আইন আদালত

বউ এর পছন্দ শাড়ি

বউ এর পছন্দ শাড়ি কাপড় চুরির দায়ে পলিস চোরকে আদালতে ধরে এনেছে । উকিল তাকে জেরা করছে । উকিল : ধর্মাবতার, এই লোকটা এক রাতে একই দোকানে ছ’বার চুরি করেছে। এর সেইমত সাজা হওয়ার দরকার । চোর : হুজুর, ছ’বার দোকানে ঢুকলেও চুরি করেছি মাত্র দুখানা শাড়ি । আর বাকি পাঁচবার...

মাপ মতো

মাপ মতো কলকাতার এক খোলা বাড়িতে বে-আইনী দেহ-ব্যবসা চলছে । এই খবর পেয়ে ম্যাজিস্ট্রেট মাঝরাতে পুলিশ নিয়ে তেমন এক বহুতল ফ্ল্যাটে হানা দিলেন। একটি ঘরে ঢুকতেই তিনজন খদ্দের সহ প্রায় বেসামাল অবস্থায় তিনটি মেয়েকে হাতে নাতে ধরা গেল। ছেলে তিনটি জানলা টপকে পালালেও মেয়েদের...

পুলিশের বিশ্বাস

ম্যাজিস্ট্রেট: গতবারও তোমাকে বলেছিলাম, আমি চাই না তুমি পুনরায় এখানে আসো। চোর: স্যার, ঠিক এই কথাটাই আমিও পুলিশকে বলেছিলাম, বিশ্বাস করল...

দারুণ মজার একটা গল্প

হাসতে হাসতে আদালত থেকে বেরিয়ে আসছিলেন বিচারক। এক সহকর্মী জিজ্ঞেস করলেন, ‘ঘটনা কী? হাসছেন কেন?’ বিচারক বললেন, ‘হা হা হা! এই মাত্র দারুণ মজার একটা গল্প শুনে এলাম।’ : তাই নাকি? বলুন তো গল্পটা, শুনি। : মাথা খারাপ? এই গল্প বলার জন্য একটু আগে আমি তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড...

দূরে থাকার চেষ্টা

উকিল বলছেন আসামিকে, ‘এবারের মতো তোমাকে বেকসুর খালাস পাইয়ে দিলাম। কিন্তু এখন থেকে পাজি লোকজনের কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করবে।’ আসামি: অবশ্যই স্যার। আমি অবশ্যই আপনার কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা...

ঈদের কেনাকাটা

বিচারক: আপনার অপরাধ? অভিযুক্ত ব্যক্তি: আমি আমার ঈদের কেনাকাটা একটু আগেভাগে সেরে ফেলতে চেয়েছিলাম। বিচারক: কতখানি আগে? অভিযুক্ত ব্যক্তি: দোকান খোলার...

দেশলাই

তিন অপরাধীকে পাঁচ বছরের জন্য কারাভোগের শাস্তি দেওয়া হয়েছে। বিচারক সদয় হয়ে তাদের একটা সুযোগ করে দিলেন। জেলখানায় সময় কাটানোর জন্য তারা চাইলে সঙ্গে কিছু নিতে পারবে। প্রথম অপরাধী সঙ্গে নিল একটা খাতা আর কলম। দ্বিতীয়জন সঙ্গে নিল একটা রেডিও। আর তৃতীয়জন নিল এক বাক্স...

জেলখানার খাবার খুবই জঘন্য

দুই কয়েদি পালিয়েছে জেল থেকে। আবার যখন তাদের আটক করা হলো, কারারক্ষক প্রশ্ন করলেন, ‘তোমরা জেল থেকে পালিয়েছিলে কেন?’ ১ম কয়েদি: কারণ, জেলখানার খাবার খুবই জঘন্য। খাওয়া যায় না। কারারক্ষক: কিন্তু তোমরা জেলের তালা ভাঙলে কী দিয়ে? ২য় কয়েদি: সকালের নাশতার রুটি...

ক্রেডিট কার্ডটা হারানো গেছে

জেলখানায় নতুন কয়েদি এসেছে। নতুন কয়েদির পরিচয় হলো এক পুরোনো, বৃদ্ধ কয়েদির সঙ্গে— নতুন কয়েদি: আপনি কয় বছর ধরে আছেন? পুরোনো কয়েদি: ১০ বছর। নতুন কয়েদি: আহা! নিশ্চয়ই খুব কষ্ট হয় আপনার। পুরোনো কয়েদি: বললে বিশ্বাস করবে না, আমি একদিন বিল গেটসের মতো জীবন যাপন...

আমরা চারজন ছিলাম

বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে বলল এক কয়েদি, ‘হুজুর, আমাকে ব্যাংক ডাকাতির মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে। অথচ আমি একেবারেই নিরপরাধ। আমাকে আপনি বাঁচান।’ সাক্ষী ব্যাংক কর্মকর্তা চিৎকার করে বললেন, ‘না হুজুর! পাঁচ ব্যাংক ডাকাতের মধ্যে এই লোকও ছিল। আমি নিশ্চিত।’ কয়েদি:...

ফ্যামিলি চোর

কোর্টে জজ সাহেব চোরকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘তুমি একই বাড়িতে এই নিয়ে কুড়িবার চুরি করতে গেলে। এর কারণ কী?’ চোর হাসতে হাসতে জবাব দিল, ‘স্যার, আমি ওই বাড়ির ফ্যামিলি...

নকল টাকা

বিচারক আসামিকে: —নকল টাকা বানিয়েছিলেন কেন? —আসল টাকা বানাতে শিখিনি বলে।

ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলাম

সড়ক দুর্ঘটনা ঘটানোর অভিযোগে সঞ্জুকে আদালতে হাজির করা হয়েছে— বিচারক: কীভাবে ঘটালেন দুর্ঘটনাটা? সঞ্জু: কোন দুর্ঘটনা? বিচারক: কেন, যে দুর্ঘটনাটির জন্য আপনি আদালতে? সঞ্জু: ওই সময় আমি জেগে থাকলে না হয় বলতে পারতাম। কিন্তু হুজুর, আমি তো ওই দুর্ঘটনার সময় ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে গাড়ি...

অভিযুক্ত ব্যক্তি

মুরগি চুরির মামলা চলছে। আসামির কাঠগড়ায় দাঁড়ানো মানুষটাকে বিচারক প্রশ্ন করলেন, ‘তুমিই কি অভিযুক্ত ব্যক্তি?’ লোকটা জবাব দিল, ‘জি না, স্যার, আমি হচ্ছি সেই লোক, যে মুরগিগুলো চুরি...

স্বর্ণযুগের দিকে

৭৬ বছরের এক বুড়ো লিডসকে আদালতে বিচারকের সামনে ৫০০ বারের মতো হাজির করা হয় মদ খেয়ে মারামারি করার জন্য। প্রতিবারই বিচারক তাঁকে খালাস দিয়ে দেন। কিন্তু কিছু দিন পর আবারও তাঁকে আদালতে হাজির করা হয় এবং এই হাজিরার নম্বর ছিল ৫০১তম। আত্মপক্ষ সমর্থন করে তিনি বলেন, ৫০০তম হাজিরা...

বউকে মারাই সহজ

বিচারক : আপনি বলেছেন- আপনার বন্ধুর সঙ্গে অবৈধ প্রণয় চলছিল বলে বউকে খুন করেছেন। কিন্তু আপনি আপনার বন্ধুকে খুন না করে বউকে খুন করলেন কেন? আসামি : হুজুর আমার অনেক বন্ধু। সপ্তায় একজন করে বন্ধুকে মারার চেয়ে বউকে মারাই সহজ মনে হল...

আপনিই বলে দিন

বিচারক : তোমার বয়স কত? আসামি : সাত বছর বিচারক : এটুকু বয়সেই পকেটমার শুরু করেছ? আসামি : তা হলে আপনিই বলে দিন কত বছর বয়স থেকে শুরু...

মরতে ইচ্ছে হবে

জেলার : তোমার শেষ ইচ্ছে কী? আসামি : আমার স্ত্রীর হাতের রান্না খেতে চাই। জেলার : তাতে মৃত্যুর আগে তৃপ্তি পাবে তুমি? আসামি : না, তৃপ্তি পাব না। তবে ওর হাতের রান্না খেলেই মরতে ইচ্ছে হবে...

বিজ্ঞাপন

জেলারকে ঘুষ দিয়ে এক ভদ্রলোক এক ফাঁসির আসামির সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন। ভদ্রলোক এবং আসামির মধ্যে অনেকক্ষণ ধরে নিচুস্বরে আলাপ হল। শেষে আসামিটি বলল, মনে রাখবেন, আমার ছেলেকে এ জন্য এক লাখ টাকা দিতে হবে। ভদ্রলোক টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলে গেলেন। ফাঁসির দিন লোকে লোকারণ্য।...

আমি দায়ী নই

বিচারক : তুমি পকেট মারতে গিয়ে ধরা পড়েছে। তোমার দোষ স্বীকারে আপত্তি আছে? আসামি : আমি নিরপরাধ হুজুর। ধরা পড়ার জন্য আমি দায়ী নই। লোকটার পকেট এত ছোট ছিল যে, হাতটা টুকিয়ে আর বের করতে পারি...