সুর-সাকী (১৯৩২)

আকুল হলি কেন বকুল বনের পাখি

বেহাগ-মিশ্র – দাদরা আকুল হলি কেন বকুল বনের পাখি। দেখেছিস তুইও নাকি প্রিয়ার ডাগর আঁখি॥ মধু ও বিষ মেশা সেই সে আঁখির নেশা তোরে করেছে পাগল, তাই কি এত ডাকাডাকি॥ চোখে পড়িলে বালি জ্বালাতে জ্বলিয়া মরি, চোখে যাহার পড়েছে চোখ সে বাঁচে কেমন করি। ফরাই আঁখি যেদিক পানে তারই আঁখি মনে...

আজ ভারতের নব আগমনি

ভৈরবী – দাদরা আজ ভারতের নব আগমনি জাগিয়া উঠেছে মহাশ্মশান। জাগরণী গায় প্রভাতের পাখি, মরুতে বসেছে ফুল-বাথান॥ টলেছে অটল হিমালয় আজি, সাগরে শঙ্খ উঠিয়াছে বাজি, হলাহল শেষে উঠিছে অমৃত বাঁচাইতে মৃত মানব-প্রাণ॥ আঁধারে করেছে হানাহানি যারা আলোকে চিনেছে আত্মীয় তারা, এক হয়ে গেছে...

আজ শেফালির গায়ে হলুদ

পিলু – কারফা আজ শেফালির গায়ে হলুদ উলু দেয় পিক পাপিয়া। প্রথম প্রণয়-ভীরু বালা লাজে ওঠে কাঁপিয়া॥ বনভূমি বাসর সাজায় ফুলে পাতায় লালে নীলে, ঝরে শিশির আশিস-বারি গগন-ঝারি ছাপিয়া॥ বৃষ্টি-ধোয়া সবুজ পাতার শাড়ি করে ঝলমল, ননদিনি ‘বউ কথা কও’ ডাকে আড়াল থাকিয়া॥ দেখতে এল দিগ‍্‍বালিকা...

আজকে দোলের হিন্দোলায়

কাফি – হোরি আজকে দোলের হিন্দোলায় আয় তোরা কে দিবি দোল। ডাক দিয়ে যায় দ্বারে ওই হেনার কুঁড়ি আমের বৌল॥ আগুন-রাঙা ফুলে ফাগুন লালে-লাল, আগুন-রাঙা ফুলে ফাগুন লালে-লাল, লোল হয়ে পড়িল ওই রাতের জোছনা-আঁচল॥ হতাশ পথিক পথ-বিভোল, ভোল আজি বেদনা ভোল, টোল খেয়ে যাক নীল আকাশ শুনে তোদের...

আজি গানে গানে ঢাকব আমার             গভীর অভিমান

পিলু-খাম্বাজ – কারফা আজি গানে গানে ঢাকব আমার             গভীর অভিমান।   কাঁটার ঘায়ে কুসুম করে             ফোটাব মোর প্রাণ॥   ভুলতে তোমার অবহেলা   গান গেয়ে মোর কাটবে বেলা,   আঘাত যত হানবে বীণায়             উঠবে তত তান॥   ছিঁড়লে যে ফুল মনের ভুলে   গাঁথব মালা সেই সে...

আজি দোল-ফাগুনের দোল লেগেছে

ধনী – হোরি ঠেকা আজি দোল-ফাগুনের দোল লেগেছে আমের বউলে দোলন-চাঁপায়। মৌমাছিরা পলাশ ফুলের গেলাস ভরে মউ পিয়ে যায়। শ্যামল পাতার কোলে কোলে আবির-রাঙা কুসুম দোলে, দোয়েল শ্যামা লহর তোলে কৃষ্ণচূড়ার ফুলেল শাখায়॥ বন-গোপিনী ফুল ছুঁড়ে ওই খেলে হোরি দখিন-বায়ে, হলদে পাখি দোদুল দুলে...

আজি  দোল-ফাগুনের দোল লেগেছে  

ধানী – হোরি আজি  দোল-ফাগুনের দোল লেগেছে     আমের বোলে দোলন-চাঁপায়।     মৌমাছিরা পলাশ ফুলের            গেলাস ভরে মউ পিয়ে যায়॥     শ্যামল তরুর কোলে কোলে     আবির-রাঙা কুসুম দোলে,     দোয়েল শ্যামা লহর তোলে            কৃষ্ণচূড়ার ফুলেল শাখায়॥ বন-গোপিনী ফুল ছুঁড়ে ওই খেলে...

আজিকে তনু মনে লেগেছে রং লেগেছে রং

পাহাড়ি মিশ্র – দাদরা আজিকে তনু মনে লেগেছে রং লেগেছে রং। বধূর বেশে ধরা সেজেছে অভিনব ঢং॥ কাননে আলোছায়া, নয়নে রঙের মায়া, দুলে দোদুল কায়া, পরানে বাজিছে সারং॥ সে রঙের সাগর-কোলে কত চাঁদ রবি দোলে, বাজে গগন-তলে জলদ-তালে...

আনমনে জল নিতে ভাসিল গাগরি

বেহাগ – কাওয়ালি আনমনে জল নিতে ভাসিল গাগরি। সাঁতার জানি না, আনি কলস কেমন করি॥ জানি না, বলিব কী, শুধাবে যবে ননদি কাহার কথা ভাবে পোড়া মন নিরবধি, গাগরি না ভাসিয়া ভাসিতাম আমি যদি– কী বলিব কেন মোর ভিজিল গো ঘাগরি॥ একেলা কুলবধূ, পথ বিজন, নদীর বাঁকে ডাকিল বউ-কথা-কও কেন...

আনো সাকি শিরাজি আনো আঁখি-পিয়ালায়

ভৈরব – সেতারখানি আনো সাকি শিরাজি আনো আঁখি-পিয়ালায়। অধীর করো মোরে নয়ন-মদিরায়॥ পানসে জোছনাতে – ঝিম হয়ে আসে মন, শারাব বিনে হেরো গুলবন উচাটন, মদালস আঁখি কেন ঘোমটা ঢাকা এমন বিষাদিত নিরালায়॥ তরুণ চোখে আনো অরুণ রাগ-ছোঁওয়া, আঁখির করুণা তব যাচে ভোরের হাওয়া। জীবন ভরা কাঁটার...

আমার নয়নে নয়ন রাখি

মালবশ্রী মিশ্র – কারফা আমার নয়নে নয়ন রাখি পান করিতে চাও কোন অমিয়। আছে এ আঁখিতে উষ্ণ আঁখিজল মধুর সুধা নাই পরান-প্রিয়॥ ওগো ও শিল্পী, গলাইয়া মোরে গড়িতে চাহ কোন মানস-প্রতিমারে, ওগো ও পূজারি, কেন এ আরতি জাগাতে পাষাণ-প্রণয়-দেবতারে। এ দেহ-ভৃঙ্গারে থাকে যদি মদ ওগো প্রেমাস্পদ,...

আমার শ্যামলা বরন বাংলা মায়ের

খাম্বাজ মিশ্র – দাদরা আমার শ্যামলা বরন বাংলা মায়ের রূপ দেখে যা, আয় রে আয়। গিরি-দরি-বনে মাঠে-প্রান্তরে রূপ ছাপিয়া যায়॥ ধানের খেতে বনের ফাঁকে দেখে যা মোর কালো মাকে, ধূলি-রাঙা পথের বাঁকে বৈরাগিণী বীণ বাজায়॥ ধূলি-রাঙা পথের বাঁকে বৈরাগিণী বীণ বাজায়॥ বিজন মাঠে গ্রাম সে বসায়...

আমার সোনার হিন্দুস্থান

পাহাড়ি মিশ্র – কারফা আমার সোনার হিন্দুস্থান।  দেশ-দেশ-নন্দিতা তুমি বিশ্বের প্রাণ॥   ধরণির জ্যেষ্ঠা কন্যা তুমি আদি মাতা, তব পুত্র গাহিল বেদ-বেদান্ত সাম-গাথা,   তব কোলে বারেবারে এল ভগবান॥   আদিম যুগের তুমি প্রথমা ধাত্রী,   তোমার আলোকে হল প্রভাত রাত্রি, সবে বিলাইলে অমৃত...

আমার হরিনামে রুচি    কারণ    পরিনামে লুচি

কীর্তন আমার হরিনামে রুচি    কারণ    পরিনামে লুচি   আমি          ভোজনের লাগি করি ভজন। আমি মালপোর লাগি তল্পি বাঁধিয়া                 এ কল্প-লোকে এসেছি মন॥   ‘রাধাবল্লভি’-লোভে পূজি রাধা-বল্লভে,   রস-গোল্লার লাগি আসি রাস-মোচ্ছবে! আমার গোল্লায় গেছে মন রস-গোল্লায় গেছে মন!  ...

আমি কেন হেরিলাম নবঘনশ্যাম 

কীর্তন আমি কেন হেরিলাম নবঘনশ্যাম কালারে কালো কালিন্দী-কূলে। সে যে বাঁশরির তানে সকরুণ গানে            ডাকিল প্রেম-কদম্ব-মূলে। তার সাগর-অতল ডাগর আঁখির কূলে            সে কী ঢেউ উঠিল দুলে॥ সখী সে কী সকরুণ আঁখি লো ভয়- অনুরাগ-মাখামাখি লো, তার অশ্রু-সজল আঁখি ছলছল...

আমি দেখন-হাসি আমায় দেখলে পরে হাসতে হাসতে

বেহাগ মিশ্র – দাদরা   আমি        দেখন-হাসি আমায় দেখলে পরে হাসতে হাসতে         পেয়ে যাবে কাশি॥ আমি হাসির হাঁসলি ফিরি করি,         এলে আমার হাসির দেশে   বুড়োরা সব ছোঁড়া হয়, হেসে         ছোঁড়ারা যায় টেঁসে! আমার হাঁস-খালিতে বাড়ি  আমি       হাসনুহানার মাসি॥ এলে আমার হাসির...

আয় গোপিনী খেলবি হোরি

ধানী – হোরি আয় গোপিনী খেলবি হোরি ফাগের রাঙা পিচকারিতে। আজ শ্যামে লো করব ঘায়েল আবির হাসির টিটকারিতে। রঙে রাঙা হয়ে শ্যাম আজ হবে যেন রাই কিশোরী, যমুনা-জল লাল হবে আজ আবির ফাগের রঙে ভরি। কপালের কলঙ্ক মোদের ধুয়ে যাবে রং ঝারিতে॥ গুরুজনের গঞ্জনা আজ সইব না লো মানব না লাজ, কুল...

উদার ভারত সকল মানবে দিয়াছ তোমার কোলে স্থান

কানাড়া মিশ্র – একতালা উদার ভারত! সকল মানবে দিয়াছ তোমার কোলে স্থান। পারসি জৈন বৌদ্ধ হিন্দু খ্রিস্টান শিখ মুসলমান॥ তুমি পারাবার, তোমাতে আসিয়া মিলেছে সকল ধর্ম জাতি, আপনি সহিয়া ত্যাগের বেদনা সকল দেশেরে করেছ জ্ঞাতি; নিজেরে নিঃস্ব করিয়া, হয়েছ বিশ্ব-মানব-পীঠস্থান॥ নিজ...

এ কী সুরে তুমি গান শুনালে ভিনদেশি পাখি

ভৈরবী – কারফা    এ কী সুরে তুমি গান শুনালে ভিনদেশি পাখি।   এ যে সুর নহে, মদির সুরা, রে সুরের সাকি॥         বসি    মোর জানালা পাশে         কেন    বুক-ভাঙা নিরাশে, যাও ঘুম ভাঙায়ে নিতি সকরুণ সুরে ডাকি।   তোর ও সুরে কাঁদছে উষা অস্ত চাঁদের গলা ধরে,   ভোর-গগনের কপোল বেয়ে...

এ জনমে মোদের মিলন হবে না আর, জানি জানি

পিলু-মিশ্র – কারফা এ জনমে মোদের মিলন হবে না আর, জানি জানি। মাঝে সাগর, এপার ওপার করি মোরা কানাকানি॥ দুজনে দুকূলে থাকি কাঁদি মোরা চখাচখি, বিরহের রাত পোহায় না আর বুকে শুকায় বুকের বাণী॥ মোদের পূজা আরতি হায় চোখের জলে, গহন ব্যথায়, মোদের বুকে বীণা বাজায় বেদনারই বীণাপাণি॥...