রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম / অনুবাদ / কাজী নজরুল ইসলাম

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০০১-০১০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০০১-০১০ ১ রাতের আঁচল দীর্ণ করে আসল শুভ ওই প্রভাত, জাগো সাকি! সকাল বেলার খোয়ারি ভাঙো আমার সাথ। ভোলো ভোলো বিষাদ-স্মৃতি! এমনি প্রভাত আসবে ঢের, খুঁজতে মোদের এইখানে ফের, করবে করুণ নয়নপাত। ২ আঁধার অন্তরীক্ষে বুনে যখন রুপার পাড় প্রভাত, পাখির...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০১১-০২০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০১১-০২০ ১১ ধরায় প্রথম এলাম নিয়ে বিস্ময় আর কৌতূহল, তারপর – এ জীবন দেখি কল্পনা, আঁধার অতল। ইচ্ছা থাক কি না থাক, শেষে যেতেই হবে, তাই বলি– এই যে জীবন আসা-যাওয়া আঁধার ধাঁধার জট কেবল! ১২ রহস্য শোন সেই সে লোকের আত্মা যথায় বিরাজে, ওরে মানব!...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০২১-০৩০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০২১-০৩০ ২১ করব এতই শিরাজি পান পাত্র এবং পরান ভোর তীব্র-মিঠে খোশবো তাহার উঠবে আমার ছাপিয়ে গোর। থমকে যাবে চলতে পথিক আমার গোরের পাশ দিয়ে, ঝিমিয়ে শেষে পড়বে নেশায় মাতাল-করা গন্ধে ওর। ২২ দেখতে পাবে যেথায় তুমি গোলাপ লালা ফুলের ভিড়, জেনো, সেথায়...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৩১-০৪০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৩১-০৪০ ৩১ বলতে পার, অসার-শূন্য ভবের হাটের এই ঘরে জ্ঞান-বিলাসী সুধীজনের হৃদয় কেন রয় পড়ে? যেই তাহারা শ্রান্ত হয়ে এই সে ঘরের শান্তি চায়, ‘সময় হল, চল ওরে’, কয় অমনি মরণ হাত ধরে! ৩২ খাজা! তোমার দরবারে মোর একটি শুধু আর্জি এই– থামাও উপদেশের...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৪১-০৫০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৪১-০৫০ ৪১ অজ্ঞানেরই তিমির-তলের মানুষ ওরে বে খবর! শূন্য তোরা, বুনিয়াদ তোর গাঁথা শূন্য হাওয়ার পর। ঘুরিস অতল অগাধ খাদে, শূন্য মায়ার শূন্যতায়, পশ্চাতে তোর অতল শূন্য, অগ্রে শূন্য অসীম চর। ৪২ লয়ে শরাব-পাত্র হাতে পিই যবে তা মস্ত হয়ে জ্ঞানহারা...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৫১-০৬০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৫১-০৬০ ৫১ একমনি ওই মদের জালা গিলব, যদি পাই তাকে, যে জালাতে প্রাণের জ্বালা নেভাবার ওষুধ থাকে! পুরানো ওই যুক্তি তর্কে দিয়ে আমি তিন তালাক, নতুন করে করব নিকাহ্ আঙুর-লতার কন্যাকে। ৫২ বিষাদের ওই সওদা নিয়ে বেড়িয়ো না ভাই শিরোপরি, আঙুর-কন্যা...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৬১-০৭০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৬১-০৭০ ৬১ এক সোরাহি সুরা দিয়ো, একটু রুটির ছিলকে আর প্রিয়া সাকি, তাহার সাথে একখানি বই কবিতার, জীর্ণ আমার জীবন জুড়ে রইবে প্রিয়া আমার সাথ, এই যদি পাই চাইব নাকো তখ্‌ত আমি শাহানশার! ৬২ হুরি বলে থাকলে কিছু – একটি হুরি, মদ খানিক, ঘাস-বিছানো...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৭১-০৮০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৭১-০৮০ ৭১ আমার ক্ষণিক জীবন হেথায় যায় চলে ওই ত্রস্ত পায় খরস্রোতা স্রোতস্বতী কিংবা মরুঝঞ্ঝা-প্রায়। তারই মাঝে এই দু-দিনের খোঁজ রাখি না – ভাবনা নাই, যে গতকাল গত, আর যে আগামীকাল আসতে চায়। ৭২ আর কতদিন সাগরবেলায় খামকা বসে তুলব ইঁট! গড় করি পায়,...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৮১-০৯০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৮১-০৯০ ৮১ আজ আছে তোর হাতের কাছে, আগামী কাল হাতের বার, কালের কথা হিসাব করে বাড়াসনে তুই দুঃখ আর। স্বর্গ-ক্ষরা ক্ষণিক জীবন – করিসনে তার অপব্যয়, বিশ্বাস কি – নিশ্বাস-ভর জীবন যে কাল পাবি ধার! ৮২ হায় রে হৃদয়, ব্যথায় যে তোর ঝরছে নিতুই রক্তধার,...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৯১-১০০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ০৯১-১০০ ৯১ শরাব নিয়ে বসো, ইহাই মহ্‌মুদেরই সুলতানৎ, ‘দাউদ’ নবির শিরীন-স্বর ওই বেণু-বীণার মধুর গত। লুট করে নে আজের মধু, পূর্ণ হবে মনস্কাম, আজকে পেয়ে ভুলে যা তুই অতীত আর ভবিষ্যৎ। ৯২ ওগো সাকি! তত্ত্বকথা চার ও পাঁচের তর্ক থাক, উত্তর ওই...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১০১-১১০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১০১-১১০ ১০১ এই কুঁজো – যা আমার মতো ভোগ করেছে প্রেম-দাহন, সুন্দরীদের মাথায় থাকি পেল খোঁপার পরশন। এই সোরাহির পার্শ্বদেশ এই যে হাতল দেখতে পাও, পেল কতই তন্বঙ্গীর ক্ষীণ কাঁকালের আলিঙ্গন! ১০২ দ্রাক্ষা সাথে ঢলাঢলির এই তো কাঁচা বয়স তোর, বৎস,...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১১১-১২০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১১১-১২০ ১১১ হঠাৎ সেদিন দেখলাম, এক কর্মরত কুম্ভকার, করছে চূর্ণ মাটির ঢেলা, ঘট তৈরির মাল দেদার। দিব্য দৃষ্টি দিয়ে এসব যেই দেখলাম, কইল মন, নূতন ঘট এ করছে সৃজন মাটিতে মোর বাপ দাদার। ১১২ একী আজব করছ সৃষ্টি, কুম্ভকার হে, হাত থামাও! চূর্ণ নরের...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১২১-১৩০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১২১-১৩০ ১২১ নিত্য দিনে শপথ করি – করব তৌবা আজ রাতে, যাব না আর পানশালাতে, ছোঁব না আর মদ হাতে। অমনি আঁখির আগে দাঁড়ায়ে গোলাপ-ব্যাকুল বসন্ত সকল শপথ ভুল হয়ে যায়, কুলোয় না আর তৌবাতে। ১২২ আগে যে সব সুখ ছিল, আজ শুনি তাদের নাম কেবল, মদ ছাড়া সব...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৩১-১৪০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৩১-১৪০ ১৩১ পানোন্মত্ত বারাঙ্গনায় দেখে সে এক শেখজি কন – ‘দুরাচার আর সুরার করো দাসীপনা সর্বক্ষণ!’ ‘আমায় দেখে যা মনে হয়, তাই আমি’ – কয় বারনারী, ‘কিন্তু শেখজি, তুমি কি তাই, তোমায় দেখে কয় যা মন?’ ১৩২ হাতে নিয়ে পান-পিয়ালা নামাজ পড়ার মাদুরখান...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৪১-১৫০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৪১-১৫০ ১৪১ জ্ঞান যদি তোর থাকে কিছু – জ্ঞানহারা হ সত্যিকার, পান করে নে শাশ্বতী সে সাকির পাত্রে সুরার সার! সেয়ান-জ্ঞানী! তোর তরে নয় গভীর আত্মবিস্মৃতি, সব বোকারা জ্ঞান লভে না সত্যিকারের জ্ঞানহারার। ১৪২ যার পরে তোর আস্থা গভীর, এই যে বুকের...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৫১-১৬০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৫১-১৬০ ১৫১ আসনি তো হেথায় আমি আপন স্বাধীন ইচ্ছাতে, যাবও না নিজ ইচ্ছামতো, খেলার পুতুল তাঁর হাতে। ক্ষীণ কাঁকালে জড়িয়ে আঁচল, ঢালো সাকি বিলাও মদ, পিয়ালা ভরো সেই পানিতে – ধরার কালি ধোয় যাতে। ১৫২‎ ঘেরাটোপের পর্দা-ঘেরা দৃষ্টি-সীমা মোদের ভাই,...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৬১-১৭০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৬১-১৭০ ১৬১ আমরা দাবা খেলার ঘুঁটি, নাই রে এতে সন্দ নাই! আশমানি সেই রাজ-দাবাড়ে চালায় যেমন চলছি তাই। এই জীবনের দাবার ছকে সামনে পিছে ছুটছি সব, খেলার শেষে তুলে মোদের রাখবে মৃত্যু-বাক্সে ভাই! ১৬২ আশমানি হাত হতে যেমন পড়বে ঘুঁটি ভাগ্যে তোর।...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৭১-১৮০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৭১-১৮০ ১৭১ দুই জনাতেই সইছি সাকি নিয়তির ভ্রুভঙ্গি ঢের, এই ধরাতে তোমার আমার নাই অবসর আনন্দের। তবুও মোদের মাঝে আছে মদ-পিয়ালা যতক্ষণ সেই তো ধ্রুব সত্য, সখী, পথ দেখাবে সেই মোদের! ১৭২ স্রষ্টা মোরে করল সৃজন জাহান্নমে জ্বলতে সে, কিংবা স্বর্গে...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৮১-১৯০

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৮১-১৯০ ১৮১ খামকা ব্যথার বিষ খাসনে, মুষড়ে যাসনে নিরাশায়, ফেরেব-বাজির এই দুনিয়া তুই ধরে থাক সত্য ন্যায় আখেরে তো দেখলি বিশ্ব শূন্য ফাঁস ফক্কিকার, তুইও মায়ার পুতুল যখন – ভয় ভাবনা যাক চুলায়! ১৮২ সিন্ধু হতে বিচ্ছেদেরই দুঃখে কাঁদে বিন্দুজল,...

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৯১-১৯৭ (শেষ)

রুবাইয়াত্‌-ই-ওমর খৈয়াম – ১৯১-১৯৭ (শেষ) ১৯১ আবার যখন মিলবে হেথায় শরাব সাকির আঞ্জামে, হে বন্ধুদল, একটি ফোঁটা অশ্রু ফেলো মোর নামে! চক্রাকারে পাত্র ঘুরে আসবে যখন, সাকির পাশ, পেয়ালা একটি উলটে দিয়ো স্মরণ করে খৈয়ামে! ১৯২ বিশ্ব-দেখা জামশেদিয়া পেয়ালা খুঁজি জীবন-ভর ফিরনু...