০৭.দ্রোণপর্ব্ব

০১. দ্রোণাচার্য্যকে সেনাপতি-পদে বরণ

মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের তনয়। সমরে পড়িল যদি ভীষ্ম মহাশয়।। দশ দিন যুদ্ধ করি মারি সেনাগণ। আপন ইচ্ছায় তাঁর হইল পতন।। ভীষ্ম যদি পড়িল আকুল দুর্য্যোধন। হাহা ভীষ্ম শব্দ করি করয়ে রোদন।। মহাশোকে রোদন করেন সেনাগণ। কর্ণে চাহি কহিতে লাগিল দুর্য্যোধন।। ভীষ্মের মরণ কর্ণ মনে পাই...

০২. শ্রীকৃষ্ণের সহিত পাণ্ডবদিগের মন্ত্রণা

হেথায় ধর্ম্মের পুত্র সহ ভ্রাতৃগণ। কৃষ্ণ সনে বসি সবে আনন্দিত মন।। দ্রুপদ বিরাট আর সাত্যকি সংহতি। ধৃষ্টদ্যুন্ন চেকিতান যুযুৎসু নৃপতি।। অভিমন্যু ঘটোৎকচ পঞ্চপুত্র আর। সভায় বসিয়া সবে করয়ে বিচার।। হেনকালে দূত গিয়া কহিল সত্বর। দ্রোণ সেনাপতি হৈল শুন নরবর।। তোমারে ধরিয়া দিতে...

০৩. ভীষ্ম ও দুর্য্যোধনের কথোপকথন

হেথায় প্রভাতকালে রাজা দুর্য্যোধন। দ্রোণে অগ্রে করি রণে আইল তখন।। রথ ছাড়ি গেল বীর ভীষ্মের সদন। ভীষ্মেরে প্রণাম করে রাজা দুর্য্যোধন।। শরশয্যা শয়নে আছেন মহাবীরে। দুর্য্যোধন কহিতে লাগিল ধীরে ধীরে।। আজ্ঞা কর পিতামহ প্রসন্নবদনে। সমর করিতে যাই পাণ্ডুপুত্র সনে।। সেনাপতি...

০৪. সঙ্কুল যুদ্ধ (চত্রুব্যূহ রচনা)

চত্রুব্যূহ করিলেন দ্রোণ মহাশয়। ভেদিতে বিষম ব্যূহ দেবে সাধ্য নয়।। রথে আরোহণ করি আইলেন বীর। ভূবনবিজয়ী দ্রোণ নির্ভয় শরীর।। যুধিষ্ঠির দেখেন আইল দুর্য্যোধন। হইলেন বাহির সহিত নারায়ণ।। করিয়া মকর ব্যূহ বীর ধনঞ্জয়। রণে আইলেন সহ কৃষ্ণ মহাশয়।। দুই সৈন্য কোলাহলে হৈল গণ্ডগোল।...

০৫. দ্রোণের সহিত অর্জ্জুনের যুদ্ধ

মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের নন্দন। যেইমতে যুদ্ধ করে সব রাজগণ।। দ্রোণ ধনঞ্জয়ে যুদ্ধ কি দিব তুলনা। রাম রাবণের যুদ্ধ নাহি হয় সীমা।। দ্রোণ গুরু দেখি তবে বীর ধনঞ্জয়। করপুটে প্রণমেন করিয়া বিনয়।। অর্জ্জুন বলেন গুরু কহ বিবরণ। যুধিষ্ঠিরে ধরিতে বলেন দুর্য্যোধন।। এমত প্রতিজ্ঞা কেন...

০৬. অর্জ্জুনের সহিত দুর্য্যোধনাদির ক্রমান্বয়ে যুদ্ধ

পরদিন প্রভাতেতে যত বীরগণ। সসৈন্য চলিল সবে করিবারে রণ।। যোদ্ধাগণ চলিল চড়িয়া দিব্যরথে। গজবাজী পদাতিক চলে যূথে যূথে।। হস্তী হ্স্তী মল্লে মল্লে মহাযুদ্ধ করে। অশ্বে আসোয়ার যুঝে নানা অস্ত্র ধরে।। হেনকালে ধনঞ্জয় কৃষ্ণে আগে করি। রণস্থলে আইলেন হাতে ধনু ধরি।। গগন ছাইয়া বীর...

০৭. দ্রোণের প্রতি দুর্য্যোধনের খেদোক্তি ও নারায়ণী সেনার যুদ্ধারন্ত

শিবিরেতে গেল তবে রাজা দুর্য্যোধন। অত্যন্ত দুঃখিত হয়ে বিরস বদন।। কহিলেন গুরু অগ্রে করিয়া রোদন। কিরূপে আমার গুরু হইবে তারণ।। কি প্রকারে জিনি উপদেশ বল তুমি। কেবল ভরসা তব করিতেছি আমি।। দ্রোণ বলে গুণ আমি কহি যে বচন। তবে যুধিষ্ঠিরে ধরি শুন দুর্য্যোধন।। নারায়ণী সেনা দেখ...

০৮. জয়দ্রথের নিকট পাণ্ডবদিগের পরাভবের বৃত্তান্ত

মুনি বলে, পূর্ব্বকথা শুনহ রাজন। যুধিষ্ঠির রাজা যবে প্রবেশেন বন।। কত দিনে জয়দ্রথ গেল সেই বনে। দ্রৌপদীরে একা তবে দেখিল ভবনে।। দেখিয়া দুর্ম্মতি হৈল সিন্ধুর নন্দন। দ্রৌপদীরে রথে তুলি করিল গমন। লইয়া আপন দেশে চলিল দুর্ম্মতি। হাহাকার শব্দ করি ডাকয়ে পার্ষতী।। তবে ভীম কোপে ধায়...

০৯. অভিমন্যুর যুদ্ধারম্ভ

ব্যূহে প্রবেশিল যবে অভিমন্যু বীর। ভীম আদি যোদ্ধাগণ হইল অস্থির।। নাহি দিল জয়দ্রথ প্রবেশিতে পথ। চিন্তাকূল হল বড় পড়িল বিপদ।। ব্যূহ ভেদি গেল পুত্র নিজ বীরপণে। তাহাতে কহিল শুনি নির্গম না জানে।। জানিয়া সমূহ সৈন্যমাঝে গেল রণে। সঙ্কটে পড়িলে রক্ষাপাইবে কেমনে।। হেথা না দেখিয়া...

১০. অভিমন্যু বধ

মুনি বলে অপূর্ব্ব শুনহ জন্মেজয়। করিল অদ্ভূত যুদ্ধ অর্জ্জুন তনয়।। রথে পড়ে তিন কোটি রথীবৃন্দবর। ছয়বৃন্দ মদমত্ত পড়িল কুঞ্জর।। সপ্ত পদ্ম অশ্ব পড়ে রণে আসোয়ার। পদাতিক সৈন্য পড়ে সংখ্যা নাহিতার।। শোণিতে হইল নদী ভাসে কত সেনা। তরঙ্গে আতঙ্ক হয় রাশি রাশি ফেণা।। কবন্ধ উঠিয়া কেলি...

১১. অভিমন্যুর জন্ম-বৃত্তান্ত

মুনি বলে, শুন পরীক্ষিতের নন্দন। শিবিরে গেলেন রাজা শোকাকুল মন।। বিলাপ করেন ধর্ম্ম কুন্তীর নন্দন। ভূমিতে বসিয়া সবে ত্যজিয়া আসন।। হেনকালে আসি সত্যবতীর নন্দন। দেখেন ধর্ম্মের পুত্রে শোকাকুল মন।। ব্যাসে দেখি সর্ব্বজন নমিল উঠিয়া। ধর্ম্মে জিজ্ঞাসেন ব্যাস আশীর্ব্বাদ দিয়া।। কি...

১২. অর্জ্জুনের শিবিরে আগমন ও অভিমন্যু-নিধন-বাক্য শ্রবণ

মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের নন্দন। সমরেতে অভিমন্যু হইল নিধন।। সংসপ্তকে থাকিয়া করেন পার্থ রণ। উৎপাত অনেক দেখি করেন চিন্তন।। করুণ ডাকিয়া কাক ধ্বজে আসি পড়ে। শক্তিহীন সমরে, গাণ্ডীব গুণ ছিঁড়ে।। বামচক্ষু স্পন্দে, ঘন ঘন বাম কর। উড়ু উড়ু করে প্রাণ, রণে নাহি ডর।। কৃষ্ণে চাহি ধনঞ্জয়...

১৩. অভিমন্যু শোকে অর্জ্জুনের বিলাপ

পার্থ মহাবীর,           হইলা অস্থির, তনয় নিধন শুনি। হাহা পুত্রবর,           মহা ধনুর্দ্ধর, বীরগণ চূড়ামণি।। তোমা বিনা মোর,           ঘর হৈল ঘোর কি করিব রাজ্যধনে। আমারে ছাড়িয়া,           গেলে পলাইয়া দাগা দিয়া মম প্রাণে।। পুত্র মহাবীর,           কন্দর্প শরীর, চন্দ্রমুখ...

১৪. অর্জ্জুনের প্রতি শ্রীকৃষ্ণ ও ব্যাসের সান্ত্বনা বাক্য

অর্জ্জুন বলেন কৃষ্ণ করি নিবেদন। অভিমন্যু বিনা আর না রহে জীবন।। অভিমন্যু সম নাহি দেখি ত্রিভুবনে। কন্দর্প সমান বীর পূর্ণ রূপে গুণে।। শ্রীকৃষ্ণ বলেন সখে শুনহ বচন। স্বর্গে গেল যেই, তার না কর শোচন।। সম্মূখ সংগ্রাম করি গেল স্বর্গলোক। বড় কার্য্য কৈল সেই, পরিহর শোক।। অনিত্য...

১৫. জয়দ্রথ বধে অর্জ্জুনের প্রতিজ্ঞা

তার পরে বাসুদেব কমললোচন। যুধিষ্ঠির রাজা চাহি বলেন বচন।। কহ শুনি অভিমন্যু যুদ্ধের কথন। কিরূপে কৌরব সহ করিলেক রণ।। যুধিষ্ঠির বলিলেন শুন বিবরণ। চক্রব্যূহ করি দ্রোণ করে মহারণ।। ব্যুহ ভেদি যুদ্ধ করে নাহি হেন জন। অভিমন্যু প্রতি কহিলাম সে কারণ।। এতেক শুনিয়া পুত্র কহিল তখন।...

১৬. জয়দ্রথ-বধের বৃত্তান্ত

মুনি বলে, শুন পরীক্ষিতের নন্দন। জয়দ্রথ বধ কথা অপূর্ব্ব কথন।। অর্দ্ধগত নিশা নিদ্রাগত বীরগণ। অতি চিন্তান্বিত কৃষ্ণ অর্জ্জুন কারণ।। অর্জ্জুনে কহেন কৃষ্ণ কমললোচন। না বুঝিয়া প্রতিজ্ঞা করিলা ক্রোধমন।। জয়দ্রথ হেতু সবে করি প্রাণপণ। করিবে দারুণ যুদ্ধ না যায় খণ্ডন।। জয়দ্রথ বীরে...

১৭. সাত্যকির যুদ্ধে ও ভূরিশ্রবা কর্ত্তৃক সাত্যকির পরাজয়

মুনি বলে শুন শুন রাজা জন্মেজয়। করেন দারুণ যুদ্ধ বীর ধনঞ্জয়।। হেথায় ধর্ম্মের পুত্র না দেখি অর্জ্জুনে। কৃষ্ণেরে না দেখি দুঃখ ভাবিলেন মনে।। বহুদূর গেল, রথধ্বজ নাহি দেখি। চিন্তাকুল হয়ে রাজা ডাকেন সাত্যকি।। ডাক শুনি সাত্যকি আসিল সেইক্ষণ। সাত্যকিরে বলিলেন ধর্ম্মের নন্দন।।...

১৮. ভূরিশ্রবা কর্ত্তৃক সাত্যকির পরাজয়ের কারণ বর্ণন

মুনি বলে, শুন পরীক্ষিতের তনয়। সাত্যকির কৈল কিবা হেতু পরাজয়।। একদিন বাসুদেব পিতৃশ্রাদ্ধ কালে। নিমন্ত্রণ করি যত কুটুম্ব আনিলে।। সোমদ্ত্ত বাহলীক যে পাঞ্চাল রাজন। শাল্ব শিশুপাল এল পেয়ে নিমন্ত্রণ।। আইল অনেক রাজা না হয় বাখান। সবাকারে বাসুদেব করে অভ্যুথান।। বিচিত্র আসনে...

১৯. ভূরিশ্রবা বধ

মুনি বলে আশ্চর্য্য শুনহ জন্মেজয়। শিব বরে সাত্যকি পাইল পরাজয়।। ভূরিশ্রবা হস্ত যদি কাটেন অর্জ্জুন। ভূমেতে পড়িয়া হইলেক অচেতন।। পুনরপি বসিয়া উঠিল রণস্থলে। নিন্দা করি ভূরিশ্রবা অর্জ্জুনেরে বলে।। ধিক্ ধনঞ্জয় তোর থাকুক্ বীরত্ব। অন্যায় করিয়া মম কাট তুমি হস্ত।। সাত্যকি সহিত রণ...

২০. ভীমের সহিত যুদ্ধে দুর্য্যোধনের দশ ভ্রাতার মৃত্যু

মুনি বলে, শুন রাজা অপূর্ব্ব কথন। হেনমতে শিনি-পৌত্র করে মহারণ।। হেথা রাজা যুধিষ্ঠির সচিন্তিত মন। অনুক্ষণ করিছেন পার্থের চিন্তন।। তৃতীয় প্রহর বেলা হৈল আসি প্রায়। নাহি জানি পার্থ করে কেমন উপায়।। প্রতিজ্ঞা করিল বীর বড়ই দুষ্কর। জয়দ্রথে না মারিয়া না আসিবে ঘর।। সাত্যকিরে...