পর পুরুষে,                      যৌবন সঁপিলে,
আশা না পূরয়ে তায়।
আপন পতি,                      বিছুরিলে কতি,
দ্বিগুণ সুখ সে পায়?
সই! বিধি করিল এমত রীতি!
কুলবতী হইয়া,                      পতি তেয়াগিয়া,
পর পতি সনে প্রীতি।।
পড়সী সকল                      এবে সে জানিল,
দুকুল ভাসিল জলে।
পিরীতি করিতে,                      আসিবে চটাই,
দুই কুল ফাক্‌ হলে।।
দুদিকে ভাসিতে,                      উঠু ডুবু করিতে,
কিনারা হইল দেখি।
মহাজন ঘরে,                      চোরে চুরি করে,
পড়সী দেয় সে সাখী।।
তলাস করিয়া,                      বেড়ায় ফিরিয়া,
ধনের না পায় লেশ।
মনে যে বুঝিয়া,                      দেখিনু ভাবিয়া,
তাহারি কপাল দোষ।।
এমন তাকতি,                      কানুর পিরীতি,
হরি’নিল মোর মন।
আপন পর যে,                      দূষিল সব,
তেজিল গৃহ গুরু জন।।
রাখ চিহ্ন পায়,                      চণ্ডীদাস হিয়ায়,
দোসর বোধিক জনা।
সকলি পাইবে,                      কুশলে রহিবে,
আসিবে নন্দনন্দনা।।*

————–

অনুরাগ।–সখী সম্বোধনে ।। শ্রীরাগ ।।

* পদসমুদ্র

Share This