ভোলানাথের ঝোলা

ফ্রি বাগান চাষ

জেলে কয়েদ থাকা অবস্থায় একদিন ভোলানাথের কাছে তার স্ত্রীর চিঠি এল। চিঠিতে লেখা, ‘আমি সামনের বাগানটায় স্ট্রবেরি চাষ করতে চাই। তুমি কি বলে দেবে, এর জন্য কোন সময়টা উপযুক্ত?’ ভোলানাথ বুঝতে পারল যে জেলপ্রহরী তার সবগুলো চিঠি আগেই পড়ে ফেলে। তাই জেলপ্রহরীকে মজা দেখানোর জন্য...

পিটিয়ে আধমরা

পাহাড়ে উঠেছে ভোলানাথ। উঠেই সে একটা আলাদিনের চেরাগ হাতে পেয়ে গেল। ভোলানাথ সেই চেরাগে ঘষা মারতেই এক দৈত্য এসে হাজির হয়ে বলল, ‘হুকুম করুন আমার মালিক।’ ভোলানাথ তো অবাক। খানিক পরে সে ধাতস্থ হয়ে বলল, ‘আমি তোমার কাছে তিনটি জিনিস চাইব। দিতে পারবে তো?’ দৈত্য বলল, ‘জি মালিক,...

টেলিভিশন ছাড়া সবকিছু চুরি হয়ে গেছে

ভোলানাথ পুলিশের কাছে গিয়ে নালিশ করল, ‘স্যার, কাল রাতে টেলিভিশনটা ছাড়া আমার বাসার সবকিছু চুরি হয়ে গেছে।’ এ কথা শুনে পুলিশ অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করল, ‘তা চোর মহাশয় সব নিল কিন্তু টেলিভিশনটা নিল না কেন?’ ভোলানাথের জবাব, ‘ওটা আর চুরি করবে কীভাবে বলেন, আমি তো তখন বসে বসে...

ওষুধ সেবন

ফুটবল খেলতে গিয়ে ভোলানাথ পায়ে প্রচণ্ড ব্যথা পেয়েছে। সেই ব্যথা নিয়ে সে কোঁকাতে কোঁকাতে ডাক্তারের কাছে গিয়ে হাজির। তাকে দেখে ডাক্তার বললেন, ‘কী মনে করে এলে, ভোলানাথ?’ ভোলানাথ মুখ কুঁচকে বলল, ‘আর বলবেন না ডাক্তার বাবু, পায়ের ব্যথায় যে মরে যাচ্ছি গো। তাড়াতাড়ি ব্যথা কমানোর...

খরচাটা একটু বাড়িয়ে দিতে চাই

ভোলানাথ প্রায়ই টেলিভিশনে বিদেশি চ্যানেলে অনুষ্ঠান দেখে। ভোলানাথের স্ত্রী তাই মহা খাপ্পা। রেগেমেগে তিনি একদিন জিজ্ঞেস করলেন, ‘আচ্ছা, তুমি সারা দিন বসে বসে শুধু বিদেশি চ্যানেল দেখ কেন?’ ভোলানাথ খুব বিরক্তির স্বরে বলল, ‘যেটা বোঝো না সেটা নিয়ে কথা বলতে এসো না। স্বদেশের...

বিশ্বস্ত

ভোলানাথের সঙ্গে তার এক মনোরোগ চিকিত্সক বন্ধুর দেখা। ভোলানাথ তাকে দেখে অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করল, ‘আরে গোপাল, তুই! আমি তো শুনেছিলাম তুই মরে গেছিস!’ গোপাল: হুমম, কিন্তু এখন তো জীবিতই দেখলে, নাকি? ভোলানাথ: হতেই পারে না! যে ব্যক্তি আমাকে এই সংবাদ দিয়েছে সে যে তোমার চেয়েও...

দুই রঙের মোজা

ভোলা একবার এক পায়ে সাদা আর এক পায়ে কালো রঙের মোজা পরে স্কুলে গেল। দেখে শিক্ষক রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে বললেন, ‘ভোলা, তুই দুই রঙের মোজা পরে স্কুলে এসেছিস কেন?’ ভোলা: স্যার, আমি দু-তিন দিন ধরে বাসায় এই নতুন মোজা জোড়া দেখছি, তাই পরে এলাম। স্যার: দেখলেই কি দুই রঙের মোজা পরতে...

যখন গরম লাগে

একবার প্রচণ্ড গরমের সময় ভোলানাথের সঙ্গে এক ভদ্রলোকের কথা হচ্ছে— ভদ্রলোক: আচ্ছা মশাই, আপনার যখন গরম লাগে, আপনি তখন কী করেন? ভোলানাথ: কেন, এসির পাশে গিয়ে বসে থাকি! ভদ্রলোক: এসির পাশে বসেও যদি আপনার গরম লাগে? ভোলানাথ: হুম্ম্, তখন এসিটা চালিয়ে...

ফ্রি উপহার

একদিন ভোলানাথ দোকানে গিয়েছেন তেল কিনতে। তেল কিনে ভোলানাথ রাগে টং হয়ে দোকানদারকে বললেন— ভোলানাথ: আরে ভাই, তেলের সঙ্গে আমার ফ্রি উপহার কই? দোকানদার: রাগছেন কেন? তেলের সঙ্গে কোম্পানি তো কোনো উপহার দেয়নি। আমি উপহার বানিয়ে দেব নাকি? ভোলানাথ: আরে মশাই, আমাকে বোকা বানাচ্ছেন,...

বিজ্ঞাপন ছাপাতে গিয়ে

একবার ভোলানাথ একটি পত্রিকা অফিসে গেছেন তাঁর চাচার মৃত্যুসংবাদের বিজ্ঞাপন দিতে। ভোলানাথ আর পত্রিকা অফিসের কেরানির মধ্যে কথা হচ্ছে— ভোলানাথ: আচ্ছা ভাই, এ বিজ্ঞাপনটি ছাপতে টাকা কী পরিমাণ খরচা হবে, একটু বলবেন? কেরানি: আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের হার হচ্ছে, প্রতি কলাম এক...

এত্ত বড় বড় স্পিডব্রেকার

প্রথমবারের মতো ভোলানাথ গেছেন দিল্লিতে। দিল্লি গিয়ে তিনি প্রথমেই বড় বড় রাস্তা, স্টেডিয়ামগুলো ঘুরে ঘুরে দেখা শুরু করলেন। তো ভোলানাথ বেশ ফুরফুরে মনে ঘোরাঘুরি করতে করতে রাস্তার মধ্যে একটি উঁচু জায়গার সামনে এসে দাঁড়িয়ে গেলেন। তিনি ঠিক ঠাওর করতে পারছিলেন না আসলে এই জিনিসটা...

ইংরেজি সিনেমা

একবার কলেজের অডিটরিয়ামে মাদার তেরেসা এসেছিলেন। অনুষ্ঠানটি দেখা নিয়ে হীরালাল আর ভোলানাথের সঙ্গে কথা হচ্ছে— হীরালাল: জানিস, আজ সন্ধ্যায় মাদার তেরেসা আসবেন আমাদের অডিটরিয়ামে। চল না, একসঙ্গে দেখে আসি। ভোলানাথ: না রে! তুই একাই যা। বাবা আমাকে ইংরেজি সিনেমা দেখতে বারণ করেছেন...

কত টাকা দিতে হবে

একবার ভোলানাথ নতুন কার কিনে নিজে চালিয়ে অফিসে যাচ্ছিলেন। রাস্তায় সিগন্যাল বাতি জ্বলে ওঠায় গাড়িতে বসে অপেক্ষা করছিলেন ভোলানাথ। একবার বাধ্য হয়ে ভোলানাথ ট্রাফিক পুলিশকে বললেন. ‘আচ্ছা মশাই, এ মুহূর্তে ডান দিকে যেতে হলে আপনাকে কত টাকা দিতে হবে?’ ট্রাফিক পুলিশ রেগে বললেন,...

আগে জেনে তারপর

একবার ভোলানাথ শখ করে প্রথমবারের মতো একটি বিখ্যাত রেস্টুরেন্টে খেতে গেছেন। ওয়েটার সামনে খাবার দিয়ে গেলেন। খাওয়াদাওয়া শেষে বেসিনে হাত ধুতে গিয়ে ভোলানাথ হাত ধোয়ার বদলে পুরো বেসিনই ঘষামাজা শুরু করে দিয়েছেন। দেখে ওয়েটার আঁতকে উঠে বললেন, ‘আরে মশাই, আপনি করছেনটা কী? আপনি...

দর্শনার্থীদের প্রবেশ নিষেধ

ভোলানাথ আর তার কাকা একবার ব্যবসা করার পরিকল্পনা করল। অনেক ভেবেচিন্তে তারা ঠিক করল রেস্তোরাঁর ব্যবসা করবে। যেই ভাবা সেই কাজ। রেস্তোরাঁ তৈরি হলো। রান্নাবান্নাও হলো। তারপর তারা ক্রেতার জন্য অপেক্ষা করতে লাগল। কিন্তু কোনো ক্রেতাই সেদিন আর এল না। এভাবে এক দিন দুই দিন করে...

হোটেলে ভোলানাথ

জীবনের প্রথম ভোলানাথ গ্রাম থেকে শহরে এসে একটা হোটেলে উঠেছে। হোটেলবয় তাকে কক্ষ দেখানোর জন্য নিয়ে যাওয়ার পর ছোট্ট একটা কক্ষে ঢুকতেই দরজা বন্ধ হয়ে গেল। ভোলানাথ দেখল সেখানে আরও একজন লোক দাঁড়িয়ে আছে। তো তাকে ভোলানাথ বলল, ‘মশাই, দেখুন তো, আমি গ্রাম থেকে এসেছি। টাকাও সব শোধ...

টিস্যু পেপার কিনতে এসেছি

একদিন ভোলা এক মুদিদোকানে গেল তার বিড়ালের জন্য খাবার কিনতে। তাকে দেখে দোকানদারের একটু সন্দেহই হলো, ভোলার তো কোনো বিড়াল নেই। ওই ব্যাটা বিড়ালের খাবার অল্প দামে কিনে শেষে না আবার নিজেই খেয়ে ফেলে। তাই দোকানদার জানিয়ে দিল, তাকে ওই বিড়ালটি দেখাতে হবে। তারপর সে বিড়ালের খাবার...

কৌতুক প্রতিযোগিতা

একবার এক অভিনব কৌতুক প্রতিযোগিতার আয়োজন হলো। সর্বমোট ১০০টি কৌতুক বলা হবে। যে ব্যক্তি পুরো ১০০টি কৌতুক শোনার পরও একটুও হাসবে না, তাকে পুরস্কৃত করা হবে। তো, এই খবর শুনে ভোলা বন্ধুবান্ধব নিয়ে লাফাতে লাফাতে সেখানে গিয়ে হাজির। ভোলাসহ সব প্রতিযোগী নিজ নিজ আসনে বসে আছে।...

ভুল ঠিকানায় চিঠি

একবার ভোলার কাছে তার বন্ধু রামের একটি চিঠি এল। চিঠিতে লেখা, ‘ভোলাজি, আমি একটা মহা ঝামেলায় পড়েছি, একমাত্র তুমিই পার এই ঝামেলা থেকে আমাকে মুক্তি দিতে। দয়া করে যদি তুমি আমাকে ১০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দাও, তাহলে বর্তে যাই আমি। ছয় মাস পরই ধারের টাকা শোধ করে দেব।’ এই চিঠি পেয়ে...