২১. অর্জ্জুনের দশ নামের কারণ ও গান্ধারী সহ কুন্তীর শিব পূজা লইয়া বিরোধ

অর্জ্জুন বলেন, শুন বিরাট-নন্দন। দশ নাম-হেতু তোমা বলিব এখন।। হস্তিনা নগরে পূর্ব্বে ছিলাম যখন। আমার জননী পূজা করে পঞ্চানন।। স্বয়ম্ভূ… Read more ২১. অর্জ্জুনের দশ নামের কারণ ও গান্ধারী সহ কুন্তীর শিব পূজা লইয়া বিরোধ

২২. অর্জ্জুনের বীভৎসু ও অন্যান্য নামের বিবরণ

পার্থ বলিলেন, শুন বিরাট-নন্দন। কহি এবে আর নাম যাহার কারণ।। বিজয় বলিয়া ডাকে সকলে আমারে। বিজয় করিয়া আসি, যাই যথাকারে।।… Read more ২২. অর্জ্জুনের বীভৎসু ও অন্যান্য নামের বিবরণ

২৩. অর্জ্জুনের অবশিষ্ট নামের ও ক্লীবত্বের বিবরণ

পার্থ বলিলেন, শুন বিরাট কুমার। যেই হেতু যেই নাম, হইল আমার।। দুই ভুজে ধনু আমি ধরি সমান। সমান প্রয়োগ অস্ত্র,… Read more ২৩. অর্জ্জুনের অবশিষ্ট নামের ও ক্লীবত্বের বিবরণ

২৪. অর্জ্জুনের রণসজ্জা

তবে পার্থ মায়ারথ করেন স্মরণ। অগ্নিদত্ত কপিধ্বজ, শ্বেত অশ্বগণ।। পার্থ চিন্তা করামাত্র আসে সেইক্ষণ। কনক রচিত বিশ্বকর্ম্মার গঠন।। উত্তরের রথ… Read more ২৪. অর্জ্জুনের রণসজ্জা

২৫. দ্রোণের প্রতি দুর্য্যোধনের শ্লেষোক্তি

দ্রোণের এতেক বাক্য শুনি দুর্য্যোধন। ক্রুদ্ধ হয়ে ভীষ্মে চাহি বলিছে বচন।। পুনঃ পুনঃ মোর প্রতি কহেন এ কথা। পাণ্ডবের পক্ষ… Read more ২৫. দ্রোণের প্রতি দুর্য্যোধনের শ্লেষোক্তি

২৮. অশ্বত্থামা কর্ত্তৃক কর্ণকে র্ভৎসনা

মাতুলের বচনান্তে অশ্বত্থামা বলে। শরীর জ্বলিছে সূর্য্যপুত্র-বাক্যজালে।। গবী নাহি লই, নাহি করি কোন কার্য্য। সীমান্ত না হই, নাহি যাই নিজ… Read more ২৮. অশ্বত্থামা কর্ত্তৃক কর্ণকে র্ভৎসনা

২৯. দ্রোণের সহিত কর্ণের বাগবিতণ্ডা ও ভীষ্ম কর্ত্তৃক সান্ত্বনা

এইরূপে দুই মুখে শুনি কটূত্তর। ক্রোধমুখে কহে তবে কর্ণ ধনুর্দ্ধর।। জানিয়াছি আমি তোমা সবাকার মতি। ভয়েতে পাণ্ডবগণে করহ ভকতি।। উদর… Read more ২৯. দ্রোণের সহিত কর্ণের বাগবিতণ্ডা ও ভীষ্ম কর্ত্তৃক সান্ত্বনা