বুখারি হাদিস নং ১৮১৩ – রমযানে রোযাদার অবস্থায় যে ব্যক্তি স্ত্রী সহবাস করেছে সে ব্যক্তি কি কাফফারা থেকে তার অভাবগ্রস্ত পরিবারকে খাওয়াতে পারবে ?

হাদীস নং ১৮১৩ উসামান ইবনে আবু শায়বা রহ……..আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read more বুখারি হাদিস নং ১৮১৩ – রমযানে রোযাদার অবস্থায় যে ব্যক্তি স্ত্রী সহবাস করেছে সে ব্যক্তি কি কাফফারা থেকে তার অভাবগ্রস্ত পরিবারকে খাওয়াতে পারবে ?

বুখারি হাদিস নং ১৮৩৫ – রমযানে ইফতারের পরে যদি সূর্য দেখা যায়।

হাদীস নং ১৮৩৫ আবদুল্লাহ ইবনে আবু শায়বা রহ……….আসমা বিনতে আবু বকর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি… Read more বুখারি হাদিস নং ১৮৩৫ – রমযানে ইফতারের পরে যদি সূর্য দেখা যায়।

বুখারি হাদিস নং ১৮৫৮ – কারো সাথে সাক্ষাত করতে গিয়ে (নফল) সাওম ভঙ্গ না করা।

হাদীস নং ১৮৫৮ মুহাম্মদ ইবনুল মুসান্না রহ……….আনাস রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম (আমার মাতা) উম্মে… Read more বুখারি হাদিস নং ১৮৫৮ – কারো সাথে সাক্ষাত করতে গিয়ে (নফল) সাওম ভঙ্গ না করা।

বুখারি হাদিস নং ১৮৫৯

হাদীস নং ১৮৫৯ ইবনে আবু মারইয়াম রহ……….হুমায়দ রহ. আনাস রা.-কে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে হাদীস বর্ণনা করতে শুনেছেন।

বুখারি হাদিস নং ১৭৭০ – রমযানের সাওম ওয়াজিব হওয়া প্রসঙ্গে।

হাদীস নং ১৭৭০ কুতাইবা ইবনে সাঈদ রহ…….তালহা ইবনে উবায়দুল্লাহ রা. থেকে বর্ণিত যে, এলোমেলো চুলসহ একজন গ্রাম্য আরব নবী করীম… Read more বুখারি হাদিস নং ১৭৭০ – রমযানের সাওম ওয়াজিব হওয়া প্রসঙ্গে।

বুখারি হাদিস নং ১৭৭৩ – সাওমের ফজিলত।

হাদীস নং ১৭৭৩ আবদুল্লাহ ইবনে মাসলাম রহ………আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : সিয়াম ঢাল… Read more বুখারি হাদিস নং ১৭৭৩ – সাওমের ফজিলত।

বুখারি হাদিস নং ১৭৭৪ – সাওম (গোনাহের কাফফারা)।

হাদীস নং ১৭৭৪ আলী ইবনে আবদুল্লাহ রহ……..হুযায়ফা রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদিন উমর রা. বললেন, ফিতনা সম্পকির্ত নবী করীম… Read more বুখারি হাদিস নং ১৭৭৪ – সাওম (গোনাহের কাফফারা)।