029.067

তারা কি দেখে না যে, আমি একটি নিরাপদ আশ্রয়স্থল করেছি। অথচ এর চতুপার্শ্বে যারা আছে, তাদের উপর আক্রমণ করা হয়। তবে কি তারা মিথ্যায়ই বিশ্বাস করবে এবং আল্লাহর নেয়ামত অস্বীকার করবে?
Have they not seen that We have made (Makkah) a sanctuary secure, and that men are being snatched away from all around them? Then do they believe in Bâtil (falsehood – polytheism, idols and all deities other than Allâh), and deny (become ingrate for) the Graces of Allâh?

أَوَلَمْ يَرَوْا أَنَّا جَعَلْنَا حَرَمًا آمِنًا وَيُتَخَطَّفُ النَّاسُ مِنْ حَوْلِهِمْ أَفَبِالْبَاطِلِ يُؤْمِنُونَ وَبِنِعْمَةِ اللَّهِ يَكْفُرُونَ
Awa lam yaraw anna jaAAalna haraman aminan wayutakhattafu alnnasu min hawlihim afabialbatili yu/minoona wabiniAAmati Allahi yakfuroona

YUSUFALI: Do they not then see that We have made a sanctuary secure, and that men are being snatched away from all around them? Then, do they believe in that which is vain, and reject the Grace of Allah?
PICKTHAL: Have they not seen that We have appointed a sanctuary immune (from violence), while mankind are ravaged all around them? Do they then believe in falsehood and disbelieve in the bounty of Allah?
SHAKIR: Do they not see that We have made a sacred territory secure, while men are carried off by force from around them? Will they still believe in the falsehood and disbelieve in the favour of Allah?
KHALIFA: Have they not seen that we have established a Sacred Sanctuary that we made secure, while all around them the people are in constant danger? Would they still believe in falsehood, and reject GOD’s blessings?

৬৭। তারা কি দেখে না যে, আমি [ হারামকে ] নিরাপদ স্থান করেছি, যেখানে তার চর্তুপাশ্বের লোকেরা নির্যাতন ভোগ করছে ৩৫০০। তারপরেও কি তারা অসার জিনিষে বিশ্বাস করবে এবং আল্লাহ্‌র অনুগ্রহকে প্রত্যাখান করবে?

৩৫০০। যারা নির্বোধ তারাই শুধুমাত্র পার্থিব চিন্তা -ভাবনায় নিজেকে ব্যপৃত রাখে, তাদের পক্ষে ইন্দ্রিয়াতীত কোনও কিছু অনুভব করা বা আত্মার মাঝে উপলব্ধি করা অসম্ভব ব্যাপার। এই সব নির্বোধ লোক , যারা ইন্দ্রিয়গ্রাহ্য পার্থিব জিনিষ ব্যতীত অন্য কিছুই অনুভব করতে পারে না, তাদের-কেই আল্লাহ্‌ সম্বোধন করেছেন। কাবা শরীফের চতুপার্শ্বস্থ নির্ধারিত সীমিত স্থানকে হারাম শরীফ বলা হয়। চারিত্রিক হতাশা, নিরাশা , আশাভঙ্গের বেদনার মাঝে ‘হারাম’ আল্লাহ্‌ সকলের জন্য জন্য নিরাপদ ও শান্তির স্থান করে দিয়েছেন। আয়াতটি অবতীর্ণ হওয়ার কারণ ছিলো কোন কোনও মুশরিক এই অজুহাত পেশ করতো যে, তারা রসুলুল্লাহ্‌র [সা ] প্রচারিত ধর্মকে সত্য ধর্ম বলে বিশ্বাস করে, কিন্তু প্রাণনাশের ভয়ে তা গ্রহণে অপারগ। কারণ সমগ্র আরব ইসলাম বিরোধী। এর জওয়াবে আল্লাহ্‌ বলেছেন যে, হারাম শরীফকে তিনি আশ্রয়স্থল করে দিয়েছেন। মুমিন,কাফের নির্বিশেষে আরবের বাসিন্দারা সবাই হারামের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে , এতে খুন-খারাপি হারাম মনে করে। বহিরাগত কেউ হারামে প্রবেশ করলে সে হত্যার কবল থেকে নিরাপদ হয়। প্রকৃত পক্ষে এই নিরাপদ স্থান থেকেই ইসলামের প্রসার ধীরে ধীরে শুরু হয় , যখন হিজরতের পূর্বে হারাম শরীফের চর্তুপাশ্বে বিধর্মী কোরেশদের অবস্থান ছিলো। ইসলামের প্রাথমিক যুগ অতিক্রান্ত হয়েছে বহু পূর্বে কিন্তু হারাম শরীফ অদ্যাবধি বিশ্ব মানবের জন্য অত্যন্ত নিরাপদ স্থান, তার কারণ আল্লাহ্‌ একে নিরাপদ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *