০০৬. সূরা আল আনআম

সূরা আল্‌-আন্‌-আম বা পশু - ৬
আয়াত ১৬৫, রুকু ২০, মাক্কী
[দয়াময়, পরম করুণাময় আল্লাহ্‌র নামে]
ভূমিকা : ক্রম অনুযায়ী মক্কার অবতীর্ণ সূরাগুলির মধ্যে এই সূরাটির অবস্থান শেষাংশে। এই সূরার অধিকাংশ মক্কাতেই নাযেল হয়। কোরআন শরীফে এই সূরাটি অবস্থান যক্তিযুক্তভাবে প্রথাগত নিয়ম অনুসরণ করা হয়েছে। এ পর্যন্ত আমরা মানব সম্প্রদায়ের ধর্মীয় ইতিহাস অবলোকন করেছি, পূর্ববর্তী প্রত্যাদেশের আলোচনা এবং কিভাবে দূর্নীতি রাহুগ্রস্থ হয়ে হায়িয়ে যায় তা বলা হয়েছে। নূতন সম্প্রদায়ের সংঘবদ্ধ জীবন প্রণালী, আল্লাহ্‌র একত্বে বিশ্বাস যা ইসলামের (হযরত ইব্রাহীমের ধর্ম) মূল মন্ত্র তা থেকে ইহুদী ও খৃষ্টান সম্প্রদায়ের বিচ্যুতি এসব বিষযে আলোচনা করা হয়েছে। পরবর্তী ধাপে আরব মোশরেক-দের পৌত্তলিকতাকে এ একত্ববাদের পটভূমিতে ব্যাখ্যা করা হয়েছে।
সার-সংক্ষেপ : আল্লাহ্‌র প্রকৃতি এবং যে ভাবে বিশ্ব প্রকতির মালিক নিজেকে প্রকাশ করেন তার ব্যাখ্যা করা হয়েছে এবং সেই সাথে মোশরেকদের বহু-ঈশ্বরাবাদের গুরুত্বহীনতাকে তুলে ধরা হয়েছে। [৬:১-৩০]
এই অপূর্ব সুন্দর পৃথিবী আল্লাহ্‌র বিষ্ময়কর সৃষ্টির অপূর্ব নিদর্শন। কিন্তু এই সুন্দর পৃথিবীর জীবন পরকালের জীবনের তুলনায় মূল্যহীন। যা কিছু অদৃশ্য,অশ্রুত গোপনীয় সবই আল্লাহ্‌ জ্ঞাত। [৬:৩১-৬০]
এই পৃথিবীর সৃষ্টিতে, এর রক্ষণাবেক্ষণ, ধারাবাহিকতা সবই সেই স্রষ্টার একাত্বের দিকে ইঙ্গিত করে। একথা হযরত ইব্রাহীমের কথাই স্মরণ করিয়ে দেয়, যিনি মুশরিকদের সাথে যুক্তিকে লিপ্ত হয়েছিলেন। [৬:৬১-৮২]
হযরত ইব্রাহীমের বংশধরের মাধ্যমে আল্লাহ্‌ তাঁর সত্যকে চিরদিন ভাস্বর রেখেছেন এবং শেষ প্রর্যন্ত তা কোরআন শরীফে এসে শেষ হয়। যদি কেউ আল্লাহ্‌র সৃষ্টিকে অনুধাবন করেতে চেষ্টা করে এবং সৃষ্টির সমন্বয়, ধারাবাহিকতার শৃঙ্খলা ইত্যাদি সম্বন্ধে অভিনিবেশ সহকারে চিন্তা করে, তবে এমন কি কেউ আছে যে আল্লাহর মহিমা, দয়া তার প্রত্যাদেশ অনুধাবনে ব্যার্থ হবে।' [৬:৮৩-১১০]
অবাধ্য ও বিদ্রোহীরাই প্রতারিত হয়। তাদের সঙ্গ ত্যাগ করতে হবে। যদিও তারা পরস্পর পরস্পরের সহযোগী তবুও তারা শাস্তি এড়াতে পারবে না। [৬:১১১-১২৯]
বিদ্রোহীদের অপরাধ ও কুসংস্কার সত্বেও আল্লাহ্‌র হুকুম প্রতিষ্টিত হবেই। [৬:১৩০-১৫০]
সরলপথের অনুসরণ করাই হচ্ছে উত্তম পথ। কোরআনের নিদ্দের্শ অনুযায়ী এই হচ্ছে আল্লাহ্‌ নির্দ্দেশিত পথ। সুতরাং এই পথকে অনুসরণ করার জন্য আমাদের একতাবদ্ধ ভাবে জীবন উৎসর্গ করতে হবে। [৬:১৫১-১৬৫]

006.001

সর্ববিধ প্রশংসা আল্লাহরই জন্য যিনি নভোমন্ডল ও ভূমন্ডল সৃষ্টি করেছেন এবং অন্ধকার ও আলোর উদ্ভব করেছেন। তথাপি কাফেররা স্বীয় পালনকর্তার সাথে অন্যান্যকে সমতুল্য স্থির করে। All praises and thanks be to Allâh, Who (Alone) created the heavens and the earth, and originated...

006.002

তিনিই তোমাদেরকে মাটির দ্বারা সৃষ্টি করেছেন, অতঃপর নির্দিষ্টকাল নির্ধারণ করেছেন। আর অপর নির্দিষ্টকাল আল্লাহর কাছে আছে। তথাপি তোমরা সন্দেহ কর। He it is Who has created you from clay, and then has decreed a stated term (for you to die). And there is with Him another...

006.003

তিনিই আল্লাহ নভোমন্ডলে এবং ভূমন্ডলে। তিনি তোমাদের গোপন ও প্রকাশ্য বিষয় জানেন এবং তোমরা যা কর তাও অবগত। And He is Allâh (to be worshipped Alone) in the heavens and on the earth, He knows what you conceal and what you reveal, and He knows what you earn (good or...

006.004

তাদের কাছে তাদের প্রতিপালকের নিদর্শনাবলী থেকে কোন নিদর্শন আসেনি; যার প্রতি তারা বিমুখ হয় না। And never an Ayah (sign) comes to them from the Ayât (proofs, evidences, verses, lessons, signs, revelations, etc.) of their Lord, but that they have been turning away from...

006.005

অতএব, অবশ্য তারা সত্যকে মিথ্যা বলেছে যখন তা তাদের কাছে এসেছে। বস্তুতঃ অচিরেই তাদের কাছে ঐ বিষয়ের সংবাদ আসবে, যার সাথে তারা উপহাস করত। Indeed, they rejected the truth (the Qur’ân and Muhammad SAW) when it came to them, but there will come to them the news of that (the...

006.006

তারা কি দেখেনি যে, আমি তাদের পুর্বে কত সম্প্রদায়কে ধ্বংস করে দিয়েছি, যাদেরকে আমি পৃথিবীতে এমন প্রতিষ্ঠা দিয়েছিলাম, যা তোমাদেরকে দেইনি। আমি আকাশকে তাদের উপর অনবরত বৃষ্টি বর্ষণ করতে দিয়েছি এবং তাদের তলদেশে নদী সৃষ্টি করে দিয়েছি, অতঃপর আমি তাদেরকে তাদের পাপের কারণে...

006.007

যদি আমি কাগজে লিখিত কোন বিষয় তাদের প্রতি নাযিল করতাম, অতঃপর তারা তা সহস্তে স্পর্শ করত, তবুও অবিশ্বাসীরা একথাই বলত যে, এটা প্রকাশ্য জাদু বৈ কিছু নয়। And even if We had sent down unto you (O Muhammad SAW) a Message written on paper so that they could touch it with...

006.008

তারা আরও বলে যে, তাঁর কাছে কোন ফেরেশতা কেন প্রেরণ করা হল না ? যদি আমি কোন ফেরেশতা প্রেরণ করতাম, তবে গোটা ব্যাপারটাই শেষ হয়ে যেত। অতঃপর তাদেরকে সামান্যও অবকাশ দেওয়া হতনা। And they say: ”Why has not an angel been sent down to him?” Had We sent down an angel, the...

006.009

যদি আমি কোন ফেরেশতাকে রসূল করে পাঠাতাম, তবে সে মানুষের আকারেই হত। এতেও ঐ সন্দেহই করত, যা এখন করছে। And had We appointed him an angel, We indeed would have made him a man, and We would have certainly caused them confusion in a matter which they have already covered...

006.010

নিশ্চয়ই আপনার পূর্ববর্তী পয়গম্বরগণের সাথেও উপহাস করা হয়েছে। অতঃপর যারা তাঁদের সাথে উপহাস করেছিল, তাদেরকে ঐ শাস্তি বেষ্টন করে নিল, যা নিয়ে তারা উপহাস করত। And indeed (many) Messengers were mocked before you, but their scoffers were surrounded by the very thing that...

006.011

বলে দিনঃ তোমরা পৃথিবীতে পরিভ্রমণ কর, অতপর দেখ, মিথ্যারোপ কারীদের পরিণাম কি হয়েছে? Say (O Muhammad SAW): ”Travel in the land and see what was the end of those who rejected truth.” قُلْ سِيرُواْ فِي الأَرْضِ ثُمَّ انظُرُواْ كَيْفَ كَانَ عَاقِبَةُ الْمُكَذِّبِينَ Qul...

006.012

জিজ্ঞেস করুন, নভোমন্ডল ও ভুমন্ডলে যা আছে, তার মালিক কে? বলে দিনঃআল্লাহ। তিনি অনুকম্পা প্রদর্শনকে নিজ দায়িত্বে লিপিবদ্ধ করে নিয়েছেন। তিনি অবশ্যই তোমাদেরকে কেয়ামতের দিন একত্রিত করবেন। এর আগমনে কোন সন্দেহ নেই। যারা নিজেদের কে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে, তারাই বিশ্বাস স্থাপন...

006.013

যা কিছু রাত ও দিনে স্থিতি লাভ করে, তাঁরই। তিনিই শ্রোতা, মহাজ্ঞানী। And to Him belongs whatsoever exists in the night and the day, and He is the All­Hearing, the All­Knowing.” وَلَهُ مَا سَكَنَ فِي اللَّيْلِ وَالنَّهَارِ وَهُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ Walahu ma sakana...

006.014

আপনি বলে দিনঃ আমি কি আল্লাহ ব্যতীত-যিনি নভোমন্ডল ও ভুমন্ডলের স্রষ্টা এবং যিনি সবাইকে আহার্য দানকরেন ও তাঁকে কেউ আহার্য দান করে না অপরকে সাহায্যকারী স্থির করব? আপনি বলে দিনঃ আমি আদিষ্ট হয়েছি যে, সর্বাগ্রে আমিই আজ্ঞাবহ হব। আপনি কদাচ অংশীবাদীদের অন্তর্ভুক্ত হবেন না। Say...

006.015

আপনি বলুন, আমি আমার প্রতিপালকের অবাধ্য হতে ভয় পাই কেননা, আমি একটি মহাদিবসের শাস্তিকে ভয় করি। Say: ”I fear, if I disobey my Lord, the torment of a Mighty Day.” قُلْ إِنِّيَ أَخَافُ إِنْ عَصَيْتُ رَبِّي عَذَابَ يَوْمٍ عَظِيمٍ Qul innee akhafu in AAasaytu rabbee AAathaba...

006.016

যার কাছ থেকে ঐদিন এ শাস্তি সরিয়ে নেওয়া হবে, তার প্রতি আল্লাহর অনুকম্পা হবে। এটাই বিরাট সাফল্য। Who is averted from (such a torment) on that Day, (Allâh) has surely been Merciful to him. And that would be the obvious success. مَّن يُصْرَفْ عَنْهُ يَوْمَئِذٍ فَقَدْ...

006.017

আর যদি আল্লাহ তোমাকে কোন কষ্ট দেন, তবে তিনি ব্যতীত তা অপসারণকারী কেউ নেই। পক্ষান্তরে যদি তোমার মঙ্গল করেন, তবে তিনি সবকিছুর উপর ক্ষমতাবান। And if Allâh touches you with harm, none can remove it but He, and if He touches you with good, then He is Able to do all...

006.018

তিনিই পরাক্রান্ত স্বীয় বান্দাদের উপর। তিনিই জ্ঞানময়, সর্বজ্ঞ। And He is the Irresistible, above His slaves, and He is the All-Wise, Well­Acquainted with all things. وَهُوَ الْقَاهِرُ فَوْقَ عِبَادِهِ وَهُوَ الْحَكِيمُ الْخَبِيرُ Wahuwa alqahiru fawqa AAibadihi wahuwa...

006.019

আপনি জিজ্ঞেস করুনঃ সর্ববৃহৎ সাক্ষ্যদাতা কে ? বলে দিনঃ আল্লাহ আমার ও তোমাদের মধ্যে সাক্ষী। আমার প্রতি এ কোরআন অবর্তীর্ণ হয়েছে-যাতে আমি তোমাদেরকে এবং যাদের কাছে এ কোরআন পৌঁছে সবাইকে ভীতি প্রদর্শন করি। তোমরা কি সাক্ষ্য দাও যে, আল্লাহর সাথে অন্যান্য উপাস্যও রয়েছে ?...

006.020

যাদেরকে আমি কিতাব দান করেছি, তারা তাকে চিনে, যেমন তাদের সন্তানদেরকে চিনে। যারা নিজেদেরকে ক্ষতির মধ্যে ফেলেছে, তারা বিশ্বাস স্থাপন করবে না। Those to whom We have given the Scripture (Jews and Christians) recognize him (i.e. Muhammad SAW as a Messenger of Allâh, and...