আবু আর হাবু দুই ভায়ে ভায়ে সদাই ভীষণ দ্বন্দ্ব।
বোঝালে বোঝে না, এক ভাই কানা আর এক ভাই অন্ধ॥
হাবু বলে, ‘আবু, বিশ্রী দেখায় শিগগির চাঁছো দাড়ি!’
আবু বলে, ‘দাদা, পেঁয়াজের ঝাড় ওই টিকি কাটো তাড়াতাড়ি!’
টিকি ও দাড়িতে চুলোচুলি বাধে ট্রাম বাস হয় বন্ধ॥
হাবু বলে, ‘আবু, তোর কী তাহাতে, বাঁচুক মরুক তুর্কি
বেঁচে থাক তুই আর বেঁচে থাক তোর দরগার মুরগি!’
আবু বলে, ‘দাদা, মুরগি বাঁচাতে ছুটি যে সমরকন্দ’॥
হাবু বলে, ‘আবু, কাছা দে শিগগির!’ আবু বলে, ‘ছাড় গামছা!’
হাবু আনে ছুটে খুন্তি, আবু উঁচাইয়া ধরে চামচা।
হাবু সে দেখায় জুজুৎসু প্যাঁচ, আবু মোহরমি ছন্দ॥
হাবু বলে, ‘আবু, পাঁঠার আমার মেরেছিস তুই জাত,
খোদার খাসি যে করেছিস তারে, দেব অভিসম্পাত?’
আবু বলে, ‘দাদা, মারিনি তো জাত, মেরেছি বোঁটকা গন্ধ’ ॥
আবু আসে তেড়ে লুঙি তুলে, হাবু বাগাইয়া ধরে কোঁচা,
আবু বের করে ছোরাছুরি, হাবু দেখায় বাঁশের খোঁচা।
হাবু বলে, ‘দেব ভুঁড়ি চাপা,’ আবু দেখায় অর্ধচন্দ্র॥
টিকি আর দাড়ি ছেড়ে আড়াআড়ি সহসা হইল দোস্ত,
আবু খায় কিনে গোস্ত কাবাব, হাবু খায় বড়ি পোস্ত,
আবু যায় চলে কাঁকিনাড়া, হাবু চলে যায় গোয়ালন্দ॥

গোঁড়া ও পাতি

Share This