দেবী – ০১

১ মাঝরাতের দিকে রানুর ঘুম ভেঙ্গে গেল। তার মনে হলো ছাদে কে যেন হাঁটছে। সাধারণ মানুষের হাঁটা নয়, পা টেনে… Read more দেবী – ০১

দেবী – ০২

২ ভদ্রলোকের বাড়ি খুঁজে বের করতে অনেক দেরি হলো। কাঁঠালবাগানের এক গলির ভেতর পুরোনো ধাঁচের বাড়ি। অনেকক্ষণ কড়া নাড়বার পর… Read more দেবী – ০২

দেবী – ০৩

৩ আনিস অফিসে চলে গেলে রানুর খুব একলা লাগে। কিছুই করার থাকে না। গোছানো আলনা আবার নতুন করে গোছায়। বসার… Read more দেবী – ০৩

দেবী – ০৪

৪ নীলু দুই বার বিজ্ঞাপনটা পড়ল। বেশ একটা মজার বিজ্ঞাপন। কেউ কি আসবেন? আমি এক নিঃসঙ্গ মানুষ। স্ত্রীর মৃত্যুর পর… Read more দেবী – ০৪

দেবী – ০৫

৫ দুপুর-রাতে আনিসের ঘুম ভেঙে গেল। হাত বাড়াল অভ্যেসমতো। পাশে কেউ নেই। আনিস ডাকল, ‘রানু, রানু।’ কোনো সাড়া নেই। বাথরুম… Read more দেবী – ০৫

দেবী – ০৬

৬ মিসির আলি সাহেব দেখলেন তাঁর ঘরের সামনে চারটি মেয়ে দাঁড়িয়ে আছে। কোনো টিউটোরিয়েল ক্লাস আছে নাকি? আজ বুধবার, টিউটোরিয়েল… Read more দেবী – ০৬

দেবী – ০৭

৭ নীলু ইউনিভার্সিটি থেকে ফিরে এসে দেখে তার বিছানার উপর চমৎকার একটি প্যাকেট পড়ে আছে। ব্রাউন কাগজে মোড়া প্যাকেটে গোটা-গোটা… Read more দেবী – ০৭

দেবী – ০৮

৮ সোহাগী হাইস্কুলের হেডমাষ্টার সাহেব দারুণ অবাক হলেন। রানুর ব্যাপারে খোঁজখবর করার জন্যে এক ভদ্রলোক এসেছেন-এর মানে কী? অতো দিন… Read more দেবী – ০৮

দেবী – ০৯

৯ রানু মৃদু স্বরে বলল, ‘ভেতরে আসব?’ ‘এস রানু, এস।’ ‘গল্প করতে এলাম।’ ‘খুব ভালো করেছ।’ নীলু উঠে গিয়ে রানুর… Read more দেবী – ০৯

দেবী – ১০

১০ অনুফার কাছ থেকে নতুন কিছু জানা গেল না। সেও খুব জোর দিয়ে বলল, রানুর পরনে পায়জামা ছিল এবং মৃত… Read more দেবী – ১০

দেবী – ১১

১১ মিসির আলি হাসপাতালে এসেছেন একগাদা বই নিয়ে। তাঁর ধারণা ছিল বই পড়ে সময়টা খুব খারাপ কাটবে না, কিন্তু কার্যক্ষেত্রে… Read more দেবী – ১১

দেবী – ১২

১২ গভীর রাতে আনিস জেগে উঠল। শুনশান নীরবতা চারদিকে। রানু হাত-পা ছড়িয়ে বাচ্চা মেয়ের মতো ঘুমোচ্ছে। জানলার আলো এসে পড়েছে… Read more দেবী – ১২

দেবী – ১৩

১৩ মিসির আলি লোকটির ধের্য প্রায় সীমাহীন। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েই তিনি দ্বিতীয় দফায় রানুদের গ্রামে গিয়ে উপস্থিত হলেন। তাঁর… Read more দেবী – ১৩

দেবী – ১৪

১৪ বইপড়াতে এ সময় লোকজন তেমন থাকে না। আজ যেন আরো নির্জন। নীলু একা-একা কিছুক্ষণ হাঁটল। তার খুব ঘুম হচ্ছে।… Read more দেবী – ১৪

দেবী – ১৫

১৫ ‘স্যার, ভেতরে আসব?’ ‘এস। কী ব্যাপার?’ মিসির আলি মেয়েটিকে ঠিক চিনতে পারলেন না। তিনি কখনো তাঁর ছাত্র-ছাত্রীদের চিনতে পারেন… Read more দেবী – ১৫

দেবী – ১৬

১৬ পত্রিকা খুলে নীলু অবাক হলো। সেই বিজ্ঞাপনটি আবার ছাপা হয়েছে। কথাগুলো এক। জিপিও বকা্র নাম্বারও ৭৩। শিরোনামটিও আগের মতো-কেউ… Read more দেবী – ১৬

দেবী – ১৭

১৭ নীলুর বাবা বারান্দায় বসেছিলেন। নীলুকে বেরুতে দেখে তিনি ডাকলেন,‘নীলু কোথায় যাচ্ছ মা?’ ‘একটু বাইরে যাচ্ছি।’ কিন্তু এইটুকু বলতেই নীলুর… Read more দেবী – ১৭

দেবী – ১৮

১৮ রানু আজ অসময়ে ঘুমিয়ে পড়েছিল। ঘুম যখন ভাঙ্গল তখন দিন প্রায় শেষ। আকাশ লালচে হতে শুরু করেছে। সে বারান্দায়… Read more দেবী – ১৮

দেবী – ১৯

১৯ সারাটা পথ নীলু চুপ করে রইল। একবার সে বলল, ‘কী ব্যাপার, এত চুপচাপ যে?’ নীলু তারও জবাব দিল না।তার… Read more দেবী – ১৯

দেবী – ২০

২০ আনিস এলো রাত সাড়ে আটটায়। ঘর অন্ধকার। কারো কোনো সাড়া শব্দ নেই। রানু বাতিটাতি নিভেয়ে অন্ধকারে বসে আছে। জিতু… Read more দেবী – ২০