এইক্ষণে মোর হৃদয়ের প্রান্তে আমার নয়ন-বাতায়নে

এইক্ষণে মোর হৃদয়ের প্রান্তে আমার নয়ন-বাতায়নে যে-তুমি রয়েছ চেয়ে প্রভাত-আলোতে সে-তোমার দৃষ্টি যেন নানা দিন নানা রাত্রি হতে রহিয়া রহিয়া… Read more এইক্ষণে মোর হৃদয়ের প্রান্তে আমার নয়ন-বাতায়নে

এবারে ফাল্গুনের দিনে সিন্ধুতীরের কুঞ্জবীথিকায়

এবারে ফাল্গুনের দিনে সিন্ধুতীরের কুঞ্জবীথিকায় এই যে আমার জীবন-লতিকায় ফুটল কেবল শিউরে-ওঠা নতুন পাতা যত রক্তবরন হৃদয়ব্যথার মতো; দখিন হাওয়া… Read more এবারে ফাল্গুনের দিনে সিন্ধুতীরের কুঞ্জবীথিকায়

কোন্‌ ক্ষণে সৃজনের সমুদ্রমন্থনে

কোন্‌ ক্ষণে সৃজনের সমুদ্রমন্থনে উঠেছিল দুই নারী অতলের শয্যাতল ছাড়ি। একজনা উর্বশী, সুন্দরী, বিশ্বের কামনা-রাজ্যে রানী, স্বর্গের অপ্সরী। অন্যজনা লক্ষ্মী… Read more কোন্‌ ক্ষণে সৃজনের সমুদ্রমন্থনে

জানি আমার পায়ের শব্দ রাত্রে দিনে শুনতে তুমি পাও

জানি আমার পায়ের শব্দ রাত্রে দিনে শুনতে তুমি পাও, খুশি হয়ে পথের পানে চাও। খুশি তোমার ফুটে ওঠে শরৎ-আকাশে অরুণ-আভাসে।… Read more জানি আমার পায়ের শব্দ রাত্রে দিনে শুনতে তুমি পাও

তোমারে কি বারবার করেছিনু অপমান

তোমারে কি বারবার করেছিনু অপমান। এসেছিলে গেয়ে গান ভোরবেলা; ঘুম ভাঙাইলে ব’লে মেরেছিনু ঢেলা বাতায়ন হতে, পরক্ষণে কোথা তুমি লুকাইলে… Read more তোমারে কি বারবার করেছিনু অপমান

দূর হতে কী শুনিস মৃত্যুর গর্জন

দূর হতে কী শুনিস মৃত্যুর গর্জন, ওরে দীন, ওরে উদাসীন– ওই ক্রন্দনের কলরোল, লক্ষ বক্ষ হতে মুক্ত রক্তের কল্লোল। বহ্নিবন্যা-তরঙ্গের… Read more দূর হতে কী শুনিস মৃত্যুর গর্জন

পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি

পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি ওই কেটে গেল; ওরে যাত্রী। তোমার পথের ‘পরে তপ্ত রৌদ্র এনেছে আহ্বান রুদ্রের ভৈরব গান। দূর… Read more পুরাতন বৎসরের জীর্ণক্লান্ত রাত্রি

বলাকা (সন্ধ্যারাগে-ঝিলিমিলি ঝিলমের স্রোতখানি বাঁকা)

সন্ধ্যারাগে-ঝিলিমিলি ঝিলমের স্রোতখানি বাঁকা আঁধারে মলিন হল, যেন খাপে ঢাকা বাঁকা তলোয়ার! দিনের ভাঁটার শেষে রাত্রির জোয়ার এল তার ভেসে-আসা… Read more বলাকা (সন্ধ্যারাগে-ঝিলিমিলি ঝিলমের স্রোতখানি বাঁকা)

যে-বসন্ত একদিন করেছিল কত কোলাহল

যে-বসন্ত একদিন করেছিল কত কোলাহল লয়ে দলবল আমার প্রাঙ্গণতলে কলহাস্য তুলে দাড়িম্বে পলাশগুচ্ছে কাঞ্চনে পারুলে; নবীন পল্লবে বনে বনে বিহ্বল… Read more যে-বসন্ত একদিন করেছিল কত কোলাহল

যেদিন উদিলে তুমি, বিশ্বকবি, দূর সিন্ধুপারে

যেদিন উদিলে তুমি, বিশ্বকবি, দূর সিন্ধুপারে, ইংলণ্ডে দিকপ্রান্ত পেয়েছিল সেদিন তোমারে আপন বক্ষের কাছে, ভেবেছিল বুঝি তারি তুমি কেবল আপন… Read more যেদিন উদিলে তুমি, বিশ্বকবি, দূর সিন্ধুপারে

শা-জাহান

 এ কথা জানিতে তুমি ভারত-ঈশ্বর শা-জাহান,  কালস্রোতে ভেসে যায় জীবন যৌবন ধনমান।       শুধু তব অন্তরবেদনা   চিরন্তন হয়ে থাক্, সম্রাটের ছিল এ সাধনা       রাজশক্তি বজ্রসুকঠিন  সন্ধ্যারক্তরাগসম তন্দ্রাতলে হয় হোক লীন       কেবল একটি দীর্ঘশ্বাস   নিত্য-উচ্ছ্বসিত হয়ে সকরুণ করুক আকাশ,       এই তব মনে ছিল আশ।     হীরামুক্তামানিক্যের ঘটা   যেন শুন্য দিগন্তের ইন্দ্রজাল ইন্দ্রধনুচ্ছটা      যায় যদি লুপ্ত হয়ে যাক,              শুধু থাক্     একবিন্দু নয়নের জল  কালের কপোলতলে শুভ্র সমুজ্জ্বল     এ তাজমহল॥            হায় ওরে মানবহৃদয়,             বার বার     কারো পানে ফিরে চাহিবার          নাই যে সময়,… Read more শা-জাহান

হে বিরাট নদী, অদৃশ্য নিঃশব্দ তব জল

হে বিরাট নদী, অদৃশ্য নিঃশব্দ তব জল অবিচ্ছিন্ন অবিরল চলে নিরবধি। স্পন্দনে শিহরে শূন্য তব রুদ্র কায়াহীন বেগে; বস্তুহীন প্রবাহের… Read more হে বিরাট নদী, অদৃশ্য নিঃশব্দ তব জল

হে ভুবন আমি যতক্ষণ তোমারে না বেসেছিনু ভালো

হে ভুবন আমি যতক্ষণ তোমারে না বেসেছিনু ভালো ততক্ষণ তব আলো খুঁজে খুঁজে পায় নাই তার সব ধন। ততক্ষণ নিখিল… Read more হে ভুবন আমি যতক্ষণ তোমারে না বেসেছিনু ভালো