো

নাচের নেশার ঘোর লেগেছে নয়ন পড়ে ঢু’লে লো-- নয়ন পড়ে ঢুলে। বুনোফুল পড়লো ঝ’রে নাচের ঘোরে দোলন-খোঁপা খুলে লো-- দোলন খোঁপা খুলে।। শুনে এই মাদল-বাজা নাচে চাঁদ রাতের রাজা নাচে লো নাচে – শালুকের কাঁকাল ধ’রে তাল-পুকুরের জলে হে’লে দু’লে (লো)-- জলে হেলে দুলে। আঁউরে গেল ঝুমকো জবা...

মোর না মিটিতে আশা ভাঙিল খেলা

মোর না মিটিতে আশা ভাঙিল খেলা। জীবন প্রভাতে এ লো বিদায়-বেলা।। আঁচলের ফুলগুলি করুণ নয়ানে নিরাশায় চেয়ে আছে মোর মুখপানে, বাজিয়াছে বুকে যেন, কার অবহেলা।। আঁধারের এলোকেশ দু’ হাতে জড়ায়ে যেতে যেতে নিশীথিনী কাঁদে বন-ছায়ে। বুঝি দুখ-নিশি মোর হবে না হবে না ভোর; ভিড়িবে না কূলে মোর...

কে হেলে দুলে চলে এলোচুলে

কে হেলে দুলে চলে এলোচুলে, হেসে নদীকুলে এলো হেলে দুলে; নূপুর রিনিকি ঝিনি বাজে রে পথ-মাঝে রে, বাজেরে।। দূরে মন উদাসি বাজে বাঁশের বাঁশি, বকুল-শাখে পাপিয়া ডাকে- হেরিয়া বুঝি এই বন-বালিকায় রঙিন সাজে রে, বাজে রে।। এ বুঝি নদীর কেউ তাই অধীর হলো জলে ঢেউ; চন্দন-মাখা যেন চাঁদের...

মেঘ-বরণ কন্যা থাকে মেঘলামতীর দেশে

মেঘ-বরণ কন্যা থাকে মেঘলামতীর দেশে। সেই দেশে মেঘ জল ঢালিও তাহার আকুল কেশে।। তাহার কালো চোখের কাজল শাওন- মেঘের চেয়ে শ্যামল, চাউনিতে তার বিজলি ছড়ায়, চমক বেড়ায় ভেসে ।। সে ব’সে থাকে পা ডুবিয়ে ঘুমতী নদীর জলে; সেু দাঁড়িয়ে থাকে ছবির মত একলা তরু-তলে। কদম ফুলের মালা গেঁথে...

মিটিল না সাধ ভালোবাসিয়া তোমায়

মিটিল না সাধ ভালোবাসিয়া তোমায়। তাই আবার বাসিতে ভালো আসিব ধরায়। আবার বিরহে তব কাঁদিব আবার প্রণয়-ডোরে বাঁধিব শুধু নিমেষেরি তরে আঁখি দুটি জলে ভ’রে ঝ’রে যাব অবেলায়।। যে গোধূলি-লগ্নে নববধূ হয় নারী (সেই) গোধূলি-লগ্নে বঁধু দিল আমারে গেরুয়া শাড়ি বঁধু আমার বিরহ তব গানে...

ফুটলো সন্ধ্যামণির ফুল আমার মনের আঙিনায়

ফুটলো সন্ধ্যামণির ফুল আমার মনের আঙিনায়। ফুল-ফোটাতে কে এলে ফুল-ঝরানো সাঁঝ-বেলায়।। আজ কি মোর দিনের শেষে উঠলো চাঁদ মধুর হেসে' কৃষ্ণা-তিথির তৃষ্ণা মোর মিটলো ওই জোছনায়।। আজ যে আঁখি অশ্রু-হীন, কি দিয়ে ধোয়াই চরণ' সুন্দর বরের বেশে এলে কি আমার মরণ'! দেখ বসন্তের পাখি কোয়েলা...

নজরুল রচনাবলী - সূচীপত্র