অকুল পাড় দেখে মোদের লাগল রে ভয়

অকুল পাড় দেখে মোদের লাগল রে ভয়। মাঝি বেটা বড় ঠেঁটা, হাল ছেড়ে দিয়ে                        বগল বাজায়।। উজান ভাটি তিনটি নালে দোম দমা দোম বেদম কলে                        এক শব্দ হয়। গুরুর গুরু পবন গুরু প্রেম আনন্দে                        সাঁতার খেলায়।। সামনেতে অপার নদী...

অজান খবর না রাখিলে কিসের ফকিরি

অজান খবর না জানিলে কীসের ফকিরি । যে নূরে নূরনবি আমার তাহে আরশে বারি ।। বলব কি সেই নূরের ধারা নূরেতে নূর আছে ঘেরা ধরতে গেলে না যায় ধরা যৈছেরে বিজরি ।। মূলাধারের মূল সেহি নূর নূরের ভেদ অকূল সমুদ্দুর যার হয়েছে প্রেমের অঙ্কুর ঐ নূর ঝলক দিচ্ছে তারি ।। সিরাজ সাঁই বলে রে...

অনাদির আদি শ্রীকৃষ্ণনিধি

অনাদির আদি শ্রীকৃষ্ণনিধি তাঁর কি আছে কভু গোষ্ঠখেলা । ব্রহ্মরূপে সে অটলে বসে লীলাকারী তাঁর অংশকলা ।। সত্য সত্য স্বরণ বেদ আগমে কয় সচ্চিদানন্দ রূপে পূর্ণ ব্রহ্ম হয় জন্ম মৃত্যু যার নাই ভবের পর সে তো নয় স্বয়ং কভু নন্দলালা ।। পূর্ণচন্দ্র কৃষ্ণ রসিক শিখরে শক্তিতে উদয়...

অনুরাগ বিনে কি সাধন হয়

অনুরাগ বিনে কি সাধন হয়। সে তো শুধু মুখের কথা ন।। তার সাক্ষী দেখ চাতক রে ও সে কোট সাধনে যায় মরে চাতক অন্য বারি খায় না রে থাকে মেঘের জল আশায়।। বনের পশু হনুমান রাম বিনে তার নাই ধিয়ান মুদিলেও তার দু'নয়ন অন্যরূপ না ফিরে চায়।। রামদাস মুচির ভক্তিতে গঙ্গা এল চাম-কেঠোতে এমন...

অনেক ভাগ্যের ফলে সে চাঁদ কেউ দেখিতে পায়

অনেক ভাগ্যের ফলে সে চাঁদ কেউ দেখিতে পায়। অমাবস্যে নাইরে চাঁদে দ্বি-দলে তার কিরণ উদয়।।            বিন্দু মাঝে সিন্ধু-বারি            মাঝখানে তার স্বর্ণগিরি            অধর চাঁদের শূন্যপুরী                       সেহি তো তিল-প্রমাণ জায়গায়।।            যেথা রে সে চন্দ্র...

অন্তরে যার সদায় সহজ রূপ জাগে

অন্তরে যার সদায় সহজ রূপ জাগে সে নাম বলুক না বলুক মুখে , যাহার উৎপত্তি সংসার, নামের অন্ত নাহিকো তার বলুক সে নাম ইচ্ছে হয় যার নাম বলে যদি রুপ দেখে। যে নেয় গুরু রুপ আরশি ভুবন জুড়ে ভুলায় তারি ধন্য তাহার রুপ নেহারি রুপ দেখে রয় ঠিক রাগে । নামের চেয়ে রুপ নেহারা সর্বজয় সাধক...

অন্তিম কালের কালে ও কি হয় না জানি

অন্তিম কালের কালে ও কি হয় না জানি । কি মায়া ঘোরে কাটালাম হারে দিনমণি।।             এনেছিলাম, বসে খেলাম,             উপার্জন কই করিলাম,             বিকশের বেলা             খাটবে না ভেলা                         এলো বানি।।             জেনে শুনে সোনা ফেলে             মন...

অবোধ মন রে, তোমার হল না দিশে

অবোধ মন রে, তোমার হল না দিশে। এবার মানুষের করণ হবে কিসে।। কোন দিন আসবে যমের চেলা ভেঙ্গে যাবে ভয়ের খেলা সেদিন হিসাব দিতে বিষম ঠেলা ঘটবে শেষে।। উজান ভেটেন দুটি পথ মুক্তি-ভক্তির করণ সে ত এবার তাতে যায় না জরা-মৃত যমের ঘর সে।। যে পরশে পরশ হবি সে করণ আর কবে জানবি দরবেশ...

অমর ভেবে সার

             অমর ভেবে সার              দিন গেল আমার সার বস্তু ধন এবার হলাম রে হারা।।              হাওয়া বন্ধ হলে              সব যাবে বিফলে দেখে শুনে লালস গেল না মারা।। গুরু যারে সদয় হয় এ সংসারে লোভে সঙ্গ দিয়ে সেই যাবে সেরে। অঘাটায় আজ মরণ আমারে              জানলাম না...

অমর্ত্যের এক ব্যাধ বেটা হাওয়ায় এসে ফাঁদ পেতেছে

অমর্ত্যের এক ব্যাধ বেটা হাওয়ায় এসে ফাঁদ পেতেছে। বলবো কি সেই ফাঁদের কথা কাক মারিতে কামান পাতা ব্রহ্মা বিষ্ণু নর নারায়ণ সেই ফাঁদে ধরা পড়েছে।। পাতিয়ে ফাঁদের ঢুয়া ব্যাধ বেটা দিচ্ছে খেয়া লোভের চার খাটিয়ে সে।। চার খাবার আশে পড়ে সেই বিষম পাশে কম লোভী কামী মারা যেতেছে।।...

অমাবস্যার দিনে চন্দ্র থাকেন যেয়ে কোন শহরে

অমাবস্যার দিনে চন্দ্র থাকেন যেয়ে কোন শহরে। প্রতিপদে হয় সে উদয়, দৃষ্ট হয় না কেন তারে।। মাসে মাসে চন্দের উদয় আমাবস্যা মাস-অন্তে হয় সূর্যের অমাবস্যার নির্ণয় জানতে হবে নেহাজ করে।। ষোল কলা হলে শচী তবে তো হয় পূর্ণমাসী পনরই পূর্ণিমা কিসি পণ্ডিতেরা কয় সংসারে।। জানতে...

অমাবস্যার দিনে চন্দ্র থাকেন যেয়ে কোন শহরে

অমাবস্যার দিনে চন্দ্র থাকেন যেয়ে কোন শহরে। প্রতিপদে হয় সে উদয়, দৃষ্ট হয় না কেন তারে।।            মাসে মাসে চন্দের উদয়            আমাবস্যা মাস-অন্তে হয়            সূর্যের অমাবস্যার নির্ণয়                       জানতে হবে নেহাজ করে।।            ষোল কলা হলে শচী...

অমৃত বারি, সে বারি অনুরাগ নইলে কি যাবে ধরা

অমৃত সে-বারি অনুরাগ নইলে কি যাবে ধরা । সে-বারির পরশ হইলে হবে ভবের করণ সারা ।। বারি নামে বার এলাহি নাই রে তার তুলনা নাহি সহস্রদল পদ্মে সেহি মৃণাল-গতি বহে ধারা ।। ছায়াহীন এক মহামুনি বলবো কিরে তার করণি প্রকৃতি হইয়া তিনি হলেন বারি সেধে অমর গোরা ।। আসমানে বরিষণ হলে দাঁড়ায়...