০০৭. সূরা আল আ’রাফ

সূরা আল্‌-আ'রাফ বা চূড়া বা শীর্ষ - ৭
আয়াত ২০৬, রুকু ২৪, মাক্কী
[দয়াময়, পরম করুণাময় আল্লাহ্‌র নামে]
ভূমিকা : এই সূরাটির ধারাবাহিকতা ও যুক্তির দিক থেকে পূর্ববর্তী সূরার সমগোত্রীয়। এই সূরাতে বিভিন্ন নবী ও রাসূলদের জীবনীর মাধ্যমে ঐশ্বরিক প্রত্যাদেশ সমূহের ব্যাখ্যা প্রদান করা হয়েছে। শুরু করা হয়েছে হযরত আদম (আঃ) থেকে এবং শেষ করা হয়েছে হযরত মুহম্মদ (সাঃ) পর্যন্ত। এর মাঝে হযরত মুসার সংগ্রামের ইতিহাসকে বিশদ ভাবে বর্ণনা করা হয়েছে।
সারসংক্ষেপ : এই সূরাতে প্রথম থেকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে; "অতীত থেকে শিক্ষা গ্রহণ করাকে।" ভালোকে মন্দ সব সময়েই বাঁধা প্রদান করে থাকে, এ কথা সর্বকালের সর্বযুগের। এই বার্তাকেই হযরত আদম ও ইবলিসের কাহিনীর মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে। উদ্ধতপনা ও একগুয়েমী - বিদ্রোহের জন্ম দেয়, আর বিদ্রোহীদের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, তারা হবে হিংসূক ও সাধারণ মানুষকে তারা তাদের পথে চলার জন্য প্রলোভিত করবে। এদেরকেই এখানে সাবধান করে দেয়া হয়েছে। [৭ : ১-৩১]
যদি কেউ আল্লাহ্‌র সাবধান বাণীতে কর্ণপাত না করে তাদের জন্য ভবিষ্যতে রয়েছে শাস্তি। পূণ্যাত্মাদের জন্য পরকালে রয়েছে সুখ ও শান্তির প্রতিশ্রুতি এবং ইহকালে আছে আল্লাহ্‌র অনুগ্রহ ও করুণা [৭ : ৩২ - ৫৮]।
নূহ নবীর বন্যা, হুদ, সালেহ্‌, লুত এবং সুহেব নবীর কাহিনীর মাধ্যমে আল্লাহ্‌ আমাদের শিক্ষা দিয়েছেন যে সর্বকালেই আল্লাহ্‌র নবীরা মন্দদের দ্বারা বাঁধাপ্রাপ্ত হয়েছেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত সত্য জয়লাভ করেছে। অশুভ শক্তির পরাজয় ঘটেছে। কারণ আল্লাহ্‌র পরিকল্পনা কখনও ব্যর্থ হয় না [৭ : ৫৯-৯৯]।
হযরত মুসার কাহিনী বিশদভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। এই কাহিনীতে ফেরাউনের সাথে হযরত মুসার সংগ্রামের কথাই যে শুধু বর্ণিত হয়েছে তাই-ই নয়, আরও বলা হয়েছে নবুওয়াতের (mission) জন্য কিভাবে আল্লাহ্‌ তাঁকে প্রস্তুত করেন এবং হযরত মুসা কিভাবে তার স্বগোত্রের লোকদের বিদ্রোহের সম্মুখীন হন। এমনকি হযরত মুসার সময়েই নিরক্ষর নবীর আগমনের পূর্বাভাস দেয়া হয়েছিল [৭ : ১০০-১৫৭]।
হযরত মুসার লোকেরা ধর্মচ্যুত হয়ে আল্লাহ্‌র আইন, যা তাদের জন্য ঘোষণা করা হয়েছিল, তা অমান্য করে। তারা আল্লাহ্‌র সাথে যে চুক্তি করেছিল, তা লঙ্ঘন করে। ফলে তারা সারা পৃথিবীতে আবাসচ্যুত অবস্থায় ছত্রাকারে ছড়িয়ে পড়ে। [৭ : ১৫৮-১৭১]
আদম সন্তান বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়ে পৃথিবীতে বিস্তার লাভ করে। কিন্তু তাদের অনেকেই সত্যকে অস্বীকার করার ফলে ধ্বংসের পথে অগ্রসর হয়, কিন্তু তারা তা অনুধাবন করে না। পূণ্যাত্মারা আল্লাহ্‌র বাণীর তাৎপর্য বুঝতে পারে, এবং বিনয়ের মাধ্যমে আল্লাহ্‌র সেবায় নিয়োজিত হয় [৭ : ১৭২-২০৬]।

007.001

আলিফ, লাম, মীম, ছোয়াদ। Alif­Lâm­Mîm­Sâd. [These letters are one of the miracles of the Qur’ân and none but Allâh (Alone) knows their meanings]. المص Alif-lam-meem-sad YUSUFALI: Alif, Lam, Mim, Sad. PICKTHAL: Alif. Lam. Mim. Sad. SHAKIR: Alif Lam Mim Suad. KHALIFA: A....

007.002

এটি একটি গ্রন্থ, যা আপনার প্রতি অবতীর্ণ হয়েছে, যাতে করে আপনি এর মাধ্যমে ভীতি-প্রদর্শন করেন। অতএব, এটি পৌছে দিতে আপনার মনে কোনরূপ সংকীর্ণতা থাকা উচিত নয়। আর এটিই বিশ্বাসীদের জন্যে উপদেশ। (This is the) Book (the Qur’ân) sent down unto you (O Muhammad SAW), so let not...

007.003

তোমরা অনুসরণ কর, যা তোমাদের প্রতি পালকের পক্ষ থেকে অবতীর্ণ হয়েছে এবং আল্লাহকে বাদ দিয়ে অন্য সাথীদের অনুসরণ করো না। [Say (O Muhammad SAW) to these idolaters (pagan Arabs) of your folk:] Follow what has been sent down unto you from your Lord (the Qur’ân and Prophet...

007.004

আর তোমরা অল্পই উপদেশ গ্রহণ কর। অনেক জনপদকে আমি ধ্বংস করে দিয়েছি। তাদের কাছে আমার আযাব রাত্রি বেলায় পৌছেছে অথবা দ্বিপ্রহরে বিশ্রামরত অবস্থায়। And a great number of towns (their population) We destroyed (for their crimes). Our torment came upon them (suddenly) by...

007.005

অনন্তর যখন তাদের কাছে আমার আযাব উপস্থিত হয়, তখন তাদের কথা এই ছিল যে, তারা বললঃ নিশ্চয় আমরা অত্যাচারী ছিলাম। No cry did they utter when Our Torment came upon them but this: ”Verily, we were Zâlimûn (polytheists and wrong­doers, etc.)”. فَمَا كَانَ دَعْوَاهُمْ إِذْ...

007.006

অতএব, আমি অবশ্যই তাদেরকে জিজ্ঞেস করব যাদের কাছে রসূল প্রেরিত হয়েছিল এবং আমি অবশ্যই তাদেরকে জিজ্ঞেস করব রসূলগণকে। Then surely, We shall question those (people) to whom it (the Book) was sent and verily, We shall question the Messengers. فَلَنَسْأَلَنَّ الَّذِينَ...

007.007

অতঃপর আমি স্বজ্ঞানে তাদের কাছে অবস্থা বর্ণনা করব। বস্তুতঃ আমি অনুপস্থিত তো ছিলাম না। Then surely, We shall narrate unto them (their whole story) with knowledge, and indeed We were not absent. فَلَنَقُصَّنَّ عَلَيْهِم بِعِلْمٍ وَمَا كُنَّا غَآئِبِينَ Falanaqussanna...

007.008

আর সেদিন যথার্থই ওজন হবে। অতঃপর যাদের পাল্লা ভারী হবে, তারাই সফলকাম হবে। And the weighing on that day (Day of Resurrection) will be the true (weighing). So as for those whose scale (of good deeds) will be heavy, they will be the successful (by entering Paradise)....

007.009

এবং যাদের পাল্লা হাল্কা হবে, তারাই এমন হবে, যারা নিজেদের ক্ষতি করেছে। কেননা, তারা আমার আয়াত সমূহ অস্বীকার করতো। And as for those whose scale will be light, they are those who will lose their ownselves (by entering Hell) because they denied and rejected Our Ayât...

007.010

আমি তোমাদেরকে পৃথিবীতে ঠাই দিয়েছি এবং তোমাদের জীবিকা নির্দিষ্ট করে দিয়েছি। তোমরা অল্পই কৃতজ্ঞতা স্বীকার কর। And surely, We gave you authority on the earth and appointed for you therein provisions (for your life). Little thanks do you give. وَلَقَدْ مَكَّنَّاكُمْ...

007.011

আর আমি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছি, এরপর আকার-অবয়ব, তৈরী করেছি। অতঃপর আমি ফেরেশতাদেরকে বলছি-আদমকে সেজদা কর তখন সবাই সেজদা করেছে, কিন্তু ইবলীস সে সেজদাকারীদের অন্তর্ভূক্ত ছিল না। And surely, We created you (your father Adam) and then gave you shape (the noble shape of a...

007.012

আল্লাহ বললেনঃ আমি যখন নির্দেশ দিয়েছি, তখন তোকে কিসে সেজদা করতে বারণ করল? সে বললঃ আমি তার চাইতে শ্রেষ্ট। আপনি আমাকে আগুন দ্বারা সৃষ্টি করেছেন এবং তাকে সৃষ্টি করেছেন মাটির দ্বারা। (Allâh) said: ”What prevented you (O Iblîs) that you did not prostrate, when I commanded...

007.013

বললেন তুই এখান থেকে যা। এখানে অহংকার করার কোন অধিকার তোর নাই। অতএব তুই বের হয়ে যা। তুই হীনতমদের অন্তর্ভুক্ত। (Allâh) said: ”(O Iblîs) get down from this (Paradise), it is not for you to be arrogant here. Get out, for you are of those humiliated and disgraced.” قَالَ...

007.014

সে বললঃ আমাকে কেয়ামত দিবস পর্যন্ত অবকাশ দিন। (Iblîs) said: ”Allow me respite till the Day they are raised up (i.e. the Day of Resurrection).” قَالَ فَأَنظِرْنِي إِلَى يَوْمِ يُبْعَثُونَ Qala anthirnee ila yawmi yubAAathoona YUSUFALI: He said: “Give me respite...

007.015

আল্লাহ বললেনঃ তোকে সময় দেয়া হল। (Allâh) said: ”You are of those allowed respite.” قَالَ إِنَّكَ مِنَ المُنظَرِينَ Qala innaka mina almunthareena YUSUFALI: (Allah) said: “Be thou among those who have respite.” PICKTHAL: He said: Lo! thou art of those...

007.016

সে বললঃ আপনি আমাকে যেমন উদভ্রান্ত করেছেন, আমিও অবশ্য তাদের জন্যে আপনার সরল পথে বসে থাকবো। (Iblîs) said: ”Because You have sent me astray, surely I will sit in wait against them (human beings) on Your Straight Path. قَالَ فَبِمَا أَغْوَيْتَنِي لأَقْعُدَنَّ لَهُمْ...

007.017

এরপর তাদের কাছে আসব তাদের সামনের দিক থেকে, পেছন দিক থেকে, ডান দিক থেকে এবং বাম দিক থেকে। আপনি তাদের অধিকাংশকে কৃতজ্ঞ পাবেন না। Then I will come to them from before them and behind them, from their right and from their left, and You will not find most of them as...

007.018

আল্লাহ বললেনঃ বের হয়ে যা এখান থেকে লাঞ্ছিত ও অপমানিত হয়ে। তাদের যে কেউ তোর পথেচলবে, নিশ্চয় আমি তোদের সবার দ্বারা জাহান্নাম পূর্ণ করে দিব। (Allâh) said (to Iblîs) ”Get out from this (Paradise) disgraced and expelled. Whoever of them (mankind) will follow you, then...

007.019

হে আদম তুমি এবং তোমার স্ত্রী জান্নাতে বসবাস কর। অতঃপর সেখান থেকে যা ইচ্ছা খাও তবে এ বৃক্ষের কাছে যেয়োনা তাহলে তোমরা গোনাহগার হয়ে যাবে। ”And O Adam! Dwell you and your wife in Paradise, and eat thereof as you both wish, but approach not this tree otherwise you both...

007.020

অতঃপর শয়তান উভয়কে প্ররোচিত করল, যাতে তাদের অঙ্গ, যা তাদের কাছে গোপন ছিল, তাদের সামনে প্রকাশ করে দেয়। সে বললঃ তোমাদের পালনকর্তা তোমাদেরকে এ বৃক্ষ থেকে নিষেধ করেননি; তবে তা এ কারণে যে, তোমরা না আবার ফেরেশতা হয়ে যাও-কিংবা হয়ে যাও চিরকাল বসবাসকারী। Then Shaitân...