উমেশচন্দ্ৰ বন্দ্যোপাধ্যায় (ডাবলিউ. সি. বনার্জী)

উমেশচন্দ্ৰ বন্দ্যোপাধ্যায় (ডাবলিউ. সি. বনাজী) (২৯-১২-১৮৪৪ – ২১-৭-১৯০৬) খিদিরপুর–কলিকাতা। অ্যাটনি গিরীশচন্দ্ৰ।। ওরিয়েন্টাল সেমিনারী ও হিন্দু স্কুলে শিক্ষা। কিছুদিন অ্যাটনি অফিসে শিক্ষানবিসী করার পর ১৮৬৪ খ্রী. রুস্তামজী জিজিভাই বৃত্তি পেয়ে বিলাত যান। ১৮৬৫ খ্ৰী লন্ডনে ইন্ডিয়া সোসাইটি প্রতিষ্ঠা করেন ও প্রথম সম্পাদক নিযুক্ত হন। . ১৮৬৮ খ্রী. ব্যারিস্টারি পাশ করে দেশে ফিরে এসে কলিকাতা হাইকোর্টে ব্যারিস্টারি শুরু করে খ্যাতি ও প্রচুর অর্থ উপার্জন করেন। ভারত সরকার কর্তৃক চারবার স্ট্যান্ডিং কাউন্সিলে নির্বাচিত হন। ১৮৭১ খ্রী. ‘হিন্দু উইলস অ্যাক্ট, ১৮৭০’ সম্পাদনা ও প্রকাশ করেন। ১৮৮৩ খ্রী. সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় আদালত অবমাননার দায়ে অভিযুক্ত হলে তিনি সুরেন্দ্রনাথের পক্ষ সমর্থন করেন। ১৮৮৫ খ্রী. বোম্বাইয়ে অনুষ্ঠিত কংগ্রেসের প্রথম অধিবেশনে এবং ১৮৯২ খ্রী. এলাহাবাদ কংগ্রেসের অষ্টম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন। ভারতবর্ষের পূর্ণ স্বাধীনতা তার কল্পনায় ছিল না। ব্যক্তি-জীবনে উগ্র সাহেবিয়ানার জন্য ‘বঙ্গবাসী’ পত্রিকায় তাঁর তীব্র সমালোচনা হয়। স্ত্রী খ্ৰীষ্টধর্মাবলম্বিনী ছিলেন, কিন্তু নিজে স্বধর্ম ত্যাগ করেন নি। ১৮৭১ খ্রী. কলিকাতা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ল ফ্যাকালটির প্রথম প্রেসিডেন্ট হন। কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেনেট ও সিন্ডিকেটের সদস্য এবং ১৮৯৩–৯৫ খ্রী. বঙ্গীয় ব্যবস্থাপক সভার সদস্য ছিলেন। ১৯০২ খ্রী. লন্ডনের নিকটে ক্রয়ডনে স্থায়ী বাড়ি নির্মাণ করে সেখান থেকে প্রিভি কাউন্সিলে আইন ব্যবসায় শুরু করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *