৩০. ব্রাহ্মণ মাহাত্ম্য

প্রণমহ দ্বিজ,                     পদ-সরসিজ,
সৃজন পালন নাশা।
সর্ব্বত্র সুখদ,                     মহিমা যে পদ,
অধোক্ষজ বক্ষে ভূষা।।
যে পদ-সলিল,                     যেই সাধু পিল,
তরিল দুঃখ পিপাসা।।
অবনী অবধি,                     যতেক তীর্থাদি,
যে পদে সবার বাসা।।
ভবার্ণব প্লব,                     যে পদ পল্লব,
লক্ষ্মী-বশকারি ধূলি।।
আয়ুর্যশঃপ্রদ,                     অজয় সম্পদ,
পাইতে যাহারে বলি।।
বর্ণিতে কি শক্য,                     দুর্নিবার বাক্য,
পুণ্ডরীকাক্ষাদি জনে।
বজ্রে করে চূর,                     ভস্মের অঙ্কুর,
তিনপুর ভয় মানে।।
ইন্দ্র যাঁর বাক্যে,                     হৈল সহস্রাক্ষে,
সকল ভক্ষ হুতাশ।
যে বাক্যে ভার্গবী,                     ত্যজি স্বর্গদেবী,
সিন্ধুজলে কৈলা বাস।।
অপ্রমিত তেজ,                     অজিত বংশজ,
ইঙ্গিতে করিল ধ্বংস।
বিন্ধ্য হৈল ক্ষুদ্র, শুষিল সমুদ্র,
দহিল সগরবংশ।।
ভজ সাধুচেতা,                     ত্যজ সর্ব্বকথা,
খণ্ডিবে দণ্ডীর পাশী।
জীবনে মরণে,                     ব্রাহ্মণ-চরণে,
শরণ লইল কাশী।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *