কোন দিন সূর্যের অমাবস্যে ।
দেখি চাঁদেও অমাবস্যা মাসে মাসে।
বার মাসে ফোটে চব্বিশ ফুল
জানতে হয় কোন মাসে তার মূল
আন্দাজী সাধন
কর নারে মন
মূলে ভুলে ফল পাবি কিসে।।

যে করে এই আসমানী কারবার
না জানি তার কোথায় বাড়ী-ঘর
কোন সময় কখন
কোথায় আগমন
চাঁদ-চকোরে খেলে কখন এসে।।

আকাশে পাতালে শুনি দেহ-রতি
চাহি উপাসনা, চাহি সে তার বাতি
যদি চেতন-গুরু পাই
তাহারে শুধাই
লালন বলে, ঘুচাই মনের দিশে।।

—————–
বাংলার বাউল ও বাউল গান, পৃ. ১০৩
‘মহাত্মা লালন ফকির’ গ্রন্থে ধুয়ার ১ম চরণে ‘সূর্যের’ স্থলে ‘চাঁদের’ এবং অন্তরার ২য় চরণে ‘মাসে’ স্থলে ‘ফুলে’ কথান্তর আছে -পৃ. ৪৬ ৷
‘লালন-গীতিকা’য় গানটি সংকলিত হয়েছে। চরণ ও স্তবক বিন্যাসে অনেক ওলট-পালট হয়েছে; উপরন্তু শব্দে ও পদগুচ্ছে কথান্তর আছে। গানটি সম্পূর্ণ উদ্ধৃতি হল :
কোনদিন সূর্যের অমাবস্যে
দেখি চাঁদেও অমাবস্যা হয় মাসে মাসে।।
আকাশে পাতালে শুনবো না
দেহ-রতির চাই উপাসনা
কোন পথে কথন
করে আগমন
চাঁদে চকোর খেলে কখন এসে।।
বার মাসে ফোটে চব্বিশ ফুল
আন্দাজী সাধন
করো নারে মন
মূলে ভুলিলে ফল পাবে কিসে।।
যে করে এই আসমানী কারবার
না জানি তার কোথায় বাড়ী-ঘর
যদি চেতন-মানুষ পাই
তাহারে শুধাই
লালন বলে, ঘুচাই মনের দিশে।। -পূ. ৫২-৫৩ ৷

Print Friendly, PDF & Email
%d bloggers like this: